X
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

মার্কেট বন্ধ, সার্ভিস চালু!

আপডেট : ২২ এপ্রিল ২০২১, ২১:২০

বেলা ১২টার দিকে সেলিম আহমেদ মোটরসাইকেলে করে রাজধানীর হাতিরপুলে মোতালেব প্লাজার সামনে এসে দাঁড়ান। তখনই তিনি তার পরিচিত দোকানে ফোন দেন। উদ্দেশ্য তার মোবাইল ফোনের চার্জের সমস্যা ঠিক করা। দোকানের কর্মচারী রাস্তার মাঝামাঝি ডিভাইডারে অপেক্ষমান ছিলেন। সেখান থেকে তার ফোন মার্কেটের ভেতরে পাঠিয়ে দেন ওই কর্মচারী। সেটি দেখে কিছুক্ষণ পর তাকে জানানো হয় সেটি ঠিক করতে লাগবে আধাঘণ্টা। অতঃপর তিনি হাফ ছেড়ে বাঁচলেন।

অন্যদিকে অনলাইনে নানারকম পণ্যের ব্যবসা করেন তানিয়া। তিনি ভরদুপুরে গাউসিয়া এলাকায় অনেকগুলো ব্যাগ হাতে নিয়ে যাচ্ছিলেন। তার কাছে জানতে চাওয়া হলে – তিনি বলেন অনলাইনের ব্যবসার কিছু টুকটাক জিনিসপত্র প্রয়োজন। তার জন্য আসা। কিন্তু মার্কেট তো বন্ধ তাহলে পাচ্ছেন কিভাবে – জানতে চাইলে তিনি বলেন, পুরানো পরিচিত দোকান তো ফোনে কথা বলে চলে আসছি নিতে।

সার্ভিস পাওয়া এমন ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলার পর প্রশ্নই জাগে মার্কেট বন্ধ থাকা সত্ত্বেও কিভাবে পাচ্ছে তা! রাজধানীর গাউসিয়া, হাতিরপুল এলাকার মার্কেটগুলো ঘুরে দেখা যায় সেখানে লোকসমাগম। খোঁজ নিতেই জানা গেল- এরা সবাই মার্কেটের দোকানের কর্মী। তখন প্রশ্ন আসে – মার্কেট তো বন্ধ তাহলে এখানে কেন তারা? কয়েকজনের কাছে এই বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিক পরিচয় শুনে কেউ কিছু বলতে রাজি হননি।

করোনা সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে বেড়ে যাওয়ায় গত ৫ এপ্রিল থেকে কঠোর বিধিনিষেধ পালনের ঘোষণা দেয় সরকার। এসময় মার্কেট বন্ধের ঘোষণা থাকলেও শুরু থেকেই এ সিদ্ধান্তের বিপক্ষে গিয়ে রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন গাউছিয়া ও নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীরা। রাজধানী ঢাকার বাইরেও বিভাগীয় শহর রাজশাহী, সিলেটসহ কয়েকটি শহরে মার্কেট খোলার রাখার দাবিতে ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ করেন। দ্বিতীয় দফায় আবারও এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। তখন সরকারি-বেসরকারি সব অফিসসহ ইন্টারন্যাশনাল ফ্লাইটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর আর ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ করেননি। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান শপিং মল খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

নিউমার্কেট এলাকার কয়েকজন পাইকারি বিক্রেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রথম দফা লকডাউনে মার্কেট বন্ধ করা হলে গণপরিবহণ চালু ছিল। তখন জিনিসপত্রের ক্রেতা থাকায় অনেকেই মার্কেটের গেত বন্ধ করেও ভিতর থেকে পাইকারি মাল বিক্রি করেছেন। এখনও অনেকেই তাই করছেন। তবে সেই তুলনায় নয়। পরিচিত ক্রেতাদের ক্ষেত্রে এই সুবিধা দেওয়া হয়।

