X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

চট্টগ্রামে মিলেছে করোনার ভারতীয় ধরন, রোগী নিখোঁজ

আপডেট : ১৪ জুন ২০২১, ১৮:২২

চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। দুজনের শরীরে এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে জানালেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক।

গবেষক দলের প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সোমবার (১৪ জুন) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ তথ্য জানান।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগ এবং ঢাকাস্থ আইসিডিডিআরবি'র যৌথভাবে গবেষণাটি পরিচালনা করে।

সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকান বলেন, সম্প্রতি আমরা বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদের (বিএমআরসি) অর্থায়নে চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্তদের নিয়ে একটি গবেষণা পরিচালনা করি। সাতটি করোনা পরীক্ষাগারে ৪২টি নমুনা সংগ্রহ করে তার ভ্যারিয়েন্ট বিশ্লেষণ করে দুটি নমুনায় ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পেয়েছি। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত দুজন রোগীর কেউই সম্প্রতি ভারতে যাননি এবং তারা ভারতফেরত কারও সংস্পর্শেও আসেননি। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হওয়া দুজনের মধ্যে একজন ফটিকছড়ি উপজেলার এবং অন্যজন চট্টগ্রাম নগরের বাসিন্দা। ফটিকছড়ির রোগীকে খুঁজে পাওয়া গেলেও অন্যজনকে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তিনি আরও বলেন, ৪২টি নমুনার মধ্যে অধিকাংশ নমুনায় দক্ষিণ আফ্রিকান বিটা ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যায়। ৪২টির মধ্যে ৩৩টির নমুনায় আফ্রিকান বিটা ভ্যারিয়েন্ট, দুটি ভারতীয় ডেল্টা, তিনটি নাইজেরিয়ান ইটা এবং চারটি যুক্তরাজ্যের আলফা পাওয়া যায়। ধারণা করছি, চট্টগ্রামে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কমিউনিটি সংক্রমণ প্রাথমিকভাবে শুরু হয়েছে।

গবেষণার সহযোগী গবেষক চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. সুযত পাল বলেন, ডিএনএ সিকোয়েন্সিংয়ের মাধ্যমে করোনাভাইরাসের প্রকরণ বিশ্লেষণের কাজটি কারিগরিভাবে বেশ চ্যালেঞ্জিং এবং ব্যয়বহুল। জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগ এবং আইসিডিডিআরবির গবেষকদলের প্রচেষ্টায় এই গবেষণাটি করা সম্ভব হয়েছে। গবেষণার ফলে বর্তমানে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের কোন প্রকরণের আধিক্য রয়েছে; তা জানা যাবে। যা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় সহায়তা করতে পারে।

আরেক সহযোগী গবেষক বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. লায়লা খালেদা বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে সরকার দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সময় নতুন করে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হওয়া উদ্বেগজনক। এখনই সতর্ক না হলে সংক্রমণ কমানোর বিষয়টি অনিশ্চয়তার দিকে চলে যাবে।

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকানের নেতৃত্বে গবেষণা কার্যক্রমে সহযোগিতা করেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. সুযত পাল, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. লায়লা খালেদা, প্রভাষক মো. জিবরান আলম, রাহী হাসান চৌধুরী ও এমফিল গবেষক অমিত দত্ত ও ডা. শুভ দাশ।

গবেষণা সহকারী হিসেবে কাজ করেন ইনজামামুল ইসমাইল শাওন, বিভাগের শিক্ষার্থী মো. আবদুর রহমান অপু, মো. মিফতাহ মুশফিক এবং অম্লান ভট্টাচার্য্য।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৮ মে ভারত থেকে দেশে আসা দুজনের শরীরে প্রথম করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছিল।

/এএম/

সম্পর্কিত

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৪

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ফেনী মডেল থানায় পৃথক দুই মামলায় চারশ’ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। রবিবার (১৭ অক্টোবর) রাতে ফেনী মডেল থানার দুই জন উপপরিদর্শক (এসআই) বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা করেন। 

ফেনী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, একটি মামলায় ২০০ থেকে ২৫০ জন এবং অপর একটি মামলায় ১০০ থেকে ১৫০ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আসামি চিহ্নিত করার কাজ শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের অধিনায়ক লে. কর্নেল এ এস এম ইউছুফ ফেনীর বিভিন্ন মন্দির পরিদর্শন করে দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দেন। এ সময় তার সঙ্গে ফেনীর জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান, পুলিশ সুপার খোন্দকার নুরুন্নবী, ফেনী পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম মিয়াজী, শহরের ব্যবসায়ী নেতারা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের নেতারা ছিলেন। 

এদিকে মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি মানিক লাল দাস সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, একদল দুষ্কৃতকারী আশ্রমে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে।  

যেকোনও ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে ফেনী শহরের ট্রাংক রোড ও তাকিয়া রোডের মোড়ে শ্রী শ্রী কালীমন্দির, বড় বাজারের কালীমন্দির, জগন্নতবাড়ী মন্দির, বাঁশপাড়া মন্দিরসহ সব মন্দিরের সামনেই পুলিশের পাহারা দেখা গেছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ জনের মৃত্যু

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:৩৪

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় চার জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। এ নিয়ে চলতি মাসের ১৮ দিনে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা ও উপসর্গে ৭১ জনের মৃত্যু হলো।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকালে হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মহিউদ্দিন খান জানান, করোনা ইউনিটে নতুন ১১ জন ভর্তি হয়েছেন। মোট চিকিৎসাধীন ৮৭ জন। তাদের মধ্যে আইসিইউতে তিন জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে নয় জন হাসপাতাল ছেড়ে গেছেন।

এদিকে সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫৮টি নমুনা পরীক্ষায় কারও করোনা শনাক্ত হয়নি। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ২২ হাজার ৫৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর সুস্থ হয়েছেন ২১ হাজার ৩৯৩ জন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

নির্মাণের ১৫ দিনে হেলে পড়া সেতুটি ৪ বছরেও ‌‘সোজা’ হয়নি

নির্মাণের ১৫ দিনে হেলে পড়া সেতুটি ৪ বছরেও ‌‘সোজা’ হয়নি

শূন্য শনাক্তের দিনে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ৩ মৃত্যু

শূন্য শনাক্তের দিনে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ৩ মৃত্যু

ট্রাকের পেছনে বাসের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ৭

ট্রাকের পেছনে বাসের ধাক্কা, নিহত বেড়ে ৭

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:১১

বাস শ্রমিক হত্যা মামলায় ফরিদপুর জেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক এ এইচ এম ফোয়াদ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। রবিবার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ফরিদপুরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারুক হোসেন এ জবানবন্দি নথিভুক্ত করেন। জবানবন্দি গ্রহণ শেষে আদালতের নির্দেশে ফোয়াদকে জেল হাজতে পাঠানো হয়। 

দুই দফায় চারদিন পুলিশি রিমান্ড শেষে রবিবার বিকালে ফোয়াদকে আদালতে উপস্থিত করা হয়।  

মানি লন্ডারিং, ছোটন বিশ্বাস হত্যা মামলাসহ আট মামলার আসামি ফোয়াদকে গত ১২ অক্টোবর ঢাকার বসুন্ধরা এলাকার ‘সি’ ব্লকের ৮ নম্বর সড়কে অবস্থিত ১৮৩ নম্বর বাসার সামনে থেকে আটক করে ফরিদপুরের গোয়েন্দা পুলিশ। পরে তাকে ২০১৬ সালের ১২ জুলাই সংঘটিত ফরিদপুর শহরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় এলাকায় ছোটন বিশ্বাস হত্যা মামলার আসামি হিসেবে গ্রেফতার দেখানো হয়।  পর পর দুই দফায় মোট চারদিন পুলিশি রিমান্ড শেষে তাকে এক নম্বর আমলি আদালতের বিচারক মো. ফারুক হোসেনের আদালতে উপস্থিত করা হয়।

তদন্ত কর্মকর্তা ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল গফফার বলেন, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ শেষে রাতে আদালতের নির্দেশে এ এইচ এম ফোয়াদকে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এছাড়া ফরিদপুরের আলোচিত দুই ভাই শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন বরকত ও ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি (পরে বহিস্কৃত) ইমতিয়াজ হাসান রুবেলের বিরুদ্ধে ঢাকার সিআইডির দায়ের করা দুই হাজার কোটি টাকা মানি লন্ডারিং মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি ফোয়াদ। 

২০১৮ সালের ২১ মার্চ এ এইচ এম ফোয়াদ ফরিদপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক হন। এর আগে এক যুগ তিনি জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। গত বছরের ২৩ আগস্ট জেলা যুবলীগের ওই আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। ছাত্র অবস্থায় তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।
 

/টিটি/

সম্পর্কিত

পাবজি খেলা নিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর সংশোধনাগারে

পাবজি খেলা নিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর সংশোধনাগারে

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

পাবজি খেলা নিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর সংশোধনাগারে

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৩

অনলাইন প্লাটফর্মে পাবজি খেলার বিরোধের জেরে সিংগাইর উপজেলায় এক কিশোরকে হত্যার ঘটনায় ঢাকার জেলার নবাবগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। এ ছাড়া লাইসেন্সকৃত (নবায়ন) অস্ত্র দিয়ে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগে সিংগাইর থানায় অস্ত্র আইনে আরেকটি মামলা হয়েছে।

হত্যা মামলায় অভিযুক্ত কিশোরকে এবং অস্ত্র আইনে কিশোরের মা ও ভগ্নিপতিকে আসামি করা হয়েছে। পৃথক দুই মামলায় গ্রেফতার কিশোর গাজীপুর কিশোর সংশোধনাগারে এবং মা ও ভগ্নিপতিকে মানিকগঞ্জ জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, পাবজি খেলা নিয়ে সিংগাইর উপজেলায় দুই কিশোরের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কৌশলে রাজুকে সাইকেলে করে গ্রামের পাশে ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের রুপারচর এলাকায় নিয়ে যায় অভিযুক্ত কিশোর। সেখানে কালীগঙ্গা নদীর তীরে কাশবনে রাজুকে ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়। আহত রাজু শনিবার সকালে ঢাকার সাভারে এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।
 
এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে নিহতের স্বজন ও এলাকাবাসী অভিযুক্ত কিশোরের বাড়ি ঘেরাও করে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় অভিযুক্ত কিশোরের ভগ্নিপতি লাইসেন্স করা একটি শর্টগান দিয়ে স্থানীয় লোকজনকে ভয়ভীতি দেখান। এতে স্থানীয় লোকজন আরও উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে স্থানীয়রা। এতে তিন জন পুলিশ সদস্য আহত হন। পরে পুলিশ কিশোর অভিযুক্ত কিশোর, তার মা ও ভগ্নিপতিকে শর্টগানসহ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। 

এ ঘটনায় রবিবার (১৭ অক্টোবর) অভিযুক্ত কিশোরের ভগ্নিপতি ও মায়ের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে পুলিশ বাদী হয়ে সিংগাইর থানায় মামলা করে।
 
সিংগাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সফিকুল ইসলাম মোল্লা বলেন, রবিবার বিকালে দুই আসামিকে মানিকগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারকের নির্দেশে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে নবাবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, রবিবার দুপুরে নিহত কিশোর রাজুর বাবা মোসলেম উদ্দিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। সন্ধ্যায় অভিযুক্ত কিশোরকে গাজীপুরে কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে প্রবাসীর লাশ উদ্ধার

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

১১ বছর আইনি লড়াইয়ের পর চাকরি ফিরে পেলেন অধ্যক্ষ  

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

জেলের জালে ২৫ কেজির বাঘাইড়, ২৫ হাজার বিক্রি

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫১

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে মো. মাঈন উদ্দিন হিরন চৌধুরী (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। চট্টগ্রামের চকবাজার থানার দামপাড়া এলাকা থেকে তাকে আটকের কথা জানিয়েছেন র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নূরুল আবছার।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে নগরীর দামপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাঈন উদ্দিনকে আটক করা হয়। শনিবার গ্রেফতারের পর তার কাছ থেকে একটি মোবাইল ও কথা রেকর্ড করে রাখা সিডি উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রায় এক বছর আগে মাঈন উদ্দিন হিরনের সঙ্গে ভিকটিমের পরিচয় হয়। এরপর দুই জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে মাঈন ভিকটিমকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ওই সময়ের একটি দৃশ্য মাঈন তার মোবাইলে ধারণ করে। পরে ওই ছবি এবং ভিডিও দিয়ে মাঈন ভিকটিমকে বিভিন্নভাবে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে অভিযুক্ত মাঈন সে সব ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছড়িয়ে দেন। 

র‌্যাব কর্মকর্তা আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাঈন ঘটনা স্বীকার করেছেন। তাকে চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

পাহাড়ে রাস্তা ছাড়াই সেতু, ঘষে তুলে ফেলেছে নির্মাণ ব্যয়

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

রাঙামাটির ১১ ইউপিতে ৩৯৭ জনের মনোনয়ন দাখিল

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়েছেন তিনশ’ পর্যটক

চিৎমরমে চেয়ারম্যান প্রার্থী হত্যা: ইউপি নির্বাচন পিছিয়ে তৃতীয় ধাপে

চিৎমরমে চেয়ারম্যান প্রার্থী হত্যা: ইউপি নির্বাচন পিছিয়ে তৃতীয় ধাপে

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় সাত মামলায় ৮০০ আসামি

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় সাত মামলায় ৮০০ আসামি

পৈতৃক সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত মারমা নারীরা

পৈতৃক সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত মারমা নারীরা

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

বাংলাদেশ ছাড়ছে মুহিবুল্লাহর পরিবার?

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির শাস্তি দাবি রানা দাশগুপ্তের

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির শাস্তি দাবি রানা দাশগুপ্তের

সর্বশেষ

আফগানিস্তান ইস্যুতে আলোচনায় পাকিস্তানসহ পাঁচ দেশকে আমন্ত্রণ ভারতের

আফগানিস্তান ইস্যুতে আলোচনায় পাকিস্তানসহ পাঁচ দেশকে আমন্ত্রণ ভারতের

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

ফেনীতে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় দুই মামলায় ৪০০ অজ্ঞাতনামা আসামি

বিজয়ী হলেন সরোজ মোস্তফা, ইলিয়াস বাবর ও মাজেদা মুজিব

উজান বই আলোচনাবিজয়ী হলেন সরোজ মোস্তফা, ইলিয়াস বাবর ও মাজেদা মুজিব

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ জনের মৃত্যু

বাংলাদেশের কপ-২৬ এজেন্ডাকে সমর্থনে ইইউ’র প্রতি ঢাকার আহ্বান

বাংলাদেশের কপ-২৬ এজেন্ডাকে সমর্থনে ইইউ’র প্রতি ঢাকার আহ্বান

© 2021 Bangla Tribune