X
বৃহস্পতিবার, ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কিছু সময়ের গরম বাতাসেই সব শেষ!

আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২১, ১৫:০৬

৩৫ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে ২০ কাঠা জমিতে ধান চাষ করেছিলাম। জমি থেকে এক ছটাক ধান ঘরে তোলার আশা নেই। ঘরে খাবারও নেই। আত্মীয় বাড়ি থেকে ১০ কেজি চাল দিয়েছিলো আর মাত্র একদিন চলবে। দোকানে গিয়েছিলাম কিছু বাজার করতে দোকানদার বাকি দিতে রাজি হয়নি। সে বলেছে জমির ফসল নষ্ট হয়ে গেছে, খেতে পাবে না, এখন তোমাকে বাকি দিলে পরে টাকা কোথা থেকে দিবা। চার মেয়ে দুই ছেলে আমার। ঘরে গিয়ে সন্তানের মুখের দিকে তাকালে কান্নায় বুক ফেটে যায়। তাদের কি খাওয়াবো? কি দিয়ে করবো তাদের ভরণ-পোষণ? আর কি দিয়েই করবো ঋণ পরিশোধ। এমনভাবেই আক্ষেপ নিয়ে কথাগুলো বলছিলেন নেত্রকোনার মদন উপজেলার গোবিন্দশ্রী গ্রামের কৃষক আবুল মিয়া।

শুধু আবুল মিয়াই না নেত্রকোনার মদন, মোহনগঞ্জ ও খালিয়াজুরি উপজেলার হাওর পাড়ের প্রতিটি কৃষক পরিবারে এখন ফসল হারানোর হাহাকার। অনিশ্চিত আগামী দিনের শঙ্কা সবার মধ্যে।

“কৃষকের কান্নায় ভারী হয়েছে হাওরের আকাশ”

মঙ্গলবার সারাদিন জেলার বিভিন্ন হাওর ঘুরে দেখা গেছে ফসলের মাঠে যেখানে একসময় ছিল ধানে ভরপুর, এখন সেখানে শুধু সাদা কাশফুলের মতো মরা ধান গাছ বাতাসে দোল খাচ্ছে।

কৃষকরা জানান, গত রবিবার সন্ধ্যায় হঠাৎ ঝড় বৃষ্টি শেষে দমকা গরম বাতাস শুরু হয়। এতে পাকা হতে শুরু করা ধান ঝরে যায়। দিন যত যাচ্ছে ক্ষতির পরিমাণ বাড়ছে, ফসলের মাঠে ধান গাছ বিবর্ণ হয়ে উঠছে। সূর্যের প্রখরতা বাড়তে শুরু করায় উঠতি বোরো ফসলের ধানের শীষ মরতে শুরু করেছে। মাঠের পর মাঠ ধান গাছ বিবর্ণ হয়ে যাচ্ছে।

হাওরে ২৮ জাতের ধানসহ কাটা শুরু হয়েছে বিভিন্ন জাতের হাইব্রিড ধান। বেশির ভাগ জমির ধানই পাকতে শুরু করেছিল। এ সময়ে হাওর পাড়ের কৃষক-কৃষাণিরা অনেকেই ব্যস্ত ছিল ধান তুলতে। তবে এখন তাদের মধ্যে শুধুই হাহাকার।

এদিকে ফসলের এমন ক্ষতির কারণ জানতে কৃষি বিভাগের একটি গবেষক দল মাঠে কাজ করছেন।

হাওরের বোরো ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি দেখতে সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জেলার বিভিন্ন উপজেলার কয়েকটি হাওর পরিদর্শন করেছেন। এ সময় মন্ত্রী ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সরকার থেকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বিষয়ে কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। কৃষকদের পাশে থাকবে সরকার। লকডাউনের পর ঢাকা গিয়ে কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে সরাসরি কথা বলবো বলেও কৃষকদের আশ্বাস দেন তিনি।

“কয়েক মিনিটের তাণ্ডবে হাজারো কৃষকের স্বপ্নভঙ্গ”

জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ হাবিবুর রহমান বিভিন্ন হাওর পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, অতি গরম আবহাওয়ায় এমনটা হয়েছে। ফুল আসা ধান সব চিটা হয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আমাদের কৃষি কর্মকর্তারা মাঠে আছে, জরিপ শেষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা যাবে।

হঠাৎ গরম বাতাসে বোরো ফসল নষ্ট হওয়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য কৃষি বিভাগের একটি গবেষণা ইউনিট মাঠে কাজ করছে বলে জানান তিনি।



/টিটি/

সম্পর্কিত

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

৬ ঘণ্টায় ভর্তির জন্য এসেছেন ২৯০ রোগী

৬ ঘণ্টায় ভর্তির জন্য এসেছেন ২৯০ রোগী

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

প্যানেল মেয়রের কারখানায় কাঠমিস্ত্রির লাশ

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৭:৩৬

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র জাহেদ চৌধুরীর মালিকানাধীন কাঠের মালামাল তৈরির কারখানা থেকে বিজয় গোপ (২২) নামে এক কাঠমিস্ত্রির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) দুপুরে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার হাসপাতাল সড়কের ওই কারখানা থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। বিজয় গোপ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের মৃত দবুদ গোপের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার কারখানায় কাজ করতে আসেন বিজয় গোপ। রাতে কারখানায় অবস্থান করেন। সকালে কারখানার আড়ার সঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ দেখেন সহকর্মীরা। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আত্মহত্যা। তবে ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।’

/এএম/

সম্পর্কিত

দেশের হয়ে খেলা নাসুম নিজ জেলায় আজীবন নিষিদ্ধ

দেশের হয়ে খেলা নাসুম নিজ জেলায় আজীবন নিষিদ্ধ

সার কারখানার ৩৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা আত্মসাৎ, দুদকের মামলা

সার কারখানার ৩৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা আত্মসাৎ, দুদকের মামলা

সিলেটে করোনায় একদিনে রেকর্ড মৃত্যু

সিলেটে করোনায় একদিনে রেকর্ড মৃত্যু

স্বামীর ৪ ঘণ্টা পর শ্বাসকষ্টে স্ত্রীরও মৃত্যু

স্বামীর ৪ ঘণ্টা পর শ্বাসকষ্টে স্ত্রীরও মৃত্যু

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৭:২০

এক মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থীর শরীরে করোনাভাইরাসের টিকা ছাড়া খালি সিরিঞ্জ পুশের অভিযোগে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের টিকাকেন্দ্রের দুই স্টাফ নার্সকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বুধবার (৪ আগস্ট) দুপুরের এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বেলা ১২টায় তাদের প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. কে এম আবু জাফর। তিনি জানান, প্রত্যাহার হওয়া ওই দুই নার্স হলেন- মেরিনা এবং মিতা। তবে তারা খালি সিরিঞ্জ শরীরে পুশের কোনও ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেছেন বলে জানিয়েছেন।

ভুক্তভোগীর পিতা অ্যাডভোকেট আব্দুল হান্নান বলেন, ‘আমার মেয়ে ঢাকার একটি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের পঞ্চম বর্ষের ছাত্রী। বুধবার হাসপাতালে কোভিড-১৯ টিকা নিতে যায়। এ সময় কর্তব্যরত নার্সরা তার বাহুতে একটি খালি সিরিঞ্জ পুশ করে। বিষয়টি লক্ষ্য করে প্রতিবাদ জানালে তাড়াহুড়ো করে সিরিঞ্জ বের করায় রক্তপাত হয়। পরে ভ্যাকসিনসহ আরেকটি সিরিঞ্জ অন্য হাতে পুশ করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমার মেয়ে একজন মেডিক্যাল শিক্ষার্থী বলেই বিষয়টি তাৎক্ষণিক বুঝতে পেরেছে। এটি একটি গুরুতর অপরাধ ও কর্তব্যে অবহেলা। টিকা প্রদান ও গ্রহণে প্রত্যেকেরই আরও সচেতন হওয়া উচিত। দায়িত্বরত নার্সরা কেন এমন করলেন, তা আমি বুঝতেই পারছি না।’

এদিকে, টিকা প্রদানে কর্তব্যরত নার্সদের কোনও অবহেলা ছিল কি না- তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. কে এম আবু জাফর। এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও করা হয়েছে।

পরিচালক বলেন, ‘যদিও আমরা এ বিষয়ে কোনও আনুষ্ঠানিক অভিযোগ পাইনি। এরপরেও পাবনা সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোস্তাফিজুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটিকে তদন্ত করতে বলা হয়েছে। তারা প্রতিবেদন দিলে এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি টিকাকেন্দ্রে সার্বিক নজরদারিও বাড়ানো হয়েছে।’

এ বিষয়ে পাবনা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মনিসর চৌধুরী বলেন, ‘জেলায় টিকাদানে যারা কাজ করছেন, তারা সবাই স্টাফ নার্স ও অভিজ্ঞ। পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর্মীরাও প্রশিক্ষিত। এ ধরনের ভুল হওয়ার কথা নয়। এরপরও, আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।’ টিকাদান কার্যক্রম নিয়ে বিভ্রান্ত না হয়ে সহযোগিতার অনুরোধও করেন তিনি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

ওয়ার্ড পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম সীমিত করলো চসিক

ওয়ার্ড পর্যায়ে টিকাদান কার্যক্রম সীমিত করলো চসিক

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:৫৪

১০ জন সহকর্মীকে চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) ‘ক্রসলাইন নীট ফেব্রিক লিমিটেড’ নামের ওই পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ করেন। এ সময় ভাদাম-টঙ্গী আঞ্চলিক সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। 

শ্রমিকদের বিক্ষোভ থামাতে ও সড়ক থেকে সরে যেতে পুলিশ অনুরোধ জানায়। এক পর্যায়ে শ্রমিক-পুলিশ বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এ সময় শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে।

আহত দুই পুলিশ সদস্য

প্রত্যক্ষদর্শী ও শ্রমিকরা জানান, গত কয়েকদিন ধরে বিনা কারণে টঙ্গীর ভাদাম এলাকার ‘ক্রসলাইন নীট ফেব্রিক লিমিটেড’ কারখানার ১০ শ্রমিককে ছাঁটাই করে কর্তৃপক্ষ। তাদের কাজে ফিরিয়ে আনার দাবিতে সহকর্মী শ্রমিকরা গত তিন দিন ধরে কারখানা অভ্যন্তরে বিক্ষোভ করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার ওই দাবির প্রেক্ষিতে উৎপাদন বন্ধ রেখে শ্রমিকরা কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেন। এতে ভাদাম-টঙ্গী সড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের পুলিশ সুপার (এসপি) সিদ্দিকুর রহমান জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শিল্প, মেট্রোপলিটন পুলিশ ও আনসার সদস্যরা কমপক্ষে ৬০ রাউন্ড টিয়ারশেল এবং রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। শ্রমিকদের ইটপাটকেলে পুলিশের ছয় এবং আনসার বাহিনীর তিন সদস্য আহত হন। তাদের টঙ্গী আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে শ্রমিক আহতের কোনও ঘটনা নেই বলে দাবি করেন তিনি। ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা ছুটি ঘোষণা করেন।

শ্রমিকরা দাবি করেন, পুলিশের টিয়ারশেল ও রাবার বুলেটের আঘাতে কমপক্ষে ৫০ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। তাদেরকে বিভিন্ন ওষুধের দোকানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তার মোবাইলফোনে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বগুড়ায় আরও ১১ মৃত্যু

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:৪৭

বগুড়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনায় ছয় ও উপসর্গে পাঁচ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানান।

করোনায় মৃতদের মধ্যে বগুড়ার চার জন। তারা হলেন- সদরের রূপ কুমার সাহা (৫২), শেরপুরের রেহেনা খাতুন (৪৫), শাজাহানপুরে মঞ্জুফা বেগম (৪৫) ও সারিয়াকান্দির তুলি বেগম (৫৫)। বাকিরা অন্য জেলার।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়ার বিভিন্ন এলাকার ৫৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১০৫ জনের। বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ৪০ জন, জিন এক্সপার্ট মেশিনে সাত জনের নমুনা পরীক্ষায় ছয় জন ও অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ২৭৪টি নমুনায় ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ ও রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতালে ৩৫টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৬ জনের।

সূত্র আরও জানায়, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তদের মধ্যে সদরে ৫৯, শাজাহানপুরে নয়, শিবগঞ্জ ও শেরপুরে সাত জন করে, সোনাতলায় ছয়, নন্দীগ্রামে পাঁচ, সারিয়াকান্দিতে চার, আদমদীঘি ও দুপচাঁচিয়ায় তিন জন করে এবং ধুনট ও গাবতলীতে একজন করে রয়েছেন। শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ।

বগুড়ায় এ পর্যন্ত ১৯ হাজার ৩৯৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৪৯৯ জন। মারা গেছেন ৫৯১ জন। বর্তমানে হাসপাতাল ও বাড়িতে এক হাজার ৩০৯ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

খুলনায় প্রস্তুত ৩০৭ বুথ, টিকা পাবে ৬১৪০০ জন

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে আরও ১৭ মৃত্যু

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

কারখানায় নামাজ আদায় ও টুপি পরতে মানা, শ্রমিকদের ‘বিক্ষোভ’

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:৫৯

গাজীপুরের টঙ্গীর দরাইল এলাকার এস অ্যান্ড পি বাংলা লিমিটেড নামক পোশাক কারখানায় নামাজ আদায় ও পাঞ্জাবি-টুপি পরিধান থেকে বিরত থাকার নোটিশ দেওয়ায় ‘বিক্ষোভ’ করেছেন শ্রমিকরা। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) সকালে কাজ বন্ধ রেখে বিক্ষোভ করেন তারা।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের জ্যৈষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার এস আলম জানান, গত ৩ আগস্ট কর্তৃপক্ষ কারখানার অভ্যন্তরে নামাজ আদায় ও টুপি-পাঞ্জাবি পরিধান থেকে বিরত থাকার জন্য নোটিশ জারি করে। এতে শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ওই আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করেন। ওই দাবির প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ সেটা প্রত্যাহার করে আরেকটি নোটিশ জারি করে। নতুন নোটিশ জারির পর শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন।

গত ৩ আগস্ট কর্তৃপক্ষের জারি করা নোটিশে উল্লেখ করা হয়, কারখানার অভ্যন্তরে নামাজ পড়া যাবে না এবং পাঞ্জাবি ও টুপি পরা যাবে না। এই আদেশ মেনে কারখানা অভ্যন্তরে কাজ করার বিশেষভাবে নির্দেশ দেওয়া হলো।

শ্রমিকদের দাবির মুখে আগের নোটিশটি প্রত্যাহার করে নতুন নোটিশ জারি করে কর্তৃপক্ষ। এতে উল্লেখ করে, কারখানা অভ্যন্তরে নামাজ আদায় এবং পাঞ্জাবি ও টুপি পরা থেকে বিরত থাকার বিষয়ে যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তা অনিচ্ছাকৃত ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। এর জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি। কারখানায় পূর্বের ন্যায় ধর্মীয় বিধিবিধান পালন করা যাবে। কারখানার পাঁচতলায় অজু ও নামাজের জন্য স্থান রয়েছে।

এস অ্যান্ড পি বাংলা লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মাহবুব আলম দাবি করেন, ‘কারখানায় কোনও বিক্ষোভ হয়নি। দ্বিতীয় নোটিশে বিষয়টি প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে বিষয়টি জানতে বৃহস্পতিবার গণমাধ্যম ও পুলিশ সদস্যরা এসেছিলেন। শান্তিপূর্ণ সমাধান হয়েছে। কারখানার মোট সাড়ে ৬০০ শ্রমিক পুরোদমে উৎপাদনে নিয়োজিত রয়েছেন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

১০ সহকর্মীকে ছাঁটাই করায় বিক্ষোভ তাদের

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

সিঙ্গারের গোডাউনের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুড়ে ছাই টিভি-ফ্রিজ

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

বিদায়ের মুহূর্তে সহকর্মীদের ভালোবাসায় সিক্ত পুলিশ সদস্য

সর্বশেষ

ঢাবি উপাচার্যকে মার্কিন দূতাবাসের অভিনন্দন

ঢাবি উপাচার্যকে মার্কিন দূতাবাসের অভিনন্দন

সব রেকর্ড ভেঙে করোনায় একদিনে ২৬৪ জনের মৃত্যু

সব রেকর্ড ভেঙে করোনায় একদিনে ২৬৪ জনের মৃত্যু

ভারতকে সামরিক ঘাঁটি নির্মাণ করতে দেওয়া হয়নি: মরিশাস

ভারতকে সামরিক ঘাঁটি নির্মাণ করতে দেওয়া হয়নি: মরিশাস

আকবরের কাছে এই পুরস্কার গর্বের, অনুপ্রেরণার

শেখ কামাল ক্রীড়া পুরস্কারআকবরের কাছে এই পুরস্কার গর্বের, অনুপ্রেরণার

প্যানেল মেয়রের কারখানায় কাঠমিস্ত্রির লাশ

প্যানেল মেয়রের কারখানায় কাঠমিস্ত্রির লাশ

মডেল পিয়াসার দুই সহযোগী মিশু ও জিসান রিমান্ডে

মডেল পিয়াসার দুই সহযোগী মিশু ও জিসান রিমান্ডে

নিশিতার কণ্ঠে বঙ্গবন্ধুকে হারানোর শোক

নিশিতার কণ্ঠে বঙ্গবন্ধুকে হারানোর শোক

রাজউক ও অন্যান্য সংস্থাকে মশকনিধন অভিযানের নির্দেশ স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর

রাজউক ও অন্যান্য সংস্থাকে মশকনিধন অভিযানের নির্দেশ স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর

বিশ্বের সবচেয়ে মোটা গাছ

বিশ্বের সবচেয়ে মোটা গাছ

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

টিকা ছাড়া শরীরে খালি সিরিঞ্জ পুশ, ২ নার্সকে প্রত্যাহার

বসুন্ধরা কিংস-মোহনবাগান লড়াই ২৪ আগস্ট

বসুন্ধরা কিংস-মোহনবাগান লড়াই ২৪ আগস্ট

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে, জাতিসংঘকে সতর্ক করলেন রাষ্ট্রদূত

মিয়ানমারে গণহত্যা চলছে, জাতিসংঘকে সতর্ক করলেন রাষ্ট্রদূত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্পে চার মাসে ক্ষতি ২২ কোটি টাকা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ২১ মৃত্যু

৬ ঘণ্টায় ভর্তির জন্য এসেছেন ২৯০ রোগী

৬ ঘণ্টায় ভর্তির জন্য এসেছেন ২৯০ রোগী

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

রূপগঞ্জে লেদার কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ২২ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ২২ মৃত্যু

খুলে দেওয়া হচ্ছে লেবুখালী ঝুলন্ত সেতু

খুলে দেওয়া হচ্ছে লেবুখালী ঝুলন্ত সেতু

জাতিসংঘের পুরস্কার পেলো বাংলাদেশের বিনা ও শামসুন নাহার

জাতিসংঘের পুরস্কার পেলো বাংলাদেশের বিনা ও শামসুন নাহার

রামেক হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১৯ মৃত্যু

রামেক হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৭ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৭ মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune