শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের নির্দেশনা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:১৯, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:২০, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

শিক্ষা মন্ত্রণালয়দেশে দ্বিতীয় দফা বন্যার সম্ভাবনা দেখা দেওয়ায় বন্যাপীড়িত মানুষের আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে বলেছে সরকার। পাশাপাশি বন্যাপীড়িতদের সহযোগিতা দিতে মাঠ পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়।
জরুরিভিত্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রয়োজনে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর মাঠ পর্যায়ের আঞ্চলিক পরিচালকদের কাছ থেকে অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত প্রতিষ্ঠানের তালিকা চাওয়া হয়েছে চিঠিতে। জরুরি ভিত্তিতে ইমেইলের মাধ্যমে সফট কপি পাঠাতে হবে।
জরুরি নির্দেশনায় বলা হয়, সম্ভাব্য বন্যার শুরুতেই দুর্গত এলাকার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট এলাকার জনসাধারণের অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য জরুরিভিত্তিতে খুলে দিতে হবে। আঞ্চলিক পরিচালকরা তাদের অধিক্ষেত্রের অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা সংশ্লিষ্ট জেলা শিক্ষা অফিসারদের মাধ্যমে সংগ্রহ করে ইমেইলে করবেন।
সম্ভাব্য বন্যাদুর্গত এলাকায় অবস্থিত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের অধীন সকল দফতর ও সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক. কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা স্থানীয় প্রশাসন/দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান করবেন।
বন্যার কারণে যদি কোনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাহলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলে দ্রুত সময়ের মধ্যে ছক মোতাবেক তথ্য সংগ্রহ করে আঞ্চলিক পরিচালকগণ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরে সফট কপি ইমেইলে পাঠানে।

/এসএমএ/এমআর/

লাইভ

টপ