X
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২
১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

তাইওয়ানে ৬০ হাজার ডলার জিতে যা বললেন সিদ্দিকুর

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৩ অক্টোবর ২০২২, ২০:৫৯আপডেট : ০৩ অক্টোবর ২০২২, ২০:৫৯

গেলো কয়েক বছরে আন্তর্জাতিক স্তরে তেমন সাফল্য নেই। সবশেষ ২০১৯ সালে সিদ্দিকুর রহমান এশিয়ান ট্যুরের তাইওয়ান মাস্টার্সে হয়েছিলেন পঞ্চম। এবার দীর্ঘদিন পর চিরচেনা ফর্মে ফিরতে শুরু করেছেন দেশসেরা গলফার। এশিয়ান ট্যুরের আসর ‘মারকারি ওপেনে’ তৃতীয় হয়েছেন বাংলাদেশের গলফের পোস্টার বয়। তাইওয়ানে এমন সাফল্যের পর পেয়েছেন ৬০ হাজার ডলারও।

তাইওয়ানে সাফল্য পেয়ে যেন নতুন করে জ্বলে ওঠার রসদ পেলেন ৩৭ বছর বয়সী গলফার। এ বছর এশিয়ান ট্যুরের আরও তিনটি টুর্নামেন্ট আছে। মিশর ও মরক্কোর পাশাপাশি বাংলাদেশেও খেলতে হবে। পরের তিনটি টুর্নামেন্টে আরও ভালো ফল করার দিকে দৃষ্টি সিদ্দিকুরের। ব্যাংকক থেকে দেশে ফেরার মাঝে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অনেক দিন পর আমি সাফল্য পেয়েছি। মাঝে ফলাফল ভালো হচ্ছিল না। এখন সামনের টুর্নামেন্টগুলোতে আরও ভালো করার জন্য চেষ্টা করতে হবে। আর এই প্রাইজমানি পাওয়াতে সামনের দিকের টুর্নামেন্ট খেলতে সহায়ক হবে। নির্ভার হয়ে খেলতে পারবো।’

রবিবার (২ অক্টোবর) তাইওয়ানের গলফ অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাবে চতুর্থ রাউন্ডে নির্ধারিত পারের চেয়ে এক শট কম খেলেন সিদ্দিকুর। সব মিলিয়ে পারের চেয়ে ৯ শট কম খেলে সারিত সুভানারুতের সঙ্গে যৌথভাবে তৃতীয় হন তিনি।

এবারের তাইওয়ান মাস্টার্সের আগে এশিয়ান র‌্যাংকিংয়ে সিদ্দিকুর ছিলেন ৬৭ নম্বরে। এ বছর সেরা ৬০ এর মধ্যে থাকতে না পারলে আগামী বছর যে বাছাই পর্ব খেলতে হতো। তবে তাইওয়ানে সেরা তিনে থেকে খেলা শেষ করতে পারায় সেই দুশ্চিন্তা নেই।

এশিয়ান র‌্যাংকিংয়েও এখন উঠে এসেছেন ৩৭ নম্বরে। সিদ্দিক যেন নতুন করে আলোর দিশা খুঁজে পেয়েছেন, ‘কয়েক বছর ধরে নিজের মতো করে ফল হচ্ছিল না। আমার নিজের মধ্যেও একধরনের শঙ্কা তৈরি হচ্ছিল। বিশেষ করে এশিয়ান ট্যুর কার্ড না মিস করে ফেলি! তবে আশার কথা তা হয়নি। তাইওয়ানে ভালো কিছুই হলো। নতুন করে আত্ববিশ্বাস ফিরে পেয়েছি। আগামী বছরও সরাসরি এশিয়ান ট্যুরে খেলতে পারবো।’

দেশে ফিরে স্থানীয় একটি টুর্নামেন্ট খেলবেন সিদ্দিকুর। তারপর ঝাঁপিয়ে পড়বেন এশিয়ান ট্যুরের আসরগুলোতে।

/টিএ/এপিএইচ/
প্রতিটির হিসাব নিচ্ছি, সাজানো মামলা দেবেন না: মির্জা ফখরুল
নয়া পল্টনেই অনুমতি দিতে হবেপ্রতিটির হিসাব নিচ্ছি, সাজানো মামলা দেবেন না: মির্জা ফখরুল
ছেলে-পুত্রবধূ-নাতির বিরুদ্ধে শয্যাশায়ী বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
ছেলে-পুত্রবধূ-নাতির বিরুদ্ধে শয্যাশায়ী বৃদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ
নালিয়ার দোলায় হচ্ছে কুড়িগ্রাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
নালিয়ার দোলায় হচ্ছে কুড়িগ্রাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
সর্বাধিক পঠিত
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!
রিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
ইসলামী ব্যাংকের ৩০ হাজার কোটি টাকা ঋণরিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা