কেরালা, পাঞ্জাবের পর এবার রাজস্থানেও সিএএ বিরোধী প্রস্তাব পাস

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:১৮, জানুয়ারি ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৮, জানুয়ারি ২৫, ২০২০

কেরালা ও পাঞ্জাবের পর এবার ভারতের তৃতীয় রাজ্য হিসেবে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাস পাস করলো রাজস্থান। শনিবার রাজ্য বিধানসভায় প্রস্তাবটি পাস হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে মুসলিমবিদ্বেষী ওই আইনের পক্ষে স্লোগান দিতে শুরু করে বিজেপি দলীয় বিধায়করা।
বৈষম্যমূলক এই আইনকে সংবিধানে বর্ণিত ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তির পরিপন্থী বলে মনে করছে দেশটির নাগরিক সমাজ ও বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

এই সপ্তাহের শুরুতে, সুপ্রিম কোর্ট সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের ওপর স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন খারিজ করে দেয়। আদালত বলেছে যে, তারা সরকার পক্ষের জবাব না শুনে সিএএ নিয়ে কোনও স্থগিতাদেশ দেবে না। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের জবাব চেয়েছে শীর্ষ আদালত।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে বিক্ষোভের মধ্যেই এই আইনের বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে ১৪৩টি আবেদন জমা পড়ে। শীর্ষ আদালতে করা বিভিন্ন আবেদনে দাবি করা হয়েছে যে, সিএএ অবৈধ এবং সংবিধানের মূল কাঠামোর পরিপন্থী। এই আইন সাম্যের অধিকারেরও পরিপন্থী। কেননা, এটি ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলে। কিছু আবেদনে আবার গত ১০ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হওয়া আইনটির প্রয়োগে স্থগিতাদেশ জারির আবেদন করা হয়েছে।

আবেদনকারীদের তালিকায় বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল রয়েছে। এর মধ্যে কংগ্রেস, ডিএমকে, সিপিআই, সিপিএম, ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ বা আইইউএমএল, আসাদউদ্দিন ওয়াইসির অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন এবং কমল হাসানের মাক্কাল নিধি মায়াম-এর মতো দলগুলো রয়েছে।

এর আগে কেরালা সরকার ভারতের প্রথম রাজ্য সরকার হিসেবে নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় প্রস্তাব পাস করে। পরে ওই আইনকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টেরও দ্বারস্থ হয় তারা। কেরালার পর দ্বিতীয় রাজ্য হিসেবে এই আইন তাদের রাজ্যে কার্যকর না করার সিদ্ধান্ত নেয় পাঞ্জাব। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হল রাজস্থান। সূত্র: এনডিটিভি।

/এমপি/

লাইভ

টপ