X
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
Bangla Tribune Eid

সেকশনস

৪ বছর আগের শক্রতার জেরে দুই পক্ষের সংঘর্ষ, বৃদ্ধ নিহত 

আপডেট : ১৩ মার্চ ২০২১, ১৪:৩৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় চার বছর আগের শত্রুতার জের ধরে  দুই পক্ষের সংঘর্ষে ফয়েজ মিয়া (৬০) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আর অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (১৩ মার্চ) সকালে কসবা উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নে নিমবাড়ী গ্রামে ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে গুরুতর আহত ফয়েজ মিয়া (৪০) ও রিমন মিয়া নামে  দু’জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরবর্তী সংঘর্ষের আশঙ্কায় এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

পুলিশ ও প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানায়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২০১৭ সালে নিমবাড়ী গ্রামে পান্ডুগোষ্ঠী এবং কাবিলা গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ওই সময় রহিস মিয়া নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়। এ ঘটনায় কাবিলা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়। এই মামলায় প্রধান সাক্ষী ছিলেন পান্ডু গোষ্ঠীর ফয়েজ মিয়া। রহিস হত্যা মামলার আসামিরা দীর্ঘদিন জেলে থাকার পর সম্প্রতি আদালত থেকে জামিন পেয়ে এলাকায় আসেন। পরে পূর্বের হত্যা মামলাটি প্রত্যাহারের জন্যে পান্ডু গোষ্ঠীর লোকজনের ওপর চাপ সৃষ্টি করে আসছিলেন আসামিপক্ষের লোকজন। এতে রাজি না হওয়ায় শনিবার সকালে কাবিলা গোষ্ঠীর লোকজন পান্ডু গোষ্ঠীর ওপর হামলা চালায়। এসময় টেঁটার আঘাতে ঘটনাস্থলে পান্ডু গোষ্ঠীর ফয়েজ মিয়া নিহত হন। তিনি রহিস মিয়া হত্যাকাণ্ডের প্রধান সাক্ষী ছিলেন।
নিহতের ছেলে ইকরাম মিয়া বলেন, তারা গত ৪ বছর ধরে আমাদের পরিবারের ওপর নানাভাবে হামলা নির্যাতন  চালিয়ে যাচ্ছিলেন। আমার চাচার হত্যা মামলার সাক্ষী ছিলেন আমার বাবা। মামলা কার্যক্রম শেষ পথে ছিল। শুধু রায়ের অপেক্ষায় ছিলাম আমরা। আমরা আমাদের চাচার হত্যা মামলাটি মীমাংসা না করার কারণেই আজকে তারা আমার বাবাকে হত্যা করছে। আমি হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবি করছি।

ফয়েজ মিয়ার মেয়ে ইভা আক্তার বলেন, ‘আজকে সকালে আমার বাবা বাজারে গিয়েছিলেন। আমি মসজিদ থেকে বাড়ি ফিরে শুনতে পারি আমার বাবা মারা গেছেন। গত ৪ বছর আগে আমার চাচাকে তারা হত্যা করেছিল। সে ঘটনার বিচার আজও পাইনি। কিন্তু আজকে আমার বাবাকে তারাই হত্যা করলো।  কার কাছে বিচার চাইবো।’

ঘটনায় আহত একজন বলেন, আমরা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে হঠাৎ করে হামলা করে তারা। আমাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে রাস্তার কিনারে ফেলে দেয় এবং তারা ফয়েজ ভাইকে ঘটনাস্থলেই মেরে ফেলে।

আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় ফয়েজ মিয়া ও রিমন নামে দু’জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে ফয়েজ মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে  ডা. আরিফুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের এখানে বেশ কয়েকজন চিকিৎসা নিয়েছেন । এরমধ্যে প্রথমে আসা ফয়েজ মিয়া নামের রোগীর শরীরে টেঁটার আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আহত সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। 

ঘটনার খবর পেয়ে কসবা থানার পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। কসবা সার্কেলর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নাহিদ হাসান  বলেন, কসবা নিমবাড়ীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ফয়েজ মিয়া নামে একজন প্রথমে গুরুত্বর আহত হয়ে পড়ে হাসপাতালে গিয়ে মারা যায়। ২০১৭ সালের একটি হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এই সংঘর্ষ হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। পরর্বতী সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার পর লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের  মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও থানায় এ ব্যাপারে মামলা হয়নি। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। 

/এসটি/

সম্পর্কিত

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে প্রাণ গেলো কিশোরের

বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে প্রাণ গেলো কিশোরের

কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত ২৫২ জনের মাঝে খাদ্য বিতরণ

কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত ২৫২ জনের মাঝে খাদ্য বিতরণ

নীলাচলে লেগেছে প্রকৃতির ছোঁয়া

নীলাচলে লেগেছে প্রকৃতির ছোঁয়া

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের প্রথমবারের মতো খুশির ঈদ

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের প্রথমবারের মতো খুশির ঈদ

ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ

ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ

ইসরায়েলি সন্ত্রাস বন্ধে পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি বাবুনগরীর আহ্বান

ইসরায়েলি সন্ত্রাস বন্ধে পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি বাবুনগরীর আহ্বান

মেঘনায় নিখোঁজের তিন দিন পর লাশ উদ্ধার

মেঘনায় নিখোঁজের তিন দিন পর লাশ উদ্ধার

বাবুলের বাবার দাবি, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের বিষয়টি জানতো না পরিবার

বাবুলের বাবার দাবি, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের বিষয়টি জানতো না পরিবার

নোয়াখালীর তিন গ্রামে ঈদ উদযাপন

নোয়াখালীর তিন গ্রামে ঈদ উদযাপন

সর্বশেষ

ইসরায়েলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

ইসরায়েলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

মুম্বাই থেকে ফিরে ‘বঙ্গবন্ধু’র অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন শুভ

ঈদ বিশেষমুম্বাই থেকে ফিরে ‘বঙ্গবন্ধু’র অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন শুভ

ক্ষতি নেই ফরমালিন বা কার্বাইড মেশানো আমে?

ক্ষতি নেই ফরমালিন বা কার্বাইড মেশানো আমে?

বেনাপোলে গাড়িচাপায় বন্দরের সিকিউরিটি গার্ড নিহত

বেনাপোলে গাড়িচাপায় বন্দরের সিকিউরিটি গার্ড নিহত

রাঙ্গাবালীতে মুদি দোকানিকে কুপিয়ে হত্যা

রাঙ্গাবালীতে মুদি দোকানিকে কুপিয়ে হত্যা

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

গোসলে নেমে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

গোসলে নেমে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটআজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

এঁকেবেঁকে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ গেলো কলেজছাত্রের

এঁকেবেঁকে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ গেলো কলেজছাত্রের

স্বামী-স্ত্রীর দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭

ঈদে ছেলেকে নতুন জামা না দেওয়া নিয়ে দ্বন্দ্বস্বামী-স্ত্রীর দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭

লকডাউনে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়া নিয়ে যত মত

লকডাউনে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়া নিয়ে যত মত

তালায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

তালায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

ঈদের দিনেও ঠায় দাঁড়িয়ে ডিউটিতে যারা

বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে প্রাণ গেলো কিশোরের

বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে প্রাণ গেলো কিশোরের

কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত ২৫২ জনের মাঝে খাদ্য বিতরণ

কোয়ারেন্টিনে থাকা ভারতফেরত ২৫২ জনের মাঝে খাদ্য বিতরণ

নীলাচলে লেগেছে প্রকৃতির ছোঁয়া

নীলাচলে লেগেছে প্রকৃতির ছোঁয়া

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের প্রথমবারের মতো খুশির ঈদ

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের প্রথমবারের মতো খুশির ঈদ

ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ

ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ

ইসরায়েলি সন্ত্রাস বন্ধে পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি বাবুনগরীর আহ্বান

ইসরায়েলি সন্ত্রাস বন্ধে পদক্ষেপ নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি বাবুনগরীর আহ্বান

মেঘনায় নিখোঁজের তিন দিন পর লাশ উদ্ধার

মেঘনায় নিখোঁজের তিন দিন পর লাশ উদ্ধার

© 2021 Bangla Tribune