X
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

পারমাণবিক আলোচনা শুরুর আগে ইরানে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:০৭

ভিয়েনায় ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি পুনর্বহাল আলোচনা শুরুর আগে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে পরিবর্তন আনা হয়েছে। রাজনীতি বিষয়ক নতুন ডেপুটি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কট্টরপন্থী কূটনীতিক আলি বাগেরি কানি। ওই পদ থেকে সরানো হয়েছে, ভিয়েনায় বিগত ছয় রাইন্ডের আলোচনায় ইরানের নেতৃত্ব দেওয়া কূটনীতিক আব্বাস আরাগচি।

ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে প্রশাসন সাজাতে সময় দিতে গত জুলাইতে স্থগিত হয়ে পড়ে পারমাণবিক আলোচনা। ওই আলোচনায় ইরানি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন আব্বাস আরাগচি।

পেশাদার কূটনীতিক আগারচি ২০১৫ সালে চুক্তি স্বাক্ষরের আলোচনাতেও অংশ নেন। প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির মেয়াদকালে আলোচক দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি। তবে পদ থেকে সরানো হলেও এবার তাকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমিরাব্দুল্লাহিয়ানের উপদেষ্টা নিয়োগ করা হয়েছে।

আব্বাস আরাগচির স্থলে নিয়োগ পাওয়া আলি বাগেরি কানি পারমাণবিক আলোচনায় নেতৃত্ব দেবেন। অনেকেই মনে করেন ইরানের ওপর আরোপিত যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য আরও কঠোর অবস্থানে যাবেন তিনি।

/জেজে/

সম্পর্কিত

ফিলিস্তিনিদের ‘মুক্তি’র নতুন প্রতীক চামচ

ফিলিস্তিনিদের ‘মুক্তি’র নতুন প্রতীক চামচ

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

অস্ট্রেলিয়া বড় ধরনের ভুল করেছে: ফ্রান্স

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৬

যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সমঝোতার পর ফ্রান্সের সঙ্গে কয়েকশ’ কোটি ডলারের সাবমেরিন নির্মাণ চুক্তি বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়া। এই সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে দেশটি বড় ধরনের কূটনৈতিক ভুল করেছে। শনিবার নিজ দেশের এমন মনোভাবের কথা জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত জঁ-পিয়েরো থেবোল্ট। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।

ফ্রান্সের সঙ্গে সাবমেরিন নির্মাণ চুক্তি বাতিলের পরপরই ক্যানবেরা থেকে রাষ্ট্রদূত থিবোল্টকে ডেকে পাঠায় প্যারিস। দেশে ফিরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ নিয়ে কথা বলেন।

জঁ-পিয়েরো থেবোল্ট বলেন, এটি সেভাবে কোনও চুক্তি ছিল না, ছিল অংশীদারিত্ব। আস্থা, পারস্পরিক সমঝোতা ও আন্তরিকতার ওপরই এ ধরনের সম্পর্কের স্থায়িত্ব নির্ভর করে।

তিনি বলেন, আমি মনে করি, এটি বড় ধরনের একটি ভুল। অংশীদারের সঙ্গে বাজে আচরণ করা হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনায় অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র থেকেও নিজ দেশের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়েছে ফ্রান্স।

মিত্র দেশ থেকে রাষ্ট্রদূত ডেকে পাঠানোর ঘটনা ফ্রান্সের ক্ষেত্রে বিরল। তবে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যঁ ইভে ল দ্রিঁয়া জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর নির্দেশেই রাষ্ট্রদূতদের ডাকা হয়েছে।

গত বুধবার অত্যাধুনিক প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি ভাগাভাগি করে চীনকে মোকাবিলায় বিশেষ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষরের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু ত্রিদেশীয় চুক্তির ফলে ফ্রান্সের কাছ থেকে আর সাবমেরিন নেবে না ক্যানবেরা। আর এতেই ক্ষুব্ধ ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর প্রশাসন।

মিত্র দেশের কাছ থেকে এমন চুক্তিকে অপ্রত্যাশিত আচরণ উল্লেখ করেছেন ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ত্রিদেশীয় পারমাণবিক সাবমেনি চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্যারিসের পিঠে ছুরিকাঘাত করেছেন।

/এমপি/

সম্পর্কিত

অস্ট্রেলিয়ায় লকডাউনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, আটক ২৬৭

