X
বুধবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

পণ্যের মোড়কে ‘রঙ ফর্সাকারী’ ‘শতভাগ খাঁটি’ জাতীয় শব্দ নয়

আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৯:১১

পণ্যের মোড়কে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর কোনও তথ্য দিয়ে ভোক্তাকে বিভ্রান্ত করা যাবে না। এক্ষেত্রে সরকারের অনুমোদন এবং প্রমাণ ছাড়া পণ্যের মোড়কে হালাল, রঙ ফর্সাকারী, মাথা ঠাণ্ডাকারী, শতভাগ খাঁটি জাতীয় শব্দ ব্যবহার করা যাবে না।। এ ধরনের বিধান রেখে সম্প্রতি ‘পণ্য মোড়কজাতকরণ বিধিমালা-২০২১’ জারি করেছে সরকার।

‘ওজন ও পরিমাপ মানদণ্ড আইন ২০১৮’ এর ক্ষমতাবলে শিল্প মন্ত্রণালয় এই বিধিমালাটি জারি করেছে। বিধিমালার নির্দেশনা অমান্য করলে ওজন ও পরিমাপ মানদণ্ড আইনের অধীনে শাস্তি কার্যকর হবে।

বিধিমালায় মোড়কের আকার, আকৃতি, রঙ ও পণ্য সম্পর্কে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য উপস্থাপনের বিধি নিষেধের কথা বলা হয়েছে। বিধিমালায় বলা হয়— পণ্য সম্পর্কে কোনও মিথ্যা বা ভ্রান্ত ধারণার সৃষ্টি হয় বা সত্য নয়, এমন কোনও তথ্য বা অভিব্যক্তি কোনও মোড়কে ঘোষণা, প্রকাশ বা প্রদর্শন করা যাবে না। মোড়কজাত পণ্য সম্পর্কে অতিরিক্ত কোনও তথ্য ভোক্তাকে অবহিত করা আবশ্যক হলে— তা স্পষ্ট, সুনির্দিষ্ট ও সহজবোধ্যভাবে প্যানেলে উপস্থাপন করতে হবে।

এক্ষেত্রে সরকারের অনুমোদন, প্রমাণপত্র, গবেষণা ইত্যাদি না থাকলে পণ্যের মোড়কে  হালাল, ১০০% হালাল, ১০০% পরিশোধিত, রঙ ফর্সাকারী, রোগ নিরাময়কারী, মাথা ঠাণ্ডাকারী, ষোল আনা, ১০০% খাঁটি, ১০০% পিউর, সুপার পিউর, সুপার রিফাউন্ড, এক্সপোর্ট কোয়ালিটি, রপ্তানিকারক, এক্সপোর্ট বাই, জাতীয় কোনও বিভ্রান্তকর তথ্য, চিকিৎসক, বিশেষজ্ঞ বা অনুরূপ কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সুপারিশকৃত ক্রেতাদের বিভ্রান্তিমূলক কোনও তথ্য বা অভিব্যক্তি, পণ্যের গুরুত্ব বাড়াতে তার পরিমাণ ও পুষ্টিগুণের বিষয়ে কোনও মিথ্যা তথ্য দাবি ও অপকৌশল, পণ্যে নিট ওজন, পরিমাণ বা সংখ্যা ঘোষণার ক্ষেত্রে অতিরঞ্জিত, ভ্রান্ত ও অপ্রাসঙ্গিক কোনও মিথ্যা তথ্য যেমন— সর্বনিম্ন, অন্যূন, আনুমানিক, জাম্বু, জায়ান্ট, পূর্ণ, ইকোনমি, বড়, অতিরিক্ত, রাজা, রানী জাতীয় কোনও শব্দ মোড়কে প্রকাশ, ঘোষণা বা ব্যবহার করা যাবে না।

পণ্যের মোড়কে ডজন (১২), কুড়ি (২০), পোন (৮০), গ্রোস (১৪৪), গ্রেস গ্রোস (১৭২৮) বা অনুরূপ কোনও সংখ্যা ব্যবহার করা যাবে না বলেও বিধিমালায় উল্লেখ করা হয়।

কোনও পণ্যের দাম পুনর্নির্ধারণে বহুল প্রচারিত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় অন্তত দুটি বিজ্ঞাপন দিতে হবে। তবে কর বৃদ্ধি-কমের জন্য মূল্য পুনর্নির্ধারণের প্রয়োজন পড়লে বিজ্ঞাপন দেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না।

বিধিমালার বিধানগুলো অমান্য করলে ‘ওজন ও পরিমাপ মানদণ্ড আইন ২০১৮’ আইনে বিদ্যমান শাস্তি কার্যকরের কথা বলা হয়েছে। ওই আইনের ৪১ ধারায় আইন অমান্যে যে সাজার কথা বলা হয়েছে তা হলো— কোনও ব্যক্তি যদি এই আইন বা আইনের অধীন প্রণীত বিধির বিধানাবলি লঙ্ঘন করেন, মোড়কজাত আকারে, যেকোনও পণ্য বিক্রি, পরিবেশন, সরবরাহ বা হস্তান্তর করেন, অথবা পরিবেশন বা সরবরাহের ব্যবস্থা করেন, তা হলে অনূর্ধ্ব  এক বছরের কারাদণ্ড বা অনূর্ধ্ব এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

/ইএইচএস/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
শিক্ষার্থী-শিক্ষক সম্পর্ক: কেন সন্দেহ আর বিদ্বেষ?
শিক্ষার্থী-শিক্ষক সম্পর্ক: কেন সন্দেহ আর বিদ্বেষ?
৩০ জানুয়ারি থেকে শারজাহ যাবে ইউএস-বাংলা
৩০ জানুয়ারি থেকে শারজাহ যাবে ইউএস-বাংলা
টিকার সার্টিফিকেট জালিয়াতি চলছেই, টার্গেট প্রবাসী কর্মীরা
টিকার সার্টিফিকেট জালিয়াতি চলছেই, টার্গেট প্রবাসী কর্মীরা
পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের ‘রহস্যজনক’ মৃত্যু
পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের ‘রহস্যজনক’ মৃত্যু
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
শিক্ষার্থী-শিক্ষক সম্পর্ক: কেন সন্দেহ আর বিদ্বেষ?
শিক্ষার্থী-শিক্ষক সম্পর্ক: কেন সন্দেহ আর বিদ্বেষ?
৩০ জানুয়ারি থেকে শারজাহ যাবে ইউএস-বাংলা
৩০ জানুয়ারি থেকে শারজাহ যাবে ইউএস-বাংলা
টিকার সার্টিফিকেট জালিয়াতি চলছেই, টার্গেট প্রবাসী কর্মীরা
টিকার সার্টিফিকেট জালিয়াতি চলছেই, টার্গেট প্রবাসী কর্মীরা
পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের ‘রহস্যজনক’ মৃত্যু
পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সাবেক চেয়ারম্যানের ‘রহস্যজনক’ মৃত্যু
‘আর ক্ষুধা-তৃষ্ণা নেই, অনশন ভাঙবো না’
‘আর ক্ষুধা-তৃষ্ণা নেই, অনশন ভাঙবো না’
© 2022 Bangla Tribune