করোনা দুর্যোগে চিকিৎসকরা ‘জাতীয় বীরের’ মর্যাদা প্রাপ্য: রব

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৩১, এপ্রিল ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৫, এপ্রিল ১৪, ২০২০

আসম আব্দুর রবকরোনাভাইরাসের দুর্যোগে যুদ্ধের সামনের ভাগে নিয়োজিত চিকিৎসকরা ‘জাতীয় বীরের’ মর্যাদা প্রাপ্য বলে মন্তব্য করেছেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) বিকালে এক বিবৃতিতে এই মন্তব্য করেন তিনি।

বিবৃতিতে রব ও দলের সাধারণ সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন তালুকদার বলেন, ‘করোনা যুদ্ধের সম্মুখ ভাগে আছেন চিকিৎসক ও চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট সব পেশার জনগণ।  দুর্যোগকালীন এই মুহূর্তে এদের মনোবল সমুন্নত রাখতে হবে। মুষ্টিমেয় কয়েকজন চিকিৎসকের ভুল বা অন্যায়ের জন্য পুরো চিকিৎসক সম্প্রদায়কে দায়ী করে, তাদের হতাশার গভীর খাদে ফেলে দেওয়া যাবে না। কারও কারও শাস্তি বা বরখাস্তের খড়গ জাতীয়ভাবে প্রচার করা এই সম্মুখ যোদ্ধাদের মনোবল ভেঙে দেওয়ার শামিল।’

তারা আরও বলেন, ‘একইভাবে বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার মতো কাল্পনিক আর হাস্যকর উদ্যোগের হুমকি দিয়ে তাদের হতাশ আর সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়াটা হবে আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। আমাদের উচিত যথাযথ সুরক্ষার ব্যবস্থা করে বৃহত্তর চিকিৎসক সমাজকে জাতির এই দুর্যোগে একাত্ম করা এবং জাতীয়ভাবে তাদের উৎসাহিত করা।’

করোনাভাইরাস সৃষ্ট মহামারির কারণে দেশ-জাতি এক অকল্পনীয় দুর্যোগের সম্মুখীন বলে দাবি করে জেএসডির এই শীর্ষ দুই নেতা বলেন, ‘এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য সরকারের একক প্রয়াস কখনও ফলপ্রসূ হবে না। এর জন্য প্রয়োজন সমাজের সব শ্রেণি, পেশা আর কর্মে নিয়োজিতদের সমন্বিত অংশগ্রহণ। এই উদ্যোগ নেওয়ার দায়িত্ব একান্তভাবে সরকারের।’

করোনাভাইরাস জনস্বাস্থ্য সম্পর্কিত বলে উল্লেখ করে রব ও ছানোয়ার বলেন, ‘সবার আগে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, চিকিৎসকদের পেশাগত সংগঠন (বিএমএ) এবং এ জাতীয় সবার প্রতিনিধিত্বশীল অংশগ্রহণের জন্য অনতিবিলম্বে জাতীয় প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হোক। জাতীয় নীতি প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় তাদের মতামত, অবদান আর কারিগরি জ্ঞানকে সম্পৃক্ত করা না গেলে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে আমাদের চলমান যুদ্ধে আমরা জয়ী হতে পারবো না।’

/এএইচআর/এপিএইচ/এমএমজে/

লাইভ

টপ