বিক্রেতারা জানান,  করোনার সংক্রমণ রোধে সরকারের বিধি-নিষেধের কারণে পহেলা বৈশাখের ব্যবসা হয়নি। তারপর চলমান লকডাউনের কারণে ঈদ-কেন্দ্রিক ব্যবসা নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা। গতবার ঈদের সময় কর্মচারীদের বেতন দিতে হিমসিম খেতে হয়েছে। এবার তাই কিছুটা লাঘব করার জন্য হলেও মার্কেট বন্ধ থাকা সত্ত্বেও কেউ কেউ এই সার্ভিস দেয়। তবে সবাই দিচ্ছে না।

গাউসিয়ায় ইসমাইল ম্যানশনের সামনে দেখা যায়, সেই মার্কেটে অবস্থিত দোকানের কর্মীরা মার্কেটের সামনেই অপেক্ষমাণ। একজনের কাছে জানতে চাওয়া হলো – এখানে কেন আপনারা? তারা উত্তর দিলে এমনেই। একই দৃশ্য দেখা যায় মার্কেটের ওপর পাশের দোকানগুলোর সামনে। সেখানে ফুটপাথেই বসে ছিলেন তারা। দোকানের একজন কর্মীর কাছে জানতে চাইলে – তিনিও কোন জবাব দিলেন না। একটু পর মার্কেটের গেট খোলা হলে ১০-১২ জন কর্মী মার্কেটের ভেতরে চলে যান। এসময় নিরাপত্তারক্ষীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দোকান আছে ওদের তাই যায়। এর বেশিকিছু তিনি বলতে রাজি হননি।

একই দৃশ্য দেখা যায় ইসমাইল ম্যানশন থেকে কিছুদূর গেলে ইস্টার্ন মল্লিকার সামনে। সেখানে মূল প্রবেশ পথ বন্ধ থাকলেও, এটিএম বুথের পাশের ছোট একটি গেট খোলা ছিল এবং সেখানে নিরাপত্তারক্ষী দোকানের কর্মীদের প্রবেশ করতে দিচ্ছেন। আবার কিছু কর্মী হাতে করে দোকানের বিক্রয়ের মাল হাতে করে নিয়ে বের হচ্ছেন। তার কাছে জানতে চাইলে নিজেকে দোকানের কর্মী পরিচয় দেন এবং বলেন এগুলা অর্ডারের মাল। এসময় নিরাপত্তারক্ষীর কাছে দোকান খোলা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করে জানতে চান – ভিতরে দোকানের মালিক কিনা, নাহলে কিছু বলতে রাজি না। এসময় মার্কেটের ভেতরেও অনেকেকে অবস্থান করতে দেখা যায়।  

গাউসিয়া এলাকা থেকে বের হয়ে হাতিরপুল এলাকা গিয়ে দেখা যায় মোতালেব প্লাজার সামনে এবং ইস্টার্ন প্লাজার সামনে একই রকম অবস্থা। দোকানের কর্মীরা এবং মোবাইল টেকনিশিয়ানরা বসে আছেন ডিভাইডারের ওপরে। জানতে চাইলে নাসিম নামের একজন টেকনিশিয়ান জানান, মার্কেট বন্ধ। কিন্তু আমাদেরও চলতে হয়। মোবাইল একটি জরুরি জিনিস , কিছু হলেই মানুষের টেকনিশিয়ানের প্রয়োজন হয়। বর্তমানে বলতে গেলে মোবাইল ছাড়া মানুষ অচল। এই মার্কেটে অনেক দোকান। সবাই বসা। কারো কাজ নাই। দিনে দুই চারটা যাই আসে তা দিয়েই চলতে হচ্ছে এখন।

পাশেই আরেকজন টেকনিশিয়ান বলেন, করোনায় এখন সবারই অবস্থা খারাপ। মার্কেট বন্ধ করে আরও খারাপ অবস্থা হয়ে গেছে। দৈনিক কোন আয় নাই।

এই এলাকার স্থানীয়রা জানান, যারা বসে আছে এরা সবাই মোবাইল টেকনিশিয়ান, সবারই মার্কেটে দোকান আছে। বাইরে দুই চারজন কাস্টমার আসে তারা ভিতরে মোবাইল পাঠায় দেয় ঠিক করার জন্য।  

/এফএএন/

সম্পর্কিত

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়ছে

ব্যাংকে লেনদেনের সময় বাড়ছে

কর্মস্থলেই থাকতে হবে, এক জেলার গাড়ি অন্য জেলায় যাবে না

কর্মস্থলেই থাকতে হবে, এক জেলার গাড়ি অন্য জেলায় যাবে না

যা আছে প্রজ্ঞাপনে

যা আছে প্রজ্ঞাপনে

বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন

বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন

দূরপাল্লার যাত্রা এখন মোটরবাইক, পিক-আপ ও প্রাইভেট কারে

দূরপাল্লার যাত্রা এখন মোটরবাইক, পিক-আপ ও প্রাইভেট কারে

বর্ধিত লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি

বর্ধিত লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি

লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

সবাই বাড়ি ফিরলেও অপেক্ষায় আছে অভ্ররা

আটকে গেছে ৭ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীসবাই বাড়ি ফিরলেও অপেক্ষায় আছে অভ্ররা

মসজিদ থেকে ধর্মীয় নেতার অনুসারীদের বের করে দিলো তুরস্কের পুলিশ

মসজিদ থেকে ধর্মীয় নেতার অনুসারীদের বের করে দিলো তুরস্কের পুলিশ

অসহায়দের পাশে ‘মানবতার ডাকঘর’

অসহায়দের পাশে ‘মানবতার ডাকঘর’

লকডাউনে প্রেমিকের বাসায় প্রেমিকা যখন বন্দি

লকডাউনে প্রেমিকের বাসায় প্রেমিকা যখন বন্দি

মায়ের মরদেহ দেখতে এসে স্বামী-সন্তানের মরদেহ নিয়ে ফিরলেন আদুরি

মায়ের মরদেহ দেখতে এসে স্বামী-সন্তানের মরদেহ নিয়ে ফিরলেন আদুরি

সর্বশেষ

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে

ট্রাকের নিচে পড়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

ট্রাকের নিচে পড়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

রাজধানীতে ভিক্ষুক বেড়েছে কয়েক গুণ

রাজধানীতে ভিক্ষুক বেড়েছে কয়েক গুণ

কোন কোন আত্মীয়কে জাকাত দেওয়া যায় না?

কোন কোন আত্মীয়কে জাকাত দেওয়া যায় না?

ট্রাকচাপায় শাবি ছাত্র নিহত

ট্রাকচাপায় শাবি ছাত্র নিহত

স্বস্তির বৃষ্টিতে ফল-ফসলের উপকার

স্বস্তির বৃষ্টিতে ফল-ফসলের উপকার

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে অর্থনীতিবিদ মাহবুবউল্লাহ

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে অর্থনীতিবিদ মাহবুবউল্লাহ

অকস্মাৎ হানায় হাজারো বাঙালি গ্রেফতার

অকস্মাৎ হানায় হাজারো বাঙালি গ্রেফতার

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন

বৃহস্পতিবার থেকে চলবে গণপরিবহন

দূরপাল্লার যাত্রা এখন মোটরবাইক, পিক-আপ ও প্রাইভেট কারে

দূরপাল্লার যাত্রা এখন মোটরবাইক, পিক-আপ ও প্রাইভেট কারে

লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

লকডাউনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ, আইনজীবীকে জরিমানা

সবাই বাড়ি ফিরলেও অপেক্ষায় আছে অভ্ররা

আটকে গেছে ৭ বাংলাদেশি শিক্ষার্থীসবাই বাড়ি ফিরলেও অপেক্ষায় আছে অভ্ররা

অসহায়দের পাশে ‘মানবতার ডাকঘর’

অসহায়দের পাশে ‘মানবতার ডাকঘর’

তিনটি বিশেষ ট্রাইব্যুনালে শারীরিক উপস্থিতিতে মামলা করা যাবে

তিনটি বিশেষ ট্রাইব্যুনালে শারীরিক উপস্থিতিতে মামলা করা যাবে

হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ পুনর্গঠন

হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ পুনর্গঠন

লকডাউনের বিকল্প কী?

লকডাউনের বিকল্প কী?

কোথাও নেই কোনও নিয়ম

কোথাও নেই কোনও নিয়ম

গণপরিবহন চালুর দাবিতে সড়কে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

গণপরিবহন চালুর দাবিতে সড়কে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

© 2021 Bangla Tribune