X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর প্রভাবে নিম্নাঞ্চল প্লা‌বিত

আপডেট : ২৫ মে ২০২১, ১৭:৩৬

ঘূ‌র্ণিঝড় ‘ইয়াস’-এর প্রভা‌বে ভোলার মেঘনা, তেতুলিয়া নদীসহ সকল নদীর পা‌নি স্বাভা‌বি‌কের চে‌য়ে ক‌য়েক ফুট বৃ‌দ্ধি পে‌য়ে দুই ইউনিয়‌নের ৬টি গ্রাম প্লা‌বিত হ‌য়ে‌ছে। এতে পা‌নিব‌ন্দি হ‌য়ে প‌ড়ে‌ছে প্রায় ৬ হাজার মানুষ।

ভোলার চরফ‌্যাশন উপ‌জেলার ঢাল চর ইউনিয়‌নের নিম্নাঞ্চ‌লের তিন‌টি গ্রাম ও চর মা‌নিকা ইউনিয়‌নের ৩টি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার মানুষ পা‌নিব‌ন্দি হ‌য়ে প‌ড়ে‌ছে। এছাড়াও পা‌নি‌তে ভে‌সে গে‌ছে পুকুর ও ঘে‌ড়ের মাছ। এতে প্রায় কো‌টি টাকার ক্ষয়ক্ষ‌তি হ‌য়ে‌ছে ব‌লে দা‌বি ক্ষ‌তিগ্রস্তদের।

ঢালচ‌র ইউনিয়‌নের চেয়ারম‌্যান সালাম হাওলাদার ও চর মা‌নিকা ইউনিয়‌নের চেয়ারম‌্যান শ‌ফিউল্লাহ হাওলাদার ঘটনার সত‌্যতা নি‌শ্চিত ক‌রে জানান, মঙ্গলবার ভো‌রের দি‌কে হঠাৎ ক‌রে জোয়া‌রের কার‌ণে নিন্মাঞ্চল প্লা‌বিত হ‌য়ে পুকুর ও ঘে‌ড়ের মাছ ভে‌সে গে‌ছে। এতে কো‌টি টাকার ক্ষয়ক্ষ‌তি হ‌য়ে‌ছে।

এদিকে দুই ইউনিয়‌নের পা‌নিব‌ন্দি মানুষ‌কে নিরাপ‌দ আশ্রয়ে নেওয়ার জন‌্য কোস্টগার্ড সদস‌্যরা কাজ শুরু ক‌রে‌ছে ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন কোস্টগার্ড দ‌ক্ষিণ জো‌নের লে. তাহ‌সিন রহমান।

অন‌্যদি‌কে ঘূ‌র্ণিঝ‌ড়ের প্রভা‌বে ভোলার বি‌ভিন্ন উপ‌জেলায় বৃ‌ষ্টিপাত হ‌য়ে‌ছে। এছাড়াও বর্তমা‌নে দমকা বাতাস বই‌ছে।

/এমআর/

সম্পর্কিত

যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি: এক শিশুর লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে

যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি: এক শিশুর লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে

প্রকল্পের ঘর দিতে অর্থ আদায়, একজনের কারাদণ্ড

প্রকল্পের ঘর দিতে অর্থ আদায়, একজনের কারাদণ্ড

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালের পিসিআর ল্যাব অচল

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালের পিসিআর ল্যাব অচল

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫১

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে মো. মাঈন উদ্দিন হিরন চৌধুরী (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। চট্টগ্রামের চকবাজার থানার দামপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটকের কথা জানিয়েছেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে নগরীর দামপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাঈন উদ্দিনকে আটক করা হয়। শনিবার গ্রেফতারের পর তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ও কথা রেকর্ড করে রাখা সিডি উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রায় এক বছর আগে মাঈন উদ্দিন হিরনের সঙ্গে ভিকটিমের পরিচয় হয়। এরপর দুই জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে মাঈন ভিকটিমকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ওই সময়ের একটি দৃশ্য মাঈন তার মোবাইলে ধারণ করে। পরে ওই ছবি এবং ভিডিও দিয়ে মাঈন ভিকটিমকে বিভিন্নভাবে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে অভিযুক্ত মাঈন সে সব ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছড়িয়ে দেন। 

র‌্যাব কর্মকর্তা আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাঈন ঘটনা স্বীকার করেছেন। তাকে চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

চিৎমরমে চেয়ারম্যান প্রার্থী হত্যা: ইউপি নির্বাচন পিছিয়ে তৃতীয় ধাপে

চিৎমরমে চেয়ারম্যান প্রার্থী হত্যা: ইউপি নির্বাচন পিছিয়ে তৃতীয় ধাপে

সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে মা-ছেলেসহ ৩ জন নিহত

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৯

সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে ট্রাকচাপায় মা-ছেলে এবং বাস-ট্রাক্টরের মুখোমুখি সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ দুটি দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে আরও আট জন। রবিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে দিকে ঢাকা-উত্তরবঙ্গ মহাসড়কের নলকা মোড় এলাকায় এবং ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের খালকুলা ৫নং সেতু এলাকায় দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

ট্রাকচাপায় নিহত দুজন হলেন সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মাসিমপুর মহল্লার নাসির উদ্দিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৪৫) এবং তার ছেলে নয়ন (২২)।  অপর দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি।

বঙ্গবন্ধু পশ্চিম থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল মজিদ জানান, রবিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের কামারখন্দ উপজেলার নলকা সেতু এলাকায় ব্যাটারিচালিত একটি অটোভ্যান রাস্তা পার হওয়ার সময় বিকল হয়ে পড়ে। এ সময় দ্রুতগামী একটি ট্রাক অটোভ্যানটিকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মনোয়ারা বেগম (৪৫) ও তার ছেলে নয়ন (২২) নিহত হন। আহত হয় মেয়ে ইসরাত জাহান। খবর পেয়ে পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আব্দুল্লাহেল বাকী জানান, ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী দেশ ট্রাভেলসের একটি বাসের সঙ্গে রাস্তা মেরামতের কাজে ব্যবহৃত একটি ট্রাক্টরের মহাসড়কের খালকুলা ৫নং সেতু এলাকায় মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় ট্রাক্টরে থাকা এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এবং বাসের কমপক্ষে সাত যাত্রী আহত হন। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

মাধবপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ৪

মাধবপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ৪

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

গরুকে ধাক্কা দেওয়ার জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

গরুকে ধাক্কা দেওয়ার জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

প্রকল্প ছাড়াই টাকা উত্তোলন

১৮ লাখ টাকা ফেরত দিয়ে ‘ক্ষমা’ চাইলেন চেয়ারম্যান

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৭

প্রকল্প গ্রহণ না করেই গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে ভূমি হস্তান্তর কর বরাদ্দের উত্তোলনকৃত সাড়ে ১৮ লাখ টাকা ফেরত দিয়েছেন ৩ নম্বর দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এজেডএম সাজেদুল ইসলাম স্বাধীন। 

শোকজ নোটিশের পর উন্নয়ন প্রকল্পে ইউনিয়ন পরিষদের ব্যাংক হিসাব নম্বরে এই টাকা জমা করা হয়। এ ছাড়া আয়কর বাবদ দুই লাখ ৪৯ হাজার টাকাও জমা করা হয়। একই সঙ্গে চেয়ারম্যান স্বাধীন তার শোকেজের জবাবে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। 

রবিবার বিকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাদুল্লাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রোকসানা বেগম। তিনি বলেন, শোকজের লিখিত জবাব বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) আমার দফতরে জমা দেওয়া হয়। শোকজ জবাব গাইবান্ধা স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক রোখছানা বেগমের দফতরে পাঠিয়েছি। এ ছাড়া উত্তোলন করা সাড়ে ১৮ লাখ টাকা ও আয়করের আড়াই লাখ টাকা জমা দিয়েছেন চেয়ারম্যান।

শোকজের নোটিশ পাওয়ার পর গত ৩ অক্টোবর ভ্যাট-আয়কর বাবদ দুই লাখ ৪৯ হাজার ৯২৩ টাকা জমা ও ৬ অক্টোবর সাদুল্লাপুর উপজেলা প্রশাসনের ভূমি হস্তান্তর বরাদ্দের তুলে নেওয়া সাড়ে ১৮ লাখ টাকা পরিষদের ব্যাংক হিসাবে জমা করা হয়। এসব তথ্য নিশ্চিত করে পরিষদের সচিব মো. নুরজামান মিয়া বলেন, ‘সোনালী ব্যাংক সাদুল্লাপুর শাখার হিসাব নম্বরে এসব টাকা জমার রশিদ এবং ট্রেজারি চালানের কপি ইউএনওসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। লিখিত জবাবে চেয়ারম্যান অভিযোগের ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন। 

সচিব আরও বলেন, ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় টিউবওয়েল, স্প্রে মেশিন বিতরণ ও কালভার্টসহ উন্নয়ন প্রকল্পের চলমান কাজগুলোও হচ্ছে ভূমি হস্তান্তর কর বরাদ্দের টাকায়। এ কারণে জমা দেওয়ার ওই টাকা আবারও তুলে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।
 
গাইবান্ধা স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক রোখছানা বেগম বলেন, চেয়ারম্যান স্বাধীনের লিখিত জবাব ইউএনও’র মাধ্যমে আমার কাছে পাঠানো হয়েছে। তার জবাব পর্যালোচনাসহ সরেজমিনে অভিযোগগুলো তদন্ত করেই পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

প্রকল্প ছাড়াই টাকা তুলে নেওয়ার খবর প্রকাশের পর জেলায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়। তাৎক্ষণিক ফেসবুক লাইভে এসে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান স্বাধীন নিজের দোষ আড়ালে নির্বাচনি প্রতিপক্ষ প্রার্থীসহ স্থানীয় দুই সংবাদকর্মীকে নিয়ে মিথ্যাচার করেন।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শনে নথিপত্র যাচাই ও ব্যাংক হিসাবে প্রকল্প গ্রহণ ছাড়াই সাড়ে ১৮ লাখ টাকা উত্তোলন এবং ২০১৭-১৮ অর্থবছরের আয়কর বাবদ দুই লাখ ৪৯ হাজার টাকা জমা না দেওয়ার ঘটনা ধরা পড়ে। 

এ ঘটনায় চেয়ারম্যানকে ২৯ সেপ্টেম্বর কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে লিখিত জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক রোখছানা বেগম।

/এএম/

সম্পর্কিত

করোনাকালীন প্রণোদনার দাবিতে নার্সদের বিক্ষোভ

করোনাকালীন প্রণোদনার দাবিতে নার্সদের বিক্ষোভ

পঞ্চগড়ে চায়ের অকশন মার্কেট স্থাপনের পরিকল্পনা

পঞ্চগড়ে চায়ের অকশন মার্কেট স্থাপনের পরিকল্পনা

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার আজ থেকেই কার্যকর

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার আজ থেকেই কার্যকর

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৪

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের সানারপাড় এলাকা থেকে আবদুল্লাহ আল মামুন (৩৮) ওরফে নওশাদ নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সানারপাড় রানা সিএনজি পাম্পের সামনে থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

দুবাই প্রবাসী নওশাদের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, মাত্র দু’দিন আগে তিনি দুবাই থেকে দেশে ফিরেছেন। মহাসড়কের পাশে লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। পরে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘লাশের পকেটে পাওয়া মোবাইল ফোন দিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে পরিচয় জানা গেছে। লাশের মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, তার মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। অথবা কোনও যানবাহনের সঙ্গে আঘাত পেয়ে এ ঘটনা ঘটতে পারে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, নিহত ২

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, নিহত ২

দেশি অস্ত্রসহ ৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার

দেশি অস্ত্রসহ ৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৪

গাজীপুরের শ্রীপুর ডিগ্রি কলেজের (বর্তমানে শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজ) অধ্যক্ষ মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ অধ্যক্ষ পদ ফিরে পেতে নিম্ন আদালতে মামলা দায়েরের ১১ বছর পর পক্ষে রায় পেয়েছেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর আদালত তার পক্ষে ওই রায় দেন। রবিবার মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী এএএম আমানুল্লাহ ফরিদ রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

এদিকে, ওই রায়ের বিরুদ্ধে বিবাদীপক্ষ তথা কলেজের পক্ষ থেকে গাজীপুর জেলা জজ আদালতে একটি আপিল মোকদ্দমা দায়ের করা হয়েছে। ফলে উচ্চ আদালত আপিলের বিষয়টি নিশ্চিত না করা পর্যন্ত নিম্ন আদালতের রায়টি অকার্যকর থাকবে বলে জানিয়েছেন বিবাদীপক্ষের আইনজীবী এমদাদুল হক মাসুম। 

মামলার বাদী মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দের আইনজীবী এএএম আমানুল্লাহ ফরিদ জানান, গাজীপুর আদালতে অধ্যক্ষ মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ দেওয়ানি মামলার আইনি লড়াই শেষে প্রায় ১১ বছর পর গাজীপুরের পঞ্চম সিনিয়র জজ আদালত থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর স্বপদে বহালের রায় পান।

বিবাদীপক্ষের আইনজীবী মো. এমদাদুল হক মাসুম বলেন, ‘মামলার বাদী মো. তোফাজ্জল হোসেন আখন্দ অধ্যক্ষ থাকাকালে ২০০৯-এর ২৮ মার্চ কলেজ থেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন। পদত্যাগের ১৪ মাস পর ২০১০ সালের ৩ মে চাকরি ফিরে পেতে গাজীপুর আদালতে মামলা দায়ের করেন।’ 

রায়ের ব্যাপারে বিবাদীপক্ষের আইনজীবী আরও জানান, মামলাটির বাদী সরকার, তাই নিম্ন আদালত রায় দিলেও আদালতের জিপির (সরকারি কৌঁসুলি) মতামত নেওয়া প্রয়োজন। এর আগেই ওই রায়ের বিরুদ্ধে রবিবার গাজীপুর জেলা জজ আদালতে সরকার পক্ষ তথা কলেজ পক্ষ থেকে আপিল করা হয়েছে। আপিলের কপি শিক্ষা অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে পাঠানো হয়েছে। আদালত পরবর্তী আদেশের জন্য তা আমলে নিয়েছেন।  

শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজের সভাপতি ও শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘রায়ের কপি এবং আপিলের কপি দুটোই আমার হাতে এসেছে। ওই শিক্ষকের যোগদানের বিষয়ে শিক্ষা অধিদফতর থেকে কোনও অফিসিয়াল নির্দেশনা পাইনি। এ বিষয়ে আইন কী বলে তা যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।’ 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, নিহত ২

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, নিহত ২

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি: এক শিশুর লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে

যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি: এক শিশুর লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে

প্রকল্পের ঘর দিতে অর্থ আদায়, একজনের কারাদণ্ড

প্রকল্পের ঘর দিতে অর্থ আদায়, একজনের কারাদণ্ড

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালের পিসিআর ল্যাব অচল

শের-ই-বাংলা মেডিক্যালের পিসিআর ল্যাব অচল

স্বামীর নির্যাতনে গলায় ফাঁস দিলেন গৃহবধূ

স্বামীর নির্যাতনে গলায় ফাঁস দিলেন গৃহবধূ

লোকালয় থেকে অসুস্থ ঈগল উদ্ধার

লোকালয় থেকে অসুস্থ ঈগল উদ্ধার

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

সর্বশেষ

দক্ষিণ কোরিয়া গেলেন সেনাপ্রধান

দক্ষিণ কোরিয়া গেলেন সেনাপ্রধান

সম্পাদকের অনুসারীদের হাতে চবি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি লাঞ্ছিত

সম্পাদকের অনুসারীদের হাতে চবি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি লাঞ্ছিত

রাসেলকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি, জেলখানা ওর আব্বার বাড়ি

রাসেলকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি, জেলখানা ওর আব্বার বাড়ি

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

সেই বছরের আরব যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা পাঠাতে প্রস্তুত বঙ্গবন্ধু

সেই বছরের আরব যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা পাঠাতে প্রস্তুত বঙ্গবন্ধু

© 2021 Bangla Tribune