X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

ঢাবি অধ্যাপককে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠালো কর্তৃপক্ষ

ঢাবি প্রতিনিধি
১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২১:১৯আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২১:১৯

এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি ও মানসিক নিপীড়ন এবং অন্য এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগে বিচার চেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। দ্বিতীয় দিনের মতো সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আন্দোলন করেন তারা। এরপর সোমবার বিকালে এই শিক্ষককে তিন মাসের বাধ্যতামূলক ছুটি দিয়ে চিঠি পাঠায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

সোমবার সকাল থেকেই শিক্ষার্থীরা বিভাগের করিডোরে এসে জড়ো হতে থাকেন। এসময় তারা অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিচার চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দেন। দুপুর ১টার দিকে তারা বিভাগে ড. নাদির জুনাইদের কক্ষ তালাবদ্ধ করে দেন। পৌনে ২টা নাগাদ বিভাগের ক্লাসরুমও সিলগালা করে দেন শিক্ষার্থীরা।

দুপুর ২টা নাগাদ তিনদফা দাবিতে স্মারকলিপি দিতে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে যান৷ উপাচার্য সেসময় কার্যালয়ে না থাকায় মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে যান শিক্ষার্থীরা৷ সেসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিমের শিক্ষকসহ বিভাগের চেয়ারম্যান ও দুজন শিক্ষক আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলেন৷ এসময় তারা শিক্ষার্থীদের আশ্বাস দেন সোমবার বিকাল ৪টার মধ্যে শিক্ষার্থীদের দাবি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত আসতে চলেছে।

একপর্যায়ে ২০০ জনেরও বেশি শিক্ষার্থীর স্বাক্ষরিত স্মারকলিপি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল মনসুর আহমেদ উপাচার্যের কাছে নিয়ে যান।

তিন দফা দাবির মধ্যে রয়েছে– অভিযোগ তদন্তের জন্য দ্রুততম সময়ে তদন্ত কমিটি গঠন, যৌন নিপীড়ককে শাস্তির আওতায় আনা, তদন্ত চলাকালে অভিযুক্ত শিক্ষককে সব একাডেমিক কাজ থেকে বিরত রাখা।

বিকাল ৩টা নাগাদ শিক্ষার্থীরা বিভাগের করিডোরে গিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন৷ বিকাল ৪টার কিছু সময় পরে বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আবুল মনসুর আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ড. নাদির জুনাইদের কাছে পাঠানো একটি চিঠি আন্দোলনকারীদের পড়ে শোনান।

চিঠির বরাত দিয়ে আবুল মনসুর আহাম্মদ বলেন, ‘বিভাগের শিক্ষার্থীদের গতকাল রবিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে আপনাকে (অধ্যাপক নাদির জুনাইদ) সব একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য আজ থেকে তিন মাসের জন্য ছুটি দেওয়া হলো৷ আপনার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের যথাযথ অনুসন্ধান ও তদন্ত করার জন্য বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরবর্তী সিন্ডিকেট সভায় উপস্থাপন করা হবে এবং সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এর আগে গত শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের এক শিক্ষার্থী অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও মানসিক নিপীড়নের অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. মাকসুদুর রহমানের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। এসময় লিখিত অভিযোগের সঙ্গে তিনি প্রমাণস্বরূপ কিছু কল রেকর্ড এবং স্ক্রিনশট সংযুক্ত করেন। এরপর শনিবার রাতেই অনির্দিষ্টকালের জন্য বিভাগের সব ক্লাস ও একাডেমিক কার্যক্রম বর্জন করেন শিক্ষার্থীরা। পরে রবিবার তারা আন্দোলন শুরু করেন৷

এদিকে রবিবার বিকালে প্রক্টর বরাবর আরও একজন শিক্ষার্থী ড. নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির ঘটনা দামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ করেন।

অভিযোগ ও বাধ্যতামূলক ছুটির বিষয়ে জানতে অধ্যাপক নাদির জুনাইদের ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে রবিবার তিনি সাংবাদিকদের জানান, তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। আগামী জুনে বিভাগের চেয়ারম্যান হওয়ার কথা তার। তাই বিশেষ উদ্দেশে টার্গেট করে তার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

তিনি এসব অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত চান। একপাক্ষিক রিপোর্ট করে মিডিয়া ট্রায়ালের মাধ্যমে দোষী সাব্যস্ত করা ও সামাজিকভাবে খাটো করার নিন্দা জানান তিনি।

আরও পড়ুন- নম্বর কমিয়ে দেওয়ার অভিযোগ: ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে উপাচার্যের কাছে চিঠি

/এফএস/
সম্পর্কিত
শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানিয়েছে ঢাবি কর্তৃপক্ষ
কঠোর হবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, চলবে গ্রেফতার অভিযানও
কোটা আন্দোলন: সাংবাদিক ও পুলিশসহ ৫০ জন ঢামেকে চিকিৎসা নিয়েছেন
সর্বশেষ খবর
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী