X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

‘দেশের ৯২ শতাংশ শ্রমিকের স্বীকৃতি নেই’

আপডেট : ০১ মে ২০২১, ২৩:২৪

দেশের মোট শ্রমিকের প্রায় ৯২ শতাংশ শ্রমিকদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি নেই। তারা অপ্রাতিষ্ঠানিক শ্রমিক হিসেবে পরিচিত। এসব শ্রমিকদের রোগ-বালাই, অসুখ-বিসুখ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, দুর্ঘটনায় ও মৃত্যুর সময়ে মানুষের দয়ার ওপর নির্ভর করতে হয়। তাদের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি না থাকায় তারা স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় তাদের প্রয়োজনে নূন্যতম অর্থ পায় না। ২০১৩ সালে নির্মাণ শ্রমিকদের জন্য বিমার উদ্যোগ নেওয়া হলেও তা অজানা কারণে বন্ধ হয়ে যায়। বিশেষজ্ঞরা, শ্রম আইনের পরিবর্তনের দাবি জানিয়ে সকল শমিককে এক কাতারে নিয়ে আসার দাবি জানিয়েছেন।

পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) তথ্যানুযায়ী, অর্থনৈতিকভাবে কর্মক্ষম শ্রমশক্তি ৬ কোটি ৭ লাখ৷ এ শ্রমশক্তির মধ্যে ৫ কোটি ৮০ লাখ বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত৷ বাকি ২৭ লাখ বেকার৷ পরিসংখ্যান আরও বলছে, পরিবারের মধ্যে কাজ করেন কিন্তু কোনও মজুরি পান না এমন মানুষের সংখ্যা ১ কোটি ১১ লাখ৷ আর ১ কোটি ৬ লাখ আছেন দিনমজুর, যাদের কাজের নিশ্চয়তা নেই, নেই মজুরির কোনও নিশ্চয়তা৷ দেশে বিভিন্ন পেশার প্রায় সাতকোটি শ্রমিক রয়েছে। এর মধ্যে ১০ শতাংশের কম শ্রমিকের প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি রয়েছে। বাকি প্রায় ৯২ শতাংশ শ্রমিকের কোন প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি নেই। এরমধ্যে রয়েছে, নির্মাণ শ্রমিক, জাহাজহভাঙ্গা শ্রমিক, গৃহশ্রমিক, মাটিকাটা শ্রমিক, কৃষি শ্রমিক, দিনমজুর, পরিবহন শ্রমিক, রিকশা শ্রমিক, হোটেল শ্রমিক, জেলে বা মৎস্য শ্রমিকসহ আরো অসংখ্য কারখানা ও ক্যাটাগরির শ্রমিক রয়েছে যাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোন স্বীকৃতি নেই।

এই বৃহৎ শ্রমিক জনগোষ্ঠির জন্য নেই কোনও সুরক্ষা বা সুনির্দিষ্ট মজুরি৷ পোশাক কারখানাসহ ৫৪ ধরনের শিল্পে সরকার সর্বনিম্ন মজুরি বেঁধে দিলেও শ্রমিকদের বিশাল একটি অংশ অনিশ্চিত জীবন যাপন করে। রয়েছে মৃত্যু ঝুঁকি।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব লেবার স্টাডিজের (বিলস) হিসাবে, ২০২০ সালে ৮৪ জন, ২০১৯ সালে ১৩৪, ২০১৮ সালে ১৬১ জন এবং ২০১৭ সালে ১৩৪ জন নির্মাণ শ্রমিক কাজে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মারা গেছেন। এসব শ্রমিকরা মানুষের করুন আর সাহায্য নিয়ে দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছে। তারা কোনও ক্ষতিপূরণ পায়নি।

ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়ন বাংলাদেশ (ইনসাব) এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এ কে এম শহিদুল আলম ফারুক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘নির্মাণ শ্রমিকরা দুর্ঘটনায় মারা গেলে তাদের কেউ খোঁজ নেয়ার থাকে না। তাদের লাশটি বাড়ি পাঠাতেও চাঁদা তুলতে হয়। মানুষের সাহায্যে বা সদকার হয়ে থাকে।’

