X
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ১ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

টঙ্গীতে কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান

আপডেট : ০৯ জুন ২০২১, ১৭:০০

গাজীপুরের টঙ্গীতে উদ্বেগজনকহারে বাড়ছে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য। এজন্য কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৮ জুন) বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অর্ধশতাধিক কিশোরকে আটক করে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ। আটকদের কাউন্সেলিং শেষে মুচলেকা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাসুদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গ্যাং কালচার এবং উঠতি বয়সী ছেলেদের মধ্যে ক্ষমতা বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক গ্রুপের সঙ্গে অন্য গ্রুপের মারামারির ঘটনায় টঙ্গী এখন আলোচনায় উঠে আসছে। কিশোর গ্যাং সদস্যরা এলাকায় নিজেদের অস্তিত্ব জানান দেওয়ার জন্য উচ্চ শব্দে গান বাজিয়ে দল বেঁধে ঘুরে বেড়ানো, বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালানো, পথচারীদের উত্ত্যক্ত করা এবং ছোটখাটো বিষয় নিয়ে সাধারণ মানুষের উপর চড়াও হয়ে মারামারি ও খুনোখুনি করে। এছাড়াও নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখার জন্য একই এলাকায় অন্যান্য গ্রুপের সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়ায় লিপ্ত থাকে। আধিপত্য বিস্তার করতে গিয়ে কিশোররা মারামারি করাসহ অনেক সময় খুন করতেও দ্বিধাবোধ করছে না।

এদিকে, গত শনিবার টঙ্গীর আলোচিত কিশোর গ্যাং ‘ডি কোম্পানি’র ১২ সদস্যকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। তাদের কাছ থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিনসহ চার রাউন্ড গুলি, দুটি চাপাতি, দুটি রামদা, একটি ছুরি ও তিনটি লোহার রড উদ্ধার করা হয়। মঙ্গলবার (৮ জুন) গ্রুপের পৃষ্ঠপোষক রাজিব চৌধুরী বাপ্পিকে তিন দিন এবং অন্যদের একদিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। 

টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি বলেন, ‘গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনারের নির্দেশে আমরা কিশোর গ্যাং বিরোধী সাঁড়াশি অভিযান শুরু করেছি। অপরাধের সঙ্গে যাদের সম্পৃক্ততা পাচ্ছি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হচ্ছে। আর যারা অযথা রাস্তার মোড়ে, গলিতে, ফুসকার দোকানে আড্ডা দিচ্ছে, বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালিয়ে পথচারীদের উত্ত্যক্ত করছে তাদের থানায় এনে কাউন্সেলিং শেষে মুচলেকা নিয়ে অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করা হচ্ছে।’

এ বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ-দক্ষিণ) ইলতুৎ মিশ বলেন, ‘উঠতি বয়সী কিশোরদের “গ্যাং কালচার” থেকে বিরত রাখতে প্রয়োজন সামাজিক ও পারিবারিক সচেতনতা। আমরা বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে যেসব কিশোরদের থানায় নিয়ে আসছি তাদের সচেতনতামূলক কাউন্সেলিং করছি। এছাড়াও যাদের বিরুদ্ধে কিশোর গ্যাং সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যাবে, তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল রিমান্ডে

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল রিমান্ডে

ফ্লাইওভারে প্রাইভেটকার আটকিয়ে হেনস্তা, সেই পাঁচ তরুণ গ্রেফতার

ফ্লাইওভারে প্রাইভেটকার আটকিয়ে হেনস্তা, সেই পাঁচ তরুণ গ্রেফতার

প্রকাশ্যে কিশোরীকে মারধর, টিকটকার গ্রেফতার

প্রকাশ্যে কিশোরীকে মারধর, টিকটকার গ্রেফতার

মাদক মামলায় নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচজন রিমান্ডে

মাদক মামলায় নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ পাঁচজন রিমান্ডে

গোয়েন্দা কার্যালয়ে পরীমণি

গোয়েন্দা কার্যালয়ে পরীমণি

ডিএজি-এএজি নিয়োগের বৈধতা প্রশ্নের রুল শুনানিতে বিব্রত হাইকোর্ট

ডিএজি-এএজি নিয়োগের বৈধতা প্রশ্নের রুল শুনানিতে বিব্রত হাইকোর্ট

দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেন বরিশালের সাবেক মেয়র কামাল

দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেন বরিশালের সাবেক মেয়র কামাল

অধস্তন আদালতে আরও ১৩২৩ হাজতির জামিন

ভার্চুয়াল শুনানিঅধস্তন আদালতে আরও ১৩২৩ হাজতির জামিন

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টার মামলা: তদন্ত প্রতিবেদন ৮ জুলাই

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টার মামলা: তদন্ত প্রতিবেদন ৮ জুলাই

হাজারীবাগে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী শ্রমিকের মৃত্যু

হাজারীবাগে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নারী শ্রমিকের মৃত্যু

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল গ্রেফতার

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল গ্রেফতার

সর্বশেষ

ডিএনসিসির ৫ কর্মী চাকরিচ্যুত

ডিএনসিসির ৫ কর্মী চাকরিচ্যুত

বিয়ের বাজারের জন্য ডেকে নিয়ে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

বিয়ের বাজারের জন্য ডেকে নিয়ে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

গুগল মিটে নেওয়া ক্লাসের সপ্তাহভিত্তিক তথ্য নিয়মিত পাঠানোর নির্দেশ

বিক্রয় খাতে নারী এবং প্রতিবন্ধীরা উপেক্ষিত: ব্র্যাক

বিক্রয় খাতে নারী এবং প্রতিবন্ধীরা উপেক্ষিত: ব্র্যাক

আড়াই মাস পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় থামলো ট্রেন

আড়াই মাস পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় থামলো ট্রেন

আবু ত্ব-হা’র সন্ধান বের করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব: বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

আবু ত্ব-হা’র সন্ধান বের করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব: বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে যা বললেন এরদোয়ান

বাইডেনের সঙ্গে বৈঠক নিয়ে যা বললেন এরদোয়ান

নোবেলকে মহানায়ক বললেন আমান রেজা

নোবেলকে মহানায়ক বললেন আমান রেজা

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল রিমান্ডে

ঢাকা মহানগর হেফাজতের সাবেক নেতা আজহারুল রিমান্ডে

গার্ড অব অনার: নারী ইউএনও’র বিকল্প প্রস্তাবের নিন্দা সিপিবির

গার্ড অব অনার: নারী ইউএনও’র বিকল্প প্রস্তাবের নিন্দা সিপিবির

সীমান্ত স্কয়ারে অগ্নিকাণ্ড

সীমান্ত স্কয়ারে অগ্নিকাণ্ড

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

গৃহবধূকে অপহরণ করে আটকে রেখে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

রোহিঙ্গা তরুণীর পরিচয়পত্র তৈরি, সাবেক কাউন্সিলরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রোহিঙ্গা তরুণীর পরিচয়পত্র তৈরি, সাবেক কাউন্সিলরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

পাহাড়ে দুর্বৃত্তের গুলিতে গ্রামপ্রধান নিহত

পাহাড়ে দুর্বৃত্তের গুলিতে গ্রামপ্রধান নিহত

বাবুল আক্তারের দুই সন্তানকে তদন্ত কর্মকর্তার কাছে হাজিরের নির্দেশ

বাবুল আক্তারের দুই সন্তানকে তদন্ত কর্মকর্তার কাছে হাজিরের নির্দেশ

স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনকে হত্যার কারণ খুঁজছে পুলিশ

স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনকে হত্যার কারণ খুঁজছে পুলিশ

গ্রেফতার এড়াতেই এএসআই সালাহ উদ্দিনকে হত্যা?

গ্রেফতার এড়াতেই এএসআই সালাহ উদ্দিনকে হত্যা?

ছুটি না নিয়েই খুলনা থেকে কুষ্টিয়ায় যান এএসআই সৌমেন

ছুটি না নিয়েই খুলনা থেকে কুষ্টিয়ায় যান এএসআই সৌমেন

বাদলের ওপর কাদের মির্জার অনুসারীদের হামলার অভিযোগ

বাদলের ওপর কাদের মির্জার অনুসারীদের হামলার অভিযোগ

ঝোপের মধ্যে পাওয়া গেলো ৬ লাখ টাকা

ঝোপের মধ্যে পাওয়া গেলো ৬ লাখ টাকা

© 2021 Bangla Tribune