পরাজয় মেনে নেবেন না ট্রাম্প?

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৬:৩৭, অক্টোবর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৭, অক্টোবর ৩০, ২০২০

আসন্ন নির্বাচনে পরাজিত হলে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প তা মেনে নেবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। একদিকে রিপাবলিকান এই  নেতা ভোট জালিয়াতি হতে পারে বলে প্রমাণহীন যুক্তি দেখিয়ে যাচ্ছেন। আর তার সেসব যুক্তিকে সত্য বলে মেনে নিচ্ছেন সমর্থকরা। ট্রাম্প ও তার সহযোগী-সমর্থকদের বক্তব্য বিশ্লেষণ করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরাজয় মেনে না নেওয়ারই ইঙ্গিত দিচ্ছেন ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রে সাপ্তাহিক কর্মদিবসে নির্বাচন হয় বলে অনেক মানুষ সশরীরে ভোট দিতে পারেন না৷ কাজের সূত্রে দূরে থাকার কারণেও কারও কারও ভোট দিতে সমস্যা হয়৷ এমন সব মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার নিশ্চিত করতে সে দেশে আগাম ভোট দিয়ে ডাকযোগে ব্যালট পাঠানোর বিধান রয়েছে৷ আবার সশরীরেও এ ভোট দেওয়া যায়।  ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউএস ইলেকশন্স প্রজেক্ট-এর তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালের নির্বাচনে সর্বমোট যত ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে, এবার আগাম ভোটের সংখ্যা তার অর্ধেকেরও বেশি। ট্রাম্প বারবারই দাবি করে আসছেন, মেইল ইন ভোট যত বেশি হবে, নির্বাচনে ততবেশি জালিয়াতি হবে। যদিও ট্রাম্প তার দাবির সপক্ষে কোনও প্রমাণ হাজির করতে পারেননি।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) ব্যাটলগ্রাউন্ড স্টেট হিসেবে পরিচিত অ্যারিজোনায় এক সমাবেশে অংশ নেন ট্রাম্প। তিনি দাবি করেন, সম্প্রতি যেসব জনমত জরিপে তার চেয়ে বাইডেনের এগিয়ে থাকার আভাস এসেছে সেগুলো ভুয়া। সমাবেশে উপস্থিত সমর্থকরা ট্রাম্পের দাবির সঙ্গে সহমত প্রকাশ করে। ট্রাম্প আরও বলেন, নির্বাচনে ভোট জালিয়াতি হওয়ার আশঙ্কা করছেন তিনি।

ফোয়েনিক্স গুডইয়ার বিমানবন্দরে সমর্থকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, ‘তারা ওই ব্যালটগুলো নিয়ে প্রতারণা করছে কিনা সেটাই আমাদের জন্য বড় সমস্যা। আমার একমাত্র উদ্বেগের জায়গা এটি।’

ট্রাম্পের সহযোগীদের কণ্ঠেও প্রতিধ্বনিত হচ্ছে একই কথা। অ্যারিজোনার ওয়াড্ডেলের অপারেশন্স ম্যানেজার ট্যামি বাইলার বলেন, ‘আমি মনে করি এটি পুরোপুরি ভোট জালিয়াতি। অনেক বেশি জালিয়াতি হচ্ছে।’ বাইলার আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে দাবি করেছেন, পপুলার ও ইলেক্টোরাল-দুই ভোটেই জয় পাবেন ট্রাম্প। ‘ট্রাম্পের সমাবেশে কেমন ভিড় হয় দেখুন না। জো বাইডেনের সমাবেশে তো তেমনটা দেখা যায় না।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে জালিয়াতির ঘটনা বিরল।

এদিকে ডেমোক্র্যাটিক নেতাদের আশঙ্কা, ট্রাম্প নির্বাচনে হেরে গেলে ফল মেনে নেবেন না। প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনও বলেছেন, এটিই তার সবচেয়ে বড় শঙ্কার জায়গা। তবে বাইডেন বলেছেন, নির্বাচনে ট্রাম্পের জয় হলে তিনি তা মেনে নেবেন।

/এফইউ/বিএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