X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

নারী নির্যাতন ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে কাজ করতে আগ্রহী রিমু

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৬:২৫

রিমা সুলতানা রিমু

বিবিসি বাংলায় ১০০ নারীর তালিকায় স্থান পাওয়া কক্সবাজারের রামুর মেয়ে রিমা সুলতানা রিমু নারী নির্যাতন ও বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে কাজ করতে আগ্রহী। কক্সবাজারের একটি অনগ্রসর এলাকার এই মেয়ে বিবিসি বাংলার ১০০ নারীর তালিকায় আসায় উচ্ছ্বাসিত এলাকাবাসী ও তার সহকর্মীরা।

রিমা সুলতানা রিমু বলেন, ‘সারাদেশে নারী নির্যাতন ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ করতে হলে যুব নারীদের এগিয়ে আসতে হবে। যেখানে নারীর ওপর সহিংসতা দেখা দেবে সেখানে সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ করতে হবে। একজন নারী হিসাবে আমার খুব আগ্রহ নারীদের নিয়ে কাজ করা।’

রিমু বলেন, ‘আমি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করতে গিয়ে খুব কাছ থেকে দেখেছি নারীর প্রতি বৈষম্যগুলো। এজন্য নারীদের শিক্ষায় শিক্ষিত করে নারী সমাজের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। এ কাজে মাঠে থাকায় আমি আমার ‘জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থা’সংগঠনের সবার প্রতি এ জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এ স্বীকৃতি ভবিষ্যতে আমাকে সৃজনশীল ও মানবিক কাজে অনুপ্রেরণা যোগাবে। মানুষের কল্যাণে মানুষকেই ভূমিকা রাখতে হবে। ভালো কাজে যুব সমাজ যেন হাল ছেড়ে না দেয়। চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য সব সময় নিজেদের প্রাণান্তর প্রচেষ্টা থাকতে হবে।’

রিমুর বান্ধবী উম্মে সালমা বলেন, ‘রিমুর এই সাফল্যে আমি গর্বিত। আমি চাই রিমুর সাথে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করতে। রিমুর এই সাফল্য আমাদের নারী সমাজের মধ্যে মাইলফলক হয়ে থাকবে’।

জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক শিউলী শর্মা জানিয়েছেন- ‘রিমুর এ সফলতায় পুরো জাগো নারী পরিবার আনন্দিত ও গর্বিত।

বাংলা ট্রিবিউন প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলছেন রিমা সুলতানা রিমু।

জাতিসংঘের গার্লস অ্যাম্বাসেডর নির্বাচনের জন্য রামু ও উখিয়া উপজেলার ৩০ জন সেচ্ছাসেবী কিশোরী প্রশিক্ষণে অংশ নেন। এরমধ্যে রিমা সুলতানা রিমু সর্বাধিক কর্মদক্ষতা, মেধার স্বাক্ষর রেখে জাতিসংঘের গার্লস অ্যাম্বাসেডর নির্বাচিত হন। রিমু রোহিঙ্গা নারী-শিশুদের শিক্ষার প্রসার, নারী অধিকার বাস্তবায়ন, সমাজ উন্নয়ন ও সচেতনতামূলক কর্মকাণ্ডে প্রশংসনীয় অবদান রেখেছেন। যার স্বীকৃতি আজ বিশ্ববাসী দেখছে।’

কয়েকবছর ধরে রিমা সুলতানা রিমু রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিস্থিতি মোকাবেলায় মানবিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা, রোহিঙ্গা শরণার্থী নারী ও শিশুদের শিক্ষার প্রসার, লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণ, বয়সভিত্তিক স্বাক্ষরতা কার্যক্রম পরিচালনা, রেডিও ব্রডকাস্ট ও থিয়েটার পারফরম্যান্সের মাধ্যমে শান্তি, নিরাপত্তা ও নারীর অগ্রগতি বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করে চলেছেন।

২০১৯ সালে রিমু জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থায় দায়িত্ব পালনকালে জাতিসংঘের মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের গার্লস অ্যম্বাসেডর নির্বাচিত হন। রিমু কক্সবাজার ভিত্তিক ইয়াং উইমেন লিডার্স ফর পিস এর একজন সদস্য। রিমু গ্লোবাল নেটওয়ার্ক অফ উইমেন পিসবিল্ডার্স এর সক্রিয় কর্মী হিসেবে সংঘাতসঙ্কুল দেশ থেকে আসা কিশোরীদের কল্যাণে কাজ করছেন।

রিমু কক্সবাজারের রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নের পশ্চিম সিকদার পাড়া এলাকার কৃষক আবদুর রহিম ও গৃহিনী খালেদা বেগমের মেয়ে। এবারে তিনি কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি ফলপ্রার্থী।

/টিএন/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
চাকরি গেলো পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের
শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি মামলাচাকরি গেলো পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর মেয়ের
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন জালিয়াতি, পাঁচ শিক্ষকসহ আটক ১৩
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন জালিয়াতি, পাঁচ শিক্ষকসহ আটক ১৩
আম পাড়তে নিষেধ করায় পিটিয়ে হত্যা
আম পাড়তে নিষেধ করায় পিটিয়ে হত্যা
‘সাংবাদিকদেরও দায়বদ্ধতা আছে’
‘সাংবাদিকদেরও দায়বদ্ধতা আছে’
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত