X
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

সিনহা হত্যা মামলায় প্রদীপের জামিন শুনানি ২৭ জুন

আপডেট : ১৩ জুন ২০২১, ১৭:৫৭

কক্সবাজারে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামি টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাস ও এএসআই নন্দ দুলাল রক্ষীতের জামিন আবেদন শুনানি আগামী ২৭ জুন ধার্য করেছেন আদালত।

রবিবার (১৩ জুন) দুপুর সোয়া ১২টায় জেলা দায়রা জজ মো. ইসমাঈল হোসেনের আদালত এ আদেশ দিয়েছেন। গত ৯ জুন দুই আসামির পক্ষে একই আদালতে জামিনের আবেদন করা হয়।

রবিবার মামলার জামিন শুনানির জন্য আদালতে উপস্থিত ছিলেন হিন্দু-বৌদ্ধ-​খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি ফরিদুল আলম বলেন, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামি প্রদীপ কুমার দাস ও নন্দ দুলাল রক্ষিতের পক্ষে জামিনের আবেদন দিয়েছিলেন। কিন্তু আদালত শুনানি না করে আগামী ২৭ জুন জামিন শুনানির দিন ধার্য করেন।

আদালত থেকে বেরিয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত বলেন, আমরা এই মামলার ন্যায় বিচারের স্বার্থে আসামি প্রদীপের পক্ষে জামিনের আবেদন করেছিলাম। কিন্তু করোনার কারণে আদালত জামিন আবেদনের শুনানি করেননি। আগামী ধার্য তারিখে আমাদের বক্তব্য আদালতে উপস্থাপন করবো। আমরা ন্যায় বিচার প্রত্যাশা করছি।

এর আগে ১০ জুন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার আসামি ও টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাসকে চট্টগ্রাম কারাগার থেকে কক্সবাজার কারাগারে আনা হয়।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান পুলিশের গুলিতে নিহত হন। ঘটনার পর পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলো, ডাকাত সন্দেহে সিনহাকে গুলি করা হয়।

এ ঘটনায় গত ৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির সাবেক পরিদর্শক লিয়াকত আলীকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন। এই মামলায় টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ নয় পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়।

আদালত মামলাটির তদন্তভার দেয় র‌্যাবকে। গত ৬ আগস্ট প্রধান আসামি লিয়াকত আলী ও প্রদীপ কুমার দাসসহ সাত পুলিশ সদস্য আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।

পরবর্তী সময়ে সিনহা হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার অভিযোগে পুলিশের করা মামলার তিনজন সাক্ষী এবং শামলাপুর চেকপোস্টের দায়িত্বরত আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) তিন সদস্যকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এছাড়া একই অভিযোগে পরে গ্রেফতার করা হয় টেকনাফ থানা পুলিশের সাবেক সদস্য কনস্টেবল রুবেল শর্মাকেও।

মামলায় গ্রেফতার ১৪ আসামিকে র‌্যাবের তদন্তকারী কর্মকর্তা বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তাদের মধ্যে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাস ও কনস্টেবল রুবেল শর্মা ছাড়া ১২ জন আসামি আদালতে এ ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

ওই মামলায় গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫-এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

/এএম/

সম্পর্কিত

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৬:২১

খুলনা বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও ৭৯৩ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে- খুলনা ও কুষ্টিয়ায় ৮ জন করে, যশোরে ৭, ঝিনাইদহে ৫, চুয়াডাঙ্গায় ২, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, নড়াইল এবং মেহেরপুরে একজন করে রয়েছেন।

করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৯২ হাজার ৩৬১ জন। দুই হাজার ৩৬৯ জন মারা গেছেন। সুস্থ হয়েছেন ৬৭ হাজার ৭৭১ জন।

খুলনায় আজ শনাক্ত ১৬৬, মোট শনাক্ত ২৩ হাজার ৬৩১, মোট মৃত্যু ৬২০ এবং সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৩৯ জন। বাগেরহাটে আজ শনাক্ত ৪১, মোট শনাক্ত পাঁচ হাজার ৯৪১, মোট মৃত্যু ১২২ এবং সুস্থ হয়েছেন পাঁচ হাজার ২০৮ জন। সাতক্ষীরায় আজ শনাক্ত ৪৯, মোট শনাক্ত পাঁচ হাজার ৬২২, মোট মৃত্যু ৮৫ এবং সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৩৩১ জন।

যশোরে আজ শনাক্ত ১৪২, মোট শনাক্ত ১৮ হাজার ৬৩১, মোট মৃত্যু ৩৪১ এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৮৬৩ জন। নড়াইলে আজ শনাক্ত ২০, মোট শনাক্ত চার হাজার ৭৮, মোট মৃত্যু ৯২ এবং সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ২৫৮ জন। মাগুরায় আজ শনাক্ত ৫৫, মোট শনাক্ত তিন হাজার ২৮, মোট মৃত্যু ৬৭ এবং সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৮৬৮ জন। ঝিনাইদহে আজ শনাক্ত ৭৫, মোট শনাক্ত সাত হাজার ৪৮৮, মোট মৃত্যু ১৯৯ এবং সুস্থ হয়েছেন চার হাজার ৭২৩ জন।

কুষ্টিয়ায় আজ শনাক্ত ১৪৭, মোট শনাক্ত ১৪ হাজার ১৯৭, মোট মৃত্যু ৫৪৮ এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৫৭৫ জন। চুয়াডাঙ্গায় আজ শনাক্ত ৪৩, মোট শনাক্ত পাঁচ হাজার ৯৯৪, মোট মৃত্যু ১৫৯ এবং সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৯০৩ জন। মেহেরপুরে নতুন শনাক্ত ৫৫, মোট শনাক্ত তিন হাজার ৭৫১, মোট মৃত্যু ১৩৬ এবং সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার তিনজন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ডোবায় মিললো শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ 

ডোবায় মিললো শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ 

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

ইয়াবাসহ গ্রেফতার পুলিশ সদস্য রিমান্ডে

আড়াইহাজারে কবরস্থানে বোমাসদৃশ ৬ বস্তু ঘিরে রেখেছে পুলিশ

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৬:২৩

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় একটি কবরস্থান থেকে বোমাসদৃশ ছয়টি বস্তু উদ্বার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৩০ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ব্রহ্মনদী ইউনিয়নের উজান গোপিন্দি বড় বিনাইচর কবরস্থান থেকে এগুলো উদ্বার করা হয়। 

নারায়ণগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (গ সার্কেল) আবির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বস্তুগুলো পুলিশ ঘিরে রেখেছে। ঢাকা থেকে বোম ডিসপোজাল ইউনিটকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা এসে যাচাই-বাছাই করে দেখবে এগুলো বোমা নাকি ককটেল।

তিনি আরও জানান, আজ বেলা ১১টার দিকে কবস্থান পরিষ্কার করতে গিয়ে স্থানীয় লোকজন একটি কবরের সামনে পলিথিন দিয়ে মোড়ানো ছয়টি বোমাসদৃশ বস্তু দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে জায়গাটি ঘিরে রেখেছে।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান জানান, এগুলো বোমা নাকি ককটেল সেটা বোঝা যাচ্ছে না। বোম ডিসপোজাল ইউনিট এলে বোঝা যাবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় মামলা

করোনার প্রতি লাশে ৩০০ টাকা করে নিতেন হাসপাতাল কর্মকর্তা! 

করোনার প্রতি লাশে ৩০০ টাকা করে নিতেন হাসপাতাল কর্মকর্তা! 

বরগুনায় আগুনে পুড়েছে করোনা টিকা রাখার ফ্রিজ

বরগুনায় আগুনে পুড়েছে করোনা টিকা রাখার ফ্রিজ

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫:৪৮

টানা তিন দিনের ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে কক্সবাজারে ৪১৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। গত বুধবার রাতভর ও বৃহস্পতিবারের (২৯ জুলাই) ভারী বৃষ্টিতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে জেলার দুই লাখেরও বেশি মানুষ। ডুবে গেছে জনপদ। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মাছের ঘের, পানের বরজ ও বিভিন্ন ফসলি জমি।

টানা বর্ষণ অব্যাহত থাকায় ভারী বর্ষণে পাহাড় ধস ও পানিতে ডুবে রোহিঙ্গাসহ ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে টেকনাফে ছয়, উখিয়ায় রোহিঙ্গাসহ নয়, মহেশখালীতে পাহাড় ধসে দুই ও ঈদগাঁওতে তিন জন মারা গেছেন। জেলার প্রধান নদী বাঁকখালী ও মাতামুহুরী নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

দুই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন জানায়, টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে ৫৫ হাজার ১৫০টি পরিবারের দুই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি পড়েছে। জেলার ৭১টি ইউনিয়ন ও চারটি পৌরসভার মধ্যে ৪১টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ তিন কোটি টাকা। প্লাবিত এসব এলাকায় ৩০টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, কক্সবাজার সদর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ৫৮ গ্রাম, রামু উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ৩৫ গ্রাম, চকরিয়া উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের ১০০ গ্রাম, পেকুয়া উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের ছয় গ্রাম, মহেশখালী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ৩৮ গ্রাম, উখিয়া উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের ১২০ গ্রাম ও টেকনাফ উপজেলার চারটি ইউনিয়নের ৫৬ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ তিন কোটি টাকা

জেলা প্রশাসনের দেওয়া এই তথ্যে কুতুবদিয়া উপজেলার প্লাবিত এলাকার সংখ্যা পাওয়া যায়নি। তবে কুতুবদিয়া উপজেলায় অন্তত ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে বলে জানা গেছে।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ জানান, প্লাবিত এলাকার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের বিশেষ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ১৩৫ মেট্রিক টন চাল ও পাঁচ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। প্রয়োজনে জরুরি ভিত্তিতে আরও ত্রাণ বরাদ্দ দেওয়া হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

ডোবায় মিললো শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ 

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫:০৯

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে লিমন মোল্লা (১০) নামে এক শিশুর হাত, পা ও মুখ বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দিবাগত রাতে শিশুটির মরদেহ তার বাড়ির অদূরে একটি ডোবায় পাওয়া যায়। লিমন মোল্লা দোনা গ্রামের ব্যবসায়ী ইমন মোল্লার ছেলে। সে স্থানীয় এপি কালিকাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

লিমনের পিতা ইমন মোল্লা বলেন, পূর্ব শত্রুতার কারণে পরিকল্পিতভাবে আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। লিমন সন্ধ্যা ৬ টার দিকে নিখোঁজ হয়। এরপর তাকে অনেক খোঁজ করে রাতে একটি ডোবায় হাত-পা বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়। দ্রুত মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, নিহত শিশুটির লাশ থানায় নেওয়া হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।



/টিটি/

সম্পর্কিত

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

টানা বৃষ্টিতে সাতক্ষীরায় ব্যাপক ক্ষতি, বাঁধ ভাঙার শঙ্কা

বাগেরহাটে পানিবন্দি অর্ধ লক্ষাধিক পরিবার

আপডেট : ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫:০৪

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে টানা বৃষ্টিতে বাগেরহাটের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে উপকূলীয় এলাকার ৫০ হাজারের বেশি পরিবার। ভেসে গেছে পুকুর, কয়েক হাজার চিংড়ি ও মাছের ঘের। দমকা হাওয়ার সঙ্গে টানা বৃ‌ষ্টিপা‌তে জনজীবন বিপর্যস্ত হ‌য়ে ‌পড়ে‌ছে।

বৃষ্টির পানিতে বাগেরহাট পৌরসভা ও জেলা সদরসহ বিভিন্ন উপজেলার বেশ কয়েকটি কাঁচা-পাকা সড়কও ডুবে গেছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ফসলের। ঘরে পানি ঢুকে পড়ায় রান্না বন্ধ বহু পরিবারের। উপকূলীয় উপজেলা শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, রামপাল ও মোংলার অসংখ্য এলাকা এখন পানিতে নিমজ্জিত। এসব এলাকার মানুষ চরম বিপাকে পড়েছেন। ডুবে যাওয়া ঘেরের মাছ বাঁচাতে বৃষ্টিতে ভিজে শেষ চেষ্টা চালাচ্ছেন চাষিরা।

রামপাল উপজেলার খোকন বলেন, ‘বৃষ্টিতে আমাদের বাড়িঘরে পানি উঠে গেছে। ঘেরের মাছ বের হয়ে গেছে। সবজিরও ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক।’

একই উপজেলার শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘টানা বৃষ্টিতে আমাদের এলাকার অনেক ঘরবাড়ি ডুবে গেছে। গাছপালা উপড়ে পড়েছে অনেকের। ঘের ও পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। খুবই সমস্যায় পড়েছি।’

পানিবন্দিদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে

রামপাল উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা শেখ আসাদুজ্জামান জানান, অতি বৃষ্টির কারণে রামপালে মৎস্য সম্পদের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ৷ পানিতে ডুবে তিন হাজার ৫৪২টি পুকুর। এতো মোট ক্ষতি হয়েছে ৭০ লাখ ৮৬ হাজার টাকা। এদিকে তিন হাজার ২৩৭টি ঘেরে মোট তিন কোটি ৮৪ হাজার টাকা এবং মোট অবকাঠামাে ক্ষতি আট লাখ ৮০ হাজার টাকা ৷ এ পর্যন্ত প্রাথমিক তথ্যে রামপালে মােট মৎস্য সম্পদের ক্ষতি প্রায় তিন কোটি ৮০ লাখ ৫০ হাজার টাকা ৷ ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরও বাড়তে পারে।

