X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ঘর প্রাকৃতিকভাবে শীতল রাখার ১২ উপায়

জীবনযাপন ডেস্ক
২১ এপ্রিল ২০২৪, ১৫:১১আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১৫:১৭

দেশজুড়ে বয়ে যাচ্ছে তাপপ্রবাহ। গরমের পারদ দিন দিন উপরের দিকেই উঠছে। তীব্র গরমে স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। ফ্যানের নিচেও স্বস্তি মিলছে না দুদণ্ড। এয়ার কন্ডিশনার ঘর দ্রুত ঠান্ডা করতে পারলেও এটি ব্যবহার করা সবার পক্ষে সম্ভব নয়। আবার সবসময় এসিতে থাকা স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো নয়। তীব্র গরমে প্রাকৃতিকভাবে ঘর শীতল করার কিছু উপায় সম্পর্কে জেনে নিন। 

 

  1. এক্সজস্ট ফ্যান ঘর থেকে অতিরিক্ত তাপ এবং আর্দ্রতা অপসারণ করতে পারে। বাথরুম এবং রান্নাঘরে এই ফ্যান ব্যবহার করুন।
  2. ঘরে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিকে কোনও জানালা থাকলে সেটা রোদ ওঠার আগেই বন্ধ করে দিন।  
  3. দিনের বেলা জানালায় গাঢ় রঙের পর্দা ব্যবহার করবেন। এভাবে সূর্য থেকে আসা তাপের প্রায় ৪০ শতাংশ কমানো সম্ভব।
  4. হালকা রঙের সুতি চাদর ব্যবহার করুন বিছানায়। সম্ভব হলে সাদা চাদর ব্যবহার করুন। গরমে স্বস্তি মিলবে। 
  5. শীতল বাতাস পেতে রাতে এবং ভোরে জানালা খুলুন। একই সময়ে একাধিক জানালা এবং দরজা খোলা রাখবেন। এতে বাতাস চলাচল ভালো হবে।
  6. ঘরে গাছ রাখুন। গাছ ঘরকে ঠান্ডা করতে সাহায্য করে। কারণ গাছ শ্বাস-প্রশ্বাসের সময় বাতাস হারায়, যা আশেপাশের বাতাসকে শীতল করতে এবং বিশুদ্ধ করতে সাহায্য করে। 
  7. ঘরের পরিবেশ শীতল করার জন্য টেবিল ফ্যানের সামনে বাটি ভর্তি বরফ রাখুন। শীতল বাতাসে প্রাণ জুড়াবে। 

    ঘরে গাছ রাখুন। ছবি- সংগৃহীত
  8. রাতের ঘুমের জন্য বিছানার পরিবর্তে মেঝেতে গদি ব্যবহার করার চেষ্টা করুন।
  9. যন্ত্রপাতি কোনও না কোনোভাবে তাপ উৎপন্ন করে। তাই তাপ উৎপন্ন করতে পারে এমন যন্ত্রপাতি ব্যবহার এড়াতে চেষ্টা করুন। হেয়ার ড্রায়ার, ওয়াটার হিটার, ডিশ ওয়াশার এবং বৈদ্যুতিক আয়রন ব্যবহার পরিমিত করুন।
  10. খোলা জানালার সামনে ভেজা চাদর মেলে দিন। জানালা দিয়ে আসা বাতাস ভেজা চাদর থেকে পানি শোষণ করে শীতলতা ছড়িয়ে দেবে ঘরে। 
  11. ঘরে ভেন্টিলেটর থাকলে, ভালো করে পরিষ্কার করুন। এতে ঘরে বাতাস চলাচল হবে ঠিকঠাক।
  12. নজর দিন রুমের আলোর ধরন এবং গুণমান উপর। এলইডি বাল্ব ব্যবহার করুন। এগুলো সর্বনিম্ন পরিমাণে তাপ উৎপন্ন করে। প্রয়োজন না হলে ঘরের লাইট বন্ধ রাখুন।
/এনএ/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে এলো মৃত হরিণ
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
দেশে ফিরে এভারেস্টজয়ী বাবর বললেন, গর্ববোধ করছি
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
চাকরির মেয়াদ শেষে জাবি রেজিস্ট্রারের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ: ইউজিসির নির্দেশনা লঙ্ঘন
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবসে নানা কর্মসূচি
সর্বাধিক পঠিত
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকায় ১১ প্রকল্পে অনুমোদন
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
যুদ্ধাপরাধের তদন্ত: আইসিসির প্রসিকিউটরকে হুমকি দিয়েছিলেন মোসাদ প্রধান
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা
পুলিশের সার্জেন্ট দম্পতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা