X
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

খুলনা বিভাগে ১৫ দিনে করোনা শনাক্ত বেড়েছে ৭২ শতাংশ

আপডেট : ৩১ মে ২০২০, ১৮:০৩

খুলনা বিভাগ খুলনা বিভাগে গত ১৬ মে পর্যন্ত করোনা শনাক্ত ছিল ৩০১ জন। ১৫ দিন পর ৩১ মে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫১৯ জনে। ১৫ দিনেই এ বিভাগে ২১৮ জন নতুন করে করোনা  শনাক্ত হয়েছেন অর্থাৎ শনাক্ত বৃদ্ধির হার ৭২ দশমিক ৪২ শতাংশ।

গত ১৬ মে করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ ছিল ৮৯ জন (হার ২৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ)। আর ৩১ মে সুস্থ হয়েছেন ২৩০ জন (হার ৪৪ দশমিক ৩১ শতাংশ)। এই হিসেবে ১৫ দিনে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেড়েছে ১৪১ জন। অর্থাৎ শতকরা হিসেবে ১৫ দিনে ১৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়েছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় থেকে পাওয়া করোনা বিষয়ক প্রতিবেদনে এ চিত্র দেখা গেছে।

প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ৩১ মে পর্যন্ত এ বিভাগে করোনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৯২ শতাংশ এবং সুস্থতার হার ৪৪ দশমিক ৩১ শতাংশ। আর আক্রান্তের হার ৩ দশমিক ৬৬ শতাংশ। গত ১৬ মে পর্যন্ত এ বিভাগে মৃত্যু হার ছিল এক দশমিক ৯৯ শতাংশ, সুস্থতার হার ছিল ২৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ এবং আক্রান্তের হার ছিল ৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ। পাশাপাশি জাতীয়ভাবে ৩১ মে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, দেশে মৃত্যুর হার এক দশমিক ৩৮ শতাংশ, সুস্থতার হার ২০ দশমিক ৭৪ শতাংশ এবং আক্রান্তের হার ৫ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক রাশিদা সুলতানা জানান, ৩১ মে পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন ৫১৯ জন। আর মারা গেছেন ১০ জন। এর মধ্যে যশোরে সর্বোচ্চ ১০৪ জন পজিটিভ, চুয়াডাঙ্গায় ৯০ জন, খুলনায় ৭৮ জন ও ৪ জনের মৃত্যু, কুষ্টিয়ায় ৫৮ জন, ঝিনাইদহে ৪৯ জন, সাতক্ষীরায় ৪৫ জন, বাগেরহাটে ২৮ জন ও ২ জনের মৃত্যু, মেহেরপুরে ২৪ জন ও ২ জনের মৃত্যু, নড়াইলে ২২ জন ও একজনের মৃত্যু এবং মাগুরায় ২১ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়।

 ৩১ মে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টায় ১৯ জন পজিটিভ শনাক্ত এবং দুই জন মারা গেছেন। এর মধ্যে খুলনায় দুই জন পজিটিভ ও একজনের মৃত্যু, সাতক্ষীরায় ৫ জন পজিটিভ, যশোরে ৪ জন পজিটিভ, কুষ্টিয়ায় একজন পজিটিভ এবং মেহেরপুরে সাত জন পজিটিভ ও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় থেকে গত ১৬ মে প্রকাশিত প্রতিবেদনে মোট আক্রান্ত ছিল ৩০১ জন ও মৃত ছিল ৬ জন। এর মধ্যে যশোরে ছিল সর্বোচ্চ ৯০ জন পজিটিভ, চুয়াডাঙ্গায় ৭৮ জন ও একজনের মৃত্যু, ঝিনাইদহে ৪৩ জন, কুষ্টিয়ায় ২২ জন, খুলনায় ১৯ জন ও ২ জনের মৃত্যু, মাগুরায় ১৯ জন, নড়াইলে ১৫ জন ও একজনের মৃত্যু, বাগেরহাটে ৭ জন পজিটিভ ও একজনের মৃত্যু, মেহেরপুরে ছয় জন ও একজনের মৃত্যু এবং সাতক্ষীরায় দুই জন করোনা পজিটিভ ছিল।

উল্লেখ্য, খুলনা বিভাগে ১০ মার্চ থেকে করোনার হিসাব শুরু হয়। আর ঢাকার রিপোর্টে চুয়াডাঙ্গায় আসা ইতালি প্রবাসী প্রথম করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন ১৯ মার্চ। তারপর দ্বিতীয় করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয় ১৩ এপ্রিল খুলনার তাবলিগ ফেরত অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা। আর ২৮ এপ্রিল ১১২ জন পজিটিভ শনাক্ত হয়। প্রথম একশ' হতে সময় লাগে ৩৯ দিন। দুইশ' হয় ১২ দিনে (৯ মে)। আর তিনশ' হয় সাত দিনে (১৬ মে), চারশ' হয় ৮দিনে (২৪ মে) এবং পাঁচশ' হয় ৬ দিনে (৩০ মে)।

 

 

 

/আইএ/

সম্পর্কিত

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১২ মৃত্যু

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১২ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে আরও ১৪ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে আরও ১৪ মৃত্যু

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:২৭

করোনাভাইরাস রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউনের মধ্যে যেকোনও জনসমাগম নিষিদ্ধ থাকলেও নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভা হলরুমে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের দুই শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে চা-চক্রের আয়োজন করেছেন পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে সোমবার (২৬ জুলাই) বিকালে প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে তিনি এ চা-চক্রের আয়োজন করা হয়।

কাদের মির্জার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে চা-চক্র অনুষ্ঠানের চারটি ছবি আপলোড করলে, স্থানীয় সচেতন মহল ক্ষোভ প্রকাশ করেন। স্থানীয়রা বলছেন, তার এ ধরনের কর্মকাণ্ড সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে। একজন জনপ্রতিনিধির এমন কর্মকাণ্ডে এ ধরনের কাজ করতে অনেকেই উৎসাহিত হবেন।

অনুষ্ঠানে নেতাকর্মীদের সমাগম

জানা গেছে, চিকিৎসার জন্য বুধবার (২৮ জুলাই) ভোর ৪টায় আমেরিকার উদ্দেশে উড়াল দেবেন বসুরহাটের পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বেলা ১১টায় কোম্পানীগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন। এ জন্য অনুসারীদের নিয়ে তিনি এ চা-চক্রের আয়োজন করেন।

লকডাউনে এমন অনুষ্ঠান আয়োজনের বিষয়ে জানতে কাদের মির্জার মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি। তবে চা-চক্র অনুষ্ঠানের পর নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে চারটি ছবি আপলোড করে কাদের মির্জা লেখেন, আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দর সঙ্গে চা-চক্রে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা হয়। কোম্পানীগঞ্জে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ধৈর্য নিয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিই। আসুন, সবাই শান্তশিষ্ট কোম্পানীগঞ্জ প্রতিষ্ঠায় যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করি।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান বলেন, করোনা সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউন ভঙ্গ করে এ ধরনের চা-চক্র করার কোনও সুযোগ নেই।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০১:২৭

করোনা মহামারির মধ্যে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে গত তিন মাসে ছয় হাজার ৫৬৮ বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে করোনা রোগীও রয়েছেন। একই সময়ে ভারতীয় ও বাংলাদেশি মিলে ভারত গেছেন প্রায় দুই হাজার ১২০ জন।

সোমবার (২৬ জুলাই) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মুজিবুর রহমান। তিনি বলেন, ভারতে যাওয়া যাবে সপ্তাহে সাত দিন ফেরা যাবে তিন দিন।

মুজিবুর রহমান বলেন, কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন থেকে অনাপত্তিপত্র নিয়ে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত অর্থ্যাৎ তিন মাসে ছয় হাজার ৫৬৮ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। এদের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন ১৭ জন। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে দুই হাজার ১২০ জন ভারতীয় ও বাংলাদেশি ভারতে গেছেন। তাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ইউসুফ আলী বলেন, ভারতফেরত যাত্রীরা নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকছেন। এসব পাসপোর্ট যাত্রীকে বেনাপোলের ১৪টি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। এছাড়া ঝিকরগাছার গাজিরদরগা, সাতক্ষীরা, নড়াইল, খুলনা, মাগুরা ও ঝিনাইদহে কয়েকটি প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন রয়েছে। যাত্রীর পরিমাণ বাড়লে সেখানেও রাখা হয়।

তিনি বলেন, ভারতফেরত নারীদের নিরাপত্তায় পৃথক কোয়ারেন্টিন সেন্টার করা হয়েছে যশোর শহরের রেল রোডের জয়তী সোসাইটিতে। কোয়ারেন্টিনে নারী পুলিশ সদস্যের সঙ্গে সেখানকার নারী স্বাস্থ্যকর্মীরা দায়িত্বপালন করছেন। করোনা পজিটিভ ও গুরুতর অসুস্থদের যশোর জেনারেল হাসপাতাল ও বক্ষব্যাধিসহ অন্য হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

যেসব যাত্রী করোনায় আক্রান্ত কিংবা উপসর্গ নিয়ে দেশে ফিরছেন তাদের যশোর সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঠানো হচ্ছে বলেও জানান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ইউসুফ আলী।

/এএম/

সম্পর্কিত

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

রংপুরে করোনায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু

সিলেটে রেকর্ড মৃত্যু 

সিলেটে রেকর্ড মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০০:২২

করোনাভাইরাস রোধে সরকার আরোপিত কঠোর লকডাউন অমান্য করায় চতুর্থ দিনে ময়মনসিংহ জেলা, উপজেলা প্রশাসন ও সিটি করপোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত ৩৪০ মামলায় দুই লাখ ৩৯ হাজার ৭৩০ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।

সোমবার (২৬ জুলাই) সকাল ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত সময়ে এসব জরিমানা আদায় করা হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা হক জানান, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১৪৮ মামলায় ৭২ হাজার টাকা, উপজেলা প্রশাসন ১৭৬ মামলায় এক লাখ ৬২ হাজার ৩৮০ টাকা এবং ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন ১৬ মামলায় পাঁচ হাজার ৩৫০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

তিনি আরও জানান, কঠোর লকডাউন শুরুর পর থেকে চার দিনে এক হাজার ৪৮৪ মামলার বিপরীতে আট লাখ ৬৩ হাজার ৪৭৫ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। সরকারি বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত থাকার কথাও জানান তিনি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে জরিমানা গুনলো স্কুলছাত্র

স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে এসে জরিমানা গুনলো স্কুলছাত্র

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসক সংকট

ময়মনসিংহ মেডিক্যালের কোভিড ওয়ার্ডে চিকিৎসক সংকট

পথচারীর প্রাণ বাঁচাতে গিয়ে খাদে ইউএনওর গাড়ি

পথচারীর প্রাণ বাঁচাতে গিয়ে খাদে ইউএনওর গাড়ি

মেয়াদোত্তীর্ণ ও সৌজন্য ওষুধ বিক্রি, ৫ ফার্মেসিকে জরিমানা

মেয়াদোত্তীর্ণ ও সৌজন্য ওষুধ বিক্রি, ৫ ফার্মেসিকে জরিমানা

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৪৫

পাহাড় থেকে কক্সবাজারের টেকনাফের প্রধান সড়কে একটি বন্যহাতি নেমে এসেছে। ধারণা করা হচ্ছে, খাবারের খোঁজে হাতিটি পাহাড় থেকে নেমে এসেছে। সোমবার (২৬ জুলাই) রাত ১১টায় টেকনাফ পৌরসভার নাইট্যাং পাড়ায় বন বিভাগের পাশে প্রধান সড়কে অবস্থান করছে হাতিটি। এ সময় হাতিটি সড়কের পাশের কয়েকটি গাছ ভেঙে ফেলায় কক্সবাজার-টেকনাফ প্রধান সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এ বিষয়ে দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফের রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ বলেন, ‘প্রচণ্ড বৃষ্টিতে রাতে প্রধান সড়কে একটি পাহাড়ি হাতি নেমে আসার খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পৌঁছে আমাদের লোকজন হাতিটিকে পাহাড়ের ভেতরে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।’

টেকনাফ সদর সিবিজি সভাপতি মাহমদুল্লাহ বলেন, ‘সোমবার রাতে প্রচণ্ড বৃষ্টিতে পাহাড় থেকে প্রধান সড়কে একটি বন্যহাতি নেমে এসে গাছপালা ভেঙে ফেলছে। এতে রাস্তার দু’পাশে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছি। হাতিটিকে পাহাড়ে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি।’

স্থানীয় বাসিন্দা মো. আরাফাত বলেন, ‘পাহাড়ি একটি বন্যহাতি প্রধান সড়কে নেমে এদিক-ওদিক ছুটছে। এতে এখানকার বাসিন্দারা ভয়ের মধ্য রয়েছেন।’ 

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ পারভেজ চৌধুরী বলেন, ‘পাহাড়ি হাতিটি সড়কে নেমে আসার খবর পেয়ে বন বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করছি। যাতে এটি নাফ নদের সীমান্তে না যাওয়ার আগে পাহাড়ের ভেতরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।’

