X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০১

স্থানীয় লোকজন বেশ ঘটা করেই বিয়ে দিয়েছেন যশোর সদরের নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার আকবার আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম এবং পাশের আন্দুলিয়া গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়ে ময়না খাতুনের। তবে তারা দুজনই খর্বাকৃতির। বরের উচ্চতা তিন ফুট এবং কনের উচ্চতাও প্রায় তিন ফুট। গত ১৭ সেপ্টেম্বর বেশ ধুমধাম করে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

রবিবার তাদের ফিরানি (বিয়ের পর মেয়েকে বাবার বাড়িতে নেওয়া) হবে। সে কারণে মেয়েপক্ষ একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে অন্যরকমভাবে নিয়ে যাওয়ার জন্যে আয়োজন করেছে। নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিসপাড়া ও আন্দুলিয়া গ্রামের দূরত্ব প্রায় দুই কিলোমিটার।

নরেন্দ্রপুর পোস্ট অফিস এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী মোতাহার হোসেন বুলবুল বলেন, ‘রবিউলের বাবা নেই। মা অন্য জায়গায় বিয়ে করে চলে গেছেন। রবিউল থাকতো খালু জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছে।’

তিনি বলেন, ‘দু’পক্ষের অভিভাবকদের সম্মতিতে বিয়ের অনুষ্ঠান করা হয়েছে। বরযাত্রী হিসেবে আমরা দুটি মাইক্রোবাস আর ২০টি মোটরসাইকেল নিয়ে ৬০ জনের মতো যাই। পরদিন বৌভাতে সেখান থেকে ৪০-৪২ কনে যাত্রীসহ আমরা প্রায় দুইশ’ মানুষের জন্যে আয়োজন করি। সাদাভাতের সঙ্গে গরুর মাংস, খাসির মাংস, ডিম ইত্যাদি ছিল। খাওয়া-দাওয়ায় কোনও সমস্যা হয়নি।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক গাজী কামারুল ইসলাম বলেন, ‘সবার সহযোগিতায় আমরা তাদের বিয়ে দিয়েছি। সবাই দোয়া করবেন তাদের জন্য। এ ধরনের মানুষকে সমাজের মূলস্রোতে আনতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

বিয়ের অন্যতম আয়োজক আন্দুলিয়া গ্রামের মোদাচ্ছের মোল্লা বলেন, ‘মেয়েটির বাবা নেই। মা জুট মিলে কাজ করতেন। এখন কাজ নেই। মেয়েটার বয়সও হয়ে যাচ্ছিল। দু’পক্ষের দেখাশোনার মাধ্যমে আমরা বিয়ের আয়োজন করি। মেয়েপক্ষের যাবতীয় খরচ আমাদের গ্রামের ১০-১২ জন মিটিয়েছেন।’

তিনি সবার কাছে নবদম্পতির জন্যে দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আজ (রবিবার) মেয়েকে আমরা তার মায়ের বাড়ি আনাবো। সেই কারণে একটু আলাদা ব্যবস্থা করেছি। একটি ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে-গুছিয়ে তৈরি করা হয়েছে। বিয়েতে যিনি উকিল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন, সেই তরিকুল ইসলাম যাবেন মেয়েকে আনতে।’

বরের খালু জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘রবিউলের জন্ম খুবই দরিদ্র পরিবারে। ছোট্ট অবস্থা থেকেই তার বাবা-মা কেউ নেই। আমরাই রবিউলকে মানুষ করেছি। কৃষিকাজ করেই সে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তার বিয়ের বয়স হলেও অনেকদিন ধরে মেয়ে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। অবশেষে পাশের আন্দুলিয়া গ্রামে একটি মেয়ে খুঁজে পাই। জানতে পারি, ওই গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়েও কম উচ্চতার। স্থানীয় ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতায় তাদের বিয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।’

বর রবিউল বলেন, ‘আমাদের দুজনের সম্মতিতেই বিয়ে হয়েছে। বিয়ে করতে পেরে অনেক ভালো লাগছে।’ দেশবাসীর কাছে তিনি দোয়া চেয়েছেন।

