X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

শাকিলদের উদ্যোগে ‘ভ্যাকসিনেটেড’ গ্রাম জোড়দিয়া শেখপাড়া

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ১৮:১৪

মহামারি করোনাভাইরাসে মানুষের জীবন দুর্বিষহ। এটি কাটিয়ে উঠতে দরকার প্রতিষেধক। বর্তমানে সবচেয়ে কার্যকর প্রতিষেধক হলো ভ্যাকসিন বা করোনার টিকা। কিন্তু গ্রামের অনেক মানুষই জানেন না করোনা টিকা সম্পর্কে। যারা কিছুটা জানেন তাদের অধিকাংশের রয়েছে এই টিকা সম্পর্কে ভুল ধারণা।  তারা মনে করেন, এই টিকা নিলে মানুষ আরও অসুস্থ হয়ে পড়বে। আবার অনেকে মনে করেন গ্রামের মানুষের জন্য করোনা না, এটা শহরের মানুষের রোগ।

তাদের এই ধারণার কারণ অজ্ঞতা। আর তাদের এই অজ্ঞতা দূর করতে কাজ করে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শেখ শাকিল হোসেন ও তার সহযোদ্ধারা। তারা গ্রামের মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে জানাচ্ছেন করোনার টিকা নেওয়ার উপকারিতা। আশানুরূপ সাড়া না পেয়ে গ্রামের ধর্মীয় প্রতিনিধিদের শরণাপন্ন হয়েছেন।

তার এই উদ্যোগে পাল্টে গেছে সাতক্ষীরা জেলা সদর থেকে ১০ মাইল দূরে ফিংড়ি ইউনিয়নের জোড়দিয়া শেখপাড়া গ্রামের চিত্র। মানুষের মাঝে ক্রমেই বাড়ছে টিকা নেয়ার আগ্রহ। মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে গ্রামের বিভিন্ন পয়েন্টে করোনা টিকার নিবন্ধন বুথ বসিয়েছেন।

শেখ শাকিল হোসেন বলেন, ‘করোনার ভ্যাকসিন সহজলভ্য হলেও গ্রামের অধিকাংশ মানুষের ধারণা ছিল এটি নিলে তারা অসুস্থ হয়ে পড়বে। এছাড়াও ভ্যাকসিনভীতি ও নিবন্ধন সংক্রান্ত জটিলতার কারণে গ্রামের মানুষদের মধ্যে প্রথমে টিকা নিতে অনীহা ছিল। তরুণদের সঙ্গে নিয়ে গ্রামবাসীকে ভ্যাকসিনের প্রয়োজনীয়তা ও করোনার ভয়াবহতা বোঝালেও ভ্যাকসিন নিতে কেউই আগ্রহ দেখাননি। এরপর ধর্মীয় প্রতিনিধিদের শরণাপন্ন হয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘মসজিদের ইমাম নামাজের পর মানুষদের টিকা নিতে উৎসাহিত করেন। তখনই বেশ সাড়া পেয়েছি। গ্রামের মানুষ সাধারণত ঈমাম ও ধর্মীয় প্রতিনিধিদের কথা শোনেন। গত তিন সপ্তাহের চেষ্টায় পুরো গ্রামের চিত্র পাল্টে গেছে। গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক মানুষ ভ্যাকসিনের জন্য আবেদন করেছেন। অধিকাংশই ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজের আওতায় এসেছেন। বাকিরা এসএমএসের অপেক্ষায় আছেন। আমরা তরুণরা চাইলে সবই সম্ভব। দেশের প্রতিটি গ্রামের তরুণদের প্রতি আমার অনুরোধ, আপনারাও আগানাদের নিজ নিজ গ্রামের মানুষকে টিকা আওতায় আনার উদ্যোগ নিন, তাদের মাঝে সচেতনতা তৈরি করুন।’

