X
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাহিত্য উৎসব ২০২৩

সহাবস্থানই আমাদের ঐতিহ্য : রতন সিদ্দিকী

সাহিত্য ডেস্ক
১৭ অক্টোবর ২০২৩, ২৩:২২আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২৩, ২৩:৩১

আজ মঙ্গলবার ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাহিত্য সংসদ আয়োজিত সাহিত্য উৎসবের সমাপনী দিন। টিএসসিতে অনুষ্ঠিত এই উৎসব গতকালের মতো শুরু হয় সকাল থেকে। কবিতা, গান, কুইজ ও নানাবিধ বিষয়ের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। যাতে অংশ নেন দেশের খ্যাতিমান কবি, কথাশিল্পী ও প্রাবন্ধিক।

সকাল ১১টায় অনুষ্ঠিত ‘সোশ্যাল মিডিয়ার কবিতাচর্চা : সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেশনে আলোচক ছিলেন, টোকন ঠাকুর, বায়তুল্লাহ কাদেরী, আখতারুজ্জামান আজাদ, সামতান রহমান। সঞ্চালনা করেন, ফরহাদ।
আখতারুজ্জামান আজাদ বলেন, ‘এখন কারো মুখাপেক্ষী হতে হচ্ছে না, খবরদারির মধ্যে পরতে হচ্ছে না, চাহিবামাত্র কবিতা প্রকাশ করবার কালচার তৈরি হয়েছে।’
টোকন ঠাকুর বলেন, ‘স্বতন্ত্র লেখক, কবি ও সাহিত্যিক তৈরি হচ্ছে না। সমাজ বুঝেই তারা লিখে যাচ্ছেন। মেরুদণ্ডহীনতা ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছে। ...চায়ের দোকানে যে আলোচনা হয় তার কিঞ্চিৎ পরিমাণও ফেসবুকে আসে না।’
সামতান রহমান বলেন, ‘ফেসবুকে কবিতাচর্চার ফলে কবিতাকে দুর্বোধ্য আখ্যা দেওয়া হচ্ছে। এর প্রভাব কবিদের উপর স্বাভাবিকভাবেই পরে। যার ফলে কবির চিন্তা ধারার মধ্যেও এক ধরনের পলি জমে।’
বায়তুল্লাহ কাদেরী বলেন, ‘জনপ্রিয়তা উৎকৃষ্ট সাহিত্যের মানদণ্ড নয়। চর্চা, শিক্ষা, আড্ডা, নিজের কবিতার বাছ-বিচার করা ফেসবুক-কবিতায় হয় না।’

সাড়ে ১২টায় অনুষ্ঠিত ‘মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশ : আজকের পরিপ্রেক্ষিতে’ শীর্ষক সেশনে আলোচক ছিলেন, অজয় দাশগুপ্ত। সঞ্চালনা করেন, মনি হায়দার।
অজয় দাশগুপ্ত বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের অভিজ্ঞতা নিয়ে সাহিত্য কম রচিত হতে দেখি। গাছের ডাল নিয়ে আমি শত্রুর মুখোমুখি হতে পেরেছিলাম বঙ্গবন্ধু ছায়া হয়ে ছিলেন বলে। যুদ্ধশিশুদের অনেক দেশ আশ্রয় দিয়েছে, আমাদের জন্য খুবই দুঃখের ব্যাপার যে, আমরা তাদের আশ্রয় দিতে পারিনি, আমাদের সাহিত্যেও তাদের জায়গা দিতে পারিনি।’

বিকাল ৩টা অনুষ্ঠিত ‘অসাম্প্রদায়িক নজরুলের মাজারে সাম্প্রদায়িকতার ফুল’ শীর্ষক সেশনে আলোচক ছিলেন,মজিদ মাহমুদ। সঞ্চালনা করেন, আমানউল্লাহ রিয়াজ।
মজিদ মাহমুদ বলেন, ‘অসাম্প্রদায়িকতার প্রতীক হিসেবে নজরুলকে বিবেচনা করা যায়। সাম্প্রদায়িকতার সংকট আমাদের, নজরুলের নয়। স্বাধীনতার পূর্বে বাঙালি হয়ে বাঁচতে চেয়েছিলো সবাই, সাম্প্রদায়িকতার পরিচয়ে নয়। নিজের জীবন আর রক্ত দিয়ে হলেও বাংলার বিভাজন আটকাতে চেয়েছিলেন নজরুল। বিকৃতিভাবে নজরুলকে উপস্থাপন করা হয় অনেক জায়গায়, অথচ তিনিই ভিন্নমত আর ধর্মকে এক করা শিখিয়েছেন। নজরুল মুসলমানের নয়, তিনি সর্বদাই ছিলেন বাংলার কবি।’

কবি ও প্রাবন্ধিক মজিদ মাহমুদ
৪টা ১০ মিনিটে অনুষ্ঠিত ‘জনপ্রিয় সাহিত্য, সাহিত্যের জনপ্রিয়তা’ শীর্ষক সেশনে আলোচক ছিলেন, আনোয়ারা সৈয়দ হক ও পলাশ মজুমদার। সঞ্চালনা করেন, মনি হায়দার।
আনোয়ারা সৈয়দ হক বলেন, ‘যে সাহিত্য সাধারণ মানুষকে অনুপ্রেরণা দেয়, দোলা দেয়, তবে তা জনপ্রিয় সাহিত্য হোক বা না হোক তা যে মহান সাহিত্য তাতে কোনো সন্দেহ নাই।’
পলাশ মজুমদার বলেন, ‘সাহিত্যের ক্যাটাগরি হয় না। পাঠক যার বই বেশি পড়েন ও কেনেন তাকে ধরা হয় জনপ্রিয়। তবে জনপ্রিয় হলেই তার মান ভালো হবে এমনটা বলা যাবে না।’ 

আনোয়ারা সৈয়দ হক, পলাশ মজুমদার ও সঞ্চালক মনি হায়দার
ট৫টা ১০ মিনিটে অনুষ্ঠিত ‘বাংলার নাট্য ঐতিহ্য’ শীর্ষক সেশনে আলোচক ছিলেন, ড. রতন সিদ্দিকী, তানভীর নাহিদ খান ও নিঝুম শাহ। সঞ্চালক ছিলেন, আবু সাঈদ তুলু।
নিঝুম শাহ বলেন, ‘ঐতিহ্যের মূল জায়গা সংস্কৃতি। শুরু থেকেই আমাদের মধ্যে নাটকের চর্চা ছিল, বিশেষ করে মধ্যযুগ থেকে কীর্তনীয়া বা শ্যামা কীর্তনের মধ্যে নাটকের গুণ ছিল।’

ড. রতন সিদ্দিকী, তানভীর নাহিদ খান, নিঝুম শাহ ও সঞ্চালক আবু সাঈদ তুলু
তানভীর নাহিদ খান বলেন, ‘বিচিত্র রকম দেশজ নাট্য রয়েছে আমাদের, নাটকের সব রকম গুণাগুন রয়েছে এসব পরিবেশনায়। আমাদের দেশের নাটকে গীত ও অভিনয় যেভাবে আছে, সেখানে বলাই যায় দেশজ নাট্য সম্পূর্ণ স্বয়ংসম্পূর্ণ।’
রতন সিদ্দিকী বলেন, ‘বাংলা নাটকের ইতিহাস হাজার বছরেরও আগের। সংস্কৃতির যে অংশ পরম্পরায় অনুসৃত হয় তাই ঐতিহ্য। শ্রীচৈতন্য মুসলিম ব্যক্তিদের নিয়ে নাটক নামিয়েছেন- এই সহাবস্থানই আমাদের ঐতিহ্য। আমাদের ঐতিহ্য বিদেশি কারো থেকে ধার করার দরকার হয় না।

/জেড-এস/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
সংকট থেকে উত্তরণে তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান মেননের
সংকট থেকে উত্তরণে তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান মেননের
কানে ঝুলছে বাংলাদেশের দুল!
কান উৎসব ২০২৪কানে ঝুলছে বাংলাদেশের দুল!
ধোনি-জাদেজার লড়াই ছাপিয়ে প্লে অফে বেঙ্গালুরু
ধোনি-জাদেজার লড়াই ছাপিয়ে প্লে অফে বেঙ্গালুরু
হীরকজয়ন্তীর পর সংগঠনে মনোযোগ দেবে আ.লীগ
হীরকজয়ন্তীর পর সংগঠনে মনোযোগ দেবে আ.লীগ
সর্বাধিক পঠিত
মামুনুল হক ডিবিতে
মামুনুল হক ডিবিতে
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
নির্মাণের উদ্দেশ্যে ভালো সড়ক কেটে ২ বছর ধরে খাল বানিয়ে রেখেছে
নির্মাণের উদ্দেশ্যে ভালো সড়ক কেটে ২ বছর ধরে খাল বানিয়ে রেখেছে
গরমে সুস্থ থাকতে কোন কোন পানীয় খাবেন? ইলেক্ট্রোলাইট পানীয় কখন জরুরি?
গরমে সুস্থ থাকতে কোন কোন পানীয় খাবেন? ইলেক্ট্রোলাইট পানীয় কখন জরুরি?