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন টেকনাফ সীমান্তে নাফ নদে দুটি হাতির দেখা মেলে। সেদিন সন্ধ্যায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর টেকনাফ জালিয়াপাড়া প্যারাবন থেকে হাতি দুটিকে বনাঞ্চলে ঢুকিয়ে দেন দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফ ও এলিফ্যান্ট রেসপন্স টিমের সদস্যরা। তবে রবিবার সকালে আবার নাফ নদে নেমে আসে হাতি দুটি। পরের দিন শাহপরীর দ্বীপ এলাকার সমুদ্র সৈকত থেকে ট্রলারের সহতায় হাতি দুটিকে উদ্ধার করে টেকনাফে পাহাড়ে দিকে নিয়ে আসার সময় আবার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। যদিও দক্ষিণ বন বিভাগ টেকনাফ কর্মকর্তারা দাবি করে আসছিলেন, হাতি দুটিকে তারা পাহাড়ে ঢুকিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছেন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ২৩:৪০

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা চিকিৎসার জন্য আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে কোম্পানীগঞ্জে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠায়’ সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন। সোমবার (২৬ জুলাই) বিকালে পৌরসভা মিলনায়তনে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে চা-চক্রে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

এরপর সন্ধ্যা ৬টায় তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন-

আমেরিকা যাওয়ার প্রাক্কালে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দর সঙ্গে চা-চক্রে দিকনির্দেশনামূলক আলোচনা হয়। কোম্পানীগঞ্জে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে ধৈর্য নিয়ে কাজ করার নির্দেশনা দিই। আসুন, সবাই শান্তশিষ্ট কোম্পানীগঞ্জ প্রতিষ্ঠায় যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করি।

আবদুল কাদের মির্জার চা-চক্রে উপস্থিত নেতাকর্মীরা

আমার অনেক আগে আমেরিকা যাওয়ার কথা ছিল। নানা কারণে যেতে পারিনি। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) আমেরিকার উদ্দেশে কোম্পানীগঞ্জ ত্যাগ করব। সেখানে চিকিৎসা নিতে আমার প্রায় ১০ দিন সময় লাগতে পারে। এ সময় আপনারা সবাই শান্ত থাকবেন। কোনও অনুষ্ঠান করতে হলে সংগঠনের ঊর্ধ্বতন নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করে করবেন। আমি চাই, শান্তির জনপদ কোম্পানীগঞ্জে শান্তি ফিরে আসুক।

চা-চক্রে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইস্কাদার হায়দার চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. ইউনুছ, সহ-সভাপতি হাসান ইমাম বাদল, জামাল উদ্দিন, আইনবিষয়ক সম্পাদক শঙ্কর ভৌমিক, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আজিজুল হক এবং কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

সংসদ সদস্য আঞ্জুম সুলতানা সীমা করোনায় আক্রান্ত

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

রোগীকে ভর্তি না নেওয়ায় চিকিৎসককে পেটালেন স্বজনরা

সর্বশেষ

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

লকডাউনে কাদের মির্জার চা-চক্রের আয়োজন

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

ময়মনসিংহে ৩৪০ মামলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা আদায়

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

আনজাম মাসুদের সঙ্গে এবার ১৪ জন কণ্ঠশিল্পী!

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

রণক্ষেত্র আসাম-মিজোরাম, কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের আহ্বান

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

টেকনাফের প্রধান সড়কে বন্যহাতি

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ‘শান্তি প্রতিষ্ঠার’ ডাক কাদের মির্জার

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

৪৬ আফগান সেনাকে আশ্রয় দিলো পাকিস্তান

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

শেষ মুহূর্তে হাসপাতালে আসায় মৃত্যু বাড়ছে

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

টিকা দিতে কারিগরি শিক্ষকদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে ৮ জনকে কুপিয়ে জখম

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ভারত থেকে তিন মাসে ফিরলেন সাড়ে ৬ হাজার বাংলাদেশি

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

ঈদের পর খুলনায় বেড়েছে মৃত্যু 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১২ মৃত্যু

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১২ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে আরও ১৪ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে আরও ১৪ মৃত্যু

এক হাসপাতালেই ১১ মৃত্যু

এক হাসপাতালেই ১১ মৃত্যু

অলিম্পিকে অংশ নিতে দেশ ছেড়েছেন যবিপ্রবির জহির 

অলিম্পিকে অংশ নিতে দেশ ছেড়েছেন যবিপ্রবির জহির 

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

খুলনা বিভাগে বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু

খুলনা বিভাগে বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

খুলনার ৪ হাসপাতালে ফের মৃত্যু বেড়েছে

খুলনার ৪ হাসপাতালে ফের মৃত্যু বেড়েছে

© 2021 Bangla Tribune