শিরোপার আরও কাছে বায়ার্ন

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৩:৪৮, জুন ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৫৫, জুন ০৭, ২০২০

বায়ার্নের আরেকটি জয়বাকি আছে আর চারটি ম্যাচ। তা থেকে দুটি জয় পেলেই টানা অষ্টম লিগ শিরোপা ঘরে উঠবে বায়ার্ন মিউনিখের। বুন্দেসলিগায় আজ শনিবার বায়ার লেভারকুসেনকে ৪-২ গোলে হারিয়ে এই সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়েছে জার্মান চ্যাম্পিয়নরা।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে আগের ২১ ম্যাচে দুটি মাত্র পরাজয়, কিন্তু লেভারকুসেনের সঙ্গে এ ম্যাচ জিততে বায়ার্নের পরীক্ষাই হয়েছে প্রথমে পিছিয়ে পড়ায়। লুকাস আলারিওর গোলে এগিয়ে যাওয়া লেভারকুসেনের বিপক্ষে প্রথমার্ধেই গোল করে কিংসলি কোমান, লিওন গোরেৎস্কা ও সার্জে জার্নাব্রি বায়ার্নে স্বস্তি ফেরাতে অবশ্য দেরি করেননি। পরে তো রবার্ট লেভানডস্কি তার ৩০তম গোল করে লেভারকুসেনকে ফেরার সুযোগই দেননি আর।

নতুন কোচ ফ্লিকের হাত ধরে বায়ার্ন যেন উড়ছে। গত নভেম্বরে নিকো কোভাচের ছেড়ে যাওয়া আসনে বসে ২৬ ম্যাচে দুবার মাত্র হার দেখেছেন ফ্লিক। বুধবার অনুষ্ঠেয় জার্মান কাপের সেমিফাইনালেও তুলে নিয়েছেন দলকে, যেখানে প্রতিপক্ষ এইনট্রাখ্ট ফ্রাঙ্কফুর্ট।

আশাটা সুতোর ওপর ঝুলছে, তবুও দ্বিতীয় স্থানে থাকা বরুসিয়া ডর্টমুন্ড শিরোপা জয়ের সম্ভাবনা এখনও ধরে রেখেছে হার্থা বার্লিনকে ১-০ গোলে হারিয়ে। স্বাগতিকদের হয়ে গোলটি করেছেন সাবেক লিভারপুল মিডফিল্ডার এমরে চান।

আগের ১৪ ম্যাচে একটি মাত্র পরাজয়, ফর্মের তুঙ্গে থাকা এই বায়ার্নের বিপক্ষে ৯ মিনিটে প্রথম গোল করে চমকে দেন লেভারকুসেনের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার আলারিও। চোটের কারণে খেলতে না পারা কাই হ্যাভার্টজের বিকল্প হিসেবে নেমেছিলেন তিনি। তবে এই গোলটাই যেন খোঁচা দেয় বায়ার্নের অহমে, প্রথমার্ধেই একেক করে গোল করেন কোমান (২৭ মি.), গোরেৎস্কা (৪২ মি.) ও গার্নাব্রি (৪৫ মি.)। সাবেক আর্সেনাল মিডফিল্ডার গার্নাব্রির এই নিয়ে ১৯ গোল হলো মৌসুমে।

৬৬ মিনিটে হেডে মৌসুমের ৩০তম গোলটি করে হলুদ কার্ড দেখেছেন লেভানডস্কি। যার অর্থ মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে আগামী ম্যাচে খেলতে পারছেন না বহিষ্কৃত থাকায়, আর এটা গার্ড মুলারের রেকর্ড ভাঙাটাও খুব কঠিন করে তুলেছে তার জন্য। সামনে তিনটি মাত্র ম্যাচ, তা থেকে আরও ১১ গোল করতে পারবেন পোলিশ স্ট্রাইকার? জার্মান কিংবদন্তি মুলার বুন্দেসলিগার এক মৌসুমে করেছিলেন ৪০ গোল, যা আজও অমলিন রেকর্ড।

৮৯ মিনিটে বদলি নেমে গোল করেছেন লেভারকুসেনের ১৭ বছর বয়সী স্ট্রাইকার ফ্লোরিয়ান ভির্তজ। সান্ত্বনাসূচক গোল, কিন্তু বাঁ পায়ের বাঁকানো শটে যেভাবে ম্যানুয়েল নয়্যারকে পরাস্ত করেছেন, তা ছিল দেখার মতো।

৩০ ম্যাচ খেলে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বায়ার্ন । সাত পয়েন্টের ব্যবধান রেখেই দ্বিতীয় স্থানে ডর্টমুন্ড, সমান ম্যাচ থেকে যাদের অর্জন ৬৩ পয়েন্ট।

/পিকে/

লাইভ

টপ