X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

‘অভিযোগ করলে গুম করে ফেলবো’

আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০১৬, ২২:৪৪







‘তোর দেমাগ বেশি। তোকে ক্যাম্পাসে বিবস্ত্র করবো। বিবস্ত্র করে ঝাল তুলবো, তোকে ক্যাম্পাসে পেটাবো। কারও কাছে কোনও অভিযোগ করলে গুম করে ফেলবো।’ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের নবম ব্যাচের এক ছাত্রীকে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের দুই নেতা এসব কথা বলেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ওই দুই নেতা হচ্ছেন, বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও লোক প্রশাসন বিভাগের সপ্তম ব্যাচের ছাত্র জসিম উদ্দিন এবং একই হলের প্রচার সম্পাদক অর্থনীতি বিভাগের অষ্টম ব্যাচের ছাত্র মাসুদ আলম। যদিও তারা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
হুমকির বিষয়ে দুই ছাত্রের বিরুদ্ধে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন ওই ছাত্রী।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার ওই ছাত্রী বাড়ি যাওয়ার জন্য নওয়াব ফয়জুন্নেছা হল থেকে বের হয়। হল গেটে রিকশার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় জসিম উদ্দিন ও মাসুদ আলম তার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে বাজে কথা বলে। প্রতিবাদ করলে তারা অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে বলেন, 'তোর দেমাগ বেশি। তোকে ক্যাম্পাসে বিবস্ত্র করবো। বিবস্ত্র করে তোর ঝাল তুলবো, তোকে ক্যাম্পাসে পেটাবো। কারও কাছে কোনও প্রকার অভিযোগ করলে তোকে গুম করে ফেলবো।’
এতে ওই ছাত্রী নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন দাবি করে দোষীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য প্রক্টরের কাছে আবেদন করেন।
এ বিষয়ে ওই ছাত্রীর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘যেসব বাজে কথা আমাকে ওরা বলেছে তার একটুমাত্র উল্লেখ করেছি। সব কথা উল্লেখ করতে নিজেরও লজ্জা লাগে। বৃহস্পতিবার আমাকে ও তাদের দুইজনকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ডেকেছিল। তারা সেখানে বলেছেন, আমার সঙ্গে নাকি তাদের দেখাই হয়নি।’
ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে অভিযুক্ত জসিম উদ্দিনকে পাওয়া যায়নি।
মাসুদ আলম বলেছেন, ‘ওর সঙ্গে আমাদের কোনও কথাই হয়নি। এটা আমাদের বিরুদ্ধে একটা পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র।'
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মো. আইনুল হক বলেন, ‘ওই ছাত্রীর লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমরা অভিযুক্তদের বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছি। তাদের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

/বিটি/এসটি/

সম্পর্কিত

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৩১

নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে দুবলার চরের শুটকি মৌসুমের শুরু। উপকূলের জেলেপল্লিগুলোতে চলছে শেষ মুহূর্তের ব্যস্ততা। সাগরে যেতে যে যার মতো প্রস্তুত করছেন জাল, দড়ি, নৌকা-ট্রলার। কেউ কেউ গড়ছেন নতুন ট্রলার, আবার কেউ পুরাতনটিকে মেরামত করে নিয়েছেন। সাগরে যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়ে ইতোমধ্যে অনেকে চলে এসেছেন মোংলা ও পশুর নদীতে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বনবিভাগের পাস নিয়েই তারা রওনা হচ্ছেন সাগর পাড়ের দুবলার চরে। সাগরে এখন আর দস্যুদের উৎপাত না থাকলেও ঝড়-জলোচ্ছ্বাসে প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতির ঝুঁকি মাথায় নিয়েই দুবলায় যাত্রা শুরু করেছেন জেলেরা।

বঙ্গোপসাগর পাড়ে সুন্দরবনের দুবলার চরে ১ নভেম্বর থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত শুটকি মৌসুমে ব্যস্ত সময় পার করবেন জেলেরা। টানা পাঁচ মাস সেখানে থাকতে হবে জেলেদের। তাই সাগর পাড়ে গড়তে হবে অস্থায়ী থাকার ঘর, মাছ শুকানোর চাতাল ও মাচা। সেসব তৈরিতে ব্যবহার করা যাবে না সুন্দরবনের কোনও গাছপালা-লতাপাতা। তাই বনবিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী চরের উদ্দেশে যাত্রার প্রস্তুতি নেওয়া জেলেরা তাদের ট্রলারে করে সঙ্গে নিয়ে যাচ্ছেন প্রয়োজনীয় সামগ্রী। আর এ সব প্রস্তুতে ব্যস্ত সময় পার করছেন বাগেরহাটসহ উপকূলের কয়েক জেলার জেলে-মহাজনেরা। যাওয়ার পথে সুন্দরবনের কোনও নদী-খালে প্রবেশ ও অবস্থান করতে পারবেন না সমুদ্রগামী এ জেলেরা। এছাড়া দুবলার চরে অবস্থানকালে সাগর ছাড়া সুন্দরবনের খালে প্রবেশ ও সেখানে মাছ ধরতেও রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। 

জাতীয় মৎস্যজীবী সমিতির মোংলা শাখার সভাপতি বিদ্যুৎ মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক মো. জালাল শেখ বলেন, এবার দুবলার চরে শুটকি করতে মোংলার আড়াইশ’ থেকে তিনশ’ ট্রলারে জেলেরা যাচ্ছেন। ওই সব ট্রলারে জেলেরা এখান থেকে সব ধরনের সরঞ্জাম নিয়ে যাচ্ছেন। 

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, শুটকি মৌসুমকে ঘিরে এবারও উপকূলের বিভিন্ন এলাকার প্রায় ১০ হাজার জেলে সমবেত হবেন দুবলার চরে। আর এ মৌসুমেও দুবলার চরের যাচ্ছে প্রায় দেড় হাজার মাছ ধরার ট্রলার। ট্রলার নিয়ে গভীর সাগর থেকে আহরিত বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বাছাই করে শুটকি করবেন তারা। এ বছরও চরে জেলেদের থাকা ও শুটকি সংরক্ষণের জন্য ঘর এবং ডিপো স্থাপনের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। দুবলার চরে জেলেদের নিরাপত্তায় বনবিভাগের পাশাপাশি থাকবে র‌্যাব ও কোস্ট গার্ডের টহল।

তিনি আরও বলেন, গত শুটকির মৌসুমে দুবলার চর থেকে বনবিভাগের রাজস্ব আদায় হয়েছিল তিন কোটি ২২ লাখ টাকা। এবারও আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে সমপরিমাণ কিংবা তার চেয়েও বেশি রাজস্ব আদায় সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।

দুবলা ফিসারম্যান গ্রুপের নেতা কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, বঙ্গোপসাগর ও সুন্দরবনে এখন আর দস্যুতার ভয় নেই। তাই অনেকটা স্বস্তি নিয়েই সাগরে যাচ্ছেন জেলেরা। আবহাওয়া ভালো থাকলে লাভের পাল্লা ভারী করেই মৌসুম শেষে বাড়িতে ফিরতে পারবেন উপকূলীয় বিভিন্ন এলাকার এ জেলে-বহাদ্দাররা।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বাড়ির পাশে ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

বাড়ির পাশে ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:২৮

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের শীর্ষনেতা মো. মুহিবুল্লাহকে হত্যায় অংশ নেওয়া তিন জনের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহাং হেলাল উদ্দিনের আদালত এই আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাউদ্দিন জানান, গত শনিবার ভোরে মুহিবুল্লাহ কিলিং স্কোয়াডের সদস্যসহ চার জনকে আটক করে। সেখান থেকে কিলিং স্কোয়াডের টপ-৫ এর একজন আজিজুল হক হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন।

মুহিবুল্লাহকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিল রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের শীর্ষ নেতারা