শাকিলের এই উদ্যোগে আগ্রহী হয়ে টিকা নেওয়াদের একজন খোদেজা খাতুন। তিনি বলেন, ‘টিকা নিলে করোনা হবে না, জানতাম না। টিকা নিলে জ্বর হয়, অসুস্থ হয়ে যেতে হয়- মানুষকে বলতে শুনেছি। এজন্য শুরুতে টিকা নেইনি। গ্রামের ছেলেরা বাড়িতে এসে মোবাইল আর আইডি কার্ড নিয়ে সব করে দিছে। ঈদের পর সদর হাসপাতাল থেকে ১ম ডোজ টিকা নিয়েছি।’

গ্রামে বুথ বসিয়ে টিকা নিবন্ধন

টিকা নেয়া শেখ তৈমুর হাসান বলেন, ‘হঠাৎ আমার বড় ছেলের করোনা ধরা পড়লে আমরা খুব ভয় পেয়ে যাই। স্থানীয় তরুণরা গ্রামের সবাইকে টিকা নিতে উৎসাহিত করেছে। মসজিদের ইমাম সাহেবও বারবার বলেছে। গ্রামের ছেলেরা মাদ্রাসায় টিকার নিবন্ধন বুথ বসালে সপরিবারে নিবন্ধন করি। ইতোমধ্যে টিকার ১ম ডোজ নিয়েছি’।

ইতিমধ্যে গ্রামটিকে 'ভ্যাকসিনেটেড গ্রাম' হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন ফিংড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সামছুর রহমান।

তিনি বলেন, গ্রামের মানুষ প্রথমদিকে টিকা নিতে অনাগ্রহী ছিল আবার ভয়ও পেতো। করোনায় আক্রান্ত হলেও স্বীকার করেনি বা নিজেকে ঘরবন্দি করে না রেখে বাইরে থাকতো। তবে জোড়দিয়া শেখপাড়ার তরুণদের উদ্যোগে পরিস্থিতি বদলে গেছে। তরুণদের প্রচেষ্টায় ওই গ্রামের অধিকাংশ মানুষই এরইমধ্যে ভ্যাকসিনের আওতায় চলে এসেছেন। আবার অনেকেই নেওয়ার অপেক্ষায় আছেন। তরুণদেরকে ধন্যবাদ জানাই তাদের প্রচেষ্টার জন্য এবং এই গ্রামকে আমরা প্রথম ভ্যাকসিনেটেড গ্রাম হিসেবে স্বীকৃতি দিলাম।

/এমআর/

সম্পর্কিত

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫২

আদালতের আদেশ যথাসময়ে না পাঠানোয় হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের কাছে ব্যাখ্যা তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানীকে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দাখিল করতে বলা হয়েছে।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বিষয়ে লিখিত আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর অ্যাডভোকেট সৈয়দ নাসরিন শুনানিতে ছিলেন।

এর আগে গত ১৪ জুন কক্সবাজার সদরের বাঁকখালী নদীর তীরবর্তী উত্তর মুহুরিপাড়ার প্রায় ৬০ একর জমি অবৈধভাবে দখল ও ভরাটের অভিযোগের বিষয়ে বিচারিক অনুসন্ধান করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। কক্সবাজারের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে ৬০ দিনের মধ্যে অনুসন্ধান করে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়। একইসঙ্গে ভরাট কার্যক্রমের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।

মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. মুজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতের এই আদেশ কক্সবাজারের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে কমিউনিকেট করতে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে বলা হয়। কিন্তু হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার যথাসময়ে আদালতের আদেশ প্রেরণ না করায় হাইকোর্ট তাকে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিলেন।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ১৪ মার্চ একটি জাতীয় দৈনিকে ‘কক্সবাজার অবৈধভাবে ভরাট হচ্ছে ৬০ একর ফসলি জমি, জমির মালিকরা অসহায়, প্রশাসন নীরব’ শীর্ষক প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে এ রিট করে আইন ও সালিশ কেন্দ্র-আসক। প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, কক্সবাজার সদরের বাঁকখালী নদীর তীরবর্তী উত্তর মুহুরিপাড়ার তিন ফসলি প্রায় ৬০ একর উর্বর জমি ভরাট করে ফেলা হচ্ছে। দুই কিলোমিটার দূরত্বে গড়ে ওঠা রেলস্টেশনকে কেন্দ্র করে বাণিজ্যিক চিন্তায় আবাসন প্রকল্প গড়তেই আইন উপেক্ষা করে রাত-দিনে এসব জমি ভরাট করছে ভূমিদস্যু চক্র।

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪৬

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোতে ব্যবসার নামে গ্রাহকরা যেভাবে প্রতারিত হচ্ছেন, সে জন্য গ্রাহকদের লোভ কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণা চালানোর পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ফোনালাপে আড়িপাতা নিয়ে রিট শুনানির সময় রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মুস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ পরামর্শ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শিশির মনির। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার।

শুনানির এক পর্যায়ে আদালত আইনজীবী শিশির মনিরের কাছে জানতে চান, ই-কমার্স ব্যবসার বিষয়ে কিছু বলুন। এ সম্পর্কে একটা ধারণা দিন।

তখন আইনজীবী শিশির মনির বলেন, ‘আমাদের দেশে ই-কর্মাস ব্যবসার নামে অনেক বেশি ফ্রি অফার থাকে। যা বিদেশি প্রতিষ্ঠান আলী বাবা, অ্যামাজনে থাকে না। আমাদের দেশের গ্রাহকরা অতি লোভে পড়ে প্রতারণার শিকার হন।’

এ সময় আদালত বলেন, ‘হ্যাঁ। আমরাতো দেখি, একটা কিনলে আরেকটা ফ্রি। বিমানের টিকিট কিনলে হোটেল ফ্রি। এ জন্যই গ্রাহকদের লোভ কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণা চালান।’

পরে হাইকোর্ট ফোনালাপে আড়িপাতা বন্ধ চেয়ে দায়ের করা রিটের আদেশের জন্য আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর দিন নির্ধারণ করেন।

 

বিআই/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার স্থাপনসহ ১৫ দাবিতে কর্মবিরতির ঘোষণা

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪২

আলোচিত ই-কমার্সভিত্তিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। কামরুল ইসলাম নামে এক ব্যবসায়ী শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে এই মামলা দায়ের করেন। মামলায় ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনসহ ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে। ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- ইভ্যালির ভাইস প্রেসিডেন্ট আকাশ, ম্যানেজার জাহেদুল ইসলাম, সিনিয়র একাউন্টস ম্যানেজার তানভীর আলম, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ (কমার্শিয়াল) জাওয়াদুল হক চৌধুরী, হেড অব একাউন্ট সেলিম রেজা, একাউন্টস ম্যানেজার জুবায়ের আল মাহমুদ, একাউন্ট শাখার কর্মী সোহেল, আকিবুর রহমান তুর্য, সিইও’র পিএস রেজওয়ান ও বাইক ডিপার্টমেন্টের কর্মকর্তা সাকিব রহমান। এছাড়া মামলার এজাহারে আরও ১৫-২০ জন অজ্ঞাতনামা আসামির কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে কামরুল ইসলাম বলেছেন, তিনি মেট্রো কভারেজ, স্মার্ট ফুড অ্যান্ড বেভারেজ, ফ্রিডম এক্সপোর্ট ইম্পোর্ট বিডি ও ফিউচার আইটি নামে প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তিনি ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে গ্রাহকদের মোট ৩৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকার পণ্য সরবরাহ করেছেন। পণ্য সরবরাহের বিপরীতে ইভ্যালি তাদের একটি চেক দিলেও সেই একাউন্টে কোনও টাকা ছিল না। এ ঘটনায় চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি তারা ইভ্যালির বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় একটি জিডিও (নং ৭০৬) দায়ের করেন। তবু ইভ্যালি তাদের কোনও অর্থ পরিশোধ করেনি।

এর আগে ইভ্যালির বিরুদ্ধে গত ১৬ সেপ্টেম্বর গুলশান থানায় এক গ্রাহকের মামলা দায়েরের পর বিকালে মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান চালিয়ে ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাসেল ও তার স্ত্রী, প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। 

পরদিন এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়, ইভ্যালির হাজার কোটি টাকারও বেশি দেনা রয়েছে। এসব দেনা পরিশোধ না করে প্রতিষ্ঠানকে ‘দেউলিয়া’ ঘোষণার পরিকল্পনা করেছিলেন রাসেল। পরে তাদের গুলশান থানায় হস্তান্তর করা হলে পুলিশ তাদের পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

/এনএল/ইউএস/
টাইমলাইন: ইভ্যালি
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪২
ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৪৯
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২০
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪২

সম্পর্কিত

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১২

ফোনে আড়িপাতা প্রতিরোধে নিশ্চয়তা ও ফাঁস হওয়া ঘটনাগুলোর তদন্ত চেয়ে দায়ের করা রিটের আদেশ ঘোষণার জন্য আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর পুনরায় দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মুস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন। তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। অন্যদিকে রিটের শুনানির পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসি’র পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রেজা-ই রাকিব।

এর আগে ফোনে আড়িপাতা প্রতিরোধে নিশ্চয়তা ও ফাঁস হওয়া ঘটনাগুলোর তদন্ত চেয়ে গত ১০ আগস্ট হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের ১০ আইনজীবী এ রিট দায়ের করেন। রিটকারী আইনজীবীরা হলেন, অ্যাডভোকেট মুস্তাফিজুর রহমান, রেজওয়ানা ফেরদৌস, উত্তম কুমার বনিক, শাহ নাবিলা কাশফী, ফরহাদ আহমেদ সিদ্দীকী, মোহাম্মদ নওয়াব আলী, মোহাম্মদ ইবরাহিম খলিল, জিএম মুজাহিদুর রহমান (মুন্না), ইমরুল কায়েস এবং একরামুল কবির।

রিট আবেদনে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব এবং বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের চেয়ারম্যানকে বিবাদী করা হয়।

রিট আবেদনে ২০১৩ সাল থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সংঘটিত ২০টি আড়িপাতার ঘটনা উল্লেখ করা হয়। তার মধ্যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার সংলাপ, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ফোনালাপ, প্রয়াত সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ ও রাজশাহী মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার নাজমুল হাসানের ফোনালাপ, ভিকারুন্নিসা নুন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের ফোনালাপ, মাওলানা মামুনুল হকের ফোনালাপ, যশোর-৬ সংসদীয় আসনের সদস্য শাহীন চাকলাদারের ফোনালাপ, ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরীর (নিক্সন)ফোনালাপ, সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ফোনালাপ, সাবেক ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরের ফোনালাপ উল্লেখযোগ্য। এসকল আড়িপাতার ঘটনা বাংলাদেশের গণমাধ্যমে বহুল প্রচারিত হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ভাইরাল হয়।

রিট আবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৪৩ অনুচ্ছেদে চিঠিপত্র ও যোগাযোগের অন্যান্য উপায়ের গোপনীয়তা সংরক্ষণ নাগরিকের মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত। এই অধিকার সংবিধান কর্তৃক নিশ্চিত করা হয়েছে। অর্থাৎ সংবিধানের তৃতীয়ভাগে উল্লেখিত মৌলিক অধিকারসমূহের মধ্যে যোগাযোগের ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা সংরক্ষণ অন্যতম। এছাড়াও ২০০১ সালের ১৬ এপ্রিল বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি অ্যাক্ট করা হয়। এই আইনের ধারা ৬ অনুযায়ী টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন প্রতিষ্ঠিত হয়। ধারা ৩০ (চ) অনুযায়ী টেলিযোগাযোগের একান্ততা রক্ষা নিশ্চিত করা এই কমিশনের দায়িত্ব। কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, এই ধরণের ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনা অহরহ ঘটছে। অথচ বাংলাদেশের সংবিধান ও প্রচলিত আইন অনুযায়ী কমিশনের দায়িত্ব হল ব্যক্তিগত গোপনীয়তা সংরক্ষণ নিশ্চিত করা।

/বিআই/এমএস/

সম্পর্কিত

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

পার্থ গোপালের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২১

ঘুষ গ্রহণ ও মানিলন্ডারিং আইনের মামলায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের বরখাস্ত হওয়া উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) পার্থ গোপাল বণিকের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আজ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলমের আদালতে আত্মসমর্পণ করে আইনজীবী অ্যাডভোকেট এহসানুল হক সমাজীর মাধ্যমে জামিনের জন্য আবেদন করেন পার্থ গোপাল বণিক। অপরদিকে মামলার বাদী দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে কর্মরত থাকাকালে পার্থ গোপাল বণিকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে নিয়ে রাজধানীর ধানমন্ডির একটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে নগদ ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার করে দুদকয়। পরে তাকে আটক করা হয়। মামলাটিতে চলতি বছর ১৭ জুন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেনের ভার্চুয়াল আদালতে প্রায় এক মাসের জামিন পান সাবেক এই কারা কর্মকর্তা। এরপর তিনি কারামুক্ত হন।

এই ‘অস্বাভাবিক পন্থায় জামিন’ বিষয়টি এক পর্যায়ে উচ্চ আদালতে গড়ায়। পরে মামলাটি সংশ্লিষ্ট আদালত থেকে বদলি করে বিশেষ জজ আদালত-৪ এ পাঠানো হয়। আর পার্থ গোপাল বণিককে ‘অস্বাভাবিক পন্থায়’ জামিন দেওয়ার ঘটনায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত–৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেন হাইকোর্টে ক্ষমাও প্রার্থনা করেন।

গত ২ সেপ্টেম্বর পার্থ বণিকের জামিন বাতিল করে ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। সেই অনুযায়ী আজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে পুনরায় জামিন প্রার্থনা করেন পার্থ গোপাল। মামলাটিতে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ ধার্য রয়েছে।

আরও পড়ুন:

সাবেক ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের জামিন 
ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল
ডিআইজি প্রিজনস পার্থর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

/এমএইচজে/ইউএস/

সম্পর্কিত

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ ২৪ আগস্ট

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ ২৪ আগস্ট

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিকের জামিন বাতিল চাইবে দুদক

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিকের জামিন বাতিল চাইবে দুদক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

ফোনে আড়িপাতা বন্ধে তদন্ত চেয়ে রিটের আদেশ ২৯ সেপ্টেম্বর

পার্থ গোপালের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ

পার্থ গোপালের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে প্রেরণ

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

মির্জা ফখরুলের মামলার চার্জগঠন পেছালো

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

আদালতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

আগারগাঁওয়ে ছয়তলা ভবন থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

অতিরিক্ত ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২০ জনকে বদলি

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে দেশে ফিরলেন সেনাপ্রধান

সর্বশেষ

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারের গড়িমসির ব্যাখ্যা তলব

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ই-কমার্সের প্রতারণা কমাতে জনস্বার্থে প্রচারণার পরামর্শ

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

ইভ্যালির বিরুদ্ধে এবার ব্যবসায়ীর মামলা, রাসেলসহ ১২ জন আসামি

নায়ককে নিয়ে শাবনূরের আবেগঘন স্মরণ

৫০-এ সালমান শাহনায়ককে নিয়ে শাবনূরের আবেগঘন স্মরণ

© 2021 Bangla Tribune