X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

২৭ মাসের গেরো কাটাতে পারবে বাংলাদেশ?

আপডেট : ১৪ মে ২০২২, ২৩:৫৯

সময়ের হিসেবে পাক্কা ২৭ মাস! বাংলাদেশ দল ঘরের মাঠে টেস্ট জেতে না। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট জিতেছিল মুমিনুলরা। এরপর অনেকগুলো দিন পেরিয়ে গেলেও জয়হীন বাংলাদেশ। যদিও করোনার কারণে ১২ মাস মাঠের খেলা বন্ধ ছিল। করোনা কাটিয়ে উঠার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তানের বিপক্ষে চারটি টেস্ট খেলেও কোনটিতে জিততে পারেনি স্বাগতিকরা। ২৭ মাস পর ঘরের মাটিতে গেরো কাটানোর পাশাপাশি ৪ বছর ধরে চট্টগ্রামের মাটিতে জয়হীন বাংলাদেশ। রবিবার (১৫ মে) লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে এই ব্যর্থতার গেরো কী কাটাতে পারবে স্বাগতিকরা?

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে লঙ্কানদের বিপক্ষে মাঠে নামবে মুমিনুলের দল। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ম্যাচটি মাঠে গড়াবে সকাল দশটায়। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টেলিভিশন ও টি-স্পোর্টস।

চট্টগ্রামের মাঠে জয়হীন বাংলাদেশ জয়ের দেখা পেতে মরিয়া। অধিনায়ক মুমিনুল হক তো বলেই দিলেন, ‘আমি যখনই খেলি জেতার জন্য খেলি। আমি যদি প্রতিটি সেশন জিততে পারি, ১২-১৩ সেশন যদি জিততে পারি তাহলে ম্যাচ জিতবো। কোনও জায়গায় ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই। ব্যাটিং হোক বা বোলিং।’

দেশের বাইরে টেস্ট ক্রিকেট বাংলাদেশ সাম্প্রতিক সময়ে ভালো করলেও ঘরের মাঠে অতীত পরিসংখ্যান মোটেও সুখকর নয়। এমিনতেই ২৭ মাস ধরে ঘরের মাঠে জয়হীন বাংলাদেশের জহুর আহমেদের পরিসংখ্যানও হতাশাজনক। ২০১৮ সালে সর্বশেষ এই মাঠে জয়ের দেখা পেয়েছিল বাংলাদেশ। ওই বছর নভেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬৪ রানে হারিয়েছিল সাকিব-মুমিনুলরা। এরপর আফগানিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচেই হেরেছে স্বাগতিকরা। আফগানিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তো নিশ্চিত জয়ের ম্যাচ হারতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

সবমিলিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২২ টেস্ট খেলেও খুব বেশি সাফল্য নেই বাংলাদেশের। ১৭ ম্যাচ হেরে জয় মাত্র একটিতে, ২০১৭ সালে কলম্বোয় নিজেদের ঐতিহাসিক শততম টেস্টে। বাকি ৪টি ড্র। শ্রীলঙ্কার মাটিতে ২ ড্র, ১ জয় থাকলেও ঘরের মাটিতে লঙ্কানদের বিপক্ষে অধিকাংশ সময়ই হতাশা উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ দল। দেশের মাটিতে ৮ টেস্ট খেলে মাত্র দুইবার ড্র করতে পারলেও বাকি ৬ ম্যাচ হেরেছে স্বাগতিকরা। বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছিল ২০১৮ সালে। ঢাকায় হেরেছিল স্বাগতিকরা। দুই দল সর্বশেষ মুখোমুখি হয়েছিল শ্রীলঙ্কার পাল্লাকেল্লেতে। প্রথম টেস্ট ড্র করলেও দ্বিতীয় টেস্টে ভরাডুবি হয় স্বাগতিকদের। পুরনো সেই পরিসংখ্যান পাল্টে দিয়ে নতুন বিজয় নিশান উড়ানোর সুযোগ মুমিনুলদের।

অনুশীলনে শ্রীলঙ্কা

অধিনায়ক মুমিনুল অবশ্য অতীত মনে রাখতে চান না। রবিবারের নতুন ম্যাচে নতুন কিছু করার উদ্যাম নিয়ে মাঠে নামতে মুখিয়ে তিনি, ‘আগে কি হলো না হলো ওগুলো নিয়ে আপনি কখনও চিন্তা করতে পারবেন না। এই টেস্টে যারা পাঁচদিন আগ্রাসন দেখাতে পারবে, যারা নিজেদের পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারবে, যারা টানা ভালো বোলিং ও ব্যাটিং করতে পারবে তারাই জিতবে।’

সাগরিকার উইকেটে অনেকটাই ব্যাটিং বান্ধব। এখানে লঙ্কানদের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে রানের বন্যা বইয়েছিল। ওই টেস্টে মুমিনুল হকের ১৭৬ রানে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ করেছিল ৫১৩ রান। জবাবে তিন সেঞ্চুরিতে ৭১৩ রান করে ফেলে লঙ্কানরা। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ আরও ৩০৭ রান করার পর ড্র মেনে নেয় দুই দল। এবারও সাগরিকায় এমন রান প্রসবের উইকেটই হতে যাচ্ছে। বরাবরের মতো এবারও ব্যাটারদের লড়াই হতে চলেছে চট্টগ্রাম টেস্টে। তবে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে যথেষ্ট রান উঠাতে হলে দলের প্রাণভোমরা মুশফিক-মুমিনুল-সাকিবদের রান করার বিকল্প নেই। তারা ভালো না করলেও বরাবরের মতো কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হবে স্বাগতিকদের। মুশফিক-মুমিনুল দুইজনই বেশ কিছুদিন ধরেই আছেন রান খরায়। মুশফিক দক্ষিণ আফ্রিকাতে ভালো শুরু করেও ইনিংস বড় করতে পারেননি। অন্যদিকে মুমিনুল তো চার ইনিংসের একটিতেও ডাবল ফিগারে যেতে পারেনি। যদিও চট্টগ্রামের মাঠ মুমিনুলের জন্য পয়মন্ত ভেন্যু। নিজের ১১ সেঞ্চুরির নয়টিই পেয়েছেন এই মাঠে।

স্বাভাবিকভাবেই মুমিনুল আশা করতে পারেন এখানে রানে ফেরার। মুমিনুলের কথাতেও সেটা জানা গেলো, ‘আমি বিশ্বাস করি না আমি ব্যাড প্যাচের মধ্যে আছি। যদি বিশ্বাস করি তাহলে এটা থেকে বের হতে পারব না। আমার কাছে মনে হয় আমরা যেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছি, দলের ওপর অনেক আত্মবিশ্বাসী। সবাই সবার সেরা পারফরম্যান্স দেখাতে পারবো।’

চট্টগ্রাম টেস্টের আগে মুমিনুলদের জন্য বড় স্বস্তির খবর শেষ মুহূর্তে বাঁহাতি অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের অন্তর্ভুক্তি। সাকিব ৪ টেস্ট পর ফিরছেন দলে। সাকিবের অন্তর্ভুক্তি মানে দলে বাড়তি প্রেরণা, টিম কম্বিনেশন তৈরি করা সহজ হয়ে যাওয়া। রবিবারের ম্যাচে একাদশে ২ পেসার ও ৩ স্পিনার নিয়ে বিশেষজ্ঞ ৫ বোলার নিয়ে গড়া হতে পারে।

কম্বিনেশন যেমনই হোক মুমিনুল আশা করছেন সেশন বাই সেশন ভালো করে জয়ের পথটা তৈরি করা, ‘একেবারে পাঁচদিনের চিন্তা না করে যদি একদিন একদিন করে চিন্তা করেন তাহলে কাজটা সহজ হয়ে যায়। এগুলো নিয়ে এতো কথা বললে হিতে বিপরীত হয়ে যেতে পারে। এজন্য নিজেকে খুব স্বাভাবিক রাখতে পারলে ভালো।’

সাগরিকার ২২ গজে অতীত পরিসংখ্যান পাল্টে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পাবে-এমন আশাই ক্রিকেট সমর্থকদের। তবে সাফল্য পেতে দলগত পারফরম্যান্সের বিকল্প নেই স্বাগতিকদের। তামিম, সাকিব-মুমিনুল-মুশফিকদের কাঁধে কাঁধ মিলেয়ে তরুণ শরিফুল-লিটন-তাইজুল-নাঈমরা ভালো করলেই মিলবে সাফল্য, কাটবে ২৭ মাসের গেরো!

/এমআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয় সম্পৃক্ততার আহ্বান মোমেনের
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয় সম্পৃক্ততার আহ্বান মোমেনের
রাশিয়ার ছবি নির্বাচন করায় ইউক্রেনীয় পরিচালকের নিন্দা
কান উৎসব ২০২২রাশিয়ার ছবি নির্বাচন করায় ইউক্রেনীয় পরিচালকের নিন্দা
শিশুদের রক্ষায় জীবন বিলিয়ে দেন শিক্ষক ইরমা গার্সিয়া
যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে বন্দুক হামলাশিশুদের রক্ষায় জীবন বিলিয়ে দেন শিক্ষক ইরমা গার্সিয়া
বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য সম্পর্কের ভিত্তি রচনা করে গেছেন: স্পিকার
বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য সম্পর্কের ভিত্তি রচনা করে গেছেন: স্পিকার
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
‘ডি ভিলিয়ার্স যখন বলে সাকিবকে খেলা কঠিন, তার মানে সত্যি কঠিন’
‘ডি ভিলিয়ার্স যখন বলে সাকিবকে খেলা কঠিন, তার মানে সত্যি কঠিন’
ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা তাইজুলের
ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা তাইজুলের
অসাধারণ ব্যাটিংয়ের পুরস্কার পেলেন লিটন-মুশফিক
অসাধারণ ব্যাটিংয়ের পুরস্কার পেলেন লিটন-মুশফিক
বৃষ্টি আর শ্রীলঙ্কার লড়াইয়ে শেষ হলো তৃতীয় দিন
বৃষ্টি আর শ্রীলঙ্কার লড়াইয়ে শেষ হলো তৃতীয় দিন
একজন আউট হলেই ধস, মানতে পারছেন না সিডন্স
একজন আউট হলেই ধস, মানতে পারছেন না সিডন্স