X
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩
১৭ মাঘ ১৪২৯

‘ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে রাজনৈতিক-সামাজিক শক্তির ঐকমত্য দরকার’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৭ জুলাই ২০২২, ১৮:১৪আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২২, ১৮:১৪

নির্বাচনকালীন সরকার এবং প্রশাসন দল নিরপেক্ষ না হলে কোনোভাবেই নির্বাচন সুষ্ঠু করা সম্ভব নয় বলে মনে করে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ। জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে সব রাজনৈতিক-সামাজিক শক্তি ঐকমত্য পোষণ করবেন বলেও আশা ব্যক্ত করেছে এই দল।

বুধবার (২৭ জুলাই) নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে অংশ নিয়ে দলটির পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্যে এ কথা বলা হয়। দলের সভাপতি  কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে ১৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে অংশ নেয়।

সংলাপে অংশ নিয়ে কাদের সিদ্দিকী তাদের (ইসি) বিরুদ্ধে বিমাতাসুলভ আচরণের অভিযোগ আনেন। কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘বিএনপি ও আওয়ামী লীগের জন্য ২ ঘণ্টা করে সময় বরাদ্দ এবং অন্য দলের জন্য একঘণ্টা সময় দেওয়ার সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষতা হারিয়েছে। বড় দল ছোট দল এভাবে বিভাজন ভোটার ও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বিমাতাসুলভ আচরণ।’

দলটি তার লিখিত বক্তব্যে বলেছে, আগের কমিশনগুলো সংলাপে অংশগ্রহণকারী রাজনৈতিক দল এবং জনগণের প্রত্যাশা পূরণে নিদারুণভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। রাকিব কমিশন উপহার দিয়েছে ১৫৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীহীন সংসদ সদস্য। নূরুল হুদা কমিশন নির্ঘুম নৈশ ভোটের প্রহসনের মাধ্যমে পুরো জাতি এবং গণতান্ত্রিক বিশ্বকে হতাশ করেছে। এ দুটো কমিশনই বিতর্কিত নির্বাচন আয়োজনে অতীতের সব রেকর্ড অতিক্রম করেছে।

স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও দেশের সাধারণ মানুষ ভোটারাধিকারসহ মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত উল্লেখ করে দলটির বক্তব্যে বলা হয়, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব প্রদানে আশায় বুক বেঁধেছিলাম। কিন্তু কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইসির অসহায়ত্ব এবং বিভিন্ন অসংলগ্ন কথাবার্তা দেশের মানুষকে করেছে বিস্মিত। ইভিএম নিয়ে নির্বাচন কমিশনের অতি উৎসাহ এবং অকল্পনীয় পুরস্কারের ঘোষণা ক্ষমতাসীনদের তল্পিবাহক হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যায়, যা জনগণকে ইতোমধ্যে নির্বাচন কমিশন সম্পর্কে সন্দিহান করে তুলেছে।

নতুন রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের ক্ষেত্রে যেসব শর্ত শিথিল করার পক্ষে অবস্থান ব্যক্ত করেছে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ।

দলের পক্ষে বলা হয়, হলফনামায় প্রার্থীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার বিবরণ দিয়ে জনসমক্ষে ‘ক্রিমিনাল’ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার দুরভিসন্ধি ও রাষ্ট্রকে বিরাজনীতিকরণের ষড়যন্ত্র থেকেই এ বিধানের উদ্ভব বলে আমরা মনে করি। জনগণের পক্ষে কর্মসূচি পালনকারী প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মী সবকালে, সব শাসক প্রার্থীর কোপানলে পড়ে অসংখ্য মিথ্যা মামলার মুখোমুখি হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানও প্রায় ১৫২টি ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন। আমাদের দেশের ত্যাগী রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যে এমন একজনকেও পাওয়া যাবে না, যে বা যারা ফৌজদারি মামলার আসামি হননি। তাই রাজনীতি ও রাজনৈতিক কর্মীদের হেয় করে এমন কোনও কর্মকাণ্ডে নির্বাচন কমিশনের সায় থাকা উচিত নয় বলে আমরা মনে করি।

জনতা লীগ বলেছে, হতাশার কালোমেঘ চারদিকে ছড়িয়ে থাকলেও আমরা আশায় বুক বাঁধতে চাই। তাই আশা করি, জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে সব রাজনৈতিক-সামাজিক শক্তি ঐকমত্য পোষণ করবেন এবং বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দলের বোধোদয় হবে এবং এদেশে আবারও একটি নিরপেক্ষ, নিরাসক্ত সর্বজনীন গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা সম্ভব হবে, অবসান ঘটাবে বিভক্তি আর পশ্চাৎপদতার।

/ইএইচএস/এপিএইচ/
সর্বশেষ খবর
সংবাদ প্রকাশের পর কুমিল্লার হাইওয়ে হোটেলে অভিযান
সংবাদ প্রকাশের পর কুমিল্লার হাইওয়ে হোটেলে অভিযান
ভাড়াটে খুনি দিয়ে ভাতিজাকে খুন করান সাইফুল
ভাড়াটে খুনি দিয়ে ভাতিজাকে খুন করান সাইফুল
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
শীতপ্রবণ তেঁতুলিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প
শীতপ্রবণ তেঁতুলিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প
সর্বাধিক পঠিত
এসআইবিএল থেকে মাহবুব-উল-আলমের পদত্যাগ
এসআইবিএল থেকে মাহবুব-উল-আলমের পদত্যাগ
এনআইডি’র সঙ্গে সমন্বয় করে পাসপোর্ট সমস্যা দ্রুত সমাধানের সুপারিশ
এনআইডি’র সঙ্গে সমন্বয় করে পাসপোর্ট সমস্যা দ্রুত সমাধানের সুপারিশ
রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে প্রস্তুত ন্যাটো?
রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে প্রস্তুত ন্যাটো?
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
আলাদা ইউনিট করে রাজউকই পূর্বাচলে নাগরিক সেবা দেবে
আলাদা ইউনিট করে রাজউকই পূর্বাচলে নাগরিক সেবা দেবে