এদিকে শরণখোলা উপজেলায় পানিবন্দি মানুষের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খাতুনে জান্নাত। তিনি বলেন, শরণখোলা উপজেলার অধিকাংশ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। আমরা তাদের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ করেছি। লোকালয়ের পানি নামানোর জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার  (২৯ জুলাই) দুপুরে বাগেরহাট পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ও জেলা আওয়ামী লীগের অর্থ সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল বাকী তালুকদার পানিবন্দিদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ করেন। বাগেরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের নির্দেশনায় এই খাবার বিতরণ করা হয়। 

আলহাজ্ব আব্দুল বাকী তালুকদার বলেন, পানিবন্দিরা রান্না করতে পারছে না। তারা না খেয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে জেনে সংসদ সদস্য শেখ তন্ময়ের নির্দেশনায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

খুলনা মৎস্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক রাজ কুমার বিশ্বাস জানান, বাগেরহাটের সাদা মাছের পোনা, চিংড়ি মাছের পোনা ও কাঁকড়া খামারের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পাঁচ হাজার চিংড়ি ঘের ভেসে গেছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ১১ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, টানা বৃষ্টিতে শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ, মোংলা, রামপাল, বাগেরহাট সদর ও কচুয়ার বেশকিছু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে ৫০ হাজারের বেশি পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পানিবন্দি পরিবারগুলোর মধ্যে শুকনো খাবার ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শুরু করেছি। তাদেরকে সব ধরনের সহযোগিতা করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

ডোবায় মিললো শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ 

ডোবায় মিললো শিশুর হাত-পা বাঁধা লাশ 

সর্বশেষ

বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় বাল্যবিবাহ দ্বিগুণ বেড়েছে: ঐক্য ন্যাপ

বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় বাল্যবিবাহ দ্বিগুণ বেড়েছে: ঐক্য ন্যাপ

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি

সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

খুলনায় আরও ৩৪ জনের প্রাণ কেড়ে নিলো করোনা

আড়াইহাজারে কবরস্থানে বোমাসদৃশ ৬ বস্তু ঘিরে রেখেছে পুলিশ

আড়াইহাজারে কবরস্থানে বোমাসদৃশ ৬ বস্তু ঘিরে রেখেছে পুলিশ

‘গেল ৫ বছরের তুলনায় এবার ঈদযাত্রায় সড়কে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি বেশি’

‘গেল ৫ বছরের তুলনায় এবার ঈদযাত্রায় সড়কে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি বেশি’

চিপ সংকটে পড়তে পারে ইন্টেল

চিপ সংকটে পড়তে পারে ইন্টেল

আমার সেই কাঙ্ক্ষিত গান এটি: টিনা রাসেল

আমার সেই কাঙ্ক্ষিত গান এটি: টিনা রাসেল

ম্যাচ শুরুর একঘণ্টা আগে লিগ স্থগিত!

ম্যাচ শুরুর একঘণ্টা আগে লিগ স্থগিত!

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার নির্দেশ

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার নির্দেশ

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

ট্রেনে তৃতীয় ধাপে ২০০ মে. টন অক্সিজেন দেশে পৌঁছেছে

ট্রেনে তৃতীয় ধাপে ২০০ মে. টন অক্সিজেন দেশে পৌঁছেছে

পেটের চর্বি কমাতে যা খাবেন

পেটের চর্বি কমাতে যা খাবেন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

টানা বৃষ্টিতে কক্সবাজারের ৪১৩ গ্রাম প্লাবিত

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

কুমিল্লায় প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধের সংকট, ভোগান্তিতে রোগীরা

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

চট্টগ্রামে রেকর্ড শনাক্তের দিনে আরও ৯ মৃত্যু 

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

মেঘনায় ট্রলারডুবিতে একজনের মৃত্যু, জীবিত উদ্ধার ১১

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

জ্বর-শ্বাসকষ্টে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর মৃত্যু

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

হাসপাতালে শয্যা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে রোগী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

পানি প্রকল্পের জন্য নিজের টাকায় জমি কিনে দিচ্ছেন আইনমন্ত্রী

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

বিনা দোষে মিনুর কারাভোগ, কুলসুম ও তার সহযোগী রিমান্ডে 

© 2021 Bangla Tribune