তিনি বলেন, ‘সরকারি সাহায্য পাওয়া সোনার হরিণ। অনেক কাঠখড় পোড়ানোর পর কেউ কেউ সরকারি সহায়তা পায়, তবে তা অনেক দীর্ঘ প্রক্রিয়া। তাছাড়া সরকারি সহায়তা পেতে শ্রমিকের স্বীকৃতির বিষয়টিও রয়েছে। এতো সব কাগজপত্র গুছিয়ে কেউ আর সহায়তার নাম মুখে নেয় না। আমরা প্রস্তাব করেছিলাম, যাতে সব শ্রমিক সমানভাবে এই সহযোগিতা পায়, তবে সেটি বাস্তবায়ন হয়নি।’

এই শ্রমিক নেতা বলেন, ২০১৩ সালে শ্রমিকদের বীমা কাযক্রম শুরু করা হয়েছিল। বীমার ১৩শ টাকার প্রিমিয়াম সরকার ৮৫০ টাকা এবং শ্রুমিকের ৪৫০ টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল, তাও বন্ধ হয়ে গেছে অজানা কারণে। বীমা চালু থাকলেও শ্রমিকরা কিছু সহায়তা পেতো সেটাও বন্ধ করে দেওয়া হলো।

তবে সরকারের শ্রম মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ২০১৯-২০ অর্থ বছরে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যান ফাউন্ডেশন দুর্ঘটনায় মৃত্যু, চিকিৎসা ও তাদের সন্তানদের শিক্ষার জন্য ৩ হাজার ৫শ ১৪ জন শ্রমিককে ১১ কোটি ৮৬ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে। তবে শ্রমিক নেতারা দাবি করেছেন, এই অনুদান প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম। অনুদান পেতেও অনেক কাঠখড় পুড়াতে হয় শ্রমিকদের।

বিলস’র পরিচালক কোহিনূর মাহমুদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দেশের শ্রমিকদের জন্য তেমন কোন ব্যবস্থাই নেই। সামাজিক সুরক্ষার যেসব ব্যবস্থা রয়েছে, তার মধ্যেও শ্রমিকরা নেই। এমনকি স্বীকৃতিও নেই। কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিকদের শ্রম আইনে নিযোগপত্র দেওয়ার বাধ্যবাধকতা থাকলেও শ্রমিকদের কোন নিয়োগপত্র দেওয়া হয় না। শ্রমিকরা শুরুতেই এভাবে অধিকার বঞ্চিত হয়।’

/এফএএন/

সম্পর্কিত

চা শ্রমিকদের জীবন কাহিনি

চা শ্রমিকদের জীবন কাহিনি

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

পাওনা পরিশোধের দাবিতে ওপেক্স গ্রুপের কর্মীদের মানববন্ধন

পাওনা পরিশোধের দাবিতে ওপেক্স গ্রুপের কর্মীদের মানববন্ধন

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৪২

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের তালতলা এলাকায় ছয়তলা ভবনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মো. আরিফুল ইসলাম শান্ত (২৩) নামের ওই যুবক মেট্রোরেলের ক্রেনের রেজারম্যান (শ্রমিক) ছিলেন।

নিহতের চাচা আব্দুল হান্নান জানান, শান্তর রাতে মেট্রোরেলে ডিউটি ছিল। বিকালে তালতলার ভাড়া বাসার ছয় তলার ছাদ থেকে পড়ে যায় সে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল এবং পরে সন্ধ্যা ৭টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক)ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে সে মারা যায়।

আব্দুল হান্নান আরও  জানান, শান্তর রুমমেটদের থেকে যতটুকু জেনেছি, বিকালে খাওয়া-দাওয়া করে রুম থেকে মোবাইলে কথা বলতে বলতে ছাদে উঠে সে। পরে সেখান থেকে অসাবধানতাবসত নিচে পড়ে যায়।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

মৃত শান্ত হবিগঞ্জ সদরের শংকরপাশা গ্রামের মো. সালেক মিয়ার ছেলে। তিনি আগারগাঁও তালতলার একটি ভবনে ম্যাসে থাকতেন । 

 

 

 

/এআইবি/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

বুড়িগঙ্গা রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান 

বুড়িগঙ্গা রক্ষায় সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান 

সিআরবি রক্ষায় সাংস্কৃতিক প্রতিবাদে মুখর শাহবাগ

সিআরবি রক্ষায় সাংস্কৃতিক প্রতিবাদে মুখর শাহবাগ

‘ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থা নিতে হবে’

‘ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের টাকা ফেরতের ব্যবস্থা নিতে হবে’

ডিজিটাল নিরাপত্তায় ৯৯৯ সংযুক্তির দাবি

ডিজিটাল নিরাপত্তায় ৯৯৯ সংযুক্তির দাবি

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৪০

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জন কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ পদায়ন করা হয়। পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের এক প্রজ্ঞাপনে এ বিষয়ে জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে ১৩ জন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সাত জন সহকারী পুলিশ সুপারকে বাংলাদেশ পুলিশের অন্যান্য ইউনিটে বদলি করা হয়।

এর মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শারমিন জাহানকে এসবি, ঢাকায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাদাত হোসাইন রাসেলকে সিএমপিতে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূর মোহাম্মদ আলী চিশতীকে এন্টি টেরোরিজম ইউনিটে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শংকর কুমার দাসকে ঝালকাঠি সদর সার্কেলে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুল হককে ১১ এপিবিএন ঢাকায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন সুমনকে জামালপুর সদর সার্কেলে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনিসুজ্জামানকে চুয়াডাঙ্গা সদর সার্কেলে,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাইনুল ইসলামকে আরএমপিতে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দেলোয়ার হোসেনকে ফেনীতে বদলি করা হয়েছে।

এছাড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইসরাত জাহানকে পুলিশ সদর দফতরে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলামকে পুলিশ সদর দফতর টিআই, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুরানী ফেরদৌস দিশাকে পুলিশ সদর দফতর টিআর, আব্দুল মালিককে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসবিতে, সহকারী পুলিশ সুপার এএইচএম আসাদ হোসেনকে এসবি ঢাকায়, সহকারী পুলিশ সুপার আবু তাহের ফারুকীকে ডিএসবি ফেনীতে, সহকারী পুলিশ সুপার হরেশ্বর রায়কে হাইওয়ে পুলিশে, সহকারী পুলিশ সুপার ফারুক হোসেনকে ০৮ এপিবিএন কক্সবাজারে, সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলামকে ঢাকার দোহার সার্কেলে এবং সহকারী পুলিশ সুপার মনজুর আলম খানকে পুলিশ টেলিকম ঢাকায় বদলি করা হয়।

 

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

ট্রান্সফ্যাট নিয়ন্ত্রণ প্রবিধানমালা চূড়ান্তকরণে বিলম্ব নয়

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

আজ শেষ হচ্ছে ১৬১টি ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা, সোমবার ভোট

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৩

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি সফর শেষে শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দেশে ফিরেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সফরকালে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনী এবং পাপুয়া নিউ গিনি ডিফেন্স ফোর্স কর্তৃক যৌথভাবে আয়োজিত ইন্দো-প্যাসিফিক আর্মি চিফস কনফারেন্সে অংশ নেন।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত এই কনফারেন্সের অংশ হিসেবে প্রথম দিনে তিনি মার্কিন সেনাবাহিনীর ২৫তম ইনফ্যান্ট্রি ডিভিশনের সক্ষমতা এবং মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ড কর্তৃক পরিচালিত একটি লাইভ ফায়ার মহড়া অবলোকন করেন । 

আর্মি চিফস কনফারেন্সের দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ‘দ্যা চেঞ্জিং ফিজিক্যাল এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ এবং ‘দ্যা ইভলবিং হিউম্যান এনভায়রনমেন্ট অফ ল্যান্ড অপারেশন’ বিষয়বস্তু দুটির ওপর অনুষ্ঠিত প্লেনারিতে অংশ নেন। 

কনফারেন্সের শেষ দিনে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ মার্কিন আর্মি প্যাসিফিক কমান্ডের কমান্ডিং জেনারেল, জেনারেল চার্লস্ এ. ফ্লিনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন। এছাড়াও ইন্দোনেশিয়ান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আন্দিকা পেরকাসা; দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল নাম ইয়ং শিনসহ বেশ কয়েকটি দেশের উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্যারেড

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন সেনাপ্রধান

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

কঙ্গোলিজ সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দিলো বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

সেনাবাহিনী-সন্ত্রাসী গুলিবিনিময়, আটক ৪

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২০

দেশে এখন পর্যন্ত টিকা এসেছে ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৮৫ হাজার ৮০ ডোজ। এর মধ্যে ৩ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ৩২ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে ১ কোটি ২৮ লাখ ৪১ হাজার ২৪ ডোজ টিকা মজুত  আছে। এখন পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২ কোটি ২১ লাখ ৫১ হাজার ৬০৫ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪২৭ জন। আজ মোট দেওয়া হয়েছে ৫ লাখ ১ হাজার ৪১ ডোজ টিকা। 

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিন। শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্য মতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ২২৭ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ২২০ জনকে। 

পাশাপাশি আজ ফাইজারের প্রথম ডোজ এবং দ্বিতীয় ডোজ কাউকে দেওয়া হয়নি।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৮৬ হাজার ৫৪২ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ৯০ হাজার ৫১৬ জন।  

মডার্নার টিকা আজ প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৪ হাজার ২৪৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ হাজার ২৮৮ জনকে।

এছাড়া এখন পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৪ কোটি ২৩ লাখ ৭১ হাজার ৫৪১ জন। 

 

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

আজও করোনায় নারীমৃত্যু বেশি

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

চলতি মাসেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়ালো  

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

ফাইজার-মডার্নার টিকা না পাওয়ায় প্রবাসীদের বিক্ষোভ

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

দেশে এলো সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ টিকা

ওয়াকিটকি-মোটরবাইকসহ ভুয়া ইন্সপেক্টর গ্রেফতার

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৬

রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে সিআইডির ভুয়া ইন্সপেক্টর পরিচয় দেওয়া একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) দারুস সালাম থানা পুলিশ। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

গ্রেফতারকৃতের নাম মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার অভি। তার বাড়ি ঢাকার সাভারে।

এ সময় তার কাছ থেকে স্পেশাল ডিশন সিবি হরনেট-১৬০আর মোটরবাইক, একটি ওয়াকিটকি, একটি পাসপোর্ট একটি পোকো মোবাইল সেট জব্দ করা হয়।

দারুস সালাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জামাল হোসেন বলেন, শুক্রবার দারুস সালাম থানার গাবতলি তিন রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে পুলিশ সার্জেন্ট ও টহল পুলিশের সমন্বিত তল্লাশি চৌকিতে একজন মোটর আরোহীকে থামার সিগন্যাল দেওয়া হয়। চালক মোটরবাইক থামালে কর্তব্যরত অফিসার গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাইলে সে নিজেকে সিআইডির পুলিশ ইন্সপেক্টর হিসেবে পরিচয় দেন। তখন পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে বাইক নিয়ে দ্রুত চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

সবজির আড়ালে সৌদিতে ইয়াবা পাচারের চেষ্টা 

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

‘পারিবারিক নির্যাতন কমাতে মোটিভেশন চলছে’

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ফেসবুকে বন্ধুত্ব, অতঃপর প্রতারণা

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

ইসলামি বক্তা মুফতি রিজওয়ান রফিকী গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চা শ্রমিকদের জীবন কাহিনি

চা শ্রমিকদের জীবন কাহিনি

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

`কৃষি, শিল্প ও স্বাস্থ্য খাতে মানবাধিকার লংঘনের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে হবে'

পাওনা পরিশোধের দাবিতে ওপেক্স গ্রুপের কর্মীদের মানববন্ধন

পাওনা পরিশোধের দাবিতে ওপেক্স গ্রুপের কর্মীদের মানববন্ধন

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

গণপরিবহন চালুর দাবিতে সড়কে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

গণপরিবহন চালুর দাবিতে সড়কে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নির্মাণ শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি

নির্মাণ শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি

রাস্তায় নামছেন শ্রমিকরা, চালু হতে পারে গণপরিবহন

রাস্তায় নামছেন শ্রমিকরা, চালু হতে পারে গণপরিবহন

গৃহশ্রমিকরা তবে যাবেন কোথায়?

গৃহশ্রমিকরা তবে যাবেন কোথায়?

বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের হতাহতের ঘটনায় বাপার নিন্দা

বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের হতাহতের ঘটনায় বাপার নিন্দা

সর্বশেষ

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যাচার করেছে:  ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র মিথ্যাচার করেছে:  ফ্রান্স

ক্যাপিটলে ট্রাম সমর্থকদের মিছিল

ক্যাপিটলে ট্রাম সমর্থকদের মিছিল

‘শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’   

‘শুধু ক্ষমা চাইলেই হবে না যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে’   

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে সৌদি আরব গুরুত্ব দিয়ে আসছে: সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী

শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে সৌদি আরব গুরুত্ব দিয়ে আসছে: সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune