X
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

‘হতভম্ব’ জাতীয় কমিটি এবার ‘হতাশ’

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১১:৩৬

ঈদুল আজহার আগে ৯ দিন লকডাউন শিথিলের সংবাদে ‘হতভম্ব’ হয়েছিল কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি কমিটি। গভীর উদ্বেগ জানিয়ে কমিটি সেসময় কঠোর লকডাউন টানা আরও দুই সপ্তাহ রাখার সুপারিশ করেছিল। কিন্তু সরকার জাতীয় কমিটির গভীর উদ্বেগকে আমলে না নিয়ে গত ১৩ জুলাই এক প্রজ্ঞাপন জারি করে। ঈদের পরে সংক্রমণ আরও ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে, এতে এবার ‘হতাশা’ প্রকাশ করেছেন কারিগরি কমিটির সদস্যরা।

বিধিনিষেধ শিথিল করার ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন, জনসাধারণের যাতায়াত, ঈদ পূর্ববর্তী ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা এবং অর্থনৈতিক কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে আগামী ১৪ জুলাই মধ্যরাত থেকে ২৩ জুলাই সকাল ৬টা পর্যন্ত আগের আরোপিত সকল বিধিনিষেধ শিথিল করা হলো।

কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান সেসময় বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ প্রজ্ঞাপনে আমরা বিস্মিত, হতভম্ভ। সব খুলে দেওয়া হলো ৯ দিনের জন্য। সরকার বলছে, শিথিল করা হলো। অথচ সব আগের অবস্থায় চলে যাবে।’

কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্যরা বলেন, বিধিনিষেধ শিথিলতার এ নির্দেশনায় তাদের ‘সায়’ ছিল না। তারা বলেন, সরকারের বিধিনিষেধ শিথিলের এ ঘোষণা তাদের পরামর্শের উল্টো। এ সময় এ ধরনের শিথিলতা বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ারই শামিল। এমনকি স্বাস্থ্য অধিদফতর যেখানে বারবার ভিড় এড়িয়ে চলার কথা বলছে, সেখানে সংক্রমণের ‘পিক টাইম’-এ এ ধরনের ঘোষণা আমাদের আরও খারাপ অবস্থায় নিয়ে যাবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

আর লকডাউন শিথিলের সুযোগ নিয়ে ঢাকা ছেড়ে গ্রামমুখী হয়েছেন মানুষ। বাস, লঞ্চ কিংবা ফেরিতে গাদাগাদি করে গ্রামে গিয়েছেন ঈদ করতে। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির এক হিসাবে, ঈদের ছুটিতে ২২ জুলাই পর্যন্ত ঢাকা ছেড়েছেন ১ কোটি ৪ লাখ ৯৪ হাজার ৬৮৩টি মোবাইল সিমের ব্যবহারকারী। এত মানুষের ফেরার জন্য সময় রাখা হয়েছিল একদিন। আর এতে ফেরার পথেও হয় নানান বিশৃঙ্খলা। এখনও বিধিনিষেধের মধ্যেই নানানভাবে ঢাকায় ঢুকছে মানুষ।

এর ফলে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের আশংকাকে সত্যি প্রমাণ করে গত ২৪ ঘণ্টায় (২৬ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত) দেশে গত মহামারিকালের সর্বোচ্চ মৃত্যু ও রেকর্ড সংখ্যক রোগী শনাক্ত হয়েছেন। একই দিনে দেশে করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা আগের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। এই সময়ে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে ২৪৭ জনের মৃত্যু ও এ যাবৎকালে একদিনের সর্বোচ্চ সংখ্যক ১৫ হাজার ১৯২ জনের শনাক্ত হওয়ার খবর জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

এর প্রতিক্রিয়ায় কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরার্মশক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘আমি হতাশ, অবশ্যই হতাশ। খুবই দুঃখজনক হলো বিষয়টা।

সংক্রমণের এই ঊর্ধ্বগতিকে ‘মাল্টি-ফেকটোরিয়াল’ বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ডেফিনিটলি শিথিলতা এখানে কাজ করেছে, সংক্রমণ বাড়তির দিকে।

‘সেই সঙ্গে শিথিলতার মাধ্যমে যখন মানুষ ঘরের বাইরে বেরিয়েছে, তাদের মধ্যে একটি ‘সিগনিফিকেন্ট নাম্বার’ কোনও রকম স্বাস্থ্যবিধি মানে নাই’, বলেন তিনি।

‘যদি এমন হতো, আমরা শিথিল করলাম, কিন্তু শতভাগ মানুষের মুখে মাস্ক পরছে, তাহলে কি আজ এরকম হতো?...হতো না। এটা একটা বিষয়, আর এর সঙ্গে রয়েছে মাঝে ভ্যাকসিন কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়া। মাত্র তিন থেকে চার শতাংশের বেশি আমরা এখনও যেতে পারিনি। এটিও একটা কারণ। 

সঙ্গে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণশীলতাকেও ঊর্ধ্বমুখিতার কারণ হিসেবে উল্লেখ করে অধ্যাপক মোহাম্মদ সহিদুল্লা বলেন, এখন যত সংক্রমণ হচ্ছে তার মধ্যে ৮০ শতাংশই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট, এই ভ্যারিয়েন্ট আগের যে কোনও ভ্যারিয়েন্টের চেয়ে প্রায় দেড়গুণের বেশি ছড়াচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সব মিলিয়েই এ অবস্থা।

তিনি বলেন, এত মৃত্যু, এত সংক্রমণ দেখে হতাশ লাগছে, কিন্তু হতাশ হলে হবে না। এর চেয়েও হতাশাজনক অবস্থা অন্যান্য দেশ দেখেছে। তাই এখন সঠিক কাজটি সবাই মিলে করা দরকার। তার মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যবিধি মানাতে সবাইকে বাধ্য করা। দ্বিতীয়ত, যে লকডাউন চলছে, তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করা এবং তৃতীয়ত, রোগী শনাক্ত করণ টেস্টের সংখ্যা আরও বাড়ানো। পারলে প্রতিদিন লাখের কাছাকাছি নিয়ে যাওয়া।

শনাক্ত রোগীদের আইসোলেশনে নেওয়াটাও জরুরি উল্লেখ করে অধ্যাপক সহিদুল্লা বলেন, সেই সঙ্গে যারা আক্রান্তের সংর্স্পশে এসেছেন তাদেরও কোয়ারেন্টিন করা। আর ফাইনালি আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে টিকার আওতায় আনতে হবে দ্রুত, বলেন তিনি।

কমিটির আরেক সদস্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এত মৃত্যু দেখে আজ সত্যিই হতাশ লাগছে। তবে এত মৃত্যু হচ্ছে হাসপাতাল অব্যবস্থাপনা ঘাটতির জন্য। হাসপাতালে অক্সিজেন নাই, যার অক্সিজেন লাগবে তাকে সেটা দেওয়া যাচ্ছে না। যার আইসিইউ লাগবে, তাকে আইসিইউ দেওয়া যাচ্ছে না। মানুষ মারা যাচ্ছে। জেলা সদর হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী, অথচ এখনও পর্যন্ত সেটা কার্যকর হয়নি।

করোনার সংক্রমণ কি কেবল ঢাকাতেই প্রশ্ন করে অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, ঢাকাতেও সব (আইসিইউ) ফুরিয়ে আসছে। আবার বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষ ঢাকায় আসবেন, কিন্তু কতজন আসতে পারছেন, সেটাও বিবেচনায় নিতে হবে।

/জেএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০২

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফলেই ডিএনসিসি এলাকার ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মালিবাগ এলাকায় এডিস মশা ও ডেঙ্গু মোকাবিলায় ফগিং ও লার্ভিসাইডিংসহ অন্যান্য কার্যক্রম পরিদর্শনকালে ডিএনসিসি মেয়র একথা বলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, এডিস মশার বংশবিস্তার রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য বিভিন্ন ধরণের প্রায় ১ হাজার ৭০০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পত্র দেওয়া হচ্ছে। সুপারভাইজার এবং মশকনিধন কর্মীদের জন্য একটি নির্দেশিকাও তৈরি করা হয়েছে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, নিজেদের বাসাবাড়ি কিংবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফুলের টব, অব্যবহৃত টায়ার, ডাবের খোসা, বিভিন্ন ধরনের খোলা প্যাকেট বা পাত্র, ছাদ কিংবা অন্য কিছুতে যাতে তিন দিনের বেশি পানি জমে না থাকে সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, সামনেই কিউলেক্স মশার চ্যালেঞ্জ আসছে, তাই সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।

/এসএস/এমআর/

সম্পর্কিত

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৩৫

উত্থাপিত ১০ দফা দাবি আদায় না হলে ৪৮ ঘণ্টা কর্মবিরতিতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ডভ্যান, ট্যাংক-লরী, প্রাইম মুভার মালিক-শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত এক জনসমাবেশে এ হুঁশিয়ারি দেন পরিষদের আহ্বায়ক রুস্তম আলী খান।

পরিষদের দাবিগুলো হলো— ট্রাক চালক লিটন হত্যার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে; ড্রাইভিং লাইসেন্সের জটিলতা নিরসন করে লাইসেন্স প্রদান করতে হবে; পণ্য পরিবহনের সময় মালামাল চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাই রোধে জরুরি কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে ও এর সঙ্গে যেই জড়িত থাকুক না কেন তাকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে; বর্ধিত আয়কর প্রত্যাহার করে করোনাকালে পূর্বের ন্যায় জরিমানা ব্যতীত গাড়ির কাগজপত্র হালনাগাদ করার সুযোগ দিতে হবে; সড়ক-মহাসড়কে কাগজপত্র চেকিং এর নামে পুলিশি হয়রানি, চাঁদাবাজি, মান্থলি বা মাসিক মাসোহারা বন্ধ করতে হবে এবং মালিক ও শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের নির্দেশিকা অনুযায়ী পরিচালন ব্যয় আদায় করার সুযোগ দিতে হবে।

দাবিগুলোর মধ্যে আরও রয়েছে, বিতর্কিত ব্যক্তিদের নিয়ে কমিটি করার উদ্যোগ বাতিল করতে হবে; সড়ক-মহাসড়কের পাশে এবং প্রত্যেক জেলায় আধুনিক সুযোগ সম্বলিত ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণ করতে হবে; টার্মিনাল ব্যতিরেকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনসহ সারাদেশের সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার সড়ক এবং মহাসড়কে অবৈধ চাঁদা বন্ধ করতে হবে ও দেশে সড়ক মহাসড়কগুলো শুধুমাত্র হাইওয়ে পুলিশের অধীনে তদারকির ব্যবস্থা করতে হবে। নির্দিষ্ট স্থানে কাগজপত্র চেকিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।

তবে উপরোক্ত ১০ দফা দাবি আদায় না হলে আগামী ২৭ ও ২৮ সেপ্টেম্বর পণ্য পরিবহনে কর্মবিরতি পালন করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পরিষদের নেতৃবৃন্দরা।

এ সময় সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সদস্য সচিব তাজুল ইসলাম, ঢাকা জেলা ট্রাক ট্যাংক-লরী কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাজী জয়নাল আবদীন, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল জাব্বার প্রমুখ। 

/বিআই/এনএইচ/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

৮০ বছর বয়সেও বৃদ্ধ আমিনের জীবনচাকা রিকশার প্যাডেলে

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

তিস্তাসহ সব নদীর ভাঙন রোধে ৬ দফা দাবি 

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৬

গত ২৪ ঘণ্টায় (২৪-২৫ সেপ্টেম্বর) ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২২১ জন। তাদের নিয়ে চলতি মাসে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মোট ছয় হাজার ৭৫৯ জন হাসপাতালে ভর্তি হলেন।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম এ তথ্য জানিয়েছে।

কন্ট্রোল রুমের তথ্যানুযায়ী, একদিনে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ২২১ জনের মধ্যে ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৬৪ জন আর ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫৭ জন।

দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে বর্তমানে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এক হাজার ৯৯ জন ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৮৮০ জন আর অন্যান্য বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২১৯ জন।

চলতি বছরে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মোট ১৭ হাজার ১১৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৫ হাজার ৯৫৭ জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। আর চলতি বছরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে কন্ট্রোল রুম।

কন্ট্রোল রুম জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ২২১ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী ভর্তি হয়েছেন ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীরা। এই বয়সের রোগী ভর্তি হয়েছেন ২৪ দশমিক আট শতাংশ। এরপর রয়েছে ১১ থেকে ২০ বছর বয়সীরা; ২৪ দশমিক এক শতাংশ, শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সীরা রয়েছে ২২ দশমিক ছয় শতাংশ, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে রয়েছে ১২ দশমিক আট শতাংশ, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে রয়েছেন পাঁচ দশমিক তিন শতাংশ, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে রয়েছেন চার দশমিক পাঁচ শতাংশ, ষাটোর্ধ রয়েছেন তিন দশমিক আট শতাংশ আর শূন্য থেকে এক বছর বয়সীদের হাসপাতালে ভর্তির হার দুই দশমিক তিন শতাংশ।

/জেএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

মাস বাকি আরও ৭ দিন, ডেঙ্গু রোগী ছাড়ালো সাড়ে ছয় হাজার 

মাস বাকি আরও ৭ দিন, ডেঙ্গু রোগী ছাড়ালো সাড়ে ছয় হাজার 

‘কক্সবাজারে নতুন রেললাইন চালু হবে আগামী বছর’

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৯

আগামী বছরের ডিসেম্বরে কক্সবাজারে নতুন রেললাইন চালু হবে বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশনে লাকসাম- কুমিল্লা সেকশনে ২৪ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ডাবল লাইনে ট্রেন চলাচলের উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। এদিন বিকালে রেল মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

নূরুল ইসলাম সুজন আরও জানিয়েছেন,  যমুনা নদীর ওপর রেল সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে যেটি ২০২৪ সালে চালু হবে।  পদ্মা সেতু রেল সংযোগ ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত করা হচ্ছে।  খুলনা থেকে মংলা পর্যন্ত নতুন রেললাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। এভাবে অনেক প্রকল্প নেওয়া হয়েছে রেলের উন্নয়নে ।

মন্ত্রী জানান, আখাউড়া থেকে টঙ্গী পর্যন্ত পরবর্তীতে ব্রডগেজ  করা হবে।  ভবিষ্যতে ঢাকা-চট্টগ্রাম পুরাটাই ডুয়েলগেজ ডাবল লাইনে উন্নীত করা হবে।

এ সময় তিনি নিরাপদ যাত্রার ক্ষেত্রে ট্রেনে ঢিল ছোড়ার বিরুদ্ধে জনসচেতনতা গড়ার আহ্বান জানান।  

উল্লেখ্য আখাউড়া-লাকসাম সেকশনে নতুন ৭২ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ দ্বিতীয় রেললাইন নির্মাণ এবং বিদ্যমান ৭২  কিলোমিটার মিটার গেজ রেললাইনকে ডুয়েলগেজে রূপান্তর করা হচ্ছে। আজ লাকসাম কুমিল্লা সেকশনে ২৪ কিলোমিটার ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করেন রেলপথমন্ত্রী ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা-৫ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আবুল হাশেম খান,  সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার। বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

ট্রেনে কাটা পড়ে, ধাক্কা খেয়ে দুজনের মৃত্যু

ট্রেনে কাটা পড়ে, ধাক্কা খেয়ে দুজনের মৃত্যু

টিকিট শেষ, তবুও অপেক্ষা (ফটোস্টোরি)

টিকিট শেষ, তবুও অপেক্ষা (ফটোস্টোরি)

অনলাইনে টিকিট যুদ্ধের পর ট্রেনে ঈদযাত্রা

অনলাইনে টিকিট যুদ্ধের পর ট্রেনে ঈদযাত্রা

লোকাল ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধি মানানো কঠিন: রেলমন্ত্রী

লোকাল ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধি মানানো কঠিন: রেলমন্ত্রী

‘বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ’ 

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৫০

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে নারীশিক্ষাকে উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ পার্লামেন্টারিয়ান্স অন পপুলেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিএপিপিডি)-এর সকল কর্মকাণ্ড তৃণমূল পর্যায়ে বাস্তবায়ন ও পর্যবেক্ষণে সকলের সম্মিলিত প্রয়াস জরুরি।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলায় বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয় কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন এসপিসিপিডি প্রকল্পের আওতায় গঠিত ‘বিএপিপিডি কর্তৃক বাল্যবিবাহ ও জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ এবং প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ’ শীর্ষক পরামর্শ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে স্পিকার এসব কথা বলেন। এসময় তিনি পরামর্শ কর্মশালার উদ্বোধন করেন।

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছি। সম্প্রতি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে তাকে ‘এসডিজি প্রগেস এওয়ার্ড’-এ ভূষিত করা হয়েছে। কমিউনিটি ক্লিনিকের জনবান্ধব ধারণাটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত ব্যক্তিগত চিন্তার ফসল।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, কোভিডকালীন সময়ে সমগ্র বিশ্বে নারীর প্রতি সহিংসতা বৃদ্ধি পেয়েছে। নারী সহিংসতা, বাল্যবিবাহের মতো উদ্ভূত চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করে উত্তরণ ঘটাতে হবে। অসচ্ছল বাবা-মায়েদের আস্থাহীনতার কারণে করোনাকালীন সময়ে বাল্যবিবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রকৃতপক্ষে কন্যাসন্তান তাদের জন্য বোঝা নয়। 

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ‘বাল্যবিবাহ ও জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ বিষয়ক উপ-কমিটি’র আহ্বায়ক বেগম মেহের আফরোজ এমপি-র সভাপতিত্বে এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সচিব কে. এম. আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, আরমা দত্ত এমপি, শিউলি আজাদ এমপি, শবনম জাহান এমপি, ফখরুল ইমাম এমপি বক্তব্য রাখেন।

/ইএইচএস/এমআর/

সম্পর্কিত

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

কর্মবিরতির হুঁশিয়ারি ট্রাক কাভার্ডভ্যান মালিক শ্রমিকদের

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

‘কক্সবাজারে নতুন রেললাইন চালু হবে আগামী বছর’

‘কক্সবাজারে নতুন রেললাইন চালু হবে আগামী বছর’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

একটি হাত ব্যাগ ও সৌদি আরব প্রবাসীর কান্না-হাসি

একটি হাত ব্যাগ ও সৌদি আরব প্রবাসীর কান্না-হাসি

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৫২

মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৫২

দুর্গাপূজাকে ঘিরে ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পী,  উদযাপনের কিছু শর্ত শিথিল হতে পারে

দুর্গাপূজাকে ঘিরে ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পী,  উদযাপনের কিছু শর্ত শিথিল হতে পারে

নদীর দখল রোধে আবার পিলার

নদীর দখল রোধে আবার পিলার

সর্বশেষ

জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণের সুযোগ পাচ্ছেন না তালেবান প্রতিনিধি

জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণের সুযোগ পাচ্ছেন না তালেবান প্রতিনিধি

আইপিএলে মোস্তাফিজ জাদু, এবার উইকেটও এলো

আইপিএলে মোস্তাফিজ জাদু, এবার উইকেটও এলো

ট্রেনে ডাকাতি-খুনের ঘটনায় মামলা, আটক ১

ট্রেনে ডাকাতি-খুনের ঘটনায় মামলা, আটক ১

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

করোনায় শনাক্ত নামলো হাজারের নিচে

করোনায় শনাক্ত নামলো হাজারের নিচে

© 2021 Bangla Tribune