কনে ময়না বলেন, ‘আমাদের বিয়ে খুব ধুমধামে হয়েছে। অনেক ভালো লাগছে। এভাবে বিয়ে হবে কখনও স্বপ্নেও ভাবিনি। বিয়েতে আসা দু’পক্ষই অনেক আনন্দ করেছে। আমাদের জন্য দোয়া করবেন সবাই।’

যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য সুজিত বিশ্বাস জানান, বর রবিউল ইসলামের বয়স ২৬ বছর, কনে ময়না খাতুনের ৩৬ বছর। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় বিয়ের গেট সাজিয়ে, প্যান্ডেল নির্মাণ করে ধুমধাম করে বিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইসলামিক শরিয়াহ অনুযায়ী সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে এক হাজার এক টাকার কাবিনে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। 

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

সিরাজগঞ্জে মনসুর আলীর নাতির ওপর হামলা

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৩

দাদা শহীদ এম. মনসুর আলীর স্মৃতিবিজড়িত কুড়িপাড়ার বাড়িতে বেড়াতে এসে হামলার শিকার হলেন ব্যারিস্টার শেহরিন সেলিম রিপন। তার গাড়িচালক ও ব্যক্তিগত ক্যামেরাম্যানকে মেরে ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামের ঘটনা এটি।

ব্যারিস্টার শেহরিন সেলিম রিপন হলেন আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ সেলিমের ছেলে। তার ব্যক্তিগত সহকারী আব্দুল মমিন জানান, শুক্রবার বিকালে কুড়িপাড়ায় দাদার বাড়িতে যান তিনি। তার সঙ্গে শহীদ এম. মনসুর আলীর ছোট ছেলে মোহাম্মদ রেজাউল করিমসহ ব্যক্তিগত ক্যামেরাম্যান সুমন ছিলেন। হঠাৎ বেশ কয়েকজন যুবক এসে অতর্কিতে ক্যামেরাম্যানকে মারধর করে। একপর্যায়ে তারা ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়। এছাড়া বাড়ির বাইরে তারা গাড়িচালককেও মেরে আহত করেছে।

কাজিপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাজু আহম্মেদের বিরুদ্ধে হামলা ও ছিনতাইয়ের অভিযোগ তুলেছেন ব্যারিস্টার শেহরিন সেলিম রিপন। তিনি বলেন, ‘দাদার স্মৃতিবিজড়িত বাড়িতে এসে গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে কথাবার্তা বলছিলাম। এ সময় কাজিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির নেতৃত্বে পরিকল্পিতভাবে হামলা চালানো হয়। তার বাহিনী আমার ক্যামেরাম্যান ও গাড়িচালককে মারধর করেছে। গুরুতর অবস্থায় দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

এ ঘটনায় সংসদ সদস্য তানভীর শাকিল জয়কে দায়ী করে শহীদ এম. মনসুর আলীর ছোট ছেলে মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, ‘ব্যারিস্টার রিপন হলেন মনসুর আলীর নাতি। তিনি দাদার বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন। কোনও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য আসেননি। তাহলে তার ওপর এই হামলা কেন?’

ঘটনার দায় অস্বীকার করে কাজিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহম্মেদ বলেন, ‘হামলার ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। আমরা বাইরে ছিলাম। ব্যারিস্টার রিপন তিন গাড়ি ডিবি ও পুলিশ সদস্য নিয়ে এসেছেন। আমরা ভেতরে যাইনি।’

কাজিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পঞ্চানন্দ সরকার বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি ব্যারিস্টার শেহরিন সেলিম রিপন গাড়ি নিয়ে চলে গেছেন। তার ক্যামেরাম্যানকে মারধর করা হয়েছে বলে শুনেছি।’

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহিদ হাসান সিদ্দিকী বলেন, ‘সীমান্ত বাজার এলাকায় কিছু উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল বলে শুনেছি। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে।’

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

আবার শজিমেক হাসপাতালে রোগীর স্বজনকে মারধরের অভিযোগ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২২:১৩

