X
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪
৬ আষাঢ় ১৪৩১

ঢাকা দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২০ মে ২০২৪, ১৯:৪৫আপডেট : ২০ মে ২০২৪, ১৯:৪৫

আদালতের স্থিতাবস্থা থাকার পরও রাজধানীর মুগদা সড়কের দুইপাশে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১০ দিনের মধ্যে মামলার বিবাদীদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার (২০ মে) বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি এস এম মাসুদ হোসেন দোলনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ফিদা এম কামাল ও আইনজীবী মো. মশিহুর রহমান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

এর আগে গত ২৩ এপ্রিল রাজধানীর মুগদা সড়কের দুইপাশে উচ্ছেদ অভিযান স্থগিতের আদেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে কেন উচ্ছেদের আগে জমির মূল্য পরিশোধ এবং ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

অ্যাডভোকেট মো. মশিহুর রহমান জানান, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে মুগদা সড়কের দুই পাশে ব্যক্তিগত বাড়ি ও দোকানপাট উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। হাইকোর্টে রিট আবেদন করলে মুগদা সড়কের দুইপাশে উচ্ছেদ অভিযান স্থগিতের আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে কেন উচ্ছেদের আগে জমির মূল্য পরিশোধ এবং ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না, জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত। এছাড়াও এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর যে আবেদন দেওয়া হয়েছে তা নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।

আদালতের এই নির্দেশনা থাকার পরও রাজধানীর মুগদা সড়কের দুইপাশে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। ফলে ওই ঘটনায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন জানানো হয়।

 

/বিআই/এমএস/
সম্পর্কিত
অবশেষে সরিয়ে নেওয়া হলো বনশ্রী খাল পাড়ের বর্জ্য
রাজধানীর দুই সিটির বর্জ্য অপসারণ প্রতিযোগিতার সুফল পেলেন নগরবাসী
কোরবানির দ্বিতীয় দিনের সব বর্জ্য সরিয়ে নেওয়ার দাবি ডিএসসিসি’র
সর্বশেষ খবর
সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যাকবলিত ৭৪৮টি বিদ্যালয়, আশ্রয়কেন্দ্র ৩৭৪
সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যাকবলিত ৭৪৮টি বিদ্যালয়, আশ্রয়কেন্দ্র ৩৭৪
কেনিয়ায় কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ
কেনিয়ায় কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ
সাত নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে
সাত নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে
গুণগত ও মানসম্মত চিকিৎসা চাই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
গুণগত ও মানসম্মত চিকিৎসা চাই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সর্বাধিক পঠিত
শেখ হাসিনার ‘নজিরবিহীন’ ভারত সফরে সঙ্গী হচ্ছেন যারা
শেখ হাসিনার ‘নজিরবিহীন’ ভারত সফরে সঙ্গী হচ্ছেন যারা
‘রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউরই ছাগলকাণ্ডে আলোচিত সেই ইফাতের বাবা’
‘রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউরই ছাগলকাণ্ডে আলোচিত সেই ইফাতের বাবা’
‘মোংলা কমিউটার’ ট্রেন নিয়ে যাত্রীদের যত আপত্তি
‘মোংলা কমিউটার’ ট্রেন নিয়ে যাত্রীদের যত আপত্তি
প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের সেই কর্মকর্তা বরখাস্ত
প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের সেই কর্মকর্তা বরখাস্ত
ইসরায়েলের ‘সর্বাত্মক যুদ্ধের’ হুমকির জবাবে হিজবুল্লাহ প্রধানের পাল্টা হুঁশিয়ারি
ইসরায়েলের ‘সর্বাত্মক যুদ্ধের’ হুমকির জবাবে হিজবুল্লাহ প্রধানের পাল্টা হুঁশিয়ারি