X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ৯ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ঢাবির ছাত্রাবাস প্রাঙ্গনে ডাম্পিং স্টেশনের পরিবর্তে আর্ট গ্যালারির দাবি

আপডেট : ২২ জুন ২০২১, ২১:০৬

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সহজ করতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন এলাকায় সেকেন্ডারি স্টেশন (এসটিএস) নির্মাণ করছে কর্তৃপক্ষ। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহনেওয়াজ ছাত্রাবাস প্রাঙ্গণেও নির্মাণ করা হচ্ছে একটি ডাম্পিং স্টেশন। এই এসটিএস নির্মাণ বাতিল করে সে জায়গায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে উন্মুক্ত আর্ট গ্যালারি স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ওই ছাত্রাবাসের শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার (২২ জুন) দুপুর দুইটায় নিউমার্কেট বটতলার পাশে শাহনেওয়াজ ছাত্রাবাসের সামনে এ মানববন্ধন করেন তারা। 

মানববন্ধনে চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল কাফি বলেন, আমরা এসটিএস নির্মাণের বিপক্ষে নই। কিন্তু চারুকলার শিক্ষার্থীদের ছাত্রাবাসের সামনে ময়লার ভাগার মাননসই নয়। আমাদের শিল্পচর্চায় ব্যাঘাত ঘটবে। আমরা চাই, এসটিএসের স্থানে বঙ্গবন্ধু উন্মুক্ত আর্ট গ্যালারি স্থাপন করা হোক। এতে নিউমার্কেট এলাকায় আসা সাধারণ মানুষ বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে আরও বেশি জানতে পারবেন।

চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী মাহমুদুল্লাহ সাকিব বলেন, শাহনেওয়াজ ছাত্রাবাসে মূলত চারুকলার শিক্ষার্থীরা থাকেন। শিল্পচর্চার জন্য ভালো পরিবেশ দরকার। নিরিবিলি ও দুর্গন্ধমুক্ত পরিবেশ দরকার। কিন্তু ছাত্রবাসের সামনে ময়লা রাখার ডাম্পিং স্টেশন নির্মিত হলে শিল্প চর্চায় ব্যাঘাত ঘটবে। এমনিতেই এই এলাকায় যানজটে স্থবির থাকে। নিউমার্কেট এলাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকেন্দ্রীক বিভিন্ন শত শত ভ্যান, ট্রাক, মিনিট্রাক চলাচল করে। সেখানে নতুন করে যুক্ত হবে ময়লার গাড়ি। অত্র এলাকা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়বে।

এসটিএস নির্মাণাধীন স্থানে বঙ্গবন্ধু উন্মুক্ত আর্ট গ্যালারি স্থাপনের দাবি জানিয়ে সাকিব আরও বলেন, বাচ্চারা যখন নিউমার্কেটে প্রবেশ করবে তারা বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম সম্পর্কে ধারণা পাবে। জঙ্গিবাদ প্রতিরোধেও এই আর্ট গ্যালারি ভূমিকা রাখবে।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

আপডেট : ২৩ জুলাই ২০২১, ২১:৫৩

করোনা ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ত্যাগের মহিমায় ভিন্নরকম ঈদ উযযাপন করলো বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশের ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা। তবে নিজ পরিবার এবং মাতৃভূমি থেকে হাজার কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশে পড়তে এসে কিছুটা ভিন্নরকম এক ঈদ উযযাপন করেছে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) বিদেশি শিক্ষার্থীরা। বন্ধ বিশ্ববিদ্যালয় হয়তো খুলে দেওয়া হবে এই আশায় এবং ঝামেলা এড়াতে নিজ দেশে ফেরেননি হাজী দানেশের এসব শিক্ষার্থী। তাই পরিবার, আত্নীয়-স্বজন ছাড়াই ক্যাম্পাসের বাঙালি বন্ধুদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছেন তারা।

ভারত, ভুটান, নেপাল, সোমালিয়া, নাইজেরিয়াসহ ছয়টি দেশ থেকে আসা এসব বিদেশি শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন তাদের ঈদ অনুভূতি। বাংলাদেশে ঈদ কেমন উদযাপন হলো জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের সোমালিয়ার শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ্ আলী ইব্রাহিম বলেন, মহামারির সময়ে পরিবার থেকে হাজার হাজার কিলোমিটার দূরে ঈদ উদযাপন করাটা কিছুটা কঠিন ছিল। তবে এই অপূর্ণতা বুঝতে দেয়নি এখানকার বন্ধুরা। আমরা অনেক মজা করার চেষ্টা করেছি এবং মসজিদে ঈদের নামাজ আদায়ের পর এদিক-সেদিক ঘোরাঘুরি করেছি। প্রচুর ছবিও তুলেছি। এর ফাঁকে পরিবারের সঙ্গে ভিডিও কলেও আনন্দ ভাগাভাগি করেছি।

এই জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঈদ উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক বাঙালি বন্ধু তাদের বাসায় আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। একটু ভিন্নভাবে ঈদ উদযাপন করার সুযোগ করে দেওয়ায় মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি।

কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড  ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) অনুষদের নেপালি শিক্ষার্থী দিপক শাহ বলেন, প্রথমত আমি অনেক আনন্দিত যে সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম এক সংস্কৃতিতে এবারের ঈদ উদযাপন করা দেখলাম। এখানকার বাংলাদেশি বন্ধুরা অনেক বেশি আন্তরিক। আমার রংপুরের বন্ধু আবির রহমান ঈদে তার বাসায় নিমন্ত্রণ জানিয়েছিল। সেখানে গিয়ে আমি তাদের সঙ্গে ঈদ উযযাপন করেছি। তার পরিবার ঈদে আমাকে উপহার হিসেবে নতুন পোশাক এবং নগদ টাকা দিয়েছে।

ঈদের দিন নতুন টাকা পেয়ে কিছুটা বিস্মিত এই শিক্ষার্থী বললেন, নতুন টাকা হাতে পেয়ে কিছুটা বিস্ময় লাগছিল। পরে বন্ধু জানালো ঈদের দিনে এমন রীতি আছে, ঈদ সেলামি হিসেবে এই টাকা দেওয়া হয়। তা ছাড়াও তার পরিবারের সবাই আমার অনেক যত্ন-আত্তি করেছে। বন্ধু আবির রহমান ও তার পরিবারের জন্য অনেক ভালোবাসা রইলো।

কথা হয় নাইজেরিয়ার শিক্ষার্থী আবু বকর সাঈদু-র সঙ্গে। তিনি বলেন, উচ্চশিক্ষার জন্যই হাজার-হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে এখানে এসেছি। এখন পরিবারের বাইরেও আরেকটি পরিবার হয়ে উঠেছে, যার নাম হাবিপ্রবি পরিবার। বাঙালিসহ সকল বিদেশি বন্ধুরা একসাথে ঘোরাঘুরি ও আনন্দ করেছি। আমার ডায়েরির অনেকগুলো পাতায় লিখে নিয়েছি এই ঈদের অভিজ্ঞতা। এই ঈদ আমার জীবনের স্মরণীয় একটি ঘটনা হয়ে থাকবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮তম ব্যাচের কৃষি অনুষদের ভারতীয় শিক্ষার্থী মোহাম্মদ সফিউল্লাহ জানান, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির জন্য প্রায় দেড় বছর ধরে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় হয়তো খুলে দিবে এই আশায় থেকে আর দেশে ফেরা হয়নি। এজন্য আগের মতো ঈদের আনন্দ তেমনভাবে উপভোগ করতে পারিনি। আসলে বন্ধু-পরিবারের সাথে ঈদ উদযাপন করতে পারাটা অনেক মজার। যাইহোক, ঈদে ক্যাম্পাসের কেন্দ্রীয় মসজিদে নামাজ পড়ে বাংলাদেশি বন্ধুরাসহ অন্যান্য দেশের বন্ধুদের সাথে বেশ মজা করেছি এবং প্রচুর ছবি তুলেছি। এসব ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করার মাঝেই ঈদের আনন্দকে খুঁজে পেতে চেষ্টা করেছি। 

কৃষি অনুষদের সোমালিয়ার শিক্ষার্থী লিবান আলী মাহমুদ ঈদের অনুভূতি জানিয়ে বলেন, 'আসলে করোনা পরিস্থিতির জন্য এবছর সোমালিয়ায় গিয়ে ঈদ উযযাপন করতে পারিনি। এজন্য কিছুটা খারাপ লাগছে যদিও। তবে এখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আন্তরিকতায় এই খারাপ লাগা কিছুটা হলেও কমে গিয়েছে। এছাড়াও ঈদে অন্যান্য বাংলাদেশি এবং বিদেশি বন্ধুদের সাথে বেশ ভালোই সময় কাটিয়েছি'।

বিদেশি এসব শিক্ষার্থীকে ঈদে ঘুরে নিয়ে বেড়িয়েছেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা। তাদের মধ্যে একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঈদে বিদেশি শিক্ষার্থীদের সাথে বেশ ভালো সময় কাটিয়েছি। নানা কারণে ঈদে এবার আমারও বাড়ি ফেরা হয়নি। এজন্য বিদেশি এসব বন্ধুদের সাথেই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেছি, অনেক আড্ডা দিয়েছি। আড্ডায় তাদের ছোটোবেলার ঈদ স্মৃতিচারণ শুনে বেশ ভালো লেগেছে। বিভিন্ন দেশের বন্ধুরা একসাথে নিজেদের রীতি-রেওয়াজ সম্পর্কে  শুনে অনেক কিছু জেনেছি, শিখেছি। এবারের ঈদে আমার বিদেশি বন্ধুদের একাকিত্ব অনুভব করার সুযোগ দেইনি।

উল্লেখ্য, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ভারত, ভুটান, নেপাল, সোমালিয়া, নাইজেরিয়াসহ ছয়টি দেশের শিক্ষার্থী পড়াশোনা করছে। ইউজিসির সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী বিদেশি শিক্ষার্থী অধ্যয়নের দিক থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে হাজী দানেশের অবস্থান দ্বিতীয়।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

প্রথম দিনেই সেশনজট নিরসনে জোর দিলেন হাবিপ্রবি উপাচার্য

হাজী দানেশে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান

হাজী দানেশে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগের আহ্বান

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে হাবিপ্রবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

আপডেট : ২০ জুলাই ২০২১, ১৭:১২

করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় আগামী আগস্টে অনুষ্ঠেয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২০-২১ সেশনের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ঈদের পর পরিস্থিতি বুঝে পরীক্ষার নতুন সময়সূচি নির্ধারণ করা হবে। মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বিকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রুটিন উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম। 

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা পেছানো হচ্ছে। রাবিতেও আগামী আগস্টে পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় মঙ্গলবার এক নির্বাহী আদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, ‘ঈদের পর বিশ্ববিদ্যালয় খুললে আমরা পরিস্থিতি বুঝে নতুন করে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করবো।’

প্রসঙ্গত, আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

/এএম/ 

সম্পর্কিত

রাবি শিক্ষার্থীদের বাসে পাথর ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা

রাবি শিক্ষার্থীদের বাসে পাথর ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা

লকডাউনে আটকেপড়া শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেবে রাবি

লকডাউনে আটকেপড়া শিক্ষার্থীদের বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেবে রাবি

ভিসিশূন্য রাবি গুজব উৎপাদনের কারখানা?

ভিসিশূন্য রাবি গুজব উৎপাদনের কারখানা?

যেভাবে হবে হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা 

আপডেট : ১৯ জুলাই ২০২১, ১৯:১৮

দেশে করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় এবং গত ২১ জুন দিনাজপুর সদর উপজেলা লকডাউন ঘোষিত হবার পর সশরীরে পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) কর্তৃপক্ষ। এরপর ১২ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫৭তম একাডেমিক কাউন্সিলে স্থগিত পরীক্ষাগুলো অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় হাবিপ্রবি প্রশাসন। 

অনলাইনে কোন পদ্ধতি অনুসরণ করে পরীক্ষা নেওয়া হবে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা সোমবার (১৯ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সূত্র নিশ্চিত করেছে, বিভিন্ন অনুষদদের ডিনসহ ১৩ সদস্য বিশিষ্ট অনলাইন পরীক্ষা সংক্রান্ত উপকমিটির দেওয়া এই নির্দেশিকা অনুযায়ীই হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

অনলাইন পরীক্ষা সংক্রান্ত ঐ নীতিমালায় বলা হয়েছে:


পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান বিধি অনুযায়ী অনুষদ অথবা বিভাগ কর্তৃক পরীক্ষা রুটিন সমূহ প্রকাশিত হবে যা পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ শাখা কর্তৃক নোটিশ বোর্ডে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।


পরীক্ষার নম্বর বণ্টন ও সময় নির্ধারণ সংক্রান্ত নিয়মাবলী

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান পরীক্ষা পদ্ধতির কুইজ ও মিড টার্মের জন্য নির্ধারিত মোট নম্বরের যথাক্রমে ১০% ও ২০% নম্বরের পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কোর্স শিক্ষক অনলাইনে এম. সি. কিউ/সৃজনশীল/অ্যাসাইনমেন্ট গ্রহণের মাধ্যমে/টার্ম পেপার/মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণের মাধ্যমে অথবা অন্য যে কোন সুবিধাজনক পদ্ধতিতে গ্রহণ করা যাবে।

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার জন্য বিদ্যমান পরীক্ষা পদ্ধতি অনুযায়ী A ও B সেকশন করে লাগাতার ক্রমিক নম্বর দিয়ে প্রশ্ন প্রণয়ন করা হবে। এক্ষেত্রে ক্রেডিট অনুযায়ী প্রশ্নপত্রের মোট নম্বর বণ্টন বিদ্যমান পদ্ধতি অনুযায়ীই হবে। কিন্তু অনলাইন পরীক্ষার সময়কাল ক্রেডিট আওয়ার অনুযায়ী পূর্বের পরীক্ষার সময়কালের অর্ধেক সময় হবে। যেমন, ৩ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ১.৫ ঘণ্টা ও ২ ক্রেডিট কোর্সের জন্য ১ ঘণ্টা হবে। এক ক্রেডিট কোর্সের সময়ও পূর্বের পরীক্ষার সময়কালের অর্ধেক হবে সময় হবে। প্রশ্নকর্তা প্রশ্ন প্রণয়নকালে পরীক্ষার জন্য বরাদ্দ সময়কে বিবেচনায় নিয়ে সংক্ষিপ্ত উত্তর হয় এমন প্রশ্নমালার সন্নিবেশ করবেন। 


পরীক্ষা নেওয়ার জন্য অনলাইন প্ল্যাটফর্ম প্রস্তুতকরণ

প্রতিটি পরীক্ষার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত চীফ সুপারভাইজার কমপক্ষে ২ দিন পূর্বে প্রয়োজনীয় সংখ্যক জুম লিংক তৈরি করবে এবং পরীক্ষার্থীদের ইমেইল, গ্রুপ অথবা গুগল ক্লাসরুমে প্রেরণ হবে। অনলাইনে ফাইনাল পরীক্ষা নেওয়ার জন্য গুগল ক্লাসরুম ব্যবহার করতে হবে। প্রতি সেমিস্টার/বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ক্লাসরুম খোলা হবে। পরীক্ষার্থীদের এবং সংশ্লিষ্ট ইনভিজিলেটরগণকে গুগল ক্লাসরুমে অথবা ইমেইলে একাউন্ট খুলতে হবে। পরীক্ষা শেষ হবার ২০ মিনিটের মধ্যে পরীক্ষার্থীরা নিজ নিজ পরীক্ষার খাতা গুগল ক্লাসরুম অথবা ইমেইলে কম্বাইন্ড পিডিএফ ফাইল করে প্রেরণ করবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কোন পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণ করতে ব্যর্থ হলে সুপারভাইজারগণ পরীক্ষা বাতিল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

জুমে যুক্ত হবার ক্ষেত্রে পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষার রোল নম্বর এবং নামের ব্যবহার করতে হবে। (যেমন, Student ID_Student  Name)। কোনও পরীক্ষার্থী অনুরূপভাবে যুক্ত না হলে কর্তব্যরত ইনভিজিলেটর অথবা পর্যবেক্ষকদের একজন তাকে রিনেইম করে দেবে।

শিক্ষার্থীদের অবশ্যই পরীক্ষা শুরুর অন্তত ১৫ মিনিট পূর্বে জুমে যুক্ত হতে হবে। প্রতিটি পরীক্ষার অন্তত এক ঘণ্টা আগে পরীক্ষা কমিটি গুগল ক্লাসরুমের স্ট্রিমে জুমের আইডি-পাসওয়ার্ড এবং জরুরি প্রয়োজনে যোগাযোগ করার জন্য সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কমিটির কমপক্ষে দুজনের মোবাইল নম্বর পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে শেয়ার করবে।


পরীক্ষা দেওয়ার সময় ভিডিও অন রাখতে হবে

পরীক্ষাদের অবশ্যই ভিডিও সচল রেখে দৃশ্যমান থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। তবে বৈদ্যুতিক গোলযোগ বা অন্য কোনও কারণে কোন পরীক্ষার্থী জুম প্ল্যাটফর্ম থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়লে অনধিক ১০ মিনিটের মধ্যে কর্তব্যরত সুপারভাইজারগণের যে কোন একজনকে মোবাইল করে জানাবে। অন্যথায় ভিডিও সচল না থাকলে তা পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বন করা হয়েছে মর্মে বিবেচিত হবে এবং তা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান বিধি অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ করার শামিল হবে।


উত্তরপত্র সংগ্রহ ও বিতরণ বিষয়ক কার্যাবলী

পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার পূর্বেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া উত্তরপত্রের নির্ধারিত ফরমেট অনুযায়ী A4 সাইজ কাগজে কভার পেইজ নিজ হাতে লিখে প্রস্তুত রাখতে হবে এবং প্রতিটি কোর্সের পরীক্ষার জন্য সর্বোচ্চ দশ (১০) টি শিট নিজ দায়িত্বে পরীক্ষার পূর্বে প্রস্তুত রেখে পরীক্ষায় বসবে। উত্তর পত্রের প্রতি পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠা নম্বর এবং পরীক্ষার রোল নম্বর লিখতে হবে।


এরপর পরীক্ষা শেষ হবার সর্বোচ্চ ২০ মিনিটের মধ্যে উত্তরপত্র কম্বাইন্ড পিডিএফ ফাইল করে গুগল ক্লাসরুম অথবা ইমেইলে প্রেরণ করতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কোনও পরীক্ষার্থী উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণ করতে ব্যর্থ হলে তাকে যৌক্তিক কারণ উল্লেখপূর্বক অনতিবিলম্বে কর্তব্যরত চীফ সুপারভাইজার ও সুপারভাইজারগণকে অবহিত করতে হবে। সুপারভাইজারগণ তার কারণ বিশ্লেষণ পূর্বক তাকে পরবর্তীতে উত্তরপত্র আপলোড ও প্রেরণের অনুমতি প্রদান করতে পারেন অথবা তার পরীক্ষা বাতিল করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।


ব্যবহারিক পরীক্ষা সংক্রান্ত নীতিমালা


তত্ত্বীয় পরীক্ষাসমূহ অনলাইনে সম্পন্ন হবার পর যেসব বিষয়ে ব্যবহারিক পরীক্ষা হাতে কলমে কাজ না করে করা সম্ভব তা বিভাগীয় পরীক্ষা কমিটির মতামতের ভিত্তিতে অনলাইনে নেওয়া হবে। তবে শুধুমাত্র যেসকল ব্যবহারিক কোর্স হাতে-কলমের কাজ করা ব্যতীত সম্ভব নয় তা অবশ্যই সুবিধাজনক সময়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইন-পার্সন ক্লাস করে সম্পন্ন করতে হবে। এ বিষয়ে কোর্স শিক্ষক ও বিভাগীয় পরীক্ষা কমিটি সম্মিলিতভাবে প্রয়োজনীয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

 

/এনএইচ/

সম্পর্কিত

বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ, রাজমিস্ত্রীর কাজে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের শিক্ষার্থী

বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ, রাজমিস্ত্রীর কাজে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের শিক্ষার্থী

নাম সর্বস্ব ঢাবি প্রকাশনা সংস্থা! 

নাম সর্বস্ব ঢাবি প্রকাশনা সংস্থা! 

পরীক্ষার ঘোষণায় ক্যাম্পাসে এসে ভোগান্তিতে হাজী দানেশের শিক্ষার্থীরা

পরীক্ষার ঘোষণায় ক্যাম্পাসে এসে ভোগান্তিতে হাজী দানেশের শিক্ষার্থীরা

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঢাবির শতবর্ষপূর্তি

উপাচার্য ভবন চত্বরে রুদ্রাক্ষের চারা রোপণ

আপডেট : ১৯ জুলাই ২০২১, ১৫:৪২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শতবর্ষপূর্তি উপলক্ষে উপাচার্য ভবন চত্বরে ভেষজ গুণসম্পন্ন একটি দুষ্প্রাপ্য ‘রুদ্রাক্ষ গাছে'র চারা রোপণ করা হয়েছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান চারাটি রোপণ করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাবি আরবরিকালচার সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহা এবং উপাচার্যের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, রুদ্রাক্ষ এক প্রকার বৃহৎ চিরহরিৎ বৃক্ষ। এটি এখন একটি দুষ্প্রাপ্য গাছ। এই গাছ Elaeocarpaceae পরিবারভুক্ত Elaeocarpus উদ্ভিদ। এর অনেক প্রজাতি রয়েছে যার মধ্যে এ প্রজাতিটি অন্যতম। রুদ্রাক্ষ গাছ দেখতে অনেকটা বকুল গাছের মতো। গাছের ফল দেখতে গাঢ় নীল রঙের। এই ফলের বহিরাবরণ সরিয়ে নিলে রুদ্রাক্ষ বেরিয়ে পড়ে। এই ফল মৃগীরোগীদের জন্য উৎকৃষ্ট।

/এসএমএ/এমএস/

শিক্ষার্থীদের বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে জবি প্রশাসন 

আপডেট : ১৮ জুলাই ২০২১, ০০:০০

লকডাউনে ঢাকায় আটকে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ঈদুল আজহা উপলক্ষে পরিবারের সাথে ঈদের আনন্দ উৎযাপন করতে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ( জবি )। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব পরিবহণ ও বিআরটিসির ভাড়া বাসসহ মোট ২৮টি গাড়িতে শনিবার ( ১৭ই জুলাই ) সকালে প্রথম ধাপে রাজশাহী, রংপুর, সিলেট বিভাগের মোট ১৫০৭ জন শিক্ষার্থী বাড়ি যাচ্ছে।

শিক্ষার্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাস দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়। রবিবার (১৮ জুলাই) দ্বিতীয় ধাপে বরিশাল, খুলনা বিভাগ এবং ১৯ জুলাই তৃতীয় ধাপে পর্যায়ক্রমে চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ বিভাগের শিক্ষার্থীদের জেলা ও বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেওয়া হবে।

