X
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

রাশিয়ার পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৯

তিন দিনের পার্লামেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনের আগে বিরোধীদের ওপর ব্যাপক দমন পীড়ন চালানোর অভিযোগ রয়েছে। নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হয়নি ক্রেমলিনের সবচেয়ে কঠোর সমালোচক আলেক্সাই নাভালনিকেও।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় দেশ রাশিয়া। ১১টি টাইম জোনে বিস্তৃত অঞ্চলে শুক্রবার পার্লামেন্ট ও স্থানীয় নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। মস্কোর বাসিন্দারা যখন ঘুমাতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তখন পূর্বাঞ্চলীয় চুকুতখা এবং কামচাটকা এলাকার বাসিন্দারা ভোট দিতে কেন্দ্রে দৌড়াচ্ছেন।

কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের প্রধান ইলা পামফিলোভা এক সরাসরি সম্প্রচারে বলেন, ‘চলুন ভোট দেই।’ রবিবার পর্যন্ত ভোট দিতে পারবেন ভোটাররা।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের অনুগত দল ইউনাইটেড রাশিয়ার পার্লামেন্টের প্রভাব কমার কোনও ইঙ্গিত এই নির্বাচনে নেই। ১৪টি দল এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

ইরাক, সিরিয়ার জঙ্গিরা আফগানিস্তানে ঢুকছে: পুতিন

ইরাক, সিরিয়ার জঙ্গিরা আফগানিস্তানে ঢুকছে: পুতিন

তেলের দাম ১০০ ডলার হতে পারে: পুতিন

তেলের দাম ১০০ ডলার হতে পারে: পুতিন

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৫

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সমর্থনপুষ্ঠ সশস্ত্র গোষ্ঠী পিউ সাউ হতে’র অন্তত ৩০ সদস্য দেশটির বিদ্রোহীদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। বৃহস্পতিবার ইয়াউ অঞ্চলে সেনাবাহিনীর দেওয়া অস্ত্র জমা দিয়ে তারা আত্মসমর্পণ করে। দেশটির সংবাদমাধ্যম মিয়ানমার নাউ এখবর জানিয়েছে।

ইয়াউ ডিফেন্স ফোর্স (ওয়াইডিএফ)-এর হামলার মুখে মাগওয়ায় অঞ্চলে হতিলিন টাউনশিপে গোষ্ঠীটি আত্মসমর্পণ করে। ওয়াইডিএফ’র এক কর্মকর্তা জানান, ওই গোষ্ঠীটি সেনাবাহিনীর কাছ থেকে কোনও সুরক্ষা পাচ্ছিল না। তিনি বলেন, আমরা এখনও তাদের নজরদারিতে রেখেছি। আমরা এখনও তাদের বিশ্বাস করতে পারছি না। তারা কাছের গ্রাম থেকে এসেছে।

১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর পিউ সাউ হতে গোষ্ঠী গঠিত হয় জান্তার সমর্থকদের নিয়ে। এদের লক্ষ্য ছিল সামরিক হুমকি ও সহিংসতার মাধ্যমে শাসকবিরোধী বাহিনীকে দমন করা। এই গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে সাগাইং ও মান্দালয়ে বেসামরিক ব্যক্তিদের হত্যার হুমকি দেওয়অ হয়েছে।

ওয়াইডিএফ জানায়, ই্য়াউ অঞ্চলে যারা আত্মসমর্পণ করেছে তারা জনগণের পক্ষে দাঁড়াতে অঙ্গীকারপত্রে স্বাক্ষর করেছে।

রবিবার ওয়াইডিএফ যোদ্ধারা গোষ্ঠীটির সদস্যদের অস্ত্র বহনের সময় বাধা দেয়। এতে গোষ্ঠীর এক সদস্য নিহত হয় ও ২০টি অস্ত্র জব্দ করে ওয়াইডিএফ।

অবশ্য ১৫ সেপ্টেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে সামরিক সরকারের মুখপাত্র ঝাউ মিন তুন দাবি করেছেন, সেনাবাহিনী পিউ সাউ হতে গোষ্ঠী গঠন করেনি এবং গোষ্ঠীটি তাদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ ও অস্ত্র পায়নি।

 

 

/এএ/

সম্পর্কিত

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

ইয়েমেনে সৌদি জোটের হামলায় ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৯

ইয়েমেনের সরকারের সমর্থনে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন জোটের হামলায় অন্তত ১৬০ হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়েছে। মারিব শহরের দক্ষিণাঞ্চলে এই হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছে জোটটি। সরকারপন্থীরা বলে আসছিলেন, শহরের এই অঞ্চলে হুথিরা অগ্রসর হচ্ছিল। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি এখবর জানিয়েছে।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) জোট কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে লিখেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আবদিয়াতে আমরা ৩২টি হামলা চালিয়েছি। ১১টি সামরিক যান ধ্বংস হয়েছে এবং ১৬০ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে।

এমন হামলায় ক্ষয়ক্ষতি ও হতাহত নিয়ে সাধারণত হুথিদের পক্ষ থেকে মন্তব্য করা হয় না। সৌদি জোটের এই দাবি এএফপির পক্ষ থেকে স্বতন্ত্রভাবে নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

জোটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সোমবার থেকে মারিবের সংঘর্ষে তাদের বিমান হামলায় সাত শতাধিক ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহী নিহত হয়।

মারিব থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে আবদিয়া। এটি আন্তর্জাতিক সমর্থিত ইয়েমেন সরকারের সর্বশেষ শক্তিশালী ঘাঁটি। সরকারের এক সূত্র জানায়, বিদ্রোহীরা চার সপ্তাহ ধরে অবরোধ অব্যাহত রাখার পর এখন আবদিয়া জেলার কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, বিদ্রোহীরা সরকার সমর্থকদের অপহরণ, বন্দি ও নির্যাতন করছে। গত ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ২০ জন সরকার সমর্থক ও উপজাতি ব্যক্তি নিহত হয়েছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

বৈরুতের সহিংসতার ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

শুক্রবার শোক দিবস পালন করবে লেবানন

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ছে ভারতবিরোধী মনোভাব, পণ্য বর্জনের আহ্বান

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

ধৈর্য হারিয়েছে তুরস্ক, সিরিয়ায় নতুন অভিযান শুরু হবে: এরদোয়ান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২০:২৯

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নিষিদ্ধ করেছে আফগানিস্তানের ক্ষমতাসীন তালেবান সরকার। বৃহস্পতিবার রাতে অন্তর্বর্তী সরকারের মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠক শেষে তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

তালেবান মুখপাত্র বলেন, অপরাধীদের শাস্তি প্রকাশ্যে কার্যকর করা নিষ্প্রয়োজন। সর্বোচ্চ আদালত যদি প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর এবং মরদেহ ঝুলিয়ে রাখার নির্দেশ না দেন, তাহলে এই শাস্তি এভাবে দেওয়ার সুযোগ নেই। তবে আদালত যদি অপরাধীদের প্রকাশ্যে শাস্তি দিতে বলেন, সেক্ষেত্রে আদালতের নির্দেশনা পালন করতে হবে।

জবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেন, সাজাপ্রাপ্তদের অপরাধের বিষয়টি জনসমক্ষে ব্যাখ্যা করতে হবে, যাতে লোকজন ওই অপরাধ সম্পর্কে সচেতন হতে পারে।

গত সেপ্টেম্বরে চার সন্দেহভাজন অপহরণকারীকে গুলি করে হত্যার পর তাদের মরদেহ হেরাত শহরের রাস্তার মোড়ে ঝুলিয়ে রাখে তালেবান সদস্যরা। একজন ব্যবসায়ী এবং তার ছেলেকে জিম্মি করার অভিযোগের পর বন্দুকযুদ্ধে ওই ব্যক্তিরা নিহত হয়। ওয়াজির আহমাদ সিদ্দিকি নামের স্থানীয় একজন ব্যবসায়ী বলেন, চারটি মৃতদেহ মোড়ে আনা হয়। একটি সেখানে ঝুলিয়ে রাখা হয় এবং বাকি তিনটি মরদেহ প্রদর্শনের জন্য শহরের অন্যান্য মোড়ের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়। হেরাতের ডেপুটি গভর্নর মৌলভী শাইর বলেন, অপহরণের মতো ঘটনা যাতে আর না ঘটে তার জন্যই মৃতদেহগুলো এভাবে ঝুলিয়ে প্রদর্শন করা হয়েছে।

হেরাত শহরের ওই ঘটনা ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছিল। তালেবান মন্ত্রিসভার নতুন সিদ্ধান্ত এ ধরনের ঘটনার রাশ টানবে বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৩

মিয়ানমারের সামরিক সরকারের এক মুখপাত্র আসিয়ানের সম্মেলনে বাদ দেওয়ার ঘটনার নেপথ্যে বিদেশি হস্তক্ষেপের অভিযোগ এনেছেন। এই মাসের শেষের দিকে অনুষ্ঠিতব্য আঞ্চলিক নেতাদের সম্মেলনে মিয়ানমারের জান্তা প্রধান মিন অং হ্লাইংকে আমন্ত্রণ না জানানোর প্রতিক্রিয়ায় এই অভিযোগ করা হয়েছে। শনিবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের আসন্ন শীর্ষ সম্মেলন থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে মিয়ানমারের সেনা প্রধান মিন অং হ্লাইং-কে। শনিবার (১৬ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আসিয়ান। জোটের পক্ষ থেকে এমন পদক্ষেপ  বিরল ঘটনা।

জান্তা মুখপাত্র ঝাও মিন তুন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধিরা চেয়েছেন আসিয়ান সম্মেলনে মিয়ানমারের সামরিক নেতাদের বাদ দিতে। এজন্য তারা আসিয়ান নেতাদের দলে ভিড়িয়েছে।

তিনি বলেন, এখানেও বিদেশি হস্তক্ষেপ রয়েছে। এই সিদ্ধান্তের আগে কয়েকটি দেশের প্রতিনিধিরা যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করেছেন এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষ থেকে চাপ দেওয়া হয়েছে।

