ফুটবলে কেলেঙ্কারি: ৪৫ জন আজীবন নিষিদ্ধ, পাঁচ ক্লাবকে বহিষ্কার

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৩৬, জুলাই ০৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৬, জুলাই ০৪, ২০২০

আর্মেন মেলিকবেকিয়ান, সভাপতি এফএফএপাতানো খেলা, ঘুষ আর দুর্নীতিতে একেবারে নরক গুলজার অবস্থা হয়েছিল আর্মেনিয়ান ফুটবল লিগের দ্বিতীয় স্তরে। তদন্তে নেমে এসব দুনীর্তির প্রমাণ পেয়ে  তাৎক্ষণিকভাবে লিগ স্থগিত করার পাশাপাশি পাঁচটি দলকে বহিষ্কার করেছে আর্মেনিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (এফএফএ)। শুধু তাই নয়, ক্লাব মালিক থেকে শুরু করে খেলোয়াড়, কোচ ও খেলোয়াড় মিলিয়ে মোট ৪৫ জনকে ফুটবলে আজীবন নিষিদ্ধ করা হয়েছে, অন্য ১৩ জনকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বিভিন্ন মেয়াদে।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত এই দেশটির স্থানীয় সংবাদামাধ্যম জানিয়েছে রাশিয়ান পাসপোর্টধারী ক্লাব মালিক ও খেলোয়াড় এবং ইউক্রেনিয়ান, লাটভিয়ান ও বেলারুশিয়ান ফুটবলাররা আছেন নিষিদ্ধ তালিকায়। দ্বিতীয় বিভাগে লোকোমোটিভ ইয়েরেভান সমান পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে এফসি ভানের সঙ্গে। এই দুটি দলের সঙ্গে আরাগাতস, টর্পেডো ইয়েরেভান ও মাসিস অযোগ্য ঘোষিত হয়েছে। পাতানো খেলা নিয়ে সন্দেহ গাঢ় হয়েছিল যখন লিগে এই চার দলের সঙ্গে লোকোমোটিভের ফল হয় ১২-০, ০-১২, ১-৮, ৯-২, ০-৭, ০-৮ ও ৮-২।

এ বছর ফেব্রুয়ারিতে আর্থিক সমস্যাকে কারণ দেখিয়ে ২০১৯-২০ প্রিমিয়ার লিগ থেকে প্রত্যাহার করে দ্বিতীয় বিভাগেই খেলতে নামে এফসি ইয়েরেভান, তবে তাদেরও অংশগ্রহণ বাতিল হয়েছে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগে। ‘আন্তর্জাতিক সংস্থা ও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা কর্তৃক অকাট্য প্রমাণ পেয়ে এফএফএ এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে’- বিবৃতিতে বলেছেন এফএফএ সভাপতি আর্মেন মেলিকবেকিয়ান।

গত ডিসেম্বরে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ফেডারেশনে নির্বাচিত হয়ে আসেন মেলিকবেকিয়ান। দক্ষিণ ককেশাসের দেশটির ফুটবলে পাতানো খেলা ও দুর্নীতি বছরের পর বছর ধরে বড় খবর হয়ে আসছে সংবাদমাধ্যমে।

মেলিকবেকিয়ানের কণ্ঠে আবারও সব দুর্নীতি শিকড়সমতে উপড়ে ফেলার প্রতিশ্রুতি, ‘আমাদের লক্ষ্য হলো দুর্নীতি শিকড়সমেত উপড়ে ফেলা এবং আর্মেনিয়ার ফুটবল থেকে পাতানো খেলা চিরতরে দূর করা।’ 

/পিকে/

লাইভ

টপ