X
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

নাম কেন ‘মেসি’ দাম কেন ১০ লাখ?

আপডেট : ১৬ জুলাই ২০২১, ১০:০৪

দেখতে আকর্ষণীয় হওয়ায় শখের বশে বছর খানেক আগে খর্বাকৃতির ষাঁড়টি কিনেন সরকারি চাকরিজীবী আজিজুর রহমান। আদর করে প্রিয় ফুটবল তারকার নামের সঙ্গে মিল রেখে নাম রেখেছেন ‘মেসি’। ২৭ ইঞ্চি উচ্চতা ২৪ ইঞ্চি লম্বা ‘মেসি’ চার বছরে এত জনপ্রিয় হয়ে উঠবে ভাবেননি আজিজুর রহমান। ইতোমধ্যে চার লাখ টাকা দাম উঠেছে ‘মেসির’। ১০ লাখ টাকা হলে বিক্রি করবেন মালিক।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চার বছর বয়সী ষাঁড়টি ক্ষিপ্রগতিসম্পন্ন। আশপাশের কয়েক গ্রামের মানুষ ষাঁড়টি দেখতে ভিড় জমান প্রতিদিন। আকারে ছোট হওয়ায় খাবার তুলনামূলক কম খায়। প্রতিদিন ঘাসের পাশাপাশি খৈল, ভুসি ও ছানা বুট খায় ষাঁড়টি।

‘মেসির’ মালিক নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কমলপুর গ্রামের আজিজুর রহমান। তিনি খালিয়াজুরী উপজেলায় সমবায় কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। শখ করে গবাদিপশু ও পাখি পালন-পালন করেন। শখের বশে বছর খানেক আগে তিন বছর বয়সী খর্বাকৃতির ষাঁড়টি ৪০ হাজার টাকায় কিনেছেন। আর্জেন্টিনার সমর্থক হওয়ায় প্রিয় ফুটবল তারকার নামের সঙ্গে মিল রেখে ‘মেসি’ নাম রেখেছেন আজিজুর।

আজিজুর রহমান বলেন, ‘মেসির নাম রাখার কারণ হলো ষাঁড়টি আকারে খুবই ছোট। কিন্তু অত্যন্ত ক্ষিপ্রগতি সম্পন্ন। খুবই শক্তিশালী। বেশির ভাগ সময় দৌড়াদৌড়ি করতে পছন্দ করে। আর্জেন্টিনার তারকা খেলোয়াড় মেসি যেমন বল নিয়ে দৌড় দিলে কেউ আটকাতে পারে না, তেমনি ষাঁড়টির একই অবস্থা। দৌড় দিলে তাকে ধরা যায় না। মূলত মেসির মতো দৌড়ের কারণে তার নাম রাখা হয়েছে মেসি।’

কমলপুর গ্রামের বাসিন্দা কামাল বলেন, ‘মেসির নাম ছড়িয়ে পড়ায় আশপাশের শত শত মানুষ প্রতিদিন দেখার জন্য আসে। মেসির কারণে গ্রামের নাম চারদিকে ছড়িয়ে পড়ছে।’

দেখতে ছোট হলেও আকর্ষণীয় হওয়ায় চাহিদা আছে ‘মেসির’। তাই এটিকে কিনতে চান স্থানীয় খামারি মাহবুব আলম। তিনি বলেন, ‘মেসি মানুষের কাছে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তাই মেসিকে কিনে নিয়ে নিজের খামারে পালতে চাই। চার লাখ টাকা দাম বলেছি। কিন্তু মালিক ১০ লাখ টাকা চান। এত দাম দিয়ে আমি কিনতে পারবো না।’ 

মা গাভির তিন নম্বর বাছুর ছিল ‘মেসি’। মা গাভির কোনও ত্রুটি ছিল না। কিন্তু জেনিটিক কারণে এটি ছোট হতে পারে বলে জানান উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. খোরশেদ দেলোয়ার। 

তিনি বলেন, ‘আকারে ব্যতিক্রম হওয়ায় চাহিদা বেশি। সংবাদ মাধ্যমে খবর পেয়ে বহু মানুষ ষাঁড়টি দেখতে আসছে। লম্বা এবং উচ্চতায় ছোট হলেও এটি খুবই শক্তিশালী। খুব দৌড়াতে পারে। এটি প্রজনন ক্ষমতাসম্পন্ন।’