অপর তিন জন কুতুপালং ক্যাম্প-১ এর ডি ৮ ব্লকের আব্দুল মাবুদের ছেলে মোহাম্মদ রশিদ প্রকাশ মুরশিদ আমিন, একই ক্যাম্পের বি ব্লকের ফজল হকের ছেলে মোহাম্মদ আনাছ ও নুর ইসলামের ছেলে নুর মোহাম্মদ। তাদেরকে সোমবার আদালতে পাঁচ দিন করে রিমান্ড আবেদন করা হয়। পরে আজ রিমান্ড আবেদন শুনানি শেষে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

২ মিনিটেই শেষ মুহিবুল্লাহ কিলিং মিশন, অংশ নেয় ১৯ জন

গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প-১ ইস্ট-ওয়েস্ট (ডি ব্লকে) নিজ অফিসে অবস্থান করছিলেন মুহিবুল্লাহ। এ সময় তাকে গুলি করে হত্যা করে বন্দুকধারীরা। এখন পর্যন্ত এ হত্যা মামলায় নয় জনকে গ্রেফতার করা হয়। তার মধ্যে মোহাম্মদ ইলিয়াছ নামে একজন ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে ফের পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:৪৫

পদ্মা নদীতে স্রোতের বেগ কিছুটা কমায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে আবারও পরীক্ষামূলক ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পরীক্ষামূলক ফেরিটি মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ঘাট ছেড়ে যায়।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. ফয়সাল জানান, ফেরি কুঞ্জলতা সফলভাবে নদীর এক পাড় থেকে অন্য পাড়ে যাওয়া-আসার পর ফেরি চলাচলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে কর্তৃপক্ষ।

ফেরি কুঞ্জলতা সকালে ছয়টি ছোট গাড়ি ও ৩০টি মোটরসাইকেল নিয়ে বাংলাবাজার ঘাটে গিয়েছে। তবে, এখনও শিমুলিয়া ঘাটে ফিরে আসেনি বলে জানান তিনি।

পদ্মা নদীতে স্রোতের বেগ বাড়ায় দুর্ঘটনা এড়াতে গত ১১ অক্টোবর থেকে এই রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ আছে। এর আগে জুলাই ও আগস্টে চারটি ফেরি পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা দেওয়ার পর ১৮ আগস্ট থেকেঅনির্দিষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ রাখে কর্তৃপক্ষ। ৪৭ দিন বন্ধ থাকার পর গত ৪ অক্টোবর শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে দিনে ৫টি ফেরি চলাচল শুরু হয়েছিল।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

ডোবার পানিতে ঠান্ডা হতো মিষ্টির ছানা

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩২

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলায় জবা খাতুন নামে (৭০) এক বৃদ্ধাকে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকালে উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের চাঁন্দলা গ্রামে উত্তরপাড়ায় বসতঘর থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। জবা খাতুন ওই গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের স্ত্রী।

জবা খাতুনের মেয়ের জামাই শাহ আলম জানান, দুই দিন আগে আমাদের বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে আসেন। আজ সকাল সাড়ে ৭টায় আমার শ্যালক মোবাইল ফোনে জানান, তাকে জবাই করে হত্যা করেছে ডাকাতরা। খরর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে এই হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু বিচার চাই।

নিহতের দেবর অলি উল্লাহ বলেন, সকালে জবা খাতুনের পুত্রবধূ ঘরে নাস্তা দিতে গিয়ে রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে চিৎকার দিলে আমরা ঘটনাস্থলে আসি। এ সময় ঘরের আসবাবপত্র এলোমেলো অবস্থায় পড়েছিল। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। জবা খাতুন অসুস্থ ছিলেন।

নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল খায়ের বলেন, নিজ ঘরে বৃদ্ধা একাই ছিলেন। গলা ও মুখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনার পর দরজা-জানালা খোলা ছিল। দুর্বৃত্তরা কিছু ভেঙে ঘরে প্রবেশ করেছে এমন আলামত পাওয়া যায়নি। লাশ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও বলেন, ঘটনাটি রহস্যজনক। ধারণা করা হচ্ছে, রাতে কোনও এক সময় এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ডাকাতি নাকি অন্যকিছু তা তদন্ত ছাড়া বলা যাবে না।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

বাড়ির পাশে ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

বাড়ির পাশে ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০

দেশের বাজারে চাহিদা থাকায় এবং অন্য বন্দরের তুলনায় সময় কম লাগায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে সম্প্রতি ভারত থেকে শুকনা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হচ্ছে এসব মরিচ। 

বন্দর দিয়ে শুকনা মরিচের আমদানি বাড়ছে। এতে সরকারের রাজস্ব যেমন বাড়ছে তেমনি বন্দর কর্তৃপক্ষের আয়ও বেড়েছে। তবে পণ্যজট কাটিয়ে দ্রুত শুকনা মরিচের ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করতে পারলে আমদানি আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

হিলি স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নুর-এ আলম সিদ্দিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেশের বাজারে ভালো চাহিদা থাকায় ও দাম ভালো পাওয়ায় হিলি বন্দর দিয়ে ভারত থেকে শুকনা মরিচ আমদানি হচ্ছে। বগুড়া, ঢাকা ও চট্টগ্রামের আমদানিকারকরা এসব মরিচ আমদানি করছেন। কাস্টমস থেকে পণ্য ছাড়করণের কার্যক্রম সম্পন্ন করা হচ্ছে। কাস্টমসের নির্ধারিত স্লাব অনুযায়ী ১০ চাকার ট্রাকে ১৫ টন, আর ১২ চাকার ট্রাকে ২০ টন করে শুকনা মরিচ আমদানি হচ্ছে। প্রতিটন শুকনা মরিচ এক হাজার ৬০০ মার্কিন ডলার মূল্যে আমদানি করা হচ্ছে, যা একই মূল্যে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ শুল্কায়ন করছে। এতে কেজি প্রতি শুকনা মরিচের শুল্ক বাবদ পরিশোধ করতে হচ্ছে ২১ টাকা।

তিনি আরও বলেন, মূলত শুকনা মরিচ ভোমরা স্থলবন্দর দিয়েই বেশি আমদানি হয়। কিন্তু সম্প্রতি ওই বন্দরে সিন্ডিকেট করায় শুকনা মরিচের ট্রাক প্রবেশ করতে ২০ থেকে ২৫ দিন লাগছে। এ কারণে ট্রাকগুলোর ভাড়া হিসেবে বাড়তি টাকা লোকসান হিসেবে গুনতে হচ্ছে। এর ওপর গাড়িপ্রতি বেশি টাকা চাঁদা দিতে হয়। তাই আমদানিকারকরা হিলি স্থলবন্দর দিয়ে শুকনা মরিচ আমদানি করছেন।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা এসএম নুরুল আলম খান বলেন, অর্থবছরের প্রথম মাস (জুলাই) থেকে শুরু করে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত বন্দর দিয়ে ৭৫০ টন শুকনা মরিচ আমদানি হয়েছে, যা থেকে রাজস্ব বাবদ আয় হয়েছে এক কোটি ৫৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দুই দেশের মাঝে পণ্য আমদানি-রফতানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রয়েছে। বন্দর দিয়ে অন্যান্য পণ্যের পাশাপাশি সম্প্রতি নতুন করে শুকনা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। এতে বন্দর থেকে সরকারের রাজস্ব আয় যেমন বেড়েছে, তেমনি বন্দর কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিকদের দৈনন্দিন আয়ও বেড়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

নিজ ঘরে পড়েছিল বৃদ্ধার গলাকাটা লাশ

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেলো চালকদের 

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

সর্বশেষ

‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ’

‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ’

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

ম্যারাডোনা কাপে খেলবে বার্সা-বোকা

ম্যারাডোনা কাপে খেলবে বার্সা-বোকা

© 2021 Bangla Tribune