X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

শিশু অপরাধীর সর্বোচ্চ সাজা ১০ বছর: হাইকোর্ট

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০২১, ২০:৪১

শিশুদের অপরাধ যতই গুরুতর হোক না কেন, তাদের ১০ বছরের বেশি সাজা দেওয়া যাবে না বলে রায় দিয়েছেন বৃহত্তর হাইকোর্ট বেঞ্চ।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) বিচারপতি মো. সওকত হোসেন, বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি এএসএম আব্দুল মবিনের সমন্বয়ে গঠিত বৃহত্তর হাইকোর্ট বেঞ্চের স্বাক্ষরের পর রায়টি প্রকাশিত হয়।

রায়ে যেসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে:

১. শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ জুবেনাইল বিচার পদ্ধতির ধারণার পরিপন্থী।

২. নিউরোসায়েন্স এবং সাইকোলজিক্যাল গবেষণা অনুযায়ী, শিশুরা তাদের কর্মের পরিণতি সম্পর্কে সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল নয়।

৩. শিশুরা তাদের আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। বস্তুত, ব্রেনের যে অংশ আবেগ ও যৌক্তিকতা নিয়ন্ত্রণ করে, শিশু অবস্থায় ব্রেনের সে অংশ পরিপক্ব হয় না।

৪. শিশুরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির পরিণতি সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখে না। অনেক ক্ষেত্রে তারা অপরাধের দোষ নিজের ঘাড়ে চাপিয়ে নেয়।

৫. কোনও কোনও ক্ষেত্রে কিছু সুবিধা পাওয়ার প্রলোভনে শিশুরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হয়ে যায়।

হাইকোর্ট বেঞ্চ তাদের রায়ে মানবাধিকার সংগঠন ব্লাস্টের একটি মামলার রায় পর্যালোচনাসহ বাংলাদেশ, ভারত, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ আদালতের নজিরগুলো উল্লেখ করেছেন। পাশাপাশি বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিদের লিখিত আর্টিকেল, বই, সায়েন্টিফিক রিসার্চের ফলাফল নিয়েও আলোচনা করে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সিদ্ধান্তগুলো হলো:

১. শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির কোনও সাক্ষ্যগত মূল্য নেই।

২. স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি কোনও শিশুকে সাজা দেওয়ার ক্ষেত্রে ভিত্তি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না।

৩. অপরাধ যা-ই হোক না কেন, একজন শিশুকে ১০ বছরের বেশি সাজা প্রদান করা যাবে না।

প্রসঙ্গত, শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ সংক্রান্ত বিষয়ে দেশের ফৌজদারি কার্যবিধিতে সুনির্দিষ্ট কোনও বিধান নেই। শিশুদের শারীরিক ও মানসিক গঠন বিবেচনায় ১৯৭৪ সালের শিশু আইন অনুযায়ী বিচারকার্য পরিচালিত হয়ে আসছে। ২০১৩ সালে নতুন শিশু আইন প্রণয়ন করা হয়। এই আইনে শিশুর বয়স, জবানবন্দি গ্রহণ, দণ্ড ও শিশু শোধনাগারসহ বিশেষ বিশেষ বিধান রাখা হয়। এ বিষয়ে দেশের উচ্চ আদালতের পক্ষে-বিপক্ষে রায় ছিল। সে কারণে ফুল বেঞ্চ গঠনের জন্য প্রধান বিচারপতির বরাবর একটি আবেদন পাঠানো হয়েছিল।

ওই আবেদনের ধারাবাহিকতায় বিষয়টির গুরুত্ব বিবেচনায় প্রধান বিচারপতি হাইকোর্টে তিন সদস্যবিশিষ্ট ফুলবেঞ্চ গঠন করে দেন।

যেহেতু আইনের জটিল ব্যাখ্যা জড়িত, সেহেতু হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, এমআই ফারুকি এবং শাহদীন মালিককে এমিকাস কিউরি (আদালতের বন্ধু) হিসেবে নিয়োগ প্রদান করেন।

সবার শুনানি শেষে এই মামলার রায় ঘোষণা করেন হাইকোর্ট।

/বিআিই/ এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

মূল্য বৃদ্ধির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

মূল্য বৃদ্ধির জন্য দায়ী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেফতার

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেফতার

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

সালথা তাণ্ডব: সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইনসে হামলা: প্রধান আসামি যুবদল নেতা গ্রেফতার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইনসে হামলা: প্রধান আসামি যুবদল নেতা গ্রেফতার

‘নারী চিকিৎসকের প্রতি পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটের অসৌজন্যমূলক আচরণ দেখা যায়নি’

‘নারী চিকিৎসকের প্রতি পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটের অসৌজন্যমূলক আচরণ দেখা যায়নি’

মিকনকে ক্রসফায়ারে দেওয়া হবে: কাদের মির্জা

মিকনকে ক্রসফায়ারে দেওয়া হবে: কাদের মির্জা

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে নুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ৬ জুন

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে নুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ৬ জুন

সর্বশেষ

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ

দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

নেটফ্লিক্সে নতুন: আসছে আলো-অন্ধকারের লড়াই

নেটফ্লিক্সে নতুন: আসছে আলো-অন্ধকারের লড়াই

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

তিন পেসার নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

তিন পেসার নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

বুনো হাতির আতঙ্কে কাপ্তাই, চালু হবে সোলার ফেন্সিং

বুনো হাতির আতঙ্কে কাপ্তাই, চালু হবে সোলার ফেন্সিং

দানবাক্স খুললেই সোনা-দানা পাওয়া যায় যে মসজিদে

দানবাক্স খুললেই সোনা-দানা পাওয়া যায় যে মসজিদে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

‘নারী চিকিৎসকের প্রতি পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটের অসৌজন্যমূলক আচরণ দেখা যায়নি’

‘নারী চিকিৎসকের প্রতি পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটের অসৌজন্যমূলক আচরণ দেখা যায়নি’

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে নুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ৬ জুন

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে নুরের বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন ৬ জুন

লকডাউনে মাঠে পুলিশ, ঝুঁকি এড়াতে জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান

লকডাউনে মাঠে পুলিশ, ঝুঁকি এড়াতে জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান

নিষিদ্ধ ঘোষিত আনসার আল ইসলামের দুই সদস্য গ্রেফতার

নিষিদ্ধ ঘোষিত আনসার আল ইসলামের দুই সদস্য গ্রেফতার

কর্মহীন মানুষের জন্য মেয়র আতিকের বরাদ্দ

কর্মহীন মানুষের জন্য মেয়র আতিকের বরাদ্দ

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune