সাংবাদিক মনসুর আলী স্মরণে শোকসভা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:৫১, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৫৫, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯

সাংবাদিক মনসুর আলী স্মরণে শোকসভাসাংবাদিক মনসুর আলীর স্মরণে শোকসভা করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন। শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর রুনি মিলনায়তনে এই শোকসভার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। এছাড়া অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য, সহকর্মীসহ সাংবাদিক মনসুর আলীর দুই ভাই উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিক বলেন, আমরা সবাই যদি সবার দায়িত্ব পালন করি তাহলে দেশ এগিয়ে যাবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আত্মশুদ্ধির কথা বলেছেন। এটি বর্তমান সমাজের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্ব বহন করে। নিজ নিজ জায়গা থেকে আমরা যদি পরিবর্তন হই, মানবিক হই, তাহলে আমাদের উন্নতি হবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা অকাল প্রয়াত সাংবাদিক মনসুর আলীকে স্মরণ করতে আজ সমবেত হয়েছি। তার পরিবার প্রতিনিয়ত আহাজারি করছে। আমাদের আলোচনায় বারবার মনসুরের নাম আসবে। তবে মনসুর তো আর ফিরে আসবে না। আমরা তো আর তাকে ফিরে পাচ্ছি না। মনসুর আলীর মৃত্যু আমাদের সবার জন্য শিক্ষণীয়। ভবিষ্যতে মনসুর আলীর মতো এরকম মৃত্যুর যেন সম্মুখীন অন্য কারও হতে না হয়।

আলোচনায় স্মৃতিচারণ করে বক্তারা বলেন, সাংবাদিকতার টানে মনসুর আলী ঢাকায় এসেছিলেন। আমরা আমাদের বন্ধু হারিয়েছি, পরিবারের সদস্য হারিয়েছি। আমরা আজ স্বজন হারানোর বেদনায় কষ্ট নিয়ে দিনযাপন করছি। যতদিন প্রাণ থাকে এই বেদনা আমাদের বয়ে বেড়াতে হবে।

সভার শুরুতে মনুসর স্মরণে এক মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়সভার শুরুতে মনসুর স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে সংবাদ ও সাংবাদিকতা নিয়ে কাজ করা সংগঠন আর্টিক্যাল নাইনটিনের পক্ষ থেকে মনসুরের পরিবারকে সহায়তা হিসেবে এক লাখ ২০ হাজার টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়। এ সময় অ্যালামনাইর পক্ষ থেকে একটি ফান্ড করে মনসুরের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর কথা বলেন সদস্যরা।

চবির যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে শোকসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাবির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. আবদুর রাজ্জাক, চবি যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ ও আর্টিকেল নাইনটিনের বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ফারুখ ফয়সল। বাংলা ট্রিবিউন পরিবারের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম বার্তা সম্পাদক তানজিমুল নয়ন, উপ-বার্তা সম্পাদক নূরুল হক, সিনিয়র সাব-এডিটর আবু তাহের টোটন, সিনিয়র রিপোর্টার গোলাম মওলা ও স্টাফ রিপোর্টার সাদ্দিফ অভি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন তন্ময় মজুমদার।

প্রসঙ্গত, মনসুর আলীর বাড়ি সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের কোটালপাড়ায়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে তিনি ঢাকায় এসে সরাসরি সাংবাদিকতায় যুক্ত হোন। তিনি ২০১৩ সালে অর্থসূচক ডটকম-এ কাজ করার মধ্য দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর ই-বার্তা ও টেকশহরে কিছুদিন কাজ করে দৈনিক ইত্তেফাকে যোগ দেন। ২০১৭ সালে তিনি বাংলা ট্রিবিউনে সাব-এডিটর (সহ-সম্পাদক) পদে যোগ দেন।


আরও পড়ুন:

বাংলা ট্রিবিউনের সাংবাদিক মনসুর আলীর মরদেহ উদ্ধার

 

/এসও/টিটি/এমওএফ/

লাইভ

টপ