শাবিতে উদ্যোক্তা সংগঠনের নতুন কমিটি গঠন

Send
শাবি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:২৮, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৮, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

শিক্ষার্থীদেরকে উদ্যোক্তা হতে আগ্রহী করে তুলতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ক্যাম্পাসিয়ান অন্টাপ্রিনিউর’স অ্যাসোসিয়েশন’ এর নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে সভাপতি হিসেবে ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী আমিনা পারভিন তিশা ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী মো. সালমান শাহ মনোনীত হয়েছেন।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবি)
শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ক্যাম্পাসিয়ান অন্টাপ্রিনিউর অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. শাহীনুর পাশা ও সাধারণ সম্পাদক তুবা তুনাজজিনা রিদিতা আগামী এক বছরের জন্য এ কমিটির অনুমোদন দেন।
কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহ-সভাপতি লোকপ্রশাসন বিভাগের তাহমিনা আক্তার বুশরা প্রমি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের শুভ সাহা, বাংলা বিভাগের ফারজানা রহমান আনিকা ও পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের সানজিদা মেহেরীন, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের মিশরাত সুলতানা মিষ্টি ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের মুছাদ্দিক বিল্লাহ।
কমিটিতে অর্থ সম্পাদক হিসেবে লোকপ্রশাসন বিভাগের মারজানা হক, প্রচার সম্পাদক হিসেবে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মুজাহিদুল ইসলাম জাকারিয়া, সহ-প্রচার সম্পাদক পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের জাকিয়া মাহফুজা মৌ, প্রকাশনা সম্পাদক আইপিই বিভাগের শাকিল আহমেদ, সহ-প্রকাশনা সম্পাদক জিইবি বিভাগের সাইয়েদাতুন্নেসা সুমাইয়া, দপ্তর সম্পাদক সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের আশরাফুল ইসলাম, উপ-দপ্তর সম্পাদক এফইটি বিভাগের মো. জুয়েল রানা, তথ্য সম্পাদক এফইটি বিভাগের মনজুরী তামান্না, সহ-তথ্য সম্পাদক রসায়ন বিভাগের সামিউল হাসান মনোনীত হয়েছেন। এছাড়া কমিটিতে সদস্য হিসেবে রসায়ন বিভাগের আরমান ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের কাজী আসাদুজ্জামান মনোনীত হয়েছেন।
এ বিষয়ে শাবিপ্রবি শাখার সভাপতি আমিনা পারভিন তিশা বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অনেকেই ছাত্র অবস্থায় নতুন কিছু করার প্রবল ইচ্ছে থাকে। কারোর কারোর কাছে তো স্টার্টআপ এর মাস্টারপ্ল্যানও আছে। শুরুতে নানা ধরনের বাধার সম্মুখীন হতে হয় দেখে অনেকে সাহসের অভাবে শুরু করতে পারে না। এইসব সময়োপযোগী নবীন উদ্যোক্তাদেরকে আরও উৎসাহিত করা এবং কাজ শুরু করার পর বাধাগুলো মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যেই এ সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে একজন উদ্যোক্তা চাইলে নিজের এবং আরও কিছু লোকের কর্মসংস্থান তৈরি করতে পারেন। তাই বেকারত্বের হতাশা থেকে বের হয়ে আসার জন্য নিজের উদ্যোগটা নিয়ে কাজ করা একটি ভালো সিদ্ধান্ত হতে পারে।’
তিনি আরও বলেন, ‘দেশি পণ্যের মধ্যে এমন অনেক পণ্য আছে যেটা নতুন করে আবারও দেশে-বিদেশে পরিচয় করে দেওয়াটা এখন সময়ের দাবি। শিক্ষার্থীরা এ বিষয়টা ভেবে দেখতে পারেন এবং মজবুত একটা প্ল্যানিং করে সে অনুযায়ী কাজ শুরু করতে পারেন ছাত্র অবস্থাতেই। আর এ রকম উদ্যোগী শিক্ষার্থীদেরকে সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা তৈরি করে দিতে সর্বদা প্রস্তুত আছি আমরা।’

/এনএ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