মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে বিশিষ্টজনদের শোকবরেণ্য আইনজীবী হারালো দেশ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:০৫, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৩২, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমঅ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু শোক প্রকাশ করেছেন সাবেক জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, আইনমন্ত্রী আনিসুল হকসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও দেশের বিশিষ্টজনরা। তারা মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। একইসঙ্গে তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন। তারা বলেন, মাহবুবে আলমের মৃত্যুকে দেশ একজন একজন বরেণ্য আইনজীবীকে হারালো।
প্রসঙ্গত,  রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বাংলাদেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিষয়টি জানিয়েছেন তার ছেলে সুমন মাহবুব। তিনি লিখেছেন, রবিবার সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে আমার বাবা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম মৃত্যুবরণ করেছেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ.কিউ.এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী শোকবার্তায় বলেন, তিনি আমাদের বিক্রমপুরের একজন কৃতি সন্তান। আমি তার মৃত্যুতে মর্মাহত হয়েছি। এমন সুন্দর এবং ভদ্র স্বভাবের মানুষ আজকাল অত্যন্ত বিরল। তার আচার-ব্যবহার এবং সুন্দর চরিত্রের জন্য তিনি প্রশংসনীয় ব্যক্তি হিসেবে আমাদের স্মৃতিতে উজ্জ্বল হয়ে থাকবেন।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী তার শোকবার্তায় মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন। তিনি তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন। জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া এমপি এবং চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী এমপিও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

শোকাবার্তায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমকে আমি প্রায় ৪০ বছর যাবৎ চিনি ও জানি। আমরা বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলাসহ অনেক মামলা একসঙ্গে পরিচালনা করেছি। তাই মরহুমের সঙ্গে আমার অনেক স্মৃতি রয়েছে। মরহুম মাহবুবে আলম নিজ কর্মগুণেই আমার কাছে ও দেশের মানুষের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে দেশের আইন অঙ্গনে এক বিশাল শূন্যতা তৈরি হলো।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন এক শোকবার্তায় বলেন, অত্যন্ত সজ্জন মাহবুবে আলম ছিলেন আমার ব্যক্তিগতভাবে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। তিনি আমার নির্বাচনে সহযোগিতা করেন। মাহাবুবে আলম ছিলেন আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের কাণ্ডারি। তার মৃত্যুতে জাতি একজন বিশিষ্ট আইনজীবীকে হারালো। এছাড়া পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমও শোক প্রকাশ করেছেন।
এক শোকবার্তায় ডিএসসিসি মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, তিনি দীর্ঘ সময় সততা, নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। তার এই প্রয়াণ আমাদেরকে শোকে আচ্ছাদিত করেছে। অপর এক শোক বার্তায় ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।


বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, তার মৃত্যুতে আইন অঙ্গনে বড় শূন্যতা সৃষ্টি হবে। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে তার দৃঢ় ভূমিকা দেশ স্মরণ রাখবে।
মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন। শোকবার্তায় মন্ত্রী বলেন , দেশের আইন অঙ্গনের একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য আমৃত্যু সংগ্রাম করে গেছেন। তিনি তার সুদীর্ঘ বর্ণাঢ্য কর্মজীবনে অনেক মানুষকে সততা, নিষ্ঠা, আন্তরিকতা ও সহানুভূতির সাথে আইনি সেবা প্রদান করেছেন। তার মৃত্যুতে আইন অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেলো।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, মাহবুবে আলমের মতো এমন একজন বিচক্ষণ আইন বিশেষজ্ঞ ব্যক্তির মৃত্যু‌তে দেশের আইন অঙ্গনের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেছে। তিনি এদেশের আইন অঙ্গনের ক্ষেত্রে একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন।
এক শোকবার্তায় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন,  অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা হিসেবে দুদক-কে শুধু আইনি পরামর্শই দিতেন না, বরং দুদকের চাঞ্চল্যকর মামলা পরিচালনায়  উচ্চ আদালতে নিজে উপস্থিত থেকে অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিতকল্পে নির্মোহভাবে আইনি দায়িত্ব পালন করতেন। 

মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। এক শোকবার্তায় বলেন, বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশনের একজন সদস্য হিসাবে মাহবুবে আলমের অনন্য ভূমিকা কমিশন শ্রদ্ধার সঙ্গে চিরকাল স্মরণ করবে।
এদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে সর্বোচ্চ আদালতে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার বিচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন মাহবুবে আলম। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় তিনি ছিলেন একজন প্রথম সারির যোদ্ধা।
মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছে আইন-আদালত, সংবিধান ও মানবাধিকার বিষয়ক রিপোর্টারদের সংগঠন ল' রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি মাশহুদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইয়াছিন।
শোকবার্তায় তারা বলেন, আমরা হারিয়েছি একজন অভিভাবককে, যার কাছে সময়-অসময়ে আমরা যেতে পারতাম। আমাদের জন্য তার দ্বার ছিল অবারিত। আমরা তার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

/এসটিএস/ইএইচএস/এসএনএস/এসএস/জেএ/বিআই/এসএসজেড/এমআর/

লাইভ

টপ