X
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২৪ মাঘ ১৪২৯

কুমিল্লায় জোড়া খুনের মামলায় আসামির জামিন মেলেনি

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২০:৫৮আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২০:৫৮

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মো. সোহেল এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা হরিপদ হত্যা মামলার আসামি সায়মন উদ্দিনকে জামিনের আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এর ফলে ওই মামলায় আসামির জামিন মিললো না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লা ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহমদ ভূঁইয়া।

জানা গেছে, আসামি সায়মন উদ্দিন ২০২১ সালের ৬ ডিসেম্বর গ্রেফতার হয়। এই আসামি ঘটনার পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত ছিলে বলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তাই রাষ্ট্রপক্ষের জোরালো বিরোধিতায় আদালত আসামিকে জামিন না দিয়ে আবেদনটি কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ২২ নভেম্বর কুমিল্লার পাথুরিয়াপাড়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন কাউন্সিলর সোহেলসহ দু'জন। সোহেল কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়রও ছিলেন। ২০১২ ও ২০১৭ সালে তিনি কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হন। দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি প্যানেল মেয়র হন। তিনি সুজানগর এলাকার সৈয়দ মো. শাহজাহান মিয়ার ছেলে। আর নিহত হরিপদ সাহা নগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য এবং সাহাপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

ঘটনার পরদিন ২৩ নভেম্বর দিবাগত গভীর রাতে সোহেলের ছোট ভাই সৈয়দ মো. রুমন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় শহরের সুজানগর বৌবাজার এলাকার মৃত জানু মিয়ার ছেলে শাহ আলমকে প্রধান আসামি করে এজাহারনামীয় ১১ জনসহ মোট ২১ জনকে আসামি করা হয়।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন— নবগ্রামের শাহ আলমের ছেলে সোহেল ওরফে জেল সোহেল, সুজানগর পানির টাংকি সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রফিক মিয়ার ছেলে মো. সাব্বির হোসেন, সুজানগর পূর্ব পাড়া বৌ বাজারের মৃত কানু মিয়ার ছেলে সুমন, সংরাইশ এলাকার (রহিম ডাক্তারের গলি) কাকন মিয়া ওরফে চোরা কাকনের ছেলে সাজন, তেলীকোনা প্রাইমারি স্কুলের পূর্ব পাশের (মনির মিয়ার বাড়ি) আনোয়ার হোসেনের ছেলে আশিকুর রহমান রকি, সুজানগর পূর্বপাড়া বৌবাজার এলাকার মৃত জানু মিয়ারর ছেলে আলম, সুজানগর পূর্ব পাড়ার নূর আলীর ছেলে জিসান মিয়া, সংরাইশ (বেকারি গলি) এলাকার মঞ্জিল মিয়ার ছেলে মাসুম, নবগ্রামের মৃত সামছুল হকের ছেলে সায়মন উদ্দিন ও সুজানগর বৌ বাজার এলাকার কানাই মিয়ার ছেলে রনি।

এদের মধ্যে প্রধান আসামি শাহ আলম, আসামি সাব্বির ও সাজন বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, এলাকায় মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেওয়ায় চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও  মাদক ব্যবসায়ীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে সোহেলকে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করে। এসব সন্ত্রাসী বহু মামলার আসামি।

/বিআই/এপিএইচ/
সর্বশেষ খবর
শামসুন্নাহারের হ্যাটট্রিকে ফাইনালে বাংলাদেশ
শামসুন্নাহারের হ্যাটট্রিকে ফাইনালে বাংলাদেশ
২৮৮ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি
২৮৮ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি
গাড়ি ভাঙচুর ও ককটেল ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি, শিবিরের ২০ নেতাকর্মী গ্রেফতার
গাড়ি ভাঙচুর ও ককটেল ফাটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি, শিবিরের ২০ নেতাকর্মী গ্রেফতার
জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আইনজীবীর আবেদন
জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আইনজীবীর আবেদন
সর্বাধিক পঠিত
উপহারের গাড়িটি অ্যাম্বুলেন্স বানিয়ে মানুষের জন্য ব্যবহৃত হবে: হিরো আলম
উপহারের গাড়িটি অ্যাম্বুলেন্স বানিয়ে মানুষের জন্য ব্যবহৃত হবে: হিরো আলম
বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পিএসসি
বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে পিএসসি
উপহারের গাড়ি নিতে হবিগঞ্জ যাচ্ছেন হিরো আলম
উপহারের গাড়ি নিতে হবিগঞ্জ যাচ্ছেন হিরো আলম
হিরো আলমের গাড়ি আটকে জরিমানা ও মামলা করলো পুলিশ
হিরো আলমের গাড়ি আটকে জরিমানা ও মামলা করলো পুলিশ
সৌদি আরবে চাকরি: পাঁচ খাতে দক্ষতার সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলক
সৌদি আরবে চাকরি: পাঁচ খাতে দক্ষতার সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলক