X
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

ইতিহাস নিয়ে সাজানো-গোছানো ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রি (ভিডিও)

আপডেট : ১৯ নভেম্বর ২০২০, ১৭:১৯

কুমিল্লায় অবস্থিত ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রি একটি কমনওয়েলথ যুদ্ধ সমাধি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে বার্মায় নিহত ৪৫ হাজার কমনওয়েলথ সৈনিকের স্মৃতিরক্ষার্থে মিয়ানমার, আসাম ও বাংলাদেশে ৯টি রণ সমাধিক্ষেত্র তৈরি হয়। বাংলাদেশে কুমিল্লা ছাড়াও চট্টগ্রামে আছে আরেকটি কমনওয়েলথ রণ সমাধিক্ষেত্র।

১৯৪৬ সালে তৈরি হয় ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রি। কুমিল্লা শহর থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্টের খুব কাছেই এই যুদ্ধ সমাধি। এটি কমনওয়েলথ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। তারাই পরিচালনা করে সমাধিক্ষেত্র। প্রতিবছর নভেম্বরে সব ধর্মের ধর্মগুরুদের সমন্বয়ে এতে প্রার্থনাসভা হয়ে থাকে।

সমাধিক্ষেত্রটিতে ৭৩৬টি কবর আছে। এর মধ্যে অধিকাংশই সেই সময় হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করা সৈনিকদের। যুদ্ধের পরও বিভিন্ন স্থান থেকে কিছু লাশ স্থানান্তরের মাধ্যমে ময়নামতিতে সমাহিত করা হয়। যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, অবিভক্ত ভারত, রোডেশিয়া, পূর্ব আফ্রিকা, পশ্চিম আফ্রিকা, মিয়ানমার, বেলজিয়াম, পোল্যান্ড, জাপানের সৈন্যরা সমাহিত আছেন এই ওয়ার সিমেট্রিতে।

প্রবেশমুখে একটি তোরণ আছে। ভেতরে প্রশস্ত পথ, এর দু’পাশে সারি সারি কবর ফলক। ধর্ম অনুযায়ী সৈন্যদের কবর ফলকে নাম, মৃত্যুর তারিখ, পদবীর পাশাপাশি ধর্মীয় প্রতীক লক্ষণীয়। মুসলমানদের কবর ফলকে আরবি লেখা, খ্রিস্টানদের কবর ফলকে ক্রুশ উল্লেখযোগ্য।

প্রশস্ত পথের সম্মুখে সিঁড়ি দেওয়া বেদি। এর ওপরে রয়েছে খ্রিস্টধর্মীয় পবিত্র প্রতীক ক্রুশ। বেদির দু’পাশে আরও দুটি তোরণ ঘর। তোরণ ঘর দিয়ে সমাধিক্ষেত্রের পেছন দিকের অংশে যাওয়া যায়। সেখানে আছে আরও বহু কবর ফলক। প্রতি দুটি কবর ফলকের মাঝখানে শোভা পাচ্ছে একটি করে ফুল গাছ।

পুরো সমাধিক্ষেত্রেই রয়েছে প্রচুর গাছ। সম্মুখ অংশের প্রশস্ত পথের পাশেই ব্যতিক্রম একটি কবর। একসঙ্গে ২৩টি কবর ফলক দিয়ে এটি ঘিরে রাখা হয়েছে। সমাধিক্ষেত্রটি সুন্দর, পরিপাটি ও ইতিহাসসমৃদ্ধ।

প্রতিবছর দেশ-বিদেশের বিপুলসংখ্যক দর্শনার্থী সৈন্যদের প্রতি সম্মান জানাতে ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রিতে ঘুরতে আসেন। সমাধিক্ষেত্রে ঢুকতে কোনও টিকিটের প্রয়োজন হয় না। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দর্শনার্থীদের প্রবেশ সীমিত রাখা হয়েছে।

/জেএইচ/

সর্বশেষ

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

নাতনির সামনে চাকায় পিষ্ট দাদি

নাতনির সামনে চাকায় পিষ্ট দাদি

শহর ভীষণ অকৃতজ্ঞ

শহর ভীষণ অকৃতজ্ঞ

লাল কার্ডের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধাকে হারালো শেখ জামাল

লাল কার্ডের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধাকে হারালো শেখ জামাল

সকাল থেকে শহরের ভেতরে গণপরিবহন চলবে

সকাল থেকে শহরের ভেতরে গণপরিবহন চলবে

খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পণ্য চালান দ্রুত খালাসে বন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

পণ্য চালান দ্রুত খালাসে বন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

প্রাইম ব্যাংকে যোগ দিয়েছেন জিয়াউর রহমান

প্রাইম ব্যাংকে যোগ দিয়েছেন জিয়াউর রহমান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

করোনাকালেও যেভাবে পর্যটনশিল্পে সেরা মালদ্বীপ

করোনাকালেও যেভাবে পর্যটনশিল্পে সেরা মালদ্বীপ

হোটেল বুকিং হোক আরও সহজে গো যায়ানের সাথে

হোটেল বুকিং হোক আরও সহজে গো যায়ানের সাথে

ভ্রমণে খরচ কমানোর ৭ উপায়

ভ্রমণে খরচ কমানোর ৭ উপায়

তিন দিনের ছুটিতে কুয়াকাটায় রেকর্ড সংখ্যক পর্যটক

তিন দিনের ছুটিতে কুয়াকাটায় রেকর্ড সংখ্যক পর্যটক

কক্সবাজার সৈকতে মানুষের ঢেউ: রুম নেই, রাত কাটছে বালিয়াড়িতে

কক্সবাজার সৈকতে মানুষের ঢেউ: রুম নেই, রাত কাটছে বালিয়াড়িতে

ট্রাভেল এজেন্টদের জন্য এমিরেটসের সরাসরি বুকিং প্ল্যাটফর্ম

ট্রাভেল এজেন্টদের জন্য এমিরেটসের সরাসরি বুকিং প্ল্যাটফর্ম

কক্সবাজারে ১০ লাখ পর্যটক সমাগমের সম্ভাবনা

কক্সবাজারে ১০ লাখ পর্যটক সমাগমের সম্ভাবনা

যাত্রা শুরু সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের

যাত্রা শুরু সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের

ক্যাম্পিংয়ে সঙ্গে রাখবেন যেগুলো

ক্যাম্পিংয়ে সঙ্গে রাখবেন যেগুলো

ঢাকার আশেপাশে ঘোরার ৪ জায়গা

ঢাকার আশেপাশে ঘোরার ৪ জায়গা

© 2021 Bangla Tribune