ভিয়েতনামে কর্মহীনদের জন্য চালের এটিএম!

Send
জার্নি ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:৪২, এপ্রিল ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১২, এপ্রিল ১৮, ২০২০

ভিয়েতনামে চালের এটিএমটাকা তোলার এটিএম বুথের কথা সবাই জানে। বিভিন্ন দেশে খাবারের এটিএম আছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই শহরে দেখা যায় স্বর্ণের এটিএম। এগুলো রক্ষণাবেক্ষণ করে থাকে বিভিন্ন ব্যাংক ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান।

এবার ভিয়েতনামে ব্যক্তি উদ্যোগে স্থাপন করা হলো চালের এটিএম বুথ! এখানে কর্মহীনদের বিনামূল্যে চাল দেওয়া হচ্ছে। এর মাধ্যমে মানবসেবায় দারুণ কীর্তি গড়লেন হোয়াং তুয়ান আন। হো চি মিন সিটির একজন উদ্যোক্তা তিনি। তার প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও দাতারা।

করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন ভিয়েতনামের ভাসমান বিক্রেতা ও গৃহকর্মীসহ অসংখ্য দিনমজুর। তাদের জীবকা নির্বাহের সুবিধার্থে হো চি মিন সিটির একটি কলেজের সামনে চালের এটিএম স্থাপন করা হয়েছে। এটি ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকবে। এখান থেকে প্রতিদিন প্রত্যেক কর্মহীনকে বিনামূল্যে দেড় কেজি করে চাল দেওয়া হচ্ছে, যা চারজনের একটি পরিবারের জন্য যথেষ্ট।

ভিয়েতনামে চালের এটিএমজানা গেছে, এটিএম মেশিন থেকে চাল পেতে একে অপরের কাছ থেকে ছয় ফুট দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড়াতে হয়। এছাড়া চাল সংগ্রহের আগে প্রত্যেকের হাত স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে পরিষ্কার করা বাধ্যতামূলক। এটিমের পাশেই আছে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা।

এদিকে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়, হোয়েই শহর ও ডানাং পৌরসভায় আরও কয়েকটি চালের এটিএম স্থাপনের কাজ চলছে। এছাড়া হ্যানয়ে বিশাল একটি ওয়াটার ট্যাংকে প্রচুর চাল রাখা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত কর্মহীন কেউ সাহায্য চাইলে এখান থেকে ব্যাগে ভরে চাল নিয়ে যেতে পারেন।

ভিয়েতনামে চালের এটিএমভিয়েতনামে সবচেয়ে বেশি চাষ করা ফসলের মধ্যে ধান অন্যতম। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২৬৮ জনের মধ্যে কোভিড-১৯ রোগ ধরা পড়েছে। তবে কেউ মারা যায়নি। সরকার সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে কঠোর হয়েছে।

তথ্যসূত্র: রয়টার্স

/জেএইচ/
টপ