 

/এএম/ 

সম্পর্কিত

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় দুই ভাই আহত

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩০

ঝালকাঠির রাজাপুরে ভারত-পাকিস্তানের খেলা দেখার সময় পাকিস্তান বলে চিৎকার দেওয়ায় ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় পাকিস্তানের সমর্থক দুই ভাই আহত হয়েছেন।

রবিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার সাংগর গ্রামের সাংগর স্কুল সংলগ্ন আলীম স্টোরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন সাংগর গ্রামের আমীর হোসেন মৃধার ছেলে মো. কাশেম মৃধা (৩২) ও কামাল মৃধা (৪০)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, খেলায় পাকিস্তান যখন জিতে যাচ্ছিল তখন পাকিস্তানের সমর্থকরা উল্লাস করে চিৎকার দেন। এতে ভারতীয় সমর্থকদের গাত্রদাহ শুরু হয়। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় দুই পক্ষের। একপর্যায়ে পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এতে দুই ভাই আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কামাল মৃধা রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।কাশেম মৃধা চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল হালিম তালুকদার বলেন, হামলায় দুই জন একটু আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ ঘটনায় কোনও পক্ষই থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

/এএম/

সম্পর্কিত

ফেরি যুগের অবসান, খুললো সম্ভাবনার নতুন দুয়ার 

ফেরি যুগের অবসান, খুললো সম্ভাবনার নতুন দুয়ার 

স্বামীকে হত্যার পর ঘরের সামনে দা হাতে বসেছিলেন স্ত্রী

স্বামীকে হত্যার পর ঘরের সামনে দা হাতে বসেছিলেন স্ত্রী

বেপরোয়া গতির ২ বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো মা-ছেলের

বেপরোয়া গতির ২ বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো মা-ছেলের

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লঞ্চের কেবিনে অজ্ঞাত তরুণীর লাশ

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০১:১২

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে কোরআন রেখে হাত থেকে নিয়ে ফেলে দেওয়া গদা উদ্ধার করা হয়েছে। সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় অভিযুক্ত মো. ইকবাল গদাটি ঝোপের ভেতর ফেলে দেন।

রবিবার রাত ১১টায় ইকবালের দেখানো জায়গা কুমিল্লা নগরীর দারোগাবাড়ি মাজার মসজিদের পাশের ঝোপের ভেতর থেকে গদাটি উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিআইডি কুমিল্লার পুলিশ সুপার খান মোহাম্মদ রেজওয়ান বলেন, রবিবার রাতে পুলিশের করা কোরআন অবমাননার মামলা সিআইডিকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এরপর জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকারোক্তিতে মামলার অন্যতম আসামি ইকবাল হোসেন জানান ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে কোরআন রেখে হাত থেকে গদাটি নিয়ে আসেন। এরপর দারোগাবাড়ি মাজার মসজিদের পাশের ঝোপে ফেলে দেন। রাতে ইকবালকে মাজারের পাশে নিয়ে যাওয়া হলে ঝোপের ভেতর গদাটি দেখিয়ে দেন।

অভিযুক্ত ইকবালকে নিয়ে অভিযানে যায় পুলিশ

কোরআন অবমাননার মামলায় ইকবাল হোসেন ছাড়াও অন্য আসামিরা হলেন দারোগাবাড়ি মাজারের দুই খাদেম ফয়সাল ও হুমায়ুন এবং জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ কল দিয়ে ঘটনাটি জানানো ইকরাম।ইকবালসহ চার আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য শনিবার (২৩ অক্টোবর) আদালত সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশের কাছ থেকে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ।
তিনি বলেন, কোরআন অবমাননায় ইকবালের বিরুদ্ধে করা মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ মামলায় এখন পর্যন্ত চার জন গ্ৰেফতার হয়েছেন। শনিবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিথিলা জাহান নিপার আদালতে ইকবালসহ চার জনকে হাজির করা হয়। পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ঝোপের মধ্যে মেলে গদা

তিনি আরও বলেন, পুলিশের কাছ থেকে সিআইডিকে যেহেতু মামলাটি তদন্তের জন্য দেওয়া হয়েছে, সেহেতু সিআইডি আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

মামলার অন্যতম আসামি ইকবাল হোসেনকে কক্সবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে কক্সবাজার থেকে কুমিল্লায় আনা হয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে ইকবাল পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার বিষয়টি স্বীকার করেন। সেই সঙ্গে গদাটি পুকুরে ফেলে দেওয়ার কথাও পুলিশকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু গদাটি ঝোপের ভেতর দেখিয়ে দিয়েছেন তিনি।

গত ১৩ অক্টোবর নানুয়াদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননার ঘটনায় কুমিল্লা নগরীর বিভিন্ন জায়গায় পূজামণ্ডপ ও মন্দির ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

/এএম/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১৮

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে পূজামণ্ডপ ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ আরও ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টায় সেনবাগ উপজেলার সেবারহাট থেকে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে সেনবাগ থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো—সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুন অর রশীদ, বেগমগঞ্জের কালিকাপুর গ্রামের মৃত হাজী মফিজ উল্যার ছেলে মো. আনোয়ারুল ইসলাম (২৯), চৌমুহনী পৌরসভার আলীপুর গ্রামের মৃত আবুল খায়েরের ছেলে মো. আবু তালেব (৪৭) ও চৌমুহনী পৌরসভার হাজীপুর গ্রামের মৃত সৈয়দ আহম্মদের ছেলে মো. ফরহাদ (২৭)।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম জানান, পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ভিডিও ফুটেজ দেখে রবিবার বেগমগঞ্জ উপজেলা থেকে তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিকালে তাদেরকে গ্রেফতার দেখিয়ে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।  

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী জানান, চৌমুহনীতে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা ও ভাঙচুর এবং দুই ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে রবিবার রাতে উপজেলার সেবারহাট থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকালে পূজামণ্ডপ ও মন্দিরে হামলা এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি নিহতের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: সাবেক ওসির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা: সাবেক ওসির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় করা মামলা সিআইডিতে

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২৩:০০

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন রেখে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির ঘটনায় মো. ইকবালের বিরুদ্ধে করা মামলা সিআইডিতে পাঠানো হয়েছে। কুমিল্লা কোতোয়ালি থানায় করা এই মামলার বাদী পুলিশ।

ইকবাল হোসেন ছাড়াও মামলার আসামিরা হলেন নগরী দারোগাবাড়ি মাজারের দুই খাদেম ফয়সাল ও হুমায়ুন এবং জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে বিষয়টি জানানো ইকরাম। ইকবালসহ চার আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শনিবার (২৩ অক্টোবর) সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

পুলিশের কাছ থেকে মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ।

তিনি বলেন, কোরআন অবমাননার ঘটনায় ইকবালের বিরুদ্ধে করা মামলাটি সিআইডিতে হস্তান্তর করা হয়েছে। এই মামলায় এখন পর্যন্ত চার জন গ্ৰেফতার হয়েছেন। 

শনিবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিথিলা জাহান নিপার আদালতে দুপুর ১২টার দিকে ইকবালসহ চার জনকে হাজির করা হয়। পরে পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 

এম তানভীর আহমেদ বলেন, পুলিশের কাছ থেকে সিআইডিকে যেহেতু মামলাটি তদন্তের জন্য দেওয়া হয়েছে, সে জন্য সিআইডি আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে।

এর আগে মামলার অন্যতম আসামি ইকবালকে কক্সবাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে কক্সবাজার থেকে কুমিল্লায় আনা হয়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ইকবাল পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার বিষয়টি স্বীকার করেন। পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে কোরআন রেখে গদাটি একটি পুকুরে ফেলে দেওয়ার কথাও অস্বীকার করেন। 

গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লার নানুয়াগিঘির পাড় পূজামণ্ডপে কোরআন অবমাননার ঘটনায় নগরীর বিভিন্ন জায়গায় পূজামণ্ডপ ও মন্দির ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। 

/এএম/

সম্পর্কিত

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

নোয়াখালীতে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় আরও ৪ জন গ্রেফতার

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু

আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ২৩:০১

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ১১ হাজার লিটারের সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট চালু হয়েছে। রবিবার (২৪ অক্টোবর) দুপুরে এর উদ্বোধন করেন মৌলভীবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নেছার আহমদ। পরে হাসপাতাল হলরুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এই অক্সিজেন প্ল্যান্ট বড় একটা জোগান। প্রতি লিটার তরল অক্সিজেন থেকে ৮৬০ লিটার গ্যাসীয় অক্সিজেন উৎপন্ন হয়। এটি সম্পন্ন হওয়ায় হাসপাতালের ২৫০ শয্যার প্রতি শয্যায় অক্সিজেন লাইন থাকবে, প্রয়োজনে রোগীর চাপ বিবেচনায় অতিরিক্ত রাখা যাবে। এ ছাড়া অপারেশন থিয়েটারসহ যেখানে প্রয়োজন সেখানে লাইন রাখা যাবে। ফল রোগীরা আগের চেয়ে বেশি সেবা পাবেন।

এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের চাহিদা অনুসারে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনুরোধে ইউনিসেফের অর্থায়নে সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্টের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা জহুরা আলাউদ্দিন, জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. কে এম হুমায়ুন কবির, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেল আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া, সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায়, সিভিল সার্জন ডা. চৌধুরী জালাল উদ্দিন মুর্শেদ, পৌর মেয়র ফজলুর রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন, মৌলভীবাজার বিএমএ সভাপতি ডা. শাব্বির হোসেন খান প্রমুখ।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

সরকারের পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল

সরকারের পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল

সাম্প্রদায়িক হামলায় আ.লীগ-ছাত্রলীগ জড়িত: মির্জা ফখরুল

সাম্প্রদায়িক হামলায় আ.লীগ-ছাত্রলীগ জড়িত: মির্জা ফখরুল

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ‘বি’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা শুরু

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ‘বি’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা শুরু

সিলেট সফরে বিএনপির মহাসচিব

সিলেট সফরে বিএনপির মহাসচিব

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জানুয়ারি থেকে বাড়বে ক্লাস: শিক্ষামন্ত্রী

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিশৃঙ্খলায় জড়িতদের বিচার চান রানা দাশগুপ্ত

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

দেড় হাজার কোটি টাকার সেতুতে গাড়ি চলবে রবিবার    

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

রিজার্ভ ট্যাংকে নেমে প্রাণ গেলো মামা-ভাগ্নের

ইকবাল ও মাজারের খাদেমদের ৭ দিনের রিমান্ড

ইকবাল ও মাজারের খাদেমদের ৭ দিনের রিমান্ড

‘সাম্প্রদায়িক হামলার পেছনে বিএনপি-জামায়াতসহ কিছু অপশক্তি জড়িত’

‘সাম্প্রদায়িক হামলার পেছনে বিএনপি-জামায়াতসহ কিছু অপশক্তি জড়িত’

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ জনকে হত্যা, আটক ৮

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ জনকে হত্যা, আটক ৮

ইকবাল ও মাজারের দুই খাদেম আদালতে, রিমান্ড চাইবে পুলিশ

ইকবাল ও মাজারের দুই খাদেম আদালতে, রিমান্ড চাইবে পুলিশ

মুহিবুল্লাহ কিলিং স্কোয়াডের ৪ সদস্য গ্রেফতার

মুহিবুল্লাহ কিলিং স্কোয়াডের ৪ সদস্য গ্রেফতার

এখনও প্রণোদনার টাকা পাননি ৬৬ শতাংশ চিকিৎসক-নার্স

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজএখনও প্রণোদনার টাকা পাননি ৬৬ শতাংশ চিকিৎসক-নার্স

সর্বশেষ

পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় দুই ভাই আহত

পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর ভারতীয় সমর্থকদের হামলায় দুই ভাই আহত

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

পুকুরে নয়, ঝোপের ভেতর হনুমানের গদা দেখিয়ে দিলেন ইকবাল

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

টাইগ্রে অঞ্চলে নতুন অভিযান শুরু ইথিওপিয়ার

ইসরায়েলের সঙ্গে আরব দেশের সম্পর্ক ছিন্ন করা উচিত: খামেনি

ইসরায়েলের সঙ্গে আরব দেশের সম্পর্ক ছিন্ন করা উচিত: খামেনি

ম্যানইউকে গোল বন্যায় ভাসালো লিভারপুল

ম্যানইউকে গোল বন্যায় ভাসালো লিভারপুল

© 2021 Bangla Tribune