টাঙ্গাইলে ট্রেনের ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা মা ও ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন ওই নিহত নারীর স্বামী ও আরেক ছেলে। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার হাতিলা রেলক্রসিং এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা রেল স্টেশন মাস্টার সোহেল খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন- সারামণি (২৫) ও তার আড়াই বছরের ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন সারামণির স্বামী আজগর আলী ও তার পাঁচ বছরের ছেলে আব্দুল্লাহ। তারা জেলার বাসাইল উপজেলার ময়থা উত্তরপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সম্প্রতি তারা সদর উপজেলার করটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় বসবাস করেছেন।

নিহত সারামণির উকিল বাবা আশরাফ আলী বলেন, ‘সারামণি ও আজগর আলী দুই সন্তানকে নিয়ে মোটরসাইকেলযোগে হাতিলা এলাকায় আত্মীয়ের বাড়িতে যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে তারা হাতিলা রেলক্রসিং পার হচ্ছিল। এ সময় একটি ট্রেন এসে তাদের ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় সারামণি ও তার ছোট ছেলে আব্দুর রহমান আইয়ান ঘটনাস্থলেই মারা যায়। আর আজগর আলী ও তার বড় ছেলে আব্দুল্লাহ আহত হয়। আজগর আলীকে বর্তমানে ঢাকায় নেওয়া হচ্ছে। আব্দুল্লাহ ভালো আছে।’

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক রাজিব পাল চৌধুরী বলেন, ‘হাসপাতালে দুই জনকে আনা হয়েছিল। এর মধ্যে আজগর আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।’

টাঙ্গাইলের ঘারিন্দা স্টেশনের মাস্টার সোহেল খান বলেন, ‘কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। শুনেছি ওই ট্রেনে কাটা পড়ে দুই জন মারা গেছে। লাশ তাদের স্বজনরা নিয়ে গেছেন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

সালিশে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সিএনজিচালক নিহত

বোয়ালমারীতে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫২

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী। তার বয়স ১৪ বছর। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকালে উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নের জয়পাশা গ্রামে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারিয়া হক হাজির হতেই বিয়ের আয়োজন ভেস্তে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, বোয়ালমারী উপজেলার চতুল ইউনিয়নের বাইখীর গ্রামের আতিয়ার মোল্যার ছেলে সোহেল মোল্যার (২৫) সঙ্গে একই উপজেলার জয়পাশা গ্রামের সৈয়দ ফজলুল হক একাডেমির অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর শুক্রবার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মারিয়া হক বিয়ের প্রস্তুতিকালে কিশোরীর বাড়িতে হাজির হয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেন। একইসঙ্গে বর ও কনে পক্ষকে জরিমানা করেন তিনি।

অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়ায় বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭-এর ৭ ধারায় মেয়ের বাবাকে ৭ হাজার টাকা এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েকে বিয়ে করতে আগ্রহী সোহেল মোল্যাকে একই আইনের ৮ ধারায় ৮ হাজার টাকাসহ মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

বাল্যবিয়ে বন্ধের সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারিয়া হক বলেন, ‘ছেলে ও মেয়ে উভয় পক্ষকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ওই কিশোরীর বাবা এবং ছেলের (বর) কাছ থেকে যথাক্রমে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবো না এবং প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে করবো না মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়েছে।’

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

এক মোটরসাইকেলে ৪ জন, ট্রেনের ধাক্কায় মা-ছেলে নিহত

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেড়ে আহতকে হাসপাতালে নিলেন ইউএনও

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

মাদারীপুর অঞ্চলে ৯ মাসে সড়কে ঝরেছে ২১৩ প্রাণ

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৪৬

চট্টগ্রামের জেএম সেন হলের পূজামণ্ডপে হামলা চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় যুব অধিকার পরিষদের সাত জনের এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালত তাদের রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন।

কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। আজ আদালতে সাত জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ড আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত এক দিন করে রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন। বাকি তিনজনের বয়স ১৯ বছরের কমে হওয়ায় রিমান্ড চাওয়া হয়নি।’

রিমান্ডে পাওয়া সাত আসামি হলেন- যুব অধিকার পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার আহ্বায়ক মো. নাছির, সদস্য সচিব মিজানুর রহমান, বায়েজিদ থানার আহ্বায়ক মো. রাসেল, কর্মী ইয়াসিন আরাফাত, হাবিবুল্লাহ মিজান, ইমন ও ইমরান হোসেন।

