X
রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২
৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

আহমদ শফী ফের বেফাকের সভাপতি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:২৩আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:২৭

মাওলানা আহমদ শফী হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী আবারও বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা বোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাক)-এর সভাপতি হয়েছেন। গত ১০ বছর ধরে তিনি বেফাকের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। 

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর জামিয়া ইমদাদিয়া আরাবিয়া ফরিদাবাদ মাদ্রাসায় বেফাকের দশম কাউন্সিলে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। কাউন্সিল অধিবেশনে আহমদ শফী নির্বাহী কমিটি ও শুরা কমিটি ঘোষণা করেন। 

নির্বাহী কমিটিতে ১১৬ জন এবং শুরা কমিটিতে ২৪২ জন সদস্য আছেন। পদাধিকার বলে নির্বাহী কমিটির ১১৬ জন সদস্য শুরা কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হন।   ঘোষিত নির্বাহী কমিটিতে ২৭ জনকে সহসভাপতি করা হয়েছে। এছাড়া, সহকারী মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন ৮ জন। বেফাকের নবম কাউন্সিল ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নিয়মানুযায়ী প্রতি পাঁচ বছর পরপর এই কাউন্সিল হয়ে থাকে।

বেফাকের কাউন্সিল সূত্রে জানা গেছে, নতুন কমিটিতে সিনিয়র সহসভাপতি হয়েছেন জামিয়া শরইয়্যাহ মালিবাগ মাদ্র্রাসার মুহতামিম মাওলানা আশরাফ আলীকে। মহাসচিবের দায়িত্ব পেয়েছেন জামিয়া ইমদাদিয়া ফরিদাবাদ মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা আবদুল কুদ্দুস।  ২০১৬ সালের ১৮ নভেম্বর বেফাকের পুরনো কমিটির মহাসচিব মাওলানা আবদুল জব্বার জাহানাবাদী মারা যাওয়ার পর থেকেই  মাওলানা আবদুল কুদ্দুস বেফাকের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

ঘোষিত কমিটিতে ২৭ জন সহসভাপতির মধ্যে রয়েছেন, মাওলানা আজহার আলী আনোয়ার শাহ (জামিয়া ইমদাদিয়া কিশোরগঞ্জ), মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমী (বারিধারা), মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস (মনিরামপুর, যশোর), মাওলানা মোস্তফা আযাদ (আরজাবাদ),মাওলানা হাবিবুর রহমান (সিলেট), মাওলানা আবদুল কুদ্দুস (মিরপুর), মাওলানা আবদুল বারী ধর্মপুরী (মৌলভীবাজার), মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী (বাবুনগর, চট্টগ্রাম), মাওলানা নূরুল ইসলাম আযাদী (ওলামাবাজার, ফেনী), মাওলানা মাহমুদুল হাসান (যাত্রাবাড়ী), মাওলানা আবদুর রহমান হাফেজ্জী (মোমেনশাহী), মাওলানা আবদুল হামিদ (মধুপুর), মাওলানা নূরুল ইসলাম (খিলগাঁও), মাওলানা আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী (জামিয়া নূরিয়া, ঢাকা), মাওলানা সাজিদুর রহমান (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), মাওলানা সালাহুদ্দীন (নুনুপুর, চট্টগ্রাম), মাওলানা ছফিউল্লাহ (জামিয়া দ্বীনিয়া, মতিঝিল), মুফতি জাফর আহমদ (ঢালকানগর), মুফতি ফয়জুল্লাহ (লালবাগ), মাওলানা মুসলেহুদ্দীন রাজু (সিলেট), মাওলানা আনাস মাদানী (হাটহাজারী) মাওলানা তাফাজ্জুল হক হবিগঞ্জী, মাওলানা বদরুদ্দীন (সিলেট), মাওলানা আশেক এলাহী (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), মাওলানা ফয়জুল্লাহ (মাদানীনগর)।

ঘোষিত  কমিটিতে ৮ জন সহকারী মহাসচিবের মধ্যে রয়েছেন, মাওলানা মাহফুজুল হক (মুহতামিম, জামিয়া রহমানিয়া আরাবিয়া ), মুফতি নুরুল আমিন ( ফরিদাবাদ), মুফতি কেফায়েতুল্লাহ আজহারী ( আল মানহাল কওমী মাদরাসা), মুফতি নেয়ামাতুল্লাহ (জামিয়া সাহবানিয়া দারুল উলুম), মাওলনা শামসুল হক (দ্বীনি শিক্ষাবোর্ড, হবিগঞ্জ), মালানা নজরুল ইসলাম (এদারায়ে তালিমিয়া সিলেট), মাওলানা মোবারক উল্লাহ (এদারায়ে তালিমিয়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া), মাওলানা জামালুদ্দীন মাহমুদ (তালিমি বোর্ড মাদানীনগর)।

সোমবার সকাল ৯টার দিকে বেফাকের কেন্দ্রীয় কাউন্সিল শুরু হয়। কাউন্সিলের সভাপতিত্ব করেন  শাহ আহমদ শফী। কাউন্সিলে যোগ দিতেই তিনি রবিবার ঢাকায় আসেন। সভায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বেফাকের কাউন্সিল সদস্যরা যোগ দেন।

সভায় শুরুতে বেফাকের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস চারটি প্রস্তাব ও  কওমি  মাদ্রসার  উন্নয়নে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন। তার প্রস্তাবগুলো হচ্ছে— আগামী শিক্ষা বছর থেকে অন্যান্য  জামাতের (শ্রেণির) মতো মক্তব (নুরানি) বিভাগের বার্ষিক পরীক্ষাও বেফাকের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে। দ্রুত বেফাকের বহুতল ভবন নির্মাণ শেষ করা।  কাফিয়া জামাতের বার্ষিক পরীক্ষা বেফাকের অধীনে অনুষ্ঠিত করা। মাদ্রাসার ফতোয়া বিভাগের উন্নয়নের জন্য আগামী বছর থেকে ইফতার পরীক্ষা বেফাকের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে।

 

/সিএ/এপিএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ পুনর্পাঠ
জন্মশতবর্ষেসৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ পুনর্পাঠ
ধারাভাষ্যকে বিদায় বললেন চ্যাপেল
ধারাভাষ্যকে বিদায় বললেন চ্যাপেল
সাড়ে ৩ মাস পর কাপ্তাই হ্রদে নামছেন জেলেরা
সাড়ে ৩ মাস পর কাপ্তাই হ্রদে নামছেন জেলেরা
‘নদী রক্স’ প্রজেক্টের জন্য সুমির ঘরে দুই পুরস্কার
‘নদী রক্স’ প্রজেক্টের জন্য সুমির ঘরে দুই পুরস্কার
এ বিভাগের সর্বশেষ
এক চিঠি নিয়ে কওমি ঘরানায় তোলপাড়, চলছে জরুরি বৈঠক
এক চিঠি নিয়ে কওমি ঘরানায় তোলপাড়, চলছে জরুরি বৈঠক
গ্রন্থাগার শিক্ষকদের গ্রেড বৈষম্য অবসানের দাবি
গ্রন্থাগার শিক্ষকদের গ্রেড বৈষম্য অবসানের দাবি
নর্থ সাউথের ট্রাস্টিদের অপরাধ গুরুতর বিধায় জামিনে বাধা
নর্থ সাউথের ট্রাস্টিদের অপরাধ গুরুতর বিধায় জামিনে বাধা
গণ বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি হলেন ফরিদা আখতার ও আসিফ নজরুল
গণ বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি হলেন ফরিদা আখতার ও আসিফ নজরুল
বিচারহীনতার ধারাবাহিকতাই লাঞ্ছনা ও হত্যাকাণ্ডে সাহস জুগিয়েছে: সমাবেশে শিক্ষকরা
বিচারহীনতার ধারাবাহিকতাই লাঞ্ছনা ও হত্যাকাণ্ডে সাহস জুগিয়েছে: সমাবেশে শিক্ষকরা