X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

সাড়ে ১৩ হাজার তালেবান সদস্যকে হত্যার দাবি আফগান সরকারের

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ২৩:১৮

আফগানিস্তানে সাড়ে ১৩ হাজারেরও বেশি তালেবান সদস্যকে হত্যার দাবি করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। আফগান সরকার বলছে, তাদের সেনারা গত চার মাসে তালেবানের ওপর ব্যাপক হামলা চালিয়েছে। এসব হামলায় এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

তালেবান দৃশ্যত পুরো আফগানিস্তানে নিজেদের কর্তৃত্ব বিস্তৃত করে চলেছে। মার্কিন বাহিনীর এমন পর্যালোচনার মাত্র এক সপ্তাহের মাথায় আফগান সরকারের পক্ষ থেকে দলটির হাজার হাজার সদস্যকে হত্যার এমন দাবি করা হলো।

শুক্রবার আফগানিস্তানের শান্তি বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত চলা যুদ্ধে ১৩ হাজার ৫৫৫ জন তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। একই সময়ে আহত হয়েছে আরও ১১ হাজার ৫৪ জন। তবে এতে সরকারি বাহিনীর ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে কিছু জানানো হয়নি।

তালেবানের পক্ষ থেকে অবশ্য সরকারের দাবি প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। দলটির একজন প্রতিনিধি জাপানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এনএইচকে-এর কাছে বলেছেন, সরকারের দাবি প্রচারণার জন্য চালানো মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই নয়। বাস্তবে তালেবানের খুব সামান্যই ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ শহর ঘিরে জোরালো লড়াইয়ের খবর পাওয়া গেছে। সরকারি বাহিনীর কাছ থেকে এসব শহরের নিয়ন্ত্রণ ছিনিয়ে নিতে তালেবান সেখানে তীব্র হামলা চালাচ্ছে।

পশ্চিমের হেরাত শহরে বিদ্রোহীরা তাদের আক্রমণ জোরদার করেছে। খবর পাওয়া যাচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা শহরের ভেতর ঢুকে পড়েছে। লড়াই চলছে লস্কর গাহ এবং কান্দাহারেও। তালেবান যোদ্ধারা হেরাত শহরের দক্ষিণে রণাঙ্গন এলাকা অতিক্রম করে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঢুকে পড়েছে; এমন খবর পাওয়া যাচ্ছে।

বিবিসির আনবারাসান এথিরাজন জানিয়েছেন, গতকাল আফগান কর্মকর্তারা বলেছিলেন মার্কিন বিমান হামলার সহায়তা নিয়ে তারা তালেবান বিদ্রোহীদের পিছু হঠতে বাধ্য করেছেন। শনিবার হেরাতে আবার তুমুল লড়াই শুরু হয়েছে।

কাবুল থেকে বিবিসির সংবাদদাতা সেকান্দার কিরমানি জানান, হেলমান্দ প্রদেশের লস্কর গাহ শহরে বিমান হামলায় একটি হাসপাতালের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং একজন মারা গেছে। হাসপাতালের ভেতর কতজন ছিল সেটি এখনও স্পষ্ট নয়।

শুক্রবার আফগান সরকারের কর্মকর্তারা বলেছিলেন, তারা লস্কর গাহ শহরে তালেবানের অগ্রযাত্রা ঠেকাতে সমর্থ হয়েছেন এবং আমেরিকান বিমান হামলায় অনেক তালেবান যোদ্ধা হতাহত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রগুলো বিবিসিকে বলেছে, তালেবান গতকাল গর্ভনরের দফতরের কাছাকাছি পৌঁছেছিল। কিন্তু তাদের প্রতিহত করা হয়েছে। একজন আফগান এমপি বিবিসিকে বলেছেন, লড়াইয়ে কান্দাহার শহরে ৩০ হাজারের বেশি মানুষ ঘরছাড়া হয়েছে। খাদ্য ও পানির চরম সংকট দেখা দিয়েছে। তালেবান কান্দাহার দখল করলে আরও পাঁচ থেকে ছয়টি প্রদেশ তাদের নিয়ন্ত্রণে চলে যাবে।

আফগানিস্তান বিষয়ক ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিশেষ দূত টমাস নিকলাসন বলেছেন, তার আশঙ্কা যুদ্ধ আরও খারাপ দিকে মোড় নেবে। বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, তার ধারণা তালেবান এখন আগের মতোই আবার একটি ইসলামিক আমিরাত প্রতিষ্ঠার কথা ভাবছে।

ব্রিটিশ সশস্ত্র বাহিনীর সাবেক প্রধান জেনারেল ডেভিড রিচার্ডস হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে, আন্তর্জাতিক বাহিনী প্রত্যাহারের ফলে এখন আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর মনোবলে ধস নামতে পারে। পরিণামে তালেবান আবার দেশটির নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে। সেখান থেকে আবার নতুন করে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদের হুমকি তৈরি হতে পারে। সূত্র: এনএইচকে, বিবিসি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩২

উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা নিয়ে সৌদি আরবের সঙ্গে তেহরানের আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে। বৃহস্পতিবার এমন মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদেহ।

তিনি বলেন, রিয়াদের সঙ্গে যে আলোচনা চলছে তাতে অর্জিত অগ্রগতির ঘটনায় খুশি তেহরান। আঞ্চলিক এই দুইটি শক্তি টেকসই সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম।

ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, গত কয়েক মাসে সৌদি সরকারের সঙ্গে ইরানের বেশ কয়েক দফা আলোচনা হয়েছে। এসব আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে।

সাঈদ খাতিবজাদেহ জানান, চমৎকার পরিবেশে আলোচনা হয়েছে। এছাড়া উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা নিয়ে বৈঠকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে।

ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি দায়িত্ব নেওয়ার পরও যথাযথ পর্যায় থেকে উভয় পক্ষই বার্তা আদান-প্রদান করেছে। কখনও আলোচনা বন্ধ হয়নি।

সাঈদ খাতিবজাদেহ জানান, ইরান সব সময় সৌদি সরকারকে এই বার্তা দিচ্ছে যে, আঞ্চলিক ইস্যুগুলো নিয়ে যেসব সমস্যা আছে তার সমাধান এই অঞ্চলেই বিদ্যমান রয়েছে। সৌদি সরকার যদি ইরানের কথায় মনোযোগ দেয় তাহলে দুই দেশের মধ্যে টেকসই ও সুন্দর সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করা কোনও কঠিন বিষয় নয়। সূত্র: ফ্রান্স ২৪, পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৩৬

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘ অধিবেশনের সাইডলাইনে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। সেখানেই এ জোটের প্রতি নিজ দেশের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র নেড প্রাইস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

বৈঠকে অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন আফগানিস্তান থেকে মার্কিন নাগরিক এবং অন্যান্য দেশের কর্মীদের সরিয়ে নেওয়ার অভূতপূর্ব বৈশ্বিক প্রচেষ্টায় সমর্থনের জন্য আসিয়ান দেশগুলোকে ধন্যবাদ জানান।

আসিয়ানের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করার পাশাপাশি ইন্দো প্যাসিফিক অঞ্চলের আসিয়ানের দৃষ্টিভঙ্গির প্রতি মার্কিন সমর্থনেরও পুনরাবৃত্তি করেন অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০১

মার্কিন পররাষ্ট্রনীতি ইস্যুতে ক্ষোভ প্রকশ করেছেন সমাজতান্ত্রিক কিউবার প্রেসিডেন্ট। আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য ওয়াশিংটনকে দায়ী করে প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল দিয়াজ বলেন, আফগানিস্তানের পরিস্থিতিই প্রমাণ করে যে সেখানে কী ধরনের রক্তপাত, অস্থিতিশীল সৃষ্টি করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দখল কেবল ধ্বংস ডেকে আনে। কোন দেশেই স্বার্বভৌম দেশগুলোর উপর তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে কিছু চাপিয়ে দেওয়ার অধিকার নেই।

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে রেকর্ড করা ভিডিও বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এমন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা তিনি।

গত মাসে আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্র যখন বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে তড়িঘড়ি করে সেনা প্রত্যাহার করে নেয়। সেই সময় এ ঘটনাকে পররাষ্ট্রনীতির ইতিহাসে বিপর্যয় আ্যাখা দেন কিউবার প্রেসিডেন্ট।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৫৪
‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা

তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৩৫

কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে সুরক্ষা দেয় এমন একটি তরল ওষুধ আবিষ্কারের দাবি করা শ্রীলঙ্কার এক আধ্যাত্মিক রোগ নিরাময়কারীর মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এলিয়ান্থা হোয়াইট নামের এই ওঝা তারকা খেলোয়াড় ও শীর্ষ রাজনীতিকদের ওই ওষুধ দিয়ে চিকিৎসা করেছেন। তার দাবি ছিল, তিনি স্বপ্নে এই নিরাময় পেয়েছেন। পরিবারের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

এলিয়ান্থা হোয়াইটের দাবি ছিল, নদীতে তার এই নিরাময় ঢেলে দিলে শ্রীলঙ্কা ও প্রতিবেশী ভারতে করোনাভাইরাস মহামারির ইতি ঘটবে। 

৪৮ বছর বয়সী এই ব্যক্তি এই মাসের শুরুতে ভাইরাসে আক্রান্ত হন। পরিস্থিতির অবনতি হলে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়া হয়।

করোনার বিরুদ্ধে তার এই ওষুধ কার্যকর বলে প্রকাশ্যে দাবি করেছেন দেশটির সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী পবিত্র ওয়ান্নিয়ারাচ্চি। যদিও করোনায় আক্রান্ত হয়ে তাকেও দুই সপ্তাহ ইনটেনসিভ কেয়ারে থাকতে হয়েছিল।

বেশ কয়েকজন ভারতীয় ক্রিকেট তারকাকে চিকিৎসা দিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। কিন্তু তার এই চিকিৎসা মূলধারার চিকিৎসকরা প্রত্যাখ্যান করেছেন।  

২০১০ সালে ভারতের ক্রিকেট কিংবদন্তী সচিন টেন্ডুলকার প্রকাশ্যে তাকে ধন্যবাদ জানান। তখন টেন্ডুলকার বলেছিলেন, এই ব্যক্তি তার হাঁটুর জখম সারিয়ে তুলেছেন। শ্রীলঙ্কার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসেও স্বাস্থ্যগত পরামর্শ দিয়েছেন এলিয়ান্থা। তার মৃত্যুতে টুইটারে সমবেদনা জানিয়েছেন লঙ্কান প্রধানমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার কোভিড বিধি মেনে এলিয়ান্থা হোয়াইটের মরদেহ সমাহিত করা হয়েছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

‘টিকায় বৈষম্য মানবতার জন্য কলঙ্ক’

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:১০

চাহিদা মোতাবেক বিশ্বের অনেক দরিদ্র এবং উন্নয়নশীল দেশ করোনার প্রতিষেধক টিকা পাচ্ছে না। এতে ওইসব দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর লাগাম টানা কষ্টকর হয়ে পড়ছে। এমন অবস্থায় টিকায় বৈষম্যকে মানবতার জন্য কলঙ্ক বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামফোসা।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে তার একটি রেকর্ড করা ভাষণ প্রচার করা হয়। সেখানে তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিনের অসম বন্টন মানবতার জন্য কলঙ্ক।

গত একবছরে বিশ্বব্যাপী প্রায় ছয়শ’ কোটি করোনার ডোজ দেওয়া হয়েছে। যা বিশ্বের জনসংখ্যার ৪৩ ভাগ। কিন্তু নিম্ন আয়ের দেশগুলোকে টিকার জন্য লড়াই করতে হচ্ছে। অনেকে দেশের মাত্র ২ থেকে ৩ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিন নিতে পেরেছেন।

কোভিড ভ্যাকসিনের সুষম বন্টন না হওয়ায় এই সংকট তৈরি হয়েছে মনে করছেন অনেকেই। পরিস্থিতি মোকাবিলায় জাতিসংঘ বার বার ধনী দেশের সরকার প্রধানদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। এদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকায় এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৮৬ হাজারের বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৮ লাখ ৮৯ হাজার।

/এলকে/

সম্পর্কিত

জাতিসংঘ অধিবেশনে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাতিসংঘ অধিবেশনে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কথা বলতে চায় তালেবান

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কথা বলতে চায় তালেবান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

‘আফগানিস্তানে রক্তপাত ও অস্থিতিশীলতার জন্য যুক্তরাষ্ট্র দায়ী’

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

করোনায় মৃত্যু ‘স্বপ্নে নিরাময় পাওয়ার’ দাবি করা এলিয়ান্থা হোয়াইটের

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা

তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

সর্বশেষ

১৯৭৩ সালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় আবারও নতুন পদক্ষেপ নিতে হয়

১৯৭৩ সালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় আবারও নতুন পদক্ষেপ নিতে হয়

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

আসিয়ানের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করলো যুক্তরাষ্ট্র

সুম্বা দ্বীপের নাচুনে গাছ! (ফটোফিচার)

সুম্বা দ্বীপের নাচুনে গাছ! (ফটোফিচার)

ভোক্তা প্রতারণা বন্ধে কার্যকর উপায় বের করার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির

ভোক্তা প্রতারণা বন্ধে কার্যকর উপায় বের করার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির

© 2021 Bangla Tribune