কুমিল্লায় সহিংসতার ঘটনার জের ধরে গত ১৬ অক্টোবর দুপুরে জুমার নামাজের পর একটি মিছিল থেকে ঐতিহাসিক জেএম সেন হলের পূজামণ্ডপে গেটে হামলা হয়। গেটের ব্যানার ও কাপড় ছেঁড়ার পাশাপাশি ওই দিন মিছিল সহকারে আসা যুবকরা মণ্ডপে ঢিল ছোড়ে। এ ঘটনায় ৮৪ জনের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

এসআই আকাশ মাহমুদ ফরিদ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা অজ্ঞাত আরও অন্তত ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় ইতোমধ্যে ১০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

ময়মনসিংহে আরও ৩ রাজাকার গ্রেফতার 

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

পিকআপে করে গরু চুরির সময় ৪ চোর গ্রেফতার

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৩

বাংলাদেশ থেকে পাচার হয়ে যাওয়া রুপা আক্তারকে (২৭) আড়াই বছর পর বেনাপোল দিয়ে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তিনি ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে ঢুকেছেন। পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ারের যশোর শাখার জ্যেষ্ঠ প্রোগ্রাম অফিসার এবিএম মুহিত হোসেন জানান, রুপা ঢাকার ধামরাই এলাকার মঙ্গল ব্যাপারীর মেয়ে। ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে সীমান্তের অবৈধ পথে তাকে ভারতে পাচার করা হয়েছিল। পাচারকারীরা মেয়েটিকে জোরপূর্বক ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করে। সেখানকার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে আদালতে পাঠায়।

জানা গেছে, ভারতের উড়িষ্যার শান্তি সদন নামে একটি সরকারি এনজিও সংস্থা রুপাকে আদালত থেকে ছাড়িয়ে নিজেদের আশ্রয়ে রাখে। দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে তাকে দেশে ফেরার সুযোগ দেওয়া হলো।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজু আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ইমিগ্রেশনে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে রুপাকে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে আইনি সহয়তা দিতে জাস্টিস অ্যান্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা তাকে পরিবারের কাছে নিয়ে যাবে বলে জানা গেছে।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

লোকালয় থেকে উদ্ধার হলো বিশাল এক অজগর

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ইউপি নির্বাচন: বিদ্রোহী প্রার্থীর অফিস ভাঙচুরের অভিযোগ

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

ভারত থেকে ফিরেছেন পাচার হওয়া ১৯ তরুণী

‘অপহরণ করে বিয়ে’, ৫ দিন পর শ্বশুরবাড়ি ছেড়েছেন ইশরাত

‘অপহরণ করে বিয়ে’, ৫ দিন পর শ্বশুরবাড়ি ছেড়েছেন ইশরাত

চাকা পাংচার হয়ে খাদে বাস, নিহত এক আহত ১০

চাকা পাংচার হয়ে খাদে বাস, নিহত এক আহত ১০

আমরা চাই নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হোক এবং হচ্ছেও: সিইসি

আমরা চাই নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হোক এবং হচ্ছেও: সিইসি

যশোরের শরীফুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

যশোরের শরীফুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

বাগেরহাটে ভেসে গেছে ৮ শতাধিক চিংড়ি ঘের

বাগেরহাটে ভেসে গেছে ৮ শতাধিক চিংড়ি ঘের

সর্বশেষ

সহকর্মীকে গুলি, পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দিচ্ছেন না নার্সরা

সহকর্মীকে গুলি, পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দিচ্ছেন না নার্সরা

শুটিং সেটে অ্যালেক বল্ডউইনের প্রপ গানের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত

শুটিং সেটে অ্যালেক বল্ডউইনের প্রপ গানের গুলিতে চিত্রগ্রাহক নিহত

সিরাজগঞ্জে মনসুর আলীর নাতির ওপর হামলা

সিরাজগঞ্জে মনসুর আলীর নাতির ওপর হামলা

সহিংসতার বিরুদ্ধে সংগীত 

সহিংসতার বিরুদ্ধে সংগীত 

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

ডাচদের হারিয়ে বাংলাদেশের গ্রুপসঙ্গী শ্রীলঙ্কা

© 2021 Bangla Tribune