X
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

প্রাণিসম্পদ অফিসের অবহেলায় খামারির ৮শ’ হাঁসের মৃত্যুর অভিযোগ

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১৮:৫৯

জামালপুরের ইসলামপুরে প্রাণিসম্পদ অফিসের চিকিৎসার অবহেলায় এক তরুণ উদ্যোক্তার ৮শ’ হাঁস মারা গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন খামার গড়ে তুলে বেকারত্ব ঘুচিয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখা তরুণ আব্দুল আওয়াল খান জিন্নাত (২৮)।

জিন্নাত উপজেলার পলবান্ধা ইউনিয়নের উত্তর সিরাজাবাদ এলাকার আবুল হাসেম খানের ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, গত চার মাস আগে নেত্রকোনার সরকারি হাঁসের ফার্ম থেকে এক হাজার ২৫টি বেইজিং জাতের হাঁসের বাচ্চা নিয়ে এসে খামার গড়ে তোলেন জিন্নাত। খামারে যত্ন ও খাওয়ানোর পর বেশ বড় হয়ে ওঠে হাঁসের বাচ্চাগুলো। হাঁসগুলোর বর্তমান বয়স চার মাস ১০ দিন। আর মাত্র ১৫ থেকে ১৬ দিন পরে সেগুলো ডিম পাড়তে শুরু করবে। এরই মধ্যে রবিবার রাতে তিন-চারটি হাঁস অসুস্থ হয়ে মারা যায়। সোমবার সকালে একটি মরা হাঁস নিয়ে উপজেলা ভেটেরিনারি সার্জন আব্দুল আলিমের কাছে যান তিনি। উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত হাঁসটিকে পোস্টমর্টেম করে প্রেসক্রিপশন দেন। সেই অনুযায়ী ওষুধ খাওয়ানোর পর পুরো খামার জুড়ে মড়ক শুরু হয়। মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত  হাঁসগুলো মাথা ঘুরে পড়ে গিয়ে মারা যায়।

ভুক্তভোগী খামারি জিন্নাতের অভিযোগ করে বলেন, ‘ওষুধ খাওয়ার পর হাঁসগুলো মারা যেতে শুরু করে। এ বিষয়ে পুনরায় ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি খামারে আসেননি। তিনি খামারে না আসার নানান কারণ দেখিয়েছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এত বড় ক্ষতিতে যেন আমার মাথার ওপর আকাশ ভেঙে পড়েছে। আমি বেকারত্ব থেকে স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য খামার গড়ে তুললেও প্রাণিসম্পদ বিভাগের কেউ কোনও খোঁজখবর নেননি। ঠিকমতো চিকিৎসা দেননি। তাই আমার খামারের হাঁস মরে গিয়ে অন্তত চার লাখ টাকা ক্ষতি হলো।’

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন ডাক্তার আব্দুল আলিম বলেন, ‘মৃত একটি হাঁসকে পোস্টমর্টেম করে ওষুধ লিখে দিয়েছি। লকডাউনের কারণে আমি ঝুঁকি নিয়ে তার খামারে যেতে পারিনি।’

এসব বিষয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সানোয়ার হোসেন বলেন, ‘এতগুলো হাঁস মারা গেলো, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। হাঁসগুলো কী কারণে মারা গেছে আমি জানি না। তবে আজ (মঙ্গলবার) ওই খামারির বাড়িতে গিয়ে আমি খোঁজ খবর নেবো।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

জীবিত থেকেও এক জেলার শতাধিক মানুষ ‘মৃত’

জীবিত থেকেও এক জেলার শতাধিক মানুষ ‘মৃত’

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

‘চাকরিজীবীরা কীভাবে অর্থশালী আমি বুঝি, সৎভাবে হওয়া অসম্ভব’

‘চাকরিজীবীরা কীভাবে অর্থশালী আমি বুঝি, সৎভাবে হওয়া অসম্ভব’

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে কমেছে মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে কমেছে মৃত্যু

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৫৭

কেন্দ্র দখল, ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোট বর্জন করেছেন নৌকার দুই প্রার্থী।  সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) ভোটগ্রহণ শুরুর এক ঘণ্টার মধ্যেই নোয়াখালীর হাতিয়ার ৯ নম্বর বুড়িরচর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা প্রতীক) জিয়া আলী মোবারক কল্লোল, ১০ নম্বর জাহাজ মারা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী (নৌকা প্রতীক) এটিএম সিরাজ উল্যাহ ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। 

এছাড়া ৫ নম্বর চরঈশ্বর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আবদুল হালিম আজাদ (আনারস প্রতীক), ৮ নম্বর সোনাদিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী (মোটরসাইকেল প্রতীক) নূরুল ইসলাম, ১১ নম্বর নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী (মোটরসাইকেল প্রতীক) মো. মেহেরাজ উদ্দিনও একই অভিযোগ এনে ভোট শুরুর পরপরই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। 

প্রার্থীরা সাংবাদিকদের কাছে তাদের ভোট বর্জনের কথা জানিয়েছেন। প্রার্থীরা বলেছেন, সংবাদ সম্মেলন করে ভোট বর্জনের বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে। এর মধ্য দিয়ে হাতিয়ার সাত ইউপির নির্বাচনে পাঁচটিতেই চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোট বর্জন করলেন।  

এ বিষয়ে নির্বাচন কর্মকর্তা জাকির হোসেন বলেন, আমি এখনও কোনও প্রার্থীর থেকে অভিযোগ পাইনি। সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চলছে বলেও দাবি করেন তিনি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০৩

খুলনা বিভাগের ১৬ উপজেলার ১২০টি ইউনিয়ন পরিষদে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। খুলনার পাঁচ উপজেলা, বাগেরহাটের ৯ উপজেলা এবং সাতক্ষীরার দুটি উপজেলার ১২০টি ইউনিয়নে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তবে সকালে থেকে বৃষ্টি থাকায় কেন্দ্রে কেন্দ্রে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এসব প্রতিবন্ধকতা উপেক্ষা করে ছাতা মাথায় ভোটাররা লাইনে দাঁড়িয়েছেন। পাইকগাছার গদাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের মানিকতলা সেন্টার মাঠে জলাবদ্ধতার মধ্যে ভোটারদের দাঁড়িয়ে থেকে ভোট দিতে দেখা যায়। সেখানে দায়িত্বরত আনসার সদস্যদের খালি পায়ে পানিতে নেমে লাইন ঠিক করতে দেখা গেছে। 
       
খুলনা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী বলেন, খুলনা বিভাগের তিন জেলার ১৬টি উপজেলার ১২০টি ইউনিয়নে সোমবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

খুলনা জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, খুলনার পাঁচ উপজেলার ৩৪টি ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ১৫৬ জন, ৩০৬ ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য পদে এক হাজার ৪৮১ জন, সংরক্ষিত সদস্য পদে ৪৬৪ জন প্রার্থী লড়ছেন। ইউনিয়নগুলোতে মোট ভোটার সংখ্যা ছয় লাখ ৪০ হাজার ৭৭৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার তিন লাখ ১৭ হাজার ৩৯৬ জন ও নারী ভোটার রয়েছেন তিন লাখ ২৩ হাজার ৩৮৩ জন।

জেলা পুলিশ ও রিটার্নিং কার্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে, প্রতিটি কেন্দ্রে পাঁচ জন অস্ত্রধারী পুলিশ, ১১ থেকে ১২ জন আনসার সদস্য, একজন গ্রাম পুলিশ শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছেন। 

এছাড়া প্রতিটি উপজেলায় চার জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ দায়িত্ব পালন করছেন। থানায় রিজার্ভ ফোর্স থাকছে, জরুরি প্রয়োজনে অতিরিক্ত ফোর্স পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া র‌্যাব, গোয়েন্দা পুলিশ, কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশের সদস্যরা কেন্দ্র পরিদর্শন করছেন।

খুলনা জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রে পাঁচ জন পুলিশ, ১১ থেকে ১২ জন আনসার-ভিডিপির সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। উপজেলায় চার জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত থাকছেন। তাছাড়া জরুরি প্রয়োজনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের ব্যবস্থা রয়েছে। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণের জন্য সার্বক্ষণিক তদারকি চলছে। 

তিনি আরও বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণের জন্য সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ মাহবুব হাসান জানান, সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে প্রতিটি কেন্দ্রে প্রয়োজনীয় সংখ্যক পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য রিজার্ভ ফোর্স হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

মোংলায় ভোটের আগের রাতে সহিংসতায় নারীর মৃত্যু

মোংলায় ভোটের আগের রাতে সহিংসতায় নারীর মৃত্যু

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৮

নোয়াখালীর কবিরহাট পৌরসভা নির্বাচনের আগে হামলার অভিযোগ এনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। ভোট বর্জন করা দুই প্রর্থী হলেন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পাঞ্জাবি প্রতীকের প্রার্থী মো. হানিফ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ডালিম প্রতীকের প্রার্থী মো. আলী জিন্নাহ। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে পৃথক পৃথক সংবাদ সম্মেলন করে তারা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।

৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. হানিফ অভিযোগ করেন, প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকের প্রার্থী সফি উল্যাহ দুলাল ও তার সমর্থকরা রবিবার রাতে আমার ও বোনের বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে ভাঙচুর এবং প্রাণনাশের চেষ্টা চালায়। তাই জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

অপরদিকে, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ডালিম প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, নির্বাচনের দুইদিন আগে থেকে প্রাণনাশের হুমকি পাওয়ায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) টমাস বড়ুয়া বলেন, নির্বাচনে সহিংসতার বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে, আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কবিরহাটের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. মনিরুল ইসলাম জানান, বিষয়টির খোঁজ নিয়ে দেখবেন। 

উল্লেখ্য, কবিরহাট পৌরসভার মেয়র পদে বর্তমান মেয়র জহিরুল হক রায়হান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার সেখানে কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত  ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া, জেলার হাতিয়ার সাতটি ও সুবর্ণচর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোটগ্রহণ চলছে। 

/টিটি/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

মোংলায় ভোটের আগের রাতে সহিংসতায় নারীর মৃত্যু

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:২৮

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মোংলার চাঁদপাইয়ে সহিংসতায় এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম ফাতেমা বেগম (৭০)।  রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছোট বোন খাদিজা বেগম বলেন, মারামারির খবর শুনে আমার বোন ঠেকাতে এলে তাকে পেছন থেকে আঘাত করে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। এরপর তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যান তিনি।

নিহত ফাতেমা ইউপি সদস্য প্রার্থী মতিয়ার মোড়লের ফুফু হন বলে জানা গেছে। প্রত্যক্ষদর্শী মহাসিন ও মোয়াজ্জেম বলেন, ভোটের আগের রাত ৯টায় চাঁদপাই মোড়ে বর্তমান ইউপি সদস্য ও প্রার্থী মতিয়ার রহমান মোড়ল এবং প্রতিপক্ষ প্রার্থী শফিকুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তারা। এ সময় সংঘর্ষ ঠেকাতে এসে ফাতেমা বেগম নামের ওই বৃদ্ধা আহত হন। একই ঘটনায় আহত হন মতিয়ার রহমান মোড়ল (৬০), বোরহান শেখ (৩৫) ও ইস্রাফিল (২৬)।

তাদেরকে উদ্ধার করে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথেই ফাতেমা বেগম মারা যান বলে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সিরাজুল ইসলাম জানান। তিনি বলেন, নিহতের মাথার পেছনে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এদিকে খবর পেয়ে মোংলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মোংলা-রামপাল সার্কেল) মো. আসিফ ইকবাল ও মোংলা থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম।

ওসি মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ঘটনার তদন্ত চলছে। বৃদ্ধা কীভাবে মারা গেছেন, সে বিষয়ে চিকিৎসক বলবেন।

এ বিষয়ে মতিয়ার রহমান মোড়ল বলেন, ‘চাঁদপাই মোড়ে গেলে প্রতিপক্ষ প্রার্থী শফিকুলসহ তার লোকজন আমার ওপর হামলা চালায়।’

তবে শফিকুলের দাবি, ‘মতিয়ার মোড়ল লোকজনের মাঝে টাকা বিতরণের সময় সে বাধা দেয়। এ সময় তার ওপর মতিয়ার হামলা চালায়।’ বৃদ্ধা স্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে দাবি তার।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (রাত সাড়ে ১১টা) থানায় কোনও অভিযোগ হয়নি। এদিকে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে মোংলার ছয় ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ হবে।

/এফআর/জেজে/

সম্পর্কিত

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

বেনাপোল ইমিগ্রেশনে ভারতফেরত বাংলাদেশির মৃত্যু

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২১

ঝালকাঠিতে আরাফ ও আয়ান নামের ১৬ মাসের জমজ দুই সন্তানকে এসপির কার্যালয়ের সামনে ফেলে রেখে গেছেন পুলিশের এক কনস্টেবলের সাবেক স্ত্রী। শিশু দুটিকে ঝালকাঠি থানার নারী ও শিশু ডেস্কে এনে রাখা হয়েছে। দুই শিশুকে নিয়ে বিপাকে পড়েছে থানা পুলিশ।

পুলিশ কনস্টেবল পিতা সন্তানদের ভরণপোষণ ও চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন না করার অভিযোগে রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকালে শিশুদের সেখানে ফেলে রেখে যান মা।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শিশু দুইটির বাবা ইমরান হোসেন, কাঁঠালিয়া থানা পুলিশের কনস্টেবল পদে কর্মরত আছেন। বর্তমানে এক মাসের প্রশিক্ষণের জন্য জামালপুরে অবস্থান করছেন। তার বাড়ি বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার মালুহার গ্রামে। ২০১৯ সালের মে মাসে এক তরুণীকে বিয়ে করেন। এরপর দাম্পত্য কলহের জেরে চলতি বছরের মার্চ মাসে স্ত্রীকে তালাক নোটিশ পাঠান ইমরান। তালাক নোটিশ পেয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে যৌতুকের মামলা করেন।

স্ত্রীর দাবি, তালাক নোটিশ পাঠানোর আরও আগে থেকে তার এবং সন্তানদের কোনও ভরণপোষণ দিচ্ছে না ইমরান।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এসপি কার্যালয়ের সামনের চায়ের দোকানি মাহফুজ মিয়া বলেন, ‘বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে এক নারী তার দুই শিশু সন্তানকে এসপি অফিসের চেক পোস্টের দায়িত্বে থাকা পুলিশ সদস্যদের সামনে রেখে যান। যাওয়ার সময় সে বলে যায়, তোমাদের সন্তান তোমাদের কাছেই থাক। পরে শিশু দুইটিকে সন্ধ্যায় ঝালকাঠি সদর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের কান্নায় থানার পরিবেশ ভারী হয়ে উঠেছে।’

শিশু দুইটির মা মোবাইল ফোনে বলেন, ‘গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে টাইফয়েডে আক্রান্ত হয়ে আরাফ ও আয়ান ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি আছে। আজ সকালে চিকিৎসকরা তাদের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে বলেন। এতে প্রায় ছয় হাজার টাকার প্রয়োজন ছিল। বিষয়টি ইমরানকে জানানো হলে, টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। তাই বাধ্য হয়ে শিশু দুটিকে নিয়ে পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিনের সাক্ষাতের জন্য যা-ই। কিন্তু প্রধান ফটকের সামনে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ইমরান মিয়া ও মো. সুমন নামে দুই পুলিশ সদস্য আমাকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে শিশু সন্তানদের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে রেখে চলে এসেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাচ্চাদের লালনপালন করতে আমার কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু ওদের লালনপালনের খরচ আমি কীভাবে বহন করবো? আমারতো সে সামর্থ্য নেই।’

কনস্টেবল ইমরান মোবাইল ফোনে বলেন, ‘প্রতি মাসে সন্তানদের ভরণপোষণের জন্য আমি তিন হাজার টাকা তার (সাবেক স্ত্রী) ব্যাংক হিসেবে পাঠাই। আমি আমার সাধ্য অনুযায়ী তাদের খোঁজখবর নিয়ে থাকি। কিন্তু মা হয়ে সে কীভাবে সন্তানদের এসপি কার্যালয়ের সামনে ফেলে গেল?’

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি মো. খলিলুর রহমান বলেন, ‘শিশুদের দাদা-দাদিকে খবর দেওয়া হলে তারা এসে রাতে শিশু দুইটিকে নিয়ে গেছে। আমরা দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মিটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছি।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ কনস্টেবলের লাশ উদ্ধার

নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ কনস্টেবলের লাশ উদ্ধার

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসিসহ ৪ জনকে বদলি

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ওসিসহ ৪ জনকে বদলি

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

জীবিত থেকেও এক জেলার শতাধিক মানুষ ‘মৃত’

জীবিত থেকেও এক জেলার শতাধিক মানুষ ‘মৃত’

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

নারী পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত

‘চাকরিজীবীরা কীভাবে অর্থশালী আমি বুঝি, সৎভাবে হওয়া অসম্ভব’

‘চাকরিজীবীরা কীভাবে অর্থশালী আমি বুঝি, সৎভাবে হওয়া অসম্ভব’

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে কমেছে মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে কমেছে মৃত্যু

ভোটাররা আমার মনিব, আমি চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ভোটাররা আমার মনিব, আমি চাকর: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

টাকা হারানোর ঘটনায় সন্দেহ করায় পালিয়ে যায় ৩ ছাত্রী

টাকা হারানোর ঘটনায় সন্দেহ করায় পালিয়ে যায় ৩ ছাত্রী

সড়ক না খাল? 

সড়ক না খাল? 

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

সর্বশেষ

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

নোয়াখালীতে নৌকার দুই প্রার্থীর ভোট বর্জন

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

ছাতা মাথায় কেন্দ্রে খুলনার ভোটাররা 

প্রাথমিকের বিস্কুট বিতরণ প্রকল্প: মেয়াদ বাড়লেও কার্যক্রম শুরু হয়নি

প্রাথমিকের বিস্কুট বিতরণ প্রকল্প: মেয়াদ বাড়লেও কার্যক্রম শুরু হয়নি

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

হামলা ও প্রাণনাশের হুমকিতে কবিরহাটের ২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন 

১৬০ ইউপি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

১৬০ ইউপি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু

© 2021 Bangla Tribune