টেস্টে ফেরার মিশনে মোস্তাফিজ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০৪, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১১, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০

পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের অধীনে কাজ করছেন মোস্তাফিজ২০১৯ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর ভারত, পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ লম্বা সংস্করণের সিরিজে খেললেও ছিলেন না বাঁহাতি এই পেসার। এই মুহূর্তে লাল বলের ক্রিকেটে নিজেকে ফিরে পাওয়ার চেষ্টায় তিনি। পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসনের পরামর্শ মেনে কাজ করে যাচ্ছেন ২৫ বছর বয়সী পেসার।

ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণে মোস্তাফিজের শুরুটা ছিল দুর্দান্ত। কিন্তু অল্প সময়ের ব্যবধানে এই ফরম্যাটে পড়ে গেছেন ‘বাতিলের খাতায়’। ভারতের বিপক্ষে জায়গা হয়নি। বাদ পড়েছিলেন পাকিস্তানের বিপক্ষেও। গত বিসিএলে ভালো করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট স্কোয়াডে জায়গা করে নিলেও একাদশে সুযোগ হয়নি তার। ওই সিরিজ শেষে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো স্পষ্ট বলে দিয়েছিলেন, টেস্টের জন্য প্রস্তুত নন মোস্তাফিজ, ‘আমি মনে করি, মোস্তাফিজ এখনও টেস্ট খেলার জন্য প্রস্তুত নয়। তাকে স্কোয়াডে রাখা হয়েছে। যাতে আমাদের নতুন বোলিং কোচের সঙ্গে টেকনিক্যাল বিষয়ে কাজ করার সময় ব্যয় করতে পারে সে।’

কোচের কথা অনুযায়ী, মোস্তাফিজ টেকনিক্যাল বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করেছেন। লকডাউন পরবর্তী সময়ে বোলিং কোচ গিবসনের পরামর্শ নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করে যাচ্ছেন। আজ (সোমবার) মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে মোস্তাফিজ বলেছেন, ‘করোনার আগে গিবসন (বোলিং কোচ) আমাকে কিছু গ্রিপ দেখিয়ে দিয়েছিলেন, কী করলে বল ভেতরে ঢুকবে। ওটা নিয়ে কাজ করেছিলাম, এখনও ভালো যাচ্ছে। আরও কাজ করতে হবে, ভালোভাবে কাজ করতে পারলে তাড়াতাড়ি আয়ত্ব করতে পারবো।’

মোস্তাফিজকে নিয়ে গুঞ্জন আছে, তিনি নাকি টেস্ট খেলতে চান না। আগেও অনেকবার এই গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। সোমবারও তার কথাতে পরিষ্কার, সব ফরম্যাট খেলতে কতটা মুখিয়ে অভিষেকে আলো ছড়ানো এই পেসার, ‘আমি তো চাই সব ফরম্যাটে খেলতে। এখন চেষ্টা করছি ফিটনেস বলেন, বোলিং স্কিল বলেন, কোন কাজগুলো করলে আমি সব ফরম্যাটে নিয়মিত হতে পারি সেগুলো করার।’

টানা তিন মাস ঘরে থাকার পর মাঠে ফিরে নিজের অনুশীলন প্রক্রিয়া সম্পর্কে ধারণা দিলেন মোস্তাফিজ এভাবে, ‘আমি ঢাকা এসেছি এক মাস ৫ দিন হলো। প্রথমে শর্ট রানআপে, দুই তিন স্টেপে বোলিং করেছি, বাড়িতেও করেছি। এখানে আসার পর আবার প্রথম থেকে শুরু করলাম। একজন ব্যাটসম্যান ব্যাটিং করবে, দুইজন বোলার বল করবে, এভাবে শুরু হয়। এখন ওভার অল সবকিছু ভালোই যাচ্ছে।’

১৯৩ দিন পর রবিবার থেকে দলীয় অনুশীলনে ফিরেছে বাংলাদেশ দল। দলীয় অনুশীলন কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটাই জানালেন মোস্তাফিজ, ‘বাড়িতে অনুশীলনের ব্যাপারটা অন্যরকম। বাইরে যতই করেন না কেন (একক অনুশীলন) দলীয়ভাবে অনুশীলন করাটা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়। বাড়িতে আমরা সবাই কমবেশি কাজ করেছি। এখানে শুরুতে কষ্ট হচ্ছিল। তবে এখন খুব ভালো যাচ্ছে।’

/আরআই/কেআর/

লাইভ

টপ
X