দীর্ঘদিন পর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে জড়ো হয়ে জীবনের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি ফিরতে পেরে উচ্ছ্বাসিত শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস করে এমন ভাবে কখনো বাড়ি ফেরা হয়নি। মনে হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সবাই মিলে কোথাও পিকনিক করে যাচ্ছি। আমরা কালের স্বাক্ষী হয়ে রইলাম।  আমার ক্যাম্পাসের বাস আমার জেলায় যাচ্ছে এই সত্যি যেমন আনন্দের তেমনি গর্বের বিষয়ও। পরিবারের সদস্যদের সাথে ঈদ করব, বিষয়টি অত্যন্ত আনন্দদায়ক। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অসংখ্য ধন্যবাদ, এরকম একটা উদ্যোগের জন্যে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এর পরিবহন প্রশাসক আবদুলাহ আল মাসুদ বলেন, ‘সকাল ৮টার পরে প্রথম দিনে তিনটি বিভাগের বিভিন্ন রুটে গাড়ি যাচ্ছে। একতলা ৬টি বাসে করে সিলেট বিভাগে ২৯৩ শিক্ষার্থী, ১২টি বাসে করে রাজশাহী বিভাগে ৫০২ শিক্ষার্থী, রংপুর ৭১২ জন শিক্ষার্থী যাচ্ছেন। আজকে মোট ১৫০৭ জন শিক্ষার্থীকে নিয়ে মোট ২৮ টি বাস যাচ্ছে তিনটি বিভাগে। এর মধ্যে ৬ টি বাস বিআরটিসির, বাকীগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাস।’ আগামীকাল ১৮ই জুলাই বরিশাল ও খুলনা বিভাগের শিক্ষার্থী ও ১৯ ই জুলাই চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ জেলার শিক্ষার্থীদের জেলা ও বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দেওয়া হবে। প্রত্যাশা করছি সবাই যেন নিরাপদে বাড়ি যেতে পারেন।

/এফএএন/

সম্পর্কিত

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

ঈদে হাজী দানেশের বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিন্নরকম অভিজ্ঞতা

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

রাবির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

যেভাবে হবে হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা 

যেভাবে হবে হাবিপ্রবির অনলাইন পরীক্ষা 

উপাচার্য ভবন চত্বরে রুদ্রাক্ষের চারা রোপণ

উপাচার্য ভবন চত্বরে রুদ্রাক্ষের চারা রোপণ

সর্বশেষ

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল দেশে দেশে

লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল দেশে দেশে

ভূমধ্যসাগরে ৫৭৬ অভিবাসন প্রত্যাশী উদ্ধার

ভূমধ্যসাগরে ৫৭৬ অভিবাসন প্রত্যাশী উদ্ধার

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ময়মনসিংহে ৪৩৫টি মামলা

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ময়মনসিংহে ৪৩৫টি মামলা

মাছটি বিক্রি হলো সাড়ে ৪ লাখ টাকায়

মাছটি বিক্রি হলো সাড়ে ৪ লাখ টাকায়

শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ৭০ বছরের বৃদ্ধ গ্রেফতার

শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ৭০ বছরের বৃদ্ধ গ্রেফতার

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

খেলায় লাল কার্ড দেখানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

খেলায় লাল কার্ড দেখানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

মাইকে ঘোষণা দিয়ে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

মাইকে ঘোষণা দিয়ে ২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

ঢাবির ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আবদুল মতীনের মৃত্যু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

টিকা নিতে ঢাবি শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় দফায় আবেদন শুরু

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

আন্দোলনের পর ঢাবির আবাসন ও পরিবহন ফি মওকুফ

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

ঢাবিতে ৮৩১ কোটি ৭৯ লাখ টাকার বাজেট পাস

খাবারের দাম নিয়ে ভিসির বক্তব্যকে ব্যঙ্গ করা অনাকাঙ্ক্ষিত: ঢাবি

খাবারের দাম নিয়ে ভিসির বক্তব্যকে ব্যঙ্গ করা অনাকাঙ্ক্ষিত: ঢাবি

মহামারির বছরগুলো ‘লুপ্ত’ ঘোষণার দাবি

মহামারির বছরগুলো ‘লুপ্ত’ ঘোষণার দাবি

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর বাস্তবায়নের আল্টিমেটাম

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর বাস্তবায়নের আল্টিমেটাম

তিন দফা দাবিতে ঢাবি উপাচার্যকে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

তিন দফা দাবিতে ঢাবি উপাচার্যকে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

নেতৃবৃন্দের ওপর হামলা প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভ

নেতৃবৃন্দের ওপর হামলা প্রতিবাদে ছাত্রদলের বিক্ষোভ

তিন দাবিতে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান

তিন দাবিতে ৭ কলেজ শিক্ষার্থীদের নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান

© 2021 Bangla Tribune