গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের ভুল, নিউজিল্যান্ডের খেতাব পুনরুদ্ধার

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:২২, এপ্রিল ১১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৩৫, এপ্রিল ১২, ২০২০

নিউজিল্যান্ডের ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটনিউজিল্যান্ডের ডুনেডিনে ব্যাল্ডউইন স্ট্রিট বিশ্বের সবচেয়ে খাড়া সড়কের খেতাব পুনরুদ্ধার করেছে। একইসঙ্গে ফিরে পেয়েছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড। স্থানীয়দের হস্তক্ষেপে যথাযথ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেই সিদ্ধান্ত বদলে এগুলো ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

২০১৯ সালের জুন পর্যন্ত একদশক ধরে বিশ্বের সবচেয়ে খাড়া সড়কের খেতাব ধরে রেখেছিল নিউজিল্যান্ডের ব্যাল্ডউইন স্ট্রিট। কিন্তু গত বছর তা ছিনিয়ে নেয় ওয়েলসের গুইনেড কাউন্টির মধ্যযুগীয় দুর্গের শহর হারলেক এলাকার ফোর্ড পেন লেক। কিন্তু ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটের বাসিন্দারা এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করেন। তাদের দাবি, রাস্তা দুটি সঠিকভাবে মূল্যায়ন করা হয়নি।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ আপিল পর্যালোচনার পর ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটের বাসিন্দাদের দাবিকে গুরুত্ব দেয়। তাদের মতে– সোজা, বাঁকা বা খাড়া রাস্তার আকার যথাযথভাবে মূল্যায়নের মাধ্যমে পরিমাপ করতে হবে।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটআপিল দলটিকে নেতৃত্ব দেন টোবি স্টফ। তিনি বলেন, ‘আমাদের দাবি বিবেচনার জন্য গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসকে আন্তরিক ধন্যবাদ। যেকোনও বিষয়ে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের পেশাদারি দৃষ্টিভঙ্গি থাকা গুরুত্বপূর্ণ।’

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের নির্দেশনা অনুযায়ী পরিমাপের পদ্ধতি পরিবর্তন করে দুটি সড়ক পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তুলনা করা হয়। এতে হারলেকের রাস্তা ২৮ দশমিক ৬ শতাংশ ঢালু ও ব্যাল্ডউইন স্ট্রিট ৩৪ দশমিক ৮ শতাংশ খাড়া দেখা যায়। ফলে নিউজিল্যান্ড খেতাবটি ফিরে পায়।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস ভবিষ্যতের যেকোনও চ্যালেঞ্জের কথা ভেবে আনুষ্ঠানিকভাবে খেতাবটির মানদণ্ড পরিবর্তন করেছে।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটরেকর্ড বইয়ের একটি অসামঞ্জস্যতা নজরে আনার জন্য ব্যাল্ডউইন স্ট্রিটের আপিল দলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের এডিটর-ইন-চিফ ক্রেগ গ্লেনডে। নিউজিল্যান্ডকে খেতাবটি ফিরিয়ে দিতে পেরে তিনি আনন্দিত।

এছাড়া আবেদন ও পুরো প্রক্রিয়া চলাকালীন রসবোধের জন্য ফোর্ড পেন লেক দলকেও ধন্যবাদ জানান গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের এডিটর-ইন-চিফ।

সূত্র: সিএনএন ট্রাভেল

/জেএইচ/
টপ
X