চলতি মাসের ২৬ থেকে ২৮ অক্টোবর আসিয়ানের ভার্চুয়াল সম্মেলন বসতে যাচ্ছে। ওই সম্মেলনে মিয়ানমারের সেনা প্রধানকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়। তার আগে মিয়ানমারে শান্তি ফিরিয়ে আনতে গত এপ্রিলে আসিয়ানের সঙ্গে পাঁচ দফা একটি পরিকল্পনায় সম্মত হয় জান্তা সরকার। কিন্তু এই পাঁচ দফার কোনটিই মানা হয়নি। এ নিয়ে শুক্রবার বৈঠকে বসেন আসিয়ানের সদস্য দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা।

পরে এক বিবৃতিতে মিন অং হ্লাইনকে বাদ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে মিয়ানমার থেকে একটি অরাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিকে আসিয়ান সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

পাকিস্তান এয়ারলাইনকে নিষিদ্ধের হুমকি তালেবানের

পাকিস্তান এয়ারলাইনকে নিষিদ্ধের হুমকি তালেবানের

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

পাকিস্তানের হামলায় আখুন্দজাদা নিহত হয়েছেন: তালেবান নেতা

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২০:২৩

অবশেষে দলের শীর্ষ নেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে তালেবান। ২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান কাবুল দখলের পর থেকেই ঘুরেফিরে বার বার সামনে আসছিল তার নাম। তবে ২০ বছরের মার্কিন আগ্রাসনের অবসান ঘটিয়ে দল সরকার গঠন করলেও জনসমক্ষে দেখা যায়নি তাকে। অনলাইনেও তার মাত্র একটি ছবি পাওয়া যায়। এমন পরিস্থিতিতে তার মৃত্যুর গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়লেও দলের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।

দীর্ঘ নীরবতার পর বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছে তালেবান। দলের প্রবীণ নেতা আমিরুল মুমিনিন শেখ সিএনএন নিউজ এইটিন-কে বলেছেন, ‘২০২০ সালে পাকিস্তানি বাহিনীর পরিকল্পনায় সংঘটিত একটি আত্মঘাতী হামলায় শহীদ হয়েছেন হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা।’

২০১৬ সালে তৎকালীন নেতা মোল্লা আখতার মনসুর ড্রোন হামলায় নিহত হলে নতুন তালেবান প্রধানের দায়িত্ব নেন হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা। এরপর থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তালেবানের যে কোনও রাজনৈতিক, সামরিক বা ধর্মীয় ক্ষেত্রে শেষ কথা বলতেন অতি মাত্রায় রক্ষণশীল হিসেবে পরিচিত এই নেতা। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছাড়া প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নয়: তালেবান

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

আসিয়ানের সিদ্ধান্তের নেপথ্যে ‘বিদেশি হস্তক্ষেপ’: মিয়ানমার জান্তা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

রাশিয়ায় করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

মার্কিন ডেস্ট্রয়ারকে তাড়িয়ে দেওয়ার দাবি রাশিয়ার

ইরাক, সিরিয়ার জঙ্গিরা আফগানিস্তানে ঢুকছে: পুতিন

ইরাক, সিরিয়ার জঙ্গিরা আফগানিস্তানে ঢুকছে: পুতিন

তেলের দাম ১০০ ডলার হতে পারে: পুতিন

তেলের দাম ১০০ ডলার হতে পারে: পুতিন

তাইওয়ানকে চীনের অংশ বললো রাশিয়া

তাইওয়ানকে চীনের অংশ বললো রাশিয়া

কয়লা চাই সবার, জ্বালানিতে মহামারির ইঙ্গিত?

কয়লা চাই সবার, জ্বালানিতে মহামারির ইঙ্গিত?

‘চিন্তার কারণ নেই, সবকিছু ঠিক আছে’, বৈঠকে কাশতে থাকা পুতিন

‘চিন্তার কারণ নেই, সবকিছু ঠিক আছে’, বৈঠকে কাশতে থাকা পুতিন

পুতিনের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

পুতিনের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

রাশিয়ায় স্কাইডাইভার বহনকারী বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ১৬

রাশিয়ায় স্কাইডাইভার বহনকারী বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ১৬

তুরস্কে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ৬ রুশ পাসপোর্টধারী আটক

তুরস্কে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ৬ রুশ পাসপোর্টধারী আটক

সর্বশেষ

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

ত্রিপুরায় কবর দেওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের দেহাবশেষ ফিরিয়ে আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ত্রিপুরায় কবর দেওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের দেহাবশেষ ফিরিয়ে আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের কাছে জান্তা সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠীর আত্মসমর্পণ

এই স্কটল্যান্ডের কাছে কিন্তু হেরেছে বাংলাদেশ!

এই স্কটল্যান্ডের কাছে কিন্তু হেরেছে বাংলাদেশ!

ওয়ারীতে নারীর মরদেহ উদ্ধার

ওয়ারীতে নারীর মরদেহ উদ্ধার

© 2021 Bangla Tribune