X
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

যেভাবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন আপনিও

আপডেট : ২৮ জুন ২০২০, ১৭:০৪
image

বিজ্ঞানীদের মতামত অনুযায়ী, দূষিত কোনও জায়গায় গেলেই অথবা কিছুক্ষণের জন্য ঘরের বাইরে মানুষের সঙ্গে দেখা হলেই যে এই ভাইরাস দ্বারা আপনিও আক্রান্ত হবেন বা সেটা ছড়িয়ে পড়বে, ব্যাপারটা কিন্তু তা নয়। বরং, মূল সমস্যাটা তখন হবে যখন একে অপরের সঙ্গে এই সাক্ষাতটা একটু বেশি সময়ের জন্য হবে বা আপনি যখন সরাসরি কারোর সংস্পর্শে আসবেন। ভিড়ের মধ্যে বা যেখানে বাতাস চলাচলের জন্য যথেষ্ট জায়গা নেই, অথবা এমন কোনও আয়োজন যেখানে মানুষ জোরে কথা বলছে বা গান গাইছে– এ ধরনের জায়গাগুলোই সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। করোনাভাইরাস আসলে কীভাবে ছড়ায়, জেনে নিন সেটা।



ড্রপলেট
করোনাভাইরাস আক্রান্ত কেউ কাশি কিংবা হাঁচি দিলে, অথবা কথা বললে সেই ব্যক্তির নাক এবং মুখ থেকে বাতাসের মাধ্যমে ড্রপলেটগুলো ছড়িয়ে পড়ে। ওই ব্যক্তির ৬ ফিটের মধ্যে থাকা যে কেউ নিঃশ্বাসের মাধ্যমে ড্রপলেটগুলো নিয়ে নিতে পারে নিজের শরীরে।
বাতাসের মাধ্যমে সংক্রমণ
গবেষণায় দেখা গেছে, ভাইরাসটি ৩ ঘণ্টা পর্যন্ত বাতাসের সঙ্গে মিশে থাকে। ফলে যে বাতাসে ভাইরাসের উপস্থিতি আছে, সেখানে নিঃশ্বাস নেওয়ার ফলে আপনার ফুসফুসে প্রবেশ করতে পারে করোনাভাইরাস।
হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ড্রপলেট বেরিয়ে ছড়াতে পারে এই ভাইরাস
বিশেষ সারফেস থেকে সংক্রমণ
করোনাভাইরাস আক্রান্ত কোনও ব্যক্তি যদি কাউন্টার টপ বা দরজার হাতল স্পর্শ করে এবং আপনি সেই একই স্থান স্পর্শ করার পর নিজের নাক, মুখ কিংবা চোখে স্পর্শ করেন, তবে আপনি কোভিড-১৯ দ্বারা আক্রান্ত হবেন।
প্লাস্টিক কিংবা স্টেইনলেস স্টিলের মততো সারফেসে এই ভাইরাসটির ২ থেকে ৩ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। এটি থেকে মুক্তি পেতে দিনে কয়েকবার সেসব জায়গাগুলো ডিসইনফেকটেন্ট করুন যেখানে আপনার বা আপনার পরিবারের অন্যান্যরা বারবার হাত দিয়ে স্পর্শ করেন, যেমন দরজার হাতল, সুইচবোর্ড ইত্যাদি। 
আক্রান্ত ব্যক্তির মল থেকে সংক্রমণ
গবেষণায় এটিও দেখা গেছে যে, সংক্রমিত ব্যক্তির মল দ্বারা ভাইরাসটির ছড়াতে পারে। তবে বিশেষজ্ঞরা এখনও নিশ্চিত নন যে সংক্রমিত ব্যক্তির মলের কাছাকাছি কোনওভাবে গেলেই ভাইরাসটির সংক্রমণ ঘটে কিনা। যদি সেই ব্যক্তি বাথরুম ব্যবহার করেন এবং এরপর হাত না ধুয়ে থাকেন তাহলে সেই হাতে কোন ব্যক্তি বা বস্তুকে স্পর্শ করলে ভাইরাসটি ছড়াতে পারে।
কমিউনিটি দ্বারা আক্রান্ত হওয়া
ইতোমধ্যে যিনি এই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন, তার সংস্পর্শে গেলে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আবার অনেক সময়ই আমরা নিজেদের আক্রান্ত হওয়ার কারণটা জানি না। কমিউনিটি স্প্রেডের অর্থটাই হচ্ছে এমন কোনওভাবে আক্রান্ত হওয়া যখন আপনি জ্ঞানত কোনও আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পরসে না গিয়েও কোভিড-১৯ পজিটিভ হচ্ছেন।   
পোষা প্রাণী এবং কোভিড-১৯
বেশ কিছু পোষা প্রাণীকে করোনাভাইরাস টেস্ট করানোর পর পজিটিভ রেজাল্ট এসেছে। এদের মধ্যে সবাই যে অসুস্থ ছিল এমনটা নয় কিন্তু কারোর কারোর মধ্যে হালকা লক্ষণ দেখা গিয়েছিল। এই পোষা প্রাণীরা হয়তো এমন সব ব্যক্তির সংস্পর্শে গিয়েছিল যারা ইতোমধ্যেই এই ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত ছিলেন। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এখনও এটি নিয়ে পর্যালোচনা করছেন তবে পোষা প্রাণী দ্বারা এই ভাইরাসের সংক্রমণ হওয়ার কোন প্রমাণ এখনও তারা পাননি।
আক্রান্ত হওয়া কতোটা সহজ?
গবেষকরা বলছেন, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত একজন ব্যক্তি ২ থেকে ২.৫ জন মানুষের মধ্যে এটি সংক্রমিত করতে পারে। একটি গবেষণায় এটিও দেখা গেছে যে সংক্রমিত করার হারের এই সংখ্যাটা আর অনেক বেশি, ৪.৭ থেকে ৬.৬ পর্যন্তও হতে পারে। 
ফ্লুয়ের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, সেটি ১.১ থেকে ২.৩ জন হারে সংক্রমিত করতে পারে। আবার হামের ক্ষেত্রে এই সংখ্যা ১২ থেকে ১৮ জন পর্যন্ত।

/এনএ/

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৩:৩২

আবহাওয়া যেমনই হোক, প্রাকৃতিক উপকরণে তৈরি স্বাস্থ্যকর এক গ্লাস শরবত আপনাকে এনে দিতে পারে এক রাজ্যের প্রশান্তি। এ জন্য ঝটপট টুকে নিতে পারেন পাঁচটি মন জুড়ানো শরবতের রেসিপি

 

তেঁতুলের শরবত

যা যা লাগবে: তেঁতুল, চিনি, ধনিয়া পাতা কুচি, শুকনা মরিচের গুঁড়া, বিট লবণ, কাঁচামরিচ কুচি, ও পানি (ঠান্ডা বা স্বাভাবিক)

 

যেভাবে বানাবেন

  • প্রথমে বিচি আলাদা করে তেঁতুলটা একটি পাত্রে সামান্য পানিতে গুলে নিন।
  • গোলানো তেঁতুলে পরিমাণমতো ঠান্ডা পানি মেশান।
  • পরিমাণমতো চিনি, টেলে নেওয়া শুকনো মরিচের গুঁড়া, কাঁচামরিচ কুচি ও ধনিয়া পাতা দিন। স্বাদমতো বিট লবণ দিন।
  • ভালো করে মিশিয়ে ১০ মিনিট রাখুন। এবার মিশ্রণটি অন্য একটি বাটিতে ছেঁকে নিন। হয়ে গেলো টক-ঝাল তেঁতুলের শরবত। পরিবেশন করতে পারেন বরফকুচি দিয়ে।

 

দুধের শরবত

যা যা লাগবে: আগেই দুধ এক লিটার জ্বাল দিয়ে ঠান্ডা করে নিন। এরপর লাগবে আধা কাপ চিনি, ১৫-২০টি কাজু বাদাম বাটা, ১৫টি পেস্তা বাদাম বাটা, ১৫টি কাঠবাদাম বাটা, এক চিমটি জাফরান (দুই টেবিলচামচ গোলাপ জলে ভিজিয়ে রাখা) ও পরিমাণমতো বরফ (২ কাপ)। পরিবেশনের জন্য সামান্য পেস্তা কুচি।  

 

যেভাবে বানাবেন : ঠান্ডা দুধের সঙ্গে চিনি, বরফ, বাদাম বাটা ও জাফরান মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। পরিবেশনের আগে পেস্তা বাদাম কুচি ছড়িয়ে দিন।

 

লেবু-পুদিনা শরবত

লেবু পুদিনা শরবত রেসিপি

যা যা লাগবে: মাঝারি আকারের দুটি লেবু, এক মুঠো পুদিনাপাতা, বড় এক কাপ পানি, বরফ কুচি পরিমাণমতো ও স্বাদমতো চিনি।

 

যেভাবে বানাবেন

  • প্রথমে লেবুর খোসা ফেলে টুকরো করে নিন।
  • পুদিনাপাতা কুচি করে কাটুন।
  • ব্লেন্ডারে লেবু, পুদিনা, চিনি ও পানি দিয়ে ব্লেন্ড করুন।
  • ছেঁকে নিয়ে গ্লাসে ঢেলে তাতে বরফকুচি দিন।

 

ডায়েট শসা শরবত

যা যা লাগবে : ২টি মাঝারি শসা। ২৫০ এমএল পানি, পরিমাণমতো চিনি, আদা এক টেবিলচামচ, একটি লেবু।

 

যেভাবে বানাবেন

  • শসা ধুয়ে কেটে নিন।
  • লেবুও খোসা ফেলে কাটুন।
  • ব্লেন্ডারে শসা, লেবু, আদা ও চিনি দিয়ে ব্লেন্ড করুন।
  • ছেঁকে ফ্রিজের নরমালে রেখে দিন।
  • পরে বরফ কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।
  •  

আদা-লেবুর শরবত

যা যা লাগবে: লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, আদার রস ১ চা চামচ, পানি ১ গ্লাস, চিনি ২ টেবিল চামচ।

 

যেভাবে বানাবেন : সব উপকরণ একসঙ্গে মেশালেই শরবত হবে।

/এফএ/

সম্পর্কিত

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

দুধ যেন উপচে না পড়ে

দুধ যেন উপচে না পড়ে

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ০৮:৫৯

চুলের রুক্ষ ভাব কাটাতে কত কী-ই না ব্যবহার করছে সবাই। এবার বাকিসব বাদ দিয়ে নজর দিন রান্নাঘরে। কারণ, সেখানেই পাওয়া যাবে অ্যাপেল সিডার ভিনেগারের বোতলটা।

 

  • আপেল সিডার ভিনেগারে (এসিভি) রয়েছে প্রচুর অ্যাসেটিক এসিড। চুলের নিস্তেজ ভাব ও ভঙ্গুরতা দূর করে পিএইচ লেভেল ঠিক রাখে এটি।
  • এতে থাকা আলফা-হাইড্রোক্সি অ্যাসিড মাথার ত্বকের কোষ ঝরা কমায়। এতে খুশকিও কমে।
  • বেশিরভাগ শ্যাম্পুরে চেয়ে এসিভি বেশি অ্যাসিডিক। যা মাথার ত্বকের মরা কোষ পরিষ্কার করতে পারে দ্রুত।
  • নানা ধরনের শ্যাম্পুর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দূর করে এসিভি।
  • চুল ঝকঝকে করতে এ ভিনেগারের জুড়ি নেই। কারণ এসিভি চুলের গোড়া থেকে ময়লা দূর করে ও চুলের তেলতেলে ভাব কমায়। পাশাপাশি স্কাল্পও পরিষ্কার রাখে এটি।
  • চুলের গোড়ায় রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া বাড়ায় অ্যাপেল সিডার ভিনেগার।
  • চুল পড়া রোধ করে ও চুল দ্রুত বড় করে।
  • এটি সপ্তাহে দুইবার ব্যবহারই যথেষ্ট।

 

যেভাবে ব্যবহার করবেন

শ্যাম্পুর সঙ্গে দুই-তিন চা চামচ এসিভি মিশিয়ে আলতোভাবে মাথায় মেখে ধুয়ে ফেলুন। অথবা পানিতে কয়েক টেবিল চামচ ভিনেগার মেশান। শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহারের পর চুলে সমানভাবে মিশ্রণটি মেখে নিন। স্কালপেও ঘষে নিন। কয়েক মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

দুধ যেন উপচে না পড়ে

দুধ যেন উপচে না পড়ে

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ১২:৫৯

ভুঁড়ি কত প্রকার এটা কোনও পরীক্ষায় না আসলেও উত্তরটা জানা থাকলে আছে কিছু উপকার। কারণ সব ভুঁড়ি একই কারণে গজায় না। ভুঁড়ি দেখে যেমন লোক চেনা যায়, আবার ভুঁড়ির গঠন দেখে বোঝা যায় সেটার কারণ। আর কারণ জানতে পারলে ভুঁড়িটাকে বাগে আনাও হবে সহজ।

 

স্ট্রেস বেলি

মানসিক চাপের প্রশ্নে আমরা যতই এড়িয়ে চলি না কেন, এর একটি বড় শারীরিক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া আছে। অতিরিক্ত মানসিক চাপে থাকলে করটিসল নামের স্টেরয়েড হরমোনের মাত্রা বেড়ে তলপেটের আশপাশে চর্বির পরিমাণ বাড়িয়ে তোলে অস্বাভাবিক গতিতে। এ ধরনের ভুঁড়ি কমাতে চাই মানসিক প্রশান্তি। এর জন্য নিয়ম করে ইয়োগা করুন আর খেয়াল রাখুন ঠিকঠাক ঘুম হচ্ছে কিনা।

 

হরমোন বেলি

হরমোনের ভারসাম্যহীনতার কারণে এ ধরনের ভুঁড়ি তৈরি হয়। হাইপোথায়রয়েডিসম বা পিসিওএস এ ধরনের ভুঁড়ির জন্য দায়ী। এতে করে ভুঁড়ির পাশাপাশি সামগ্রিক ওজনও বেড়ে যেতে থাকে। এটাকে দমিয়ে রাখতে হলে অস্বাস্থ্যকর খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। নিয়মিত বাদাম ও মাছ খেতে হবে। পাশাপাশি থাইরয়েড সংক্রান্ত পরীক্ষা ও পরামর্শ নিতে হবে ডাক্তারের কাছ থেকে।

 

লো বেলি

যখন কারও শরীরের উপরের অংশ চিকন ও নিচের দিকটা, বিশেষ করে তলপেটের দিকটা চওড়া হয়ে থাকে, সেটাকে বলে লো বেলি। শুয়ে বসে কাটানোই এর কারণ। আর এ সমস্যা কাটাতে ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার ও প্রচুর পানি পান করতে হবে। পাকস্থলীর ব্যায়ামগুলোও করতে হবে নিয়মিত।

 

ব্লটেড বেলি

ভুঁড়ি ছাড়াও অনেকের পেটটাকে ফোলা ফোলা মনে হয়। এটাকে বলে ব্লটেড বেলি। হজমের সমস্যার কারণেই এমনটা হয়। এ সমস্যা থেকে বাঁচতে একসঙ্গে বেশি খাবার খাওয়া যাবে না। এড়িয়ে চলতে হবে কোমল পানীয়। ভারী খাবার খাওয়ার পরপরই পানি খাওয়া যাবে না।

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

দুধ যেন উপচে না পড়ে

দুধ যেন উপচে না পড়ে

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

দুধ যেন উপচে না পড়ে

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১১:৩৪

দুধ জ্বাল দেওয়ার সময় চোখটা সরালেই হলো, উপচে পড়বেই। যারা একটু ভুলোমনা, তাদের জন্য এটা বাড়তি এক যন্ত্রণা। দুধ উপচেপড়া ঠেকানোর আছে কিছু উপায়।

 

পানি

জ্বাল দেওয়ার আগে দুধে অল্প পরিমাণ বিশুদ্ধ পানি দিন। ফুটতে শুরু করলে ওই পানি এমনিতেই বাষ্প হয়ে যাবে। তবে লাভটা হলো, এতে দুধ অল্প আঁচে উপচে পড়বে না।

 

ঘি

দুধ জ্বাল দেওয়ার পাত্রের উপরের দিকে ভেতরের কিনারায় সামান্য ঘি মাখিয়ে দিন। উপচে পড়তে গিয়েও পড়বে না।

দুধ উপচে পড়া ঠেকানোর পদ্ধতি

কাঠের চামচ

উডেন স্প্যাটুলা তথা কাঠর চামচও ব্যবহার করা যায় এ কাজে। জ্বাল দেওয়ার সময় পাত্রের ঠিক ব্যাস বরাবর লম্বা করে একটি কাঠের চামচ রেখে দিন। ফোম তৈরি হলেও সেটা আবার নেতিয়ে যাবে।

 

পানির ছিটা

দুধ ফুলে উঠতে শুরু করলে দিশেহারা না হয়ে তার ওপর খানিকটা পানি ছিটিয়ে দিন। সঙ্গে সঙ্গে ফোমটা দেবে যাবে। আর যদি আঁচ কমাতে না চান, সেক্ষেত্রে পাত্রটা খানিকটা উপরে তুলে আলতো করে নাড়ান। এতেও দুধ উপচে পড়বে না।

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

ত্বকের যত্নে হলুদ কেন জরুরি?

আপডেট : ২৪ জুলাই ২০২১, ১৭:৫০

হলুদ খাওয়ার উপকারের কথা মোটামুটি সবারই জানা। তবে ত্বকের যত্নেও এর ব্যবহার হয়ে আসছে যুগ যুগ ধরে।

 

উজ্জ্বলতা বাড়ায়

আগে থেকেই কাঁচা হলুদ গায়ে মাখার চল রয়েছে। বিভিন্ন উৎসবেও ত্বকে হলুদ মাখা হয়। মূলত হলুদে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও আন্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান মানুষের ত্বকের অনাকাঙ্ক্ষিত দাগ দূর করে উজ্জ্বলতা বাড়ায়। দই, মধু ও হলুদ দিয়ে পেস্ট বানিয়ে মুখে ও ঘাড়ে লাগিয়ে ২০/২৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

 

ব্রণ দূর করে

ব্রণ নিয়ে টিনএজ বয়স থেকেই শুরু হয় মাথাব্যথা। হলুদ মিশ্রিত একটি প্যাক ব্রণ সমস্যা দূর করতে পারে সহজেই। এক চা চামচ দই ও এক চা চামচ মুলতানি মাটির  সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে সঙ্গে খানিকটা গোলাপ জল দিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এবার মুখে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এ প্যাক ব্যবহারে ব্রণ যাবে পালিয়ে।

 

কালো দাগ হটাতে

মুখে বা চোখের নিচে কালো দাগ (ডার্ক সার্কেল) দূর করতে দুই টেবিল চামচ হলুদ গুঁড়ায় এক টেবিল চামচ দই ও দুই ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক বানান। দাগের ওপর লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে চালিয়ে যেতে হবে কয়েকদিন।

 

ফাটা দাগ দূর করে

বিশেষ করে সন্তান জন্মদানের পর মায়েদের পেটের নিচে ফাটা দাগ দেখা দেয়। এক টেবিল চামচ নারিকেল তেলের সঙ্গে আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে ফাটা দাগের জায়গাগুলোতে মেখে রাখুন এক ঘণ্টা পর্যন্ত। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত ব্যবহার করুন।

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

রেসিপি : প্রশান্তির পাঁচ শরবত

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

চুলের জন্য অ্যাপেল সিডার ভিনেগার

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

ভুঁড়ি কত প্রকার, কোনটা কীভাবে কমাবেন?

দুধ যেন উপচে না পড়ে

দুধ যেন উপচে না পড়ে

সর্বশেষ

ছাগল ধর্ষণ নিয়ে পাকিস্তানে তোলপাড়

ছাগল ধর্ষণ নিয়ে পাকিস্তানে তোলপাড়

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এডিপির ৪৪টি প্রকল্পের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের এডিপির ৪৪টি প্রকল্পের অগ্রগতি ৯৫ ভাগ

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের শঙ্কা, আশ্রয়কেন্দ্রে ৩ শতাধিক মানুষ

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের শঙ্কা, আশ্রয়কেন্দ্রে ৩ শতাধিক মানুষ

জ্বালানি ১০৪ আর বিদ্যুৎ ৯৭ ভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে

জ্বালানি ১০৪ আর বিদ্যুৎ ৯৭ ভাগ এডিপি বাস্তবায়ন করেছে

রাজশাহীতে বিক্রি হয়নি ৭৩ হাজার কোরবানির পশু

রাজশাহীতে বিক্রি হয়নি ৭৩ হাজার কোরবানির পশু

করোনা কবলিত মালয়েশিয়ায় বিধিনিষেধ শিথিলে ক্ষোভ

করোনা কবলিত মালয়েশিয়ায় বিধিনিষেধ শিথিলে ক্ষোভ

লকডাউনে বিয়ের আয়োজন, বর-কনের বাবার জরিমানা

লকডাউনে বিয়ের আয়োজন, বর-কনের বাবার জরিমানা

কার্ভাডভ্যান চাপায় প্রাণ গেলো ব্যাংক কর্মকর্তার

কার্ভাডভ্যান চাপায় প্রাণ গেলো ব্যাংক কর্মকর্তার

রাজাকার-পুত্রের দম্ভ দেখে হতভম্ব হয়ে যাই: আইজিপি

রাজাকার-পুত্রের দম্ভ দেখে হতভম্ব হয়ে যাই: আইজিপি

ড. সৈয়দ আব্দুস সামাদের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

ড. সৈয়দ আব্দুস সামাদের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক

অডিশন দিয়েও বলিউডে আসেননি ক্রেইগ, কারণ?

অডিশন দিয়েও বলিউডে আসেননি ক্রেইগ, কারণ?

বিধিনিষেধ শিথিলে ভ্যাকসিন প্রতিরোধী স্ট্রেইন-এর আশঙ্কা: গবেষণা

বিধিনিষেধ শিথিলে ভ্যাকসিন প্রতিরোধী স্ট্রেইন-এর আশঙ্কা: গবেষণা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

© 2021 Bangla Tribune