X
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ৪ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রীর বিরুদ্ধে হত্যার পরিকল্পনার অভিযোগ কাদের মির্জার

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২১, ২১:৩৩

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রী ইসরাতুন্নেসা কাদেরের বিরুদ্ধে হত্যা ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র ও সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা। মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) দুপুরে ফেসবুক লাইভে এসে ভাবির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন তিনি।

লাইভে তিনি অভিযোগ করেন, ‘আমার বিরুদ্ধে আজ যে চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র চলছে, আমার নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে যেভাবে তাণ্ডব চলছে, আমাকে গুলি করে হত্যার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে এ প্রেক্ষাপটে আমি আপনাদের সঙ্গে কিছু খোলামেলা কথা বলে যেতে চাই। এ সুযোগ হয়তো আমার আর থাকবে না। আমার জীবন অবসান ঘটবে, আমাকে হয়তো কারাগারে নিক্ষেপ করবে। কিন্তু আমার সাথে ইনশাআল্লাহ, আল্লাহ আছে। বাংলাদেশের ৯০ ভাগ মানুষ আমার পক্ষে আছে। ইনশাআল্লাহ, আমি কোনো কিছুকে ভয় করি না। দুঃখজনক হলেও সত্য, আজকে যে তাণ্ডব আমার ওপর চলছে, আমার কর্মীদের ওপর চলছে, আজকে যে অস্ত্রবাজি আমার ওপর হচ্ছে আমাদের মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাহেবের সহধর্মিনী ইসরাতুন্নেসা কাদের সমস্ত ঘটনা আজকে পরিচালনা করছে। তার নেতৃত্বে সবকিছু হচ্ছে। তিনি সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করে আমার বিরুদ্ধে এবং আমার কর্মীদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে এবং আমাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছে। তার অংশ হিসেবে দীর্ঘদিন পর্যন্ত এখানে আমার ওপর অত্যাচার চলছে, নির্যাতন চলছে, আমার কর্মীদের নির্যাতন চলছে।’

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি সাহেব ভালো মানুষ। আমি উনাকে জানিয়েছি এখানে থানার ওসি ও তদন্ত অফিসারের নেতৃত্বে ও এসপির নির্দেশে ওই সন্ত্রাসীদের একটা চক্রকে নিয়ে আমার কর্মীদের বাড়ি বাড়ি তল্লাশি করছে ডিবি পুলিশ। অথচ আমার মামলাগুলোয় এখন পর্যন্ত একজনকেও গ্রেফতার করা হয়নি। কিন্তু, আমার ২০ জন নেতা-কর্মীকে এরইমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তিনি আরও দাবি করেন, তাদের লোকজন এখানে ঘোরাফেরা করছে। একরাম চৌধুরীর বউ এবং তার ছেলে শাবাব, তারপর সম্রাট একটা ছেলে আছে তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে আমাকে গুলি করে হত্যা করবে। একটা লাশ ফেলার আগেও সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। আবারও অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার পাঁয়তারা এখনও করে যাচ্ছে। 

কাদের মির্জা লাইভে দাবি করেন, ‘আমি আজকে বলবো এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িত প্রশাসনে যারা আছে নোয়াখালীর এসপি, ডিবির ওসি, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি এবং তদন্ত কর্মকর্তা এ চারজনকে প্রত্যাহার করে নিতে হবে। তাদেরকে যদি প্রত্যাহার করে না নেওয়া হয়, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট সকলকে দায়িত্ব নিতে হবে।’ 

মির্জা কাদের আরও বলেন, আমি গত তিনমাস ধরে বলে যাচ্ছি, ওবায়দুল কাদের সাহেবের স্ত্রী নিজাম হাজারী, একরাম চৌধুরীর সন্ত্রাসীদের দিয়ে, আমাকে হত্যা করার জন্য অথবা আমার কর্মীদের হত্যা করার জন্য, না হয় তাদের একজন কর্মীকে হত্যা করে আমার কর্মীদের ফাঁসানোর জন্য আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দেবে। আমার অপরাধ আমি নোয়াখালীর অপরাজনীতির বিরুদ্ধে বলেছি, টেন্ডারবাজির বিরুদ্ধে বলেছি, আমি চাকরি বাণিজ্যের বিরুদ্ধে বলেছি। এ কারণে মন্ত্রীর স্ত্রী ইসরাতুন্নেসা কাদের এর নেতৃত্বে তারা আমার বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে। ঢাকা থেকে প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করছে জাহাঙ্গীর নামে একটা ছেলে। সে লুটপাট করে খাচ্ছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছে। আজকে জাহাঙ্গীর এবং জুয়েল মন্ত্রীর স্ত্রীর নির্দেশে সব করছে। তার প্রশ্ন, আজকে কোম্পানীগঞ্জে কী চলছে, কারা আওয়ামী লীগের পরিচয় দিচ্ছে?

/টিএন/

সম্পর্কিত

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকু ৩ দিনের রিমান্ডে

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকু ৩ দিনের রিমান্ডে

পদায়নের ৫ দিনেই বিজয়নগর থানার ওসি বদলি

পদায়নের ৫ দিনেই বিজয়নগর থানার ওসি বদলি

কষ্টে আছেন শুনে বিনতীর বাড়িতে ছুটে গেলেন ডিসি

কষ্টে আছেন শুনে বিনতীর বাড়িতে ছুটে গেলেন ডিসি

১৩ রোহিঙ্গার পাসপোর্ট তৈরি, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

১৩ রোহিঙ্গার পাসপোর্ট তৈরি, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালীতে তৃতীয় দফায় বাড়লো বিশেষ লকডাউন

নোয়াখালীতে তৃতীয় দফায় বাড়লো বিশেষ লকডাউন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের ৬ দালালকে কারাদণ্ড

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের ৬ দালালকে কারাদণ্ড

৮০ বছরের পুরোনো রাস্তায় বাড়ি নির্মাণ, ৫০ পরিবার অবরুদ্ধ

৮০ বছরের পুরোনো রাস্তায় বাড়ি নির্মাণ, ৫০ পরিবার অবরুদ্ধ

যাচাইয়ে আ.লীগের হাসেম খানসহ দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

যাচাইয়ে আ.লীগের হাসেম খানসহ দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

ভাসানচরে ডায়রিয়ায় তিন শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

ভাসানচরে ডায়রিয়ায় তিন শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

সন্ত্রাসী বার্মা সাইফুল গ্রেফতার

সন্ত্রাসী বার্মা সাইফুল গ্রেফতার

সর্বশেষ

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন বাহিনী প্রত্যাহার রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ: পুতিন

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

অস্ট্রিয়াকে হারিয়ে নক আউট পর্বে নেদারল্যান্ডস

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

নীল জল থেকে উঠে জড়ালেন অন্তর্জালে!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

ব্রাজিলের অলিম্পিক দলে নেই নেইমার!

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মমতা

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

যানবাহন উৎপাদন ও বিপণনে ট্রেডমার্ক সনদ পেলো ওয়ালটন

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

প্রথম ব্যাচের তৃতীয় লিঙ্গের কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিলো ফুডপ্যান্ডা

সিলেটের নতুন কারাগারে প্রথম ফাঁসি কার্যকর

সিলেটের নতুন কারাগারে প্রথম ফাঁসি কার্যকর

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

ঢাকায় ৬০ নমুনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট!

মাঠে নেমেই বেলজিয়ামকে বদলে দিলেন ডি ব্রুইনে

মাঠে নেমেই বেলজিয়ামকে বদলে দিলেন ডি ব্রুইনে

কুড়িগ্রামে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ

কুড়িগ্রামে দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকু ৩ দিনের রিমান্ডে

মিতু হত্যা মামলার আসামি সাকু ৩ দিনের রিমান্ডে

পদায়নের ৫ দিনেই বিজয়নগর থানার ওসি বদলি

পদায়নের ৫ দিনেই বিজয়নগর থানার ওসি বদলি

কষ্টে আছেন শুনে বিনতীর বাড়িতে ছুটে গেলেন ডিসি

কষ্টে আছেন শুনে বিনতীর বাড়িতে ছুটে গেলেন ডিসি

১৩ রোহিঙ্গার পাসপোর্ট তৈরি, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

১৩ রোহিঙ্গার পাসপোর্ট তৈরি, ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নোয়াখালীতে তৃতীয় দফায় বাড়লো বিশেষ লকডাউন

নোয়াখালীতে তৃতীয় দফায় বাড়লো বিশেষ লকডাউন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের ৬ দালালকে কারাদণ্ড

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের ৬ দালালকে কারাদণ্ড

৮০ বছরের পুরোনো রাস্তায় বাড়ি নির্মাণ, ৫০ পরিবার অবরুদ্ধ

৮০ বছরের পুরোনো রাস্তায় বাড়ি নির্মাণ, ৫০ পরিবার অবরুদ্ধ

যাচাইয়ে আ.লীগের হাসেম খানসহ দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

যাচাইয়ে আ.লীগের হাসেম খানসহ দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

ভাসানচরে ডায়রিয়ায় তিন শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

ভাসানচরে ডায়রিয়ায় তিন শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune