পার্বত্য চট্টগ্রামের ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীকে রেড ক্রিসেন্টের আর্থিক সহায়তা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০২:৪৭, মে ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৫২, মে ৩১, ২০২০

রেড ক্রিসেন্ট-রেড ক্রসকরোনা পরিস্থিতিতে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলায় বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি (বিডিআরসিএস) ও আন্তর্জাতিক রেড ক্রস কমিটি (আইসিআরসি) ৮৫টি কমিউনিটি ও শহরাঞ্চলে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছে। ১৯ থেকে ২৪ মে বিডিআরসিএস এবং আইসিআরসি পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলার জনগোষ্ঠীর খাদ্য গ্রহণের মান উন্নয়নে ছয় হাজার পরিবারের ৩০ হাজার মানুষকে নিঃশর্ত ও এককালীন চার হাজার ৫০০ টাকার আর্থিক অনুদান দিয়েছে। শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশজুড়ে কোভিড-১৯ মহামারি অব্যাহত থাকায় দুর্গম এলাকায় বসবাসকারী মানুষ কাজের অভাবে তীব্র খাদ্য ঘাটতির মুখোমুখি হচ্ছে। ক্রমপরিবর্তনশীল এ পরিস্থিতি মোকাবিলায় ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর মানবিক সহায়তার প্রয়োজন। কোভিড-১৯ এর জরুরি পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য এ মানবিক সহায়তা তাদের খাবারে ইতিবাচক বৈচিত্র্য আনবে, পাশাপাশি এতে তাদের খাদ্যের গুণগত ও পরিমাণগত চাহিদাও মিটবে।

এই সহায়তার পাশাপাশি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারে পরিচ্ছন্নতাসামগ্রী (হাইজিন কিটস) দেওয়া হয়েছে, যেন কারাগারে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

এছাড়াও, বিডিআরসিএসের স্বেচ্ছাসেবীরা কারাগারে সংক্রমণ ও প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বাস্তবায়নে জেলা কারাগার কর্তৃপক্ষকে অব্যাহত সহায়তা দিয়ে আসছে। আইসিআরসির আর্থিক সহায়তায় বিডিআরসিএস তিন পার্বত্য জেলায় তিন হাজার পরিবারকে ফুড পার্সেল বিতরণ করেছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামে অব্যাহত মানবিক সহায়তার বিবরণ দিয়ে আইসিআরসি বাংলাদেশের ফিল্ড প্রোটেকশন ডেলিগেট লরা ডিসকিন বলেন, ‘আমরা পার্বত্য চট্টগ্রামে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্টের সঙ্গে নিবিড় অংশীদারিত্বের মাধ্যমে ২০১৪ সাল থেকে বাঙালি এবং ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য মানবিক সহায়তা কার্যক্রম চালিয়ে আসছি। এ মহামারির সময়ে আমাদের বৈচিত্র্যপূর্ণ বিভিন্ন সহায়তামূলক কার্যক্রম এ অঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ পরিবর্তিত পরিস্থিতি মোকাবিলায় সক্ষম হবে।’

/সিএ/জেএম/টিটি/

লাইভ

টপ