X
মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সেকশনস

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদ

মুঘল আমলের জাফরি ইটের মসজিদটি আছে ঝাউদিয়ায়

আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০০

বিশ্বে গর্ব করার মতো বাংলাদেশের আছে হাজার বছরের সমৃদ্ধ ঐতিহ্য। এই ঐতিহ্যের অন্যতম অনুষঙ্গ স্থাপত্যকলা। শিল্পের এই মাধ্যমে কোনও অংশে কম ছিল না এ অঞ্চল। বাংলাদেশের যে স্থাপনাশৈলী এখনও বিমোহিত করে চলেছে অগণিত ভ্রমণচারী ও মননশীল মানুষকে, তার মধ্যে আছে দেশজুড়ে থাকা অগণিত নয়নাভিরাম মসজিদ। এ নিয়েই বাংলা ট্রিবিউন-এর ধারাবাহিক আয়োজন ‘বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদ’। আজ থাকছে কুষ্টিয়ার ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ নিয়ে প্রতিবেদন।

কুষ্টিয়া শহর থেকে ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, ঝিনাইদহ ও কুষ্টিয়ার মধ্যবর্তী স্থানে ঝাউদিয়া গ্রাম। সেখানে গেলে দেখা মিলবে এক অন্যরকম মসজিদ। ঝাউদিয়া শাহী মসজিদটির ভেতরের লাল-সাদার শৈল্পিক কারুকাজ তো মুগ্ধ করবেই, সামনে থেকে দেখলে দর্শনার্থীর মনে হবে হুট করে যেন কয়েক শ’বছর অতীতে চলে গেছেন তিনি।

ঝাউদিয়া শাহী মসজিদের ইতিহাস নিয়ে আছে নানা মত। কেউ বলেন মুঘল আমলের, আবার কেউ বলেন, রাতারাতি মাটি ফুঁড়ে গজিয়ে উঠেছিল এটি।

সুদৃশ্য পাঁচটি গম্বুজ। চার কোনায় চারটি নান্দনিক মিনার। প্রবেশপথে দুটি মিনার। উত্তর ও দক্ষিণ দেয়ালে একটি করে খিলানপথও ছিল। এখন সেগুলো ইট দিয়ে তৈরি জালি নকশায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় মিহরাব ও পূর্ব দেয়ালের প্রবেশপথের বাইরের দিকে রয়েছে ক্ষুদ্রাকৃতির মিনার শোভিত আয়তাকার প্রক্ষেপণ। মিনারগুলি ছাদের প্রাচীর ছাড়িয়ে সোজা উপরে উঠে গেছে। এগুলির শীর্ষে রয়েছে কলস নকশার শীর্ষচূড়া শোভিত ছোট ছোট ছত্রী। এ ছাড়া গম্বুজগুলোর শীর্ষেও রয়েছে পদ্মকলস নকশার দৃষ্টিনন্দন চূড়া।

ঝাউদিয়া শাহী মসজিদ সম্পূর্ণ ইটের তৈরি মসজিদটির ইমারতের কিছু অংশ ধনুক, বাঁকা কার্নিশ, টেরাকোটা ও খোদাই নকশায় শিল্পীদের নিপুণ হাতে সুসজ্জিত। ভেতরের চমৎকার ফুলের নকশা। মসজিদটি পারস্যের মুরকানা ডিজাইনের একটি আদি নিদর্শন।

মসজিদের বাইরের সৌন্দর্য রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে কিছুটা ম্লান হলেও ভেতরের চোখ ধাঁধানো নকশা অক্ষত আছে। সূক্ষ্ম নকশার কারুকাজ মসজিদের ভেতর এনে দিয়েছে অন্য এক আবহ। মিহরাব, দেয়াল এবং গম্বুজের ভেতরের অংশে জ্যামিতিক নকশার সঙ্গে লতাপাতার নকশাও আছে।

মসজিদটি আয়তাকার। ভেতরে তিন সারিতে একসঙ্গে প্রায় ১০০ জন নামাজ আদায় করতে পারে। আরও বেশি মানুষের জন্য মসজিদটির বাইরে তেরপল দেওয়া আছে।

নিপুণ কারুকাজের ঐতিহ্যবাহী মসজিদটি দেখতে প্রতিদিনই শত শত দর্শনার্থী আসেন নিভৃতপল্লী ঝাউদিয়ায়। শত শত দর্শক আর ভ্রমণ পিপাসুদের আগমনে মুখর থাকে এর প্রাঙ্গন। জুমার দিন উপচেপড়া ভিড়। কিন্তু পর্যটকদের জন্য তেমন সুযোগ সুবিধা নেই এখানে। নেই বিশ্রামের জায়গাও। তাই পর্যটন আকর্ষণ হওয়া সত্ত্বেও এখানে দূর-দূরান্তের লোকজন কমই আসে। আবার দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়াতেও মসজিদটি ক্রমে জীর্ণ হচ্ছে।

ঝাউদিয়ার মসজিদটি মুঘল স্থাপত্যরীতির অন্যতম নিদর্শন। স্থানীয় বাসিন্দা শাহরিয়ার ইমন জানান, এর দেয়ালে লাল ইট ও চুনাপাথরের মিশ্রণে প্রাচীন দিল্লির স্থাপত্যরীতির প্রভাব রয়েছে। দেয়ালগুলোতে রয়েছে ইটের বিন্যাস, পোড়ামাটির ফলকের কাজ। বেশ কয়েকবার রঙ করা হলেও সেটা কয়েকদিন পর আবার মিলিয়ে যায়।

ঝাউদিয়া শাহী মসজিদের মিম্বর
ধারণা করা হয় মসজিদটির নির্মাণকাজ পরিচালনা করেন শাহ্ সুফি আদারি মিয়া চৌধুরী। উপমহাদেশ থেকে আসা ধর্ম প্রচারক শাহ্ সুফি আদারি ৮৫ বছর বয়সে মারা যান। তার মৃত্যুর পর ১৯৬৯ সালে মসজিদটির দায়িত্ব প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের হাতে যায়। তখন চুক্তি অনুযায়ী এর মতওয়ালী (তত্ত্বাবধায়ক) হিসেবে নিযুক্ত হন হাসান আলী চৌধুরী। এখন তারই বংশধররা মসজিদটির পরিচালনা কমিটিতে আছেন।

ঝাউদিয়া মসজিদের প্রবেশ মুখে লেখা আছে ‘এটা প্রতিষ্ঠিত হয় মুঘল সম্রাট আওরঙ্গজেবের শাসনামলে’। কিন্তু ওই সময় কে এই মসজিদ নির্মাণ করেছিল সে বিষয়ের উল্লেখ নেই। স্থানীয় ব্যক্তিরাও বিশেষ কিছু বলতে পারছেন না।

ইতিহাসবিদদের মতে, মসজিদের নির্মাণকাল বিষয়ে সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য মত হচ্ছে, এটা মুঘল আমলেই বানানো। কারণ, ওই সময়কার অন্যান্য স্থাপনার সঙ্গে এর নির্মাণশৈলীর সামঞ্জস্য আছে। ওই সময়কার অন্যসব স্থাপনার মতো এ মসজিদেও লাল জাফরি ইট ব্যবহার করা হয়েছে।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

বায়তুল মোকাররমের ঈদ জামাতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

বায়তুল মোকাররমের ঈদ জামাতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

বিটিভির আজানে দেখা যেতো যে মসজিদ

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদবিটিভির আজানে দেখা যেতো যে মসজিদ

বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

ঈদের দিনের সুন্নতগুলো কী কী

ঈদের দিনের সুন্নতগুলো কী কী

তিন গম্বুজের সূচনা হয়েছিল যে মসজিদ থেকে

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদতিন গম্বুজের সূচনা হয়েছিল যে মসজিদ থেকে

জাকাতের টাকায় ধর্মীয় বই বা কোরআন বিতরণ করা যাবে?

জাকাতের টাকায় ধর্মীয় বই বা কোরআন বিতরণ করা যাবে?

মসজিদের আলোয় আলোকিত গ্রাম

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদমসজিদের আলোয় আলোকিত গ্রাম

ঈদের চাঁদ দেখতে সভা আজ

ঈদের চাঁদ দেখতে সভা আজ

সর্বশেষ

যা আছে মামলার তিনটি ধারায়

যা আছে মামলার তিনটি ধারায়

ডিএমপির গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের দায়িত্বে হারুন অর রশিদ

ডিএমপির গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের দায়িত্বে হারুন অর রশিদ

সাংবাদিক রোজিনার সঙ্গে কেন মারুমুখী আচরণ?

সাংবাদিক রোজিনার সঙ্গে কেন মারুমুখী আচরণ?

রোজিনাকে হাসপাতালে নিতে চায় পুলিশ, পরিবারের না

রোজিনাকে হাসপাতালে নিতে চায় পুলিশ, পরিবারের না

অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের ভয় দেখানো হলো: বিএনপি

অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের ভয় দেখানো হলো: বিএনপি

রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবি এডিটরস গিল্ডের

রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবি এডিটরস গিল্ডের

মামলা নিয়ে প্রথম আলো কর্তৃপক্ষ যা বললো

মামলা নিয়ে প্রথম আলো কর্তৃপক্ষ যা বললো

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

যুগ্ম পুলিশ কমিশনার পদমর্যাদার পাঁচ কর্মকর্তার পদায়ন

যুগ্ম পুলিশ কমিশনার পদমর্যাদার পাঁচ কর্মকর্তার পদায়ন

রোজিনা ইসলামের মুক্তি দাবি আইন-সালিশ কেন্দ্রের

রোজিনা ইসলামের মুক্তি দাবি আইন-সালিশ কেন্দ্রের

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ইসলামিক জিহাদ কমান্ডার নিহত

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ইসলামিক জিহাদ কমান্ডার নিহত

এ কাজগুলো করলে মৃদু কোভিড হয়ে উঠবে সিরিয়াস!

এ কাজগুলো করলে মৃদু কোভিড হয়ে উঠবে সিরিয়াস!

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বায়তুল মোকাররমের ঈদ জামাতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

বায়তুল মোকাররমের ঈদ জামাতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

বিটিভির আজানে দেখা যেতো যে মসজিদ

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদবিটিভির আজানে দেখা যেতো যে মসজিদ

বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

ঈদের দিনের সুন্নতগুলো কী কী

ঈদের দিনের সুন্নতগুলো কী কী

তিন গম্বুজের সূচনা হয়েছিল যে মসজিদ থেকে

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদতিন গম্বুজের সূচনা হয়েছিল যে মসজিদ থেকে

জাকাতের টাকায় ধর্মীয় বই বা কোরআন বিতরণ করা যাবে?

জাকাতের টাকায় ধর্মীয় বই বা কোরআন বিতরণ করা যাবে?

মসজিদের আলোয় আলোকিত গ্রাম

বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদমসজিদের আলোয় আলোকিত গ্রাম

© 2021 Bangla Tribune