X
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

এক সঙ্গে দশ সন্তানের জন্ম

আপডেট : ০৯ জুন ২০২১, ২০:৪২
image

দক্ষিণ আফ্রিকার এক নারী এক সঙ্গে দশ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। যা নতুন বিশ্বরেকর্ড হয়ে উঠতে পারে। গোসিয়াম থামারা সিথোলেস নামের এই নারীর স্বামীর জানিয়েছেন, স্ক্যানে তারা গর্ভে আটটি সন্তান থাকার কথা জানতেন। কিন্তু দশ শিশুর জন্ম হওয়ায় অবাক হয়েছেন তারা। গত সোমবার রাতে এসব শিশুর জন্ম হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

৩৭ বছর বয়সী সিথোলেস এর আগে জমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। তাদের বয়স বর্তমানে ছয় বছর। সোমবার সন্ধ্যায় ২৯ সপ্তাহের গর্ভকালে সিজারিয়ানের মাধ্যমে দশ সন্তানের জন্ম দেন তিনি। অপারেশনের পর বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন। তার স্বামী জানান, দশ সন্তানের মধ্যে সাতটি ছেলে আর তিনটি মেয়ে।

দক্ষিণ আফ্রিকার কর্মকর্তারা দশ শিশু জন্মের খবর নিশ্চিত করেছেন। গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস জানিয়েছে তারা সিথোলের দশ সন্তানের জন্মের বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রে এক গর্ভে আট সন্তানের জন্ম দেওয়া এক নারী বর্তমানে গিনেজ রেকর্ডসের অধিকারী। গত মাসে মালির হালিমা সিজে নামে ২৫ বছর বয়সী এক নারী মরক্কোর এক হাসপাতালে নয় সন্তানের জন্ম দেন। বর্তমানে তিনি ভালোভাবে সুস্থ হয়ে উঠছেন বলে জানা গেছে।

বেশি সংখ্যক সন্তান এক গর্ভে ধারনের বেশিরভাগ ঘটনাই নির্দিষ্ট সময়ের আগেই প্রসবের মাধ্যমে শেষ হয়। এক সঙ্গে তিন সন্তানের বেশি ধারণ সাধারণত বিরল। এসব ক্ষেত্রে সাধারণত দেখা যায় ফার্টিলিটি চিকিৎসার কারণেই এ ধরনের গর্ভধারণ হয়। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার গোসিয়াম থামারা সিথোলেস জানিয়েছেন তারা স্বাভাবিকভাবেই গর্ভধারণ করেছেন।

মাসখানেক আগে প্রিটোরিয়া নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সিথোলেস জানান, গর্ভের শুরু থেকেই তার প্রেগনেন্সি কঠিন ছিলো। বহু রাত নির্ঘুম থেকে তিনি সুস্থ সন্তানের প্রার্থনায় কাটিয়েছেন বলে জানান। তিনি নিজেকে প্রশ্ন করেছেন, ‘তারা কিভাবে পেটে ধরবে? বাঁচবে তো?’ পরে অবশ্য চিকিৎসকরা আশ্বস্ত করেছেন যে তার পেটের আয়তন বাড়ছে।

আট সন্তান গর্ভে ধারণ করছেন জানতে পারার পর সিথোলে বুঝতে পারেন তার পায়ে ব্যাথা বেড়েছে। চিকিৎসকরা জানান আট সন্তানের মধ্যে দুইটি ভুল টিউবে অবস্থান করছে। তিনি বলেন, ‘সেই সমস্যার সমাধান করা হলে তারপর থেকে আমি ভালোই ছিলাম। সন্তানদের জন্য আর অপেক্ষা করতে পারছিলাম না।’

/জেজে/

সম্পর্কিত

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত হলেন ‘হোটেল রুয়ান্ডা হিরো’

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত হলেন ‘হোটেল রুয়ান্ডা হিরো’

গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন জোহানেসবার্গের নতুন মেয়র

গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন জোহানেসবার্গের নতুন মেয়র

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা, বড় সাফল্য বলছে ফ্রান্স

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা করেছে ফ্রান্স

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

পশ্চিমবঙ্গে দিলিপ ঘোষকে সরালো বিজেপি

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৪০

বিতর্কিত বক্তব্য দিয়ে বারবার আলোচনায় থাকা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলিপ ঘোষকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিজেপি’র আইনপ্রণেতা এবং সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় দলত্যাগের দুই দিনের মাথায় পদ হারালেন তিনি।

৫৭ বছর বয়সী দিলিপ ঘোষকে সর্বভারতীয় বিজেপির ভাইস প্রেসিডেন্ট করা হয়েছে। আর পশ্চিমবঙ্গে তার দায়িত্ব পেয়েছেন নর্থ বেঙ্গলের বালুরঘাটের এমপি ৪১ বছর বয়সী শুকান্ত মজুমদার। 

আসানসোলের বিজেপি এমপি বাবুল সুপ্রিয় দল বদলের দুই দিনের মাথায় দলে রদবদল আনলো বিজেপি। এই বছর পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে দুইশ’ আসনে জয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করে দলটি। তবে জয় পায় মাত্র ৭৭টিতে। এর মধ্যে চার এমএলএ তৃণমূলে ফিরে গেছেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির নতুন সভাপতির দায়িত্ব পাওয়া শুকান্ত মজুমদার বোটানির শিক্ষক। তিনি রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) মাধ্যমেই নেতৃত্বে উঠে এসেছেন। তিনি বলেন, ‘দিলিপ ঘোষ বিজেপিকে আজকের অবস্থানে এনেছেন। পশ্চিমবঙ্গের শক্তিশালী বিরোধী দল এখন বিজেপি। এই উত্থানে তার গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। এই জায়গা থেকে পার্টিকে আরও উঁচুতে নিয়ে যেতে চাই আমি।’

শুকান্ত মজুমদারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন দিলিপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘জেপি নাড্ডা (বিজেপি সভাপতি) বিকেলে ফোন করেছিলেন আর বলেছেন আমাকে জাতীয় পর্যায়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আমি মনে করি এটা আমার কাজ এবং অবদানের স্বীকৃতি। আমিও বলেছি, সমাজ এবং পার্টির নতুন চাহিদা মেটাতে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতৃত্ব পরিবর্তনের প্রয়োজন।’

তবে গত শনিবার তৃণমূলে যোগ দিয়ে সাবেক মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় গত নির্বাচনে বিজেপির পরাজয়ের জন্য দিলিপ ঘোষকে দায়ী করেন। নির্বাচনে বিজেপির পরাজয়ের জন্য তিনি দিলিপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যকে দায়ী করেন।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইস্যু আফগানিস্তান: ৩ দিনের ভারত সফরে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইস্যু আফগানিস্তান: ৩ দিনের ভারত সফরে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

এক রুপি বিক্রি হলো ১০ কোটিতে!

টিকা গ্রহণকারীদের জন্য খুলছে যুক্তরাষ্ট্রের দুয়ার

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৯

করোনা সংক্রান্ত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের যাত্রীরা ১৮ মাস পর দেশটি ভ্রমণের সুযোগ পেতে যাচ্ছেন। হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে, নভেম্বর মাস থেকে পূর্ণ ডোজ টিকা গ্রহণকারীরা যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ করতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে তাদের করোনা পরীক্ষা এবং কন্টাক্ট ট্রেসিংয়ের মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

২০২০ সালের মার্চে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কখন এই নিষেধাজ্ঞায় পরিবর্তন আনবেন তানিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই নানা গুঞ্জন চলছিলো।

সোমবার হোয়াইট হাউজের কোভিড-১৯ সমন্বয়ক জেফ জিয়েন্টস নতুন আন্তর্জাতিক ভ্রমণ ব্যবস্থার ঘোষণা দেন। তিনি জানান পূর্ণ ডোজ গ্রহণকারীদের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে দেশটির দুয়ার। তিনি বলেন, দেশভিত্তিক নয় এটা ব্যক্তিভিত্তিক অ্যাপ্রোচ। সেই কারণে এটা অনেক বেশি শক্তিশালী। তিনি বলেন, মানুষকে নিরাপদ রাখতে আমাদের হাতে থাকা সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র হলো টিকা।

তবে নতুন নিয়ম সড়ক পথে ভ্রমণকারীদের জন্য প্রযোজ্য হবে না। ফলে মেক্সিকো এবং কানাডা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্ত পাড়ি দেওয়া যাবে না।

বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী কেবল মার্কিন নাগরিক, বাসিন্দা এবং বিশেষ ভিসাধারী বিদেশিরা ইউরোপীয়ান দেশগুলো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

তিন বিশ্ব শক্তির চুক্তিতে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরু হতে পারে: উ. কোরিয়া

আকাস চুক্তির কারণে অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরুর আশঙ্কা উ. কোরিয়ার

ফ্রান্সের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র সফরে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

ফ্রান্সের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র সফরে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

সাবমেরিন বিতর্কে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করলো ফ্রান্স

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা বৈঠক বাতিল

ফ্রান্সকে মিথ্যা বলার অভিযোগ অস্বীকার অস্ট্রেলিয়ার

ফ্রান্সকে মিথ্যা বলার অভিযোগ অস্বীকার অস্ট্রেলিয়ার

আফগান নারীদের বিক্ষোভের ভিডিও

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯

তালেবান সরকারের নির্দেশে বন্ধ হয়ে যাওয়া আফগানিস্তানের নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেছেন কয়েকজন অ্যাক্টিভিস্ট। রবিবার তারা এই বিক্ষোভ করেন। এই বিক্ষোভের একটি ভিডিও টুইটারে শেয়ার করেছেন ইরানি নারী সাংবাদিক মাসিহ আলী নেজাদ।

টুইটার বার্তায় ইরানি সাংবাদিক লিখেছেন, সাহসী আফগান নারীরা তাদের অধিকার ছেড়ে দিচ্ছেন না। তালেবান নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় বিলুপ্ত করায় এবং এর বদলে পূণ্যের প্রচার ও পাপ দমন মন্ত্রণালয় গঠন করায় অধিকার হারানো নারীরা রাস্তায় নেমে এসেছে।

 

 

/জেজে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
আফগান নারীদের বিক্ষোভের ভিডিও
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

কাজে ফিরতে না পারায় ক্ষুব্ধ আফগান নারীরা

কাজে ফিরতে না পারায় ক্ষুব্ধ আফগান নারীরা

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কাজে ফিরতে না পারায় ক্ষুব্ধ আফগান নারীরা

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:১৮

নারীদের কাজে যোগ না দিতে তালেবানের নির্দেশ সোমবার থেকে কার্যকর হয়েছে। হাজারো নারী শিক্ষক ও লাখো মেয়েদের মাধ্যমিক স্কুলে নিষিদ্ধ করার পর সরকারের বিভিন্ন সংস্থা ও দফতরের কয়েক হাজার নারী কর্মীকে কাজে যোগদানের বদলে বাড়িতে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নাটকীয় অধিকার হরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির নারীরা। ফরাসী বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সিনিয়র পর্যায়ের দায়িত্ব থেকে বরখাস্ত হওয়া এক নারী বলেন, ‘আমিও হয়ত মরে যাব। পুরো বিভাগের দায়িত্ব ছিল আমার কাঁধে। আমার সঙ্গে কাজ করতেন অনেক নারী। এখন আমরা আমাদের সব কাজ হারিয়েছি।’

তালেবানের প্রথম শাসনামলে নারীদের শিক্ষা ও কাজের অধিকার বঞ্চিত করা হয়েছিল। মার্কিন ও বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের পর গত মাসে তালেবান প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, নারী অধিকারকে শ্রদ্ধা জানানো হবে ইসলামি আইনের আওতায়। তবে তালেবান ইসলামি আইন ব্যবস্থা শরিয়াহ আইনের কঠোর ব্যাখ্যাকেই মেনে চলে।

কাবুলে তালেবানের নিযুক্ত নতুন মেয়র পৌরসভার নারী কর্মীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। কাবুলের মেয়রের তথ্য অনুসারে, পৌরসভার প্রায় ৩ হাজার কর্মীই হলেন নারী। যেসব পদ পুরুষদের দিয়ে পূরণ করা যাবে সেগুলোতে কর্মরত নারীদের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন, যেমন- শহরের নারী টয়লেটে পুরুষরা কাজ করতে পারবে না। তাই এসব স্থানে নারীরা কাজ করবে।

ইসলামি গোষ্ঠীটি এরই মধ্যে আফগানিস্তানের নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দিয়েছে এবং কঠোর ইসলামি আইন বাস্তবায়নের জন্য নতুন একটি মন্ত্রণালয় সেখানে গঠন করেছে।

শনিবার আফগানিস্তানের মাধ্যমিক বিদ্যালয় পুনরায় চালু হয়েছে। তবে শুধু ছেলে শিক্ষার্থী ও পুরুষ শিক্ষকদের ক্লাস রুমে ফিরতে বলা হয়েছে। তালেবান জানিয়েছে, নারীদের স্কুল পুনরায় চালু করার বিষয়ে কাজ করছে তারা।

অনেক আফগান নারী আশঙ্কা করছেন তারা আরও কখনও অর্থবহ কর্মসংস্থান পাবেন না। সংখ্যায় কম হলেও গত ২০ বছরে আফগান নারীরা মৌলিক অধিকার পেয়ে আসছিলেন। নারীরা আইনজীবী, বিচারক, পাইলট ও পুলিশ কর্মকর্তা হয়েছেন। যদিও তা বড় শহরগুলোতে।

দেশটির কর্মশক্তিতে যুক্ত হয়েছেন লাখো নারী। কিছু ক্ষেত্রে বিধবা নারী কিংবা উপার্জনে অক্ষম স্বামীর কারণে নিজেরাই অর্থ সংস্থানের জন্য কাজ করছিলেন। কিন্তু ১৫ আগস্ট তালেবান দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত নারীদের কাজের অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাচ্ছে না। কেবল পুরুষদের নিয়ে গঠিত তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রতিবাদ করায় নারীদের বেধড়ক মারধর করেছে তালেবান যোদ্ধারা।

এই বিষয়ে তালেবান কর্মকর্তারা বলছেন, নারীদের নিরাপত্তার জন্যই তাদের বাড়িতে থাকতে বলা হয়েছে। উপযুক্ত ব্যবস্থা প্রবর্তন হওয়ার পর তাদের কাজে ফিরতে বলা হবে।

সোমবার এক নারী শিক্ষক প্রশ্ন তুলেন, ‘এই দিন কবে আসবে? তালেবানের আগের শাসনামলেও এমনটি ঘটেছে। তারা বারবার বলতে কাজে নারীদের কাজ করতে দেবে। কিন্তু তা কখনও ঘটেনি।’

/জেজে/এএ/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:১২
কাজে ফিরতে না পারায় ক্ষুব্ধ আফগান নারীরা
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

আফগান নারীদের বিক্ষোভের ভিডিও

আফগান নারীদের বিক্ষোভের ভিডিও

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবানের উত্থান উদ্বেগজনক: সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কানাডার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৮

কানাডার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। সংক্ষিপ্ত প্রচার অভিযানের শেষে শুরু হওয়া এই নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত হবে দেশটির পরবর্তী পার্লামেন্ট। নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টির সঙ্গে বিরোধী কনজারভেটিভ পার্টির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সোমবার কানাডার পূর্ব উপকূলে নিউফাউন্ডল্যান্ডে স্থানীয় সময় সকাল আটটা ৩০ মিনিটে প্রথম ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ২ কোটি ৭০ লাখের বেশি মানুষ এবারের নির্বাচনে ভোট দেওয়ার যোগ্য রয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির নির্বাচন পরিচালনাকারী সংস্থা ইলেকশনস কানাডা।

ভোট গ্রহণের একদিন আগে জাস্টিন ট্রুডো এবং কনজারভেটিভ নেতা এরিন ও’টুলে তাদের চূড়ান্ত বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

মন্ট্রিয়েলে এক মিছিলে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেন, ‘কানাডা এক চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে। সামনে এগিয়ে যেতে দেশের জন্য সঠিক রাস্তা খুঁজে নিতে হবে- অন্যথায় কনজারভেটিভরা আমাদের পিছনে নিয়ে যাবে।’

অন্যদিকে অন্টারিওর মারখামে কনজারভেটিভ পার্টির স্বেচ্ছাসেবকদের উদ্দেশে এরিন ও’টুলে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর কঠোর সমালোচনা করেন। তিনি অভিযোগ করেন লিবারেল নেতা মানুষের স্বাস্থ্যের ওপর জোর দেওয়ার বদলে ৬০ কোটি ডলারের নির্বাচন দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সেই কারণে আগামীকাল আমরা ভালোর জন্য ভোট দেবো।’

নির্ধারিত সময়ের দুই বছর আগে গত মধ্য আগস্টে নির্বাচন আয়োজনের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লিবারেল নেতা আশা করছেন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সফলতা দেখানোয় পার্লামেন্টে বড় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন তিনি। তবে নির্বাচনি প্রচারের সময় ক্ষোভের মুখে পড়েছেন তিনি। মহামারির চতুর্থ ঢেউয়ের মধ্যে নির্বাচন আহ্বান করায় তার সমালোচনা করেছেন বহু ভোটার।

২০১৫ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রী রয়েছেন জাস্টিন ট্রুডো। তবে ২০১৯ সালের ফেডারেল নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা কমে যায় লিবারেল পার্টির।

/জেজে/

সম্পর্কিত

পাকিস্তানের কাছ থেকে ১২টি জঙ্গিবিমান কিনছে আর্জেন্টিনা

পাকিস্তানের কাছ থেকে ১২টি জঙ্গিবিমান কিনছে আর্জেন্টিনা

যুক্তরাষ্ট্রে মসজিদে বোমা হামলাকারীর ৫৩ বছরের কারাদণ্ড

যুক্তরাষ্ট্রে মসজিদে বোমা হামলাকারীর ৫৩ বছরের কারাদণ্ড

একসঙ্গে শ্রদ্ধা জানালেন বাইডেন, ওবামা ও ক্লিনটন

একসঙ্গে বাইডেন, ওবামা ও ক্লিনটন

জাস্টিন ট্রুডোকে হুমকি দেওয়া ব্যক্তি গ্রেফতার

ট্রুডোকে হুমকিদাতা গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত হলেন ‘হোটেল রুয়ান্ডা হিরো’

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত হলেন ‘হোটেল রুয়ান্ডা হিরো’

গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন জোহানেসবার্গের নতুন মেয়র

গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন জোহানেসবার্গের নতুন মেয়র

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা, বড় সাফল্য বলছে ফ্রান্স

গ্রেটার সাহারায় আইএস প্রধানকে হত্যা করেছে ফ্রান্স

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

গিনিতে অভ্যুত্থান চেষ্টা: সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলের দাবি

গিনিতে ক্ষমতা দখলের দাবি সেনাদের

গিনির রাজধানীতে প্রচণ্ড গোলাগুলি

গিনির রাজধানীতে প্রচণ্ড গোলাগুলি

হাজার হাজার বিদ্রোহীকে হত্যার দাবি ইথিওপিয়ার

হাজার হাজার বিদ্রোহীকে হত্যার দাবি ইথিওপিয়ার

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত, এযাবৎকালের সবচেয়ে বেশি পরিবর্তিত

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত, এযাবৎকালের সবচেয়ে বেশি পরিবর্তিত

মরক্কোর সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করলো আলজেরিয়া

মরক্কোর সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করলো আলজেরিয়া

নিজেকে জ্যান্ত কবর দিতে বললেন যাজক, তারপর?

নিজেকে জ্যান্ত কবর দিতে বললেন যাজক, তারপর?

সর্বশেষ

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস আজ

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস আজ

হাবিপ্রবিতে তিন প্রশাসনিক পদে রদবদল 

হাবিপ্রবিতে তিন প্রশাসনিক পদে রদবদল 

বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের ম্যাজিক ফিগার: আইজিপি

বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের ম্যাজিক ফিগার: আইজিপি

ব্রাজিল থেকে বাংলাদেশে এসে করলেন ২১ গোল

ব্রাজিল থেকে বাংলাদেশে এসে করলেন ২১ গোল

পশ্চিমবঙ্গে দিলিপ ঘোষকে সরালো বিজেপি

পশ্চিমবঙ্গ বিজেপিতে রদবদল

© 2021 Bangla Tribune