ফিফার বর্তমান সভাপতিকে বহিষ্কারের দাবি সাবেক সভাপতির

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:১২, জুলাই ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২১, জুলাই ৩১, ২০২০

সেপ ব্ল্যাটার ও জিয়ান্নি ইনফান্তিনো১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৫। দীর্ঘ ১৭ বছর ফিফা সাম্রাজ্যের অধিপতি ছিলেন সেপ ব্ল্যাটার। ঘুষ ও দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৫ সালে বহিষ্কৃত এই সাবেক ফিফা সভাপতি এবার আওয়াজ তুললেন বহিষ্কার করা হোক তার উত্তরসূরি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোকে। ব্ল্যাটার বর্তমান ফিফা সভাপতিকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন, কারণ তার বিরুদ্ধে  ফৌজদারি তদন্ত শুরু হয়েছে সুইজারল্যান্ডে।

সুইস কর্তৃপক্ষ গত বৃহস্পতিবার জানায় যে সুইস অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লাউবারের সঙ্গে ফিফা সভাপতি ইনফান্তিনোর সন্দেহজনক বৈঠকের কারণে দুজনের বিরুদ্ধেই ফৌজদারি তদন্ত শুরু করা হয়েছে। বিষয়টি দেখছেন একজন বিশেষ কৌসুলি। লাউবার এবং ইনফান্তিনো দুজনই অবশ্য দাবি করেছেন যে কোনও অন্যায় কাজ তারা করেননি।

‘আমার কাছে বিষয়টি পরিষ্কার যে মি. ইনফান্তিনোর বিরুদ্ধে এখনই ফিফার এথিকস কমিটি অভিযোগ দায়ের করুক এবং তাকে বহিষ্কার করা হোক’-সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন ব্ল্যাটার।

৮৪ বছর বয়সী সাবেক ফিফা সভাপতি নিজেই বহিষ্কৃত হয়েছেন, পরে তার বিরুদ্ধে সুইজারল্যান্ডে ফৌজদারি তদন্ত শুরু হওয়ায় ফিফার নৈতিকতা কমিটি (এথিকস) তাকে ২০১৫ সালে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। ব্ল্যাটারের বিরুদ্ধে তদন্ত এখনও শেষ হয়নি বলে এখনও অভিযোগ গঠিত হয়নি। তবে তার দাবি, কোনও অন্যায় তিনি করেননি।

ব্ল্যাটারের পর ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে ফিফার সভাপতি নির্বাচিত হন ইতালিয়ান বংশোদ্ভুত সুইস নাগরিক ইনফান্তিনো। যিনি ছিলেন উয়েফার সাধারণ সম্পাদক। তিন বছরের মেয়াদ শেষে ২০১৯ সালের জুনে ফুটবলের বিশ্ব সংস্থাটির প্রধান পদে পুননির্বাচিত হন তিনি।

ফিফা সভাপতি পদে বসার কয়েক মাসের মধ্যেই ইনফান্তিনো ফিফা এথিকস কমিটির আতস কাচের নিচে পড়ে যান ৫০ বছর বয়সী ইনফান্তিনো।

/পিকে/

লাইভ

টপ