অস্ট্রেলিয়ায় লকডাউনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, আটক ২৬৭

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

ফ্রান্সের ২৪টি পুরাতন বিমান কিনতে যাচ্ছে ভারত

২ হাজার বছর পুরনো ব্যাকট্রিয়ান সোনার খোঁজে তালেবান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:১২

তালেবানের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চার দশক আগে সন্ধান পাওয়া ব্যাকট্রিয়ান সোনার অনুসন্ধান শুরু করা হয়েছে। অন্তর্বর্তী সরকারের সাংস্কৃতিক কমিশনের উপ-প্রধান জানান, ব্যাকট্রিয়ান সম্পদের খোঁজ করতে সংশ্লিষ্ট দফতরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকের তথ্য অনুসারে, ব্যাকট্রিয়ান সম্পদের মধ্যে রয়েছে প্রাচীন বিশ্বের কয়েক হাজার সোনার টুকরো। ছয়টি সমাধির ভেতরে এগুলো পাওয়া গেছে। এর মধ্যে খ্রিস্টপূর্ব শতাব্দী থেকে শুরু করে প্রথম খ্রিস্টাব্দের সোনা রয়েছে।

সাময়িকীটির এক প্রতিবেদন অনুসারে, এই সম্পদে ২০ হাজারের বেশি বস্তু রয়েছে। আছে সোনার আংটি, মুদ্রা, অস্ত্র, কানের দুল, ব্রেসলেট ইত্যাদি।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই সমাধিগুলো ছয় বিত্তশালী এশীয় যাযাবরের, এদের মধ্যে পাঁচ নারী ও এক পুরুষ রয়েছে। এসব সম্পদ ২ হাজার বছর পুরনো।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে আফগান প্রেসিডেন্ট প্যালেসে এগুলো আনা হয়। পরে জনগণের জন্য এগুলো প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু আশরাফ গণির সরকারের পতনের পর এগুলো নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজ জানিয়েছে, ওয়াসিক বলেছেন প্রাচীন ও ঐতিহাসিক ভাস্কর্যের সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তি বহাল থাকবে।

২০২০ সালের ডিসেম্বর একই সংবাদমাধ্যম এক প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ব্যাকট্রিয়ান সম্পদ গত ১৩ বছরে ১৩ বার প্রদর্শন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে সাড়ে চার মিলিয়ন ডলার যুক্ত হয়েছে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

 

/এএ/

সম্পর্কিত

জাতিসংঘ মহাসচিবকে পাঠানো চিঠিতে যা বললো তালেবান

জাতিসংঘ মহাসচিবকে পাঠানো চিঠিতে যা বললো তালেবান

তালেবানের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ ইমরান খানের

তালেবানের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ ইমরান খানের

জাতিসংঘ মহাসচিবকে পাঠানো চিঠিতে যা বললো তালেবান

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:০৮

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেসকে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি পাঠিয়েছে তালেবান সরকার। চিঠিতে আফগানিস্তানে জাতিসংঘ কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিতের অঙ্গীকার করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে তালেবানের কাছ থেকে চিঠিটি পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেছেন গুতেরেস।

এতে সংস্থাটির কর্মীদের সুরক্ষার পাশাপাশি নারী অধিকার সংক্রান্ত বিষয়গুলোও সুরাহার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা নিয়ে তালেবানের সঙ্গে জাতিসংঘের আলোচনা হয়েছে বলেও জানান গুতেরেস।

তিনি জানান, আফগানিস্তানে বৈষম্যহীন মানবিক সহায়তা কার্যক্রমের পরিধি আরও বাড়ানো, দেশটিতে কর্মরত জাতিসংঘ প্রতিনিধিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং নারী অধিকারের মতো বিষয়গুলো নিয়ে দলটির সঙ্গে কথা হয়েছে।

এ মাসের গোড়ার দিকে কাবুল সফরে যান জাতিসংঘের দূত মার্টিন গ্রিফিতস। এ সময় তিনি তালেবানের ঊর্ধ্বতন নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ওই সফরের বিষয়ে গুতেরেস বলেন, গঠনমূলক ও ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। তালেবানের পক্ষ থেকে নানা ধরনের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে আফগানিস্তানে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার প্রতিষ্ঠায় তালেবানের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ নিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আফগানিস্তানের প্রতিবেশী তাজিকিস্তানে দুই দিনের সফরে দেশটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পর ইমরান খান নিজেই তার এমন প্রচেষ্টার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ৪০ বছরের সংঘাতের পর এই অন্তর্ভুক্তি একটি স্থিতিশীল আফগানিস্তান নিশ্চিত করবে। আফগানিস্তানের স্থিতিশীলতা শুধু তার নিজের জন্যই নয়, বরং পুরো অঞ্চলের জন্যই জরুরি। সূত্র: এনডিটিভি।

/এমপি/

সম্পর্কিত

২ হাজার বছর পুরনো ব্যাকট্রিয়ান সোনার খোঁজে তালেবান

২ হাজার বছর পুরনো ব্যাকট্রিয়ান সোনার খোঁজে তালেবান

তালেবানের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ ইমরান খানের

তালেবানের সঙ্গে সংলাপের উদ্যোগ ইমরান খানের

দীর্ঘ কর্মঘণ্টার ফলে বছরে প্রাণ যাচ্ছে ২০ লাখ শ্রমিকের: জাতিসংঘ

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৪৬

কর্মক্ষেত্র সম্পর্কিত অসুস্থতা এবং আঘাতে বছরে প্রায় ২০ লাখ লোকের মৃত্যু হচ্ছে। মূলত দীর্ঘ কর্মঘণ্টার কারণে এই প্রাণহানি ঘটছে। এমনটাই উঠে এসেছে জাতিসংঘের স্বাস্থ্য ও শ্রম সংস্থার এক যৌথ মূল্যায়ন প্রতিবেদনে।

মহামারি পরিস্থিতির মধ্যে এই মৃত্যু ঝুঁকি আরও খারাপ হবে বলেও সতর্ক করেছে সংস্থাটি।

প্রতিবেদনে ২০০০ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বৈশ্বিক রোগব্যাধি, আঘাত ও কর্মক্ষেত্রে চাপের ফলে মৃত্যুর হিসাব তুলে ধরা হয়েছে। তবে করোনা মহামারির ফলে কর্মক্ষেত্রে কাজের পরিবেশের নাটকীয় পরিবর্তনের প্রভাব এই প্রতিবেদনে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

জাতিসংঘের স্বাস্থ্য ও শ্রম সংস্থার যৌথ মূল্যায়ন বলছে, ২০১৬ সালে দুনিয়াজুড়ে কাজের সঙ্গে জড়িত এমন প্রায় ১৯ লাখ লোকের মৃত্যু হয়েছে।

সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টার অধিক সময় কাজ করা দীর্ঘ কর্মঘণ্টা হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এটি একটি প্রধান ঝুঁকি। ২০১৬ সালে এই দীর্ঘ কর্মঘণ্টাজনিত কারণে সাড়ে সাত লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯টি পেশাগত ঝুঁকির কারণে এসব প্রাণহানি ঘটছে। এর মধ্যে দীর্ঘ সময় আসনে বসে থাকার মতো বিষয়গুলো রয়েছে। এ ছাড়া কর্মক্ষেত্রে গ্যাস, ধোঁয়া ও বাতাসের অন্যান্য দুষণের সংস্পর্শে আসায় স্বাস্থ্য বিপর্যয় ঘটছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গ্যাব্রিয়েসাস এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এটা খুবই মর্মান্তিক যে চাকুরি ও কর্মক্ষেত্রে পরিবেশের কারণে অনেক মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।’

মূল্যায়ন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালে কর্মক্ষেত্র সম্পর্কিত কারণে মৃতদের মধ্যে ৮২ শতাংশের মৃত্যু হয়েছে দীর্ঘ কর্মঘণ্টার কারণে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

করোনা পরিস্থিতিতে নিউ ইয়র্কে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা

করোনা পরিস্থিতিতে নিউ ইয়র্কে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

আফগানিস্তানের জন্য ১০০ কোটি ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি

আফগানিস্তানের জন্য ১০০ কোটি ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি

আফগানদের প্রতি সংহতি জানাতে বৈঠকে বসছে জাতিসংঘ

আফগানদের প্রতি সংহতি জানাতে বৈঠকে বসছে জাতিসংঘ

সবচেয়ে সাদা রঙ আবিষ্কার, হবে এসির বিকল্প!

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:৩৫

যুক্তরাষ্ট্রের পুর্দু ইউনিভার্সিটির গবেষকরা তৈরি করলেন বিশ্বের সবচেয়ে সাদা রঙ। এ রঙ এতটাই চোখ ধাঁধানো যে ‘সবচেয়ে সাদা’ হিসেবে এর নাম উঠেছে গিনেজ বুকে। তবে কৃতিত্বটা এখানেই শেষ নয়। গবেষণায় দেখা গেলো এই রঙ বাড়ির ছাদ ও দেয়ালে ব্যবহার করা হলে তা সূর্যের তাপ ও ইনফ্রারেড প্রতিফলিত করবে সবচেয়ে বেশি। যার ফলে এয়ারকন্ডিশনার চালাতে হবে কম, বাঁচবে বিদ্যুৎ।

পুর্দু ইউনিভার্সিটির মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আবিষ্কার করা এ রঙ নিয়ে গবেষক জিউলিন রুয়ান জানালেন, ‘এ প্রকল্প সাত বছর আগে শুরু করেছিলাম। জ্বালানি বাঁচানো ও জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টাকে মাথায় নিয়েই কাজটা শুরু করেছিলাম।’

গবেষণায় দেখা গেছে এ রঙ ৯৮ দশমিক ১ শতাংশ সূর্যের বিকিরণ প্রতিফলিত করতে পারে। বাজারের প্রচলিত সাদা রঙ যেখানে ৮০-৯০ শতাংশ প্রতিফলিত করে।

তবে নতুন আবিষ্কৃত রঙটির বিশেষত্ব হলো এটি ইনফ্রারেড তাপও প্রবেশ করতে দেবে না। যে কারণে ছাদে ও দেয়ালে এ রঙ ব্যবহার করা হলে ঘরের ভেতরটা প্রাকৃতিকভাবেই ঠান্ডা হতে থাকবে। পরীক্ষায় দেখা গেছে এক হাজার বর্গফুট এলাকায় এ রঙের প্রলেপ দেওয়া হলে তা এয়ারকন্ডিশনারের ১০ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ বাঁচাতে পারবে।  

ইউএসএ টুডের খবরে জানা গেলো, উজ্জ্বল এ রঙের সবচেয়ে সাদা হওয়ার পেছনে রয়েছে দুটি কারণ। প্রথমত-ব্যারিয়াম সালফেটের একটি নির্দিষ্ট ঘনত্ব ও রাসায়নিকটির অণুগুলোর ভিন্ন ভিন্ন আকৃতি।

এ রঙ বাজারে আনতে পুর্দু ইউনিভার্সিটির গবেষকরা এরইমধ্যে একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিতে এসেছেন।

 

সূত্র: ইউএসএ টুডে

 

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

করোনা পরিস্থিতিতে নিউ ইয়র্কে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা

করোনা পরিস্থিতিতে নিউ ইয়র্কে জড়ো হচ্ছেন বিশ্বনেতারা

৬৫ ঊর্ধ্বদের বুস্টার ডোজের সুপারিশ এফডিএ’র

৬৫ ঊর্ধ্বদের বুস্টার ডোজের সুপারিশ এফডিএ’র

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া-যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠালো ফ্রান্স

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

কাবুলে ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বললো যুক্তরাষ্ট্র

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ফিলিস্তিনিদের ‘মুক্তি’র নতুন প্রতীক চামচ

ফিলিস্তিনিদের ‘মুক্তি’র নতুন প্রতীক চামচ

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

লেবাননে ইরানি তেল ট্যাংকারের বহর

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

ইদলিবে আরও সেনা এবং সামরিক সরঞ্জাম পাঠালো তুরস্ক

ইদলিবে সামরিক উপস্থিতি বাড়ালো তুরস্ক

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

৫ লাখেরও বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে আজ 

অস্ট্রেলিয়া বড় ধরনের ভুল করেছে: ফ্রান্স

অস্ট্রেলিয়া বড় ধরনের ভুল করেছে: ফ্রান্স

ঘুরছে বাংলা কারের চাকা, ৮ লাখেই নতুন মডেল

ঘুরছে বাংলা কারের চাকা, ৮ লাখেই নতুন মডেল

অস্কার ব্রুজনের ‘আগুনের গোলায় ঝাঁপ’

অস্কার ব্রুজনের ‘আগুনের গোলায় ঝাঁপ’

© 2021